১২ শাওয়াল ১৪৪১ , ঢাকা, শুক্রবার, ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৫ জুন , ২০২০ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

  
Share Button
   উপসম্পাদকীয়
মশা আর মাছি ধুলার সঙ্গে বেশ আছি!
  তারিখ: 29 - 11 - 2017

একে তো মাছির যন্ত্রণা, তার ওপর প্রস্রাবের দুর্গন্ধ। মোটেই টেকা যাচ্ছিল না।
বসে আছি ঢাকা বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে একটি বেঞ্চের ওপর। স্টেশনের উভয় পাশে দাঁড়িয়ে-বসে শত শত যাত্রী। অনেকে বসার জায়গা না পেয়ে প্ল্যাটফর্মের এপাশ-ওপাশ হাঁটাহাঁটি করছে। কিছুক্ষণ পর পর ট্রেন আসছে-যাচ্ছে। তবু যাত্রীর ভিড় কমছে না। আমরা অপেক্ষা করছি ‘নীল সাগর’ নামের একটি ট্রেনের জন্য। একটু আগে ট্রেনটি বিমানবন্দর রেলস্টেশন ক্রস করে কমলাপুর রেলস্টেশনের দিকে চলে গেছে। সেখান থেকে ফিরতি পথে আবার বিমানবন্দর রেলস্টেশন হয়েই চিলহাটির উদ্দেশে চলে যাবে। সেই ট্রেনের জন্যই বিমানবন্দর রেলস্টেশনের প্ল্যাটফর্মে বসে আছি। কিন্তু প্ল্যাটফর্মের পরিবেশ এতটাই দুর্গন্ধময় যে নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছিল। প্ল্যাটফর্মের সর্বত্রই মাছির দৌরাত্ম্য। ছোট মাছি, বড় মাছি, লম্বা মাছি, খাটো মাছি, পেটওয়ালা মাছিÑকত ধরনেরই না মাছি ভনভন করে উড়ছে! এই পরিবেশেও প্রকাশ্যে ঝালমুড়ি, রুটি, কলাসহ নানা ধরনের খাবার বিক্রি হচ্ছে।
এক ঝালমুড়িওয়ালাকে জিজ্ঞেস করলাম, ভাই, খাবারগুলো ঢেকে রাখা যায় না? এভাবে মাছি ভনভন করা খাবার খেলে তো মানুষের অসুখ হবে। ঝালমুড়িওয়ালা যারপরনাই অবাক হয়ে বলল, ‘কন কী স্যার, কোথায় আপনি মাছি দেখলেন? এখন তো কিছুই নাই। রাইতে আইসেন। মাছির সঙ্গে মশা পাইবেন। ’ ঝালমুড়িওয়ালা অনেকটা নির্বিকার ভঙ্গিতে চলে গেল।
এইমাত্র চট্টগ্রাম অভিমুখী একটি ট্রেন এসে দাঁড়িয়েছে প্ল্যাটফর্মে। মাছির সঙ্গে ধুলা উড়ছে চারপাশে। নীল সাগর এক্সপ্রেসে সৈয়দপুর যাবেন দুই বিদেশি। তাঁরা স্টেশনের পরিবেশ দেখে যারপরনাই অবাক। নাক চেপে ধরে স্বস্তির জায়গা খুঁজছিলেন। কিন্তু কোথাও তো স্বস্তির জায়গা নেই। স্টেশনজুড়ে যত না মানুষ, তার চেয়ে বেশি মাছি উড়ছে। সঙ্গে উড়ছে প্ল্যাটফর্মের মেঝেতে জমে থাকা আবর্জনা। মনে হলো, বহুদিন প্ল্যাটফর্মটি ঝাড়ু দেওয়া হয়নি। অথচ নিশ্চয়ই বিশাল এই প্ল্যাটফর্মের সৌন্দর্য ও পরিবেশ রক্ষায় বিভিন্ন পদে একাধিক লোক দায়িত্ব পালন করে। ক্লিনার আছে। মালি আছে। তাদের কাজ তো স্টেশনের প্ল্যাটফর্ম পরিষ্কার রাখা। কিন্তু তারা কি তাদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করে? নাকি পদ সৃষ্টি হয়েছে স্টেশনের জন্য। অথচ কর্মচারী হয়তো দায়িত্ব পালন করছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় অথবা রেলওয়ের কোনো বড় সাহেবের বাসায় কিংবা অফিসে।
দুই বিদেশি নাকে রুমাল দিয়ে প্ল্যাটফর্মে দাঁড়িয়ে আছেন। নীল সাগর আসতে দেরি হচ্ছে। দেরি তো হবেই, কমলাপুরের দিকে গেলেই তো দেরি করে। আগে এই ট্রেনটি কমলাপুর রেলস্টেশন পর্যন্ত যেত না। ক্যান্টনমেন্ট রেলস্টেশন পর্যন্ত গিয়ে আবার সৈয়দপুরের উদ্দেশে যাত্রা করত। এখন সৈয়দপুর পেরিয়ে নীলফামারী হয়ে চিলাহাটি পর্যন্ত যায়। ফলে ট্রেনটি আসা-যাওয়ার ক্ষেত্রে প্রায়ই নির্ধারিত সময়ে গন্তব্যে পৌঁছায় না। অথচ এই ট্রেনটি উত্তরাঞ্চল, বিশেষ করে রংপুর, দিনাজপুর, নীলফামারী, লালমনিরহাট, ঠাকুরগাঁও, সৈয়দপুর, ডোমার, পার্বতীপুর, পঞ্চগড়সহ বিভিন্ন এলাকার সাধারণ মানুষের অনেক জরুরি বাহন হয়ে উঠেছে। এলাকার মানুষ দীর্ঘদিন থেকে ট্রেনের এই রুটে নীল সাগরের মতো আরো একটি ট্রেন চালু করার দাবি করে আসছে।
বিমানবন্দর রেলস্টেশনের প্ল্যাটফর্মে দাঁড়িয়ে দেশের রেলপথ ও রেল সংস্কৃতির কথাই বারবার ভাবছিলাম। পৃথিবীর প্রতিটি উন্নত দেশে চলাচলের বাহন হিসেবে রেলগাড়ি খুবই জনপ্রিয়। বেশি দূর যাওয়ার দরকার নেই। পাশের দেশের কলকাতার উদাহরণ তো আমাদের জন্য অনুপ্রেরণার উৎস হতে পারে। অবশ্য অনুপ্রেরণা সৃষ্টির জন্য সুষ্ঠু পরিবেশও জরুরি। ধরা যাক বিমানবন্দর রেলস্টেশনের কথা। দেশের বৃহৎ একটি রেলস্টেশন। রাত-দিন ২৪ ঘণ্টা হাজার হাজার যাত্রীর ভিড়ে স্টেশনটি মুখর থাকে। কাজেই স্টেশনটির তো পরিচর্যা প্রয়োজন। প্রতিদিন স্টেশনটি ঝকঝকে তকতকে রাখতে সমস্যা কোথায়? এত জনবহুল ও গুরুত্বপূর্ণ একটি রেলস্টেশনে কেন মাছির রাজত্ব হবে। কেন স্টেশনে দুর্গন্ধে টেকা যাবে না? অথচ এই স্টেশনটিই তো হতে পারে দেশের ঐতিহ্যের একটি অংশ। গোটা স্টেশন এলাকা ঝকঝকে তকতকে রাখার ক্ষেত্রে তো কর্মকর্তাদের আন্তরিকতাই যথেষ্ট। ধরা যাক, বিমানবন্দর রেলস্টেশনজুড়ে একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করা হলো। স্টেশনের চারপাশ থাকবে ঝকঝকে তকতকে। বিভিন্ন দেয়ালজুড়ে দেশীয় ঐতিহ্যের নানা ধরনের ছবি টাঙানো থাকবে। যাত্রীদের বিশ্রামাগারের পরিবেশ সুন্দর হবে। বাইরে প্ল্যাটফর্মের ওপর বসার ব্যবস্থাও হবে পরিপাটি। আধুনিক রেস্তোরাঁয় দেশি খাবার পরিবেশন করা হবে। প্রতিদিন গোটা স্টেশন প্রাঙ্গণ পরিষ্কার থাকবে। এই যে পরিকল্পনা এর জন্য কি বাড়তি লোকবলের প্রয়োজন? নিশ্চয়ই না। যারা বর্তমানে দায়িত্বে আছে, নতুন পরিবেশ সৃষ্টিতে তাদের আন্তরিক সহযোগিতাই যথেষ্ট।
শুধু বিমানবন্দর রেলস্টেশন নয়, দেশের প্রতিটি রেলস্টেশন এমন নান্দনিক পরিবেশে সাজানো যায়। ধরা যাক, রেলগাড়ি ঢুকল একটি রেলস্টেশনে। সেই স্টেশনে নামের পাশাপাশি এলাকার ঐতিহ্যের ওপর একটি সুদৃশ্য স্থাপনা থাকতে পারে, যা দেখে যাত্রীরা বুঝে নিতে পারে কেন, কী জন্য এই নামটি বিখ্যাত। সঙ্গে থাকতে পারে ভ্রমণপিয়াসীদের জন্য থাকার জায়গা অর্থাৎ হোটেল অথবা পর্যটনকেন্দ্রের নাম-ঠিকানা। সেই সঙ্গে এলাকার জনপ্রিয় খাবারের একটি তালিকাও থাকতে পারে। প্রতিবছর স্টেশনটির জন্মদিনও পালন করা যেতে পারে। স্টেশনের জন্মদিনকে কেন্দ্র করে হতে পারে দিনব্যাপী, এমনকি সপ্তাহব্যাপী উৎসবও। এই উৎসবকে কেন্দ্র করে রেলপথ ব্যবহারে নানা কর্মসূচিও তুলে ধরা যেতে পারে।
তবে তার আগে দরকার রেল পরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়ন। ‘৯টার গাড়ি কয়টায় ছাড়বে?’Ñএই ধরনের রসিকতাপূর্ণ প্রশ্ন থেকে রেল পরিবহন ব্যবস্থাকে মুক্ত করতে হবে। স্টেশনগুলোকে আধুনিক পরিবেশ উপযোগী করে গড়ে তুলতে হবে।
আবারও বলি, পৃথিবীর প্রতিটি দেশের মতো বাংলাদেশেও রেল পরিবহন ব্যবস্থাই সাধারণ মানুষের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয়। আমরা একটু চেষ্টা করলেই পরিবহনের এই সেক্টরটিকে আরো উজ্জ্বল করতে পারি। বিমানবন্দর রেলস্টেশনে একজন কবিবন্ধুর সঙ্গে দেখা হয়েছিল। স্টেশনের পরিবেশ দেখে সে তাৎক্ষণিক একটি কবিতা লিখে ফেলল। যার প্রথম লাইনটি এ রকমÑ‘মশা আর মাছি ধুলার সঙ্গে বেশ আছি। ’ তার এই কবিতার লাইনটি শুধু বিমানবন্দর স্টেশনের ক্ষেত্রেই নয়, বোধ করি ঢাকা শহরের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। তবে আমরা আপাতত স্টেশন নিয়েই থাকি, কি বলেন?

 





         
   আপনার মতামত দিন
     উপসম্পাদকীয়
জনস্বাস্থ্য, অর্থনীতি ও পরিবেশের ক্ষতির কারণে তামাক টেকসই উন্নয়নের অন্তরায়
.............................................................................................
কৃষির পাশাপাশি শিল্প উন্নয়ন এবং কৃষক ফেডারেশনকথা
.............................................................................................
কৃষির পাশাপাশি শিল্প উন্নয়ন এবং কৃষক ফেডারেশনকথা
.............................................................................................
ঈদ এবং মাদক... ওরা বানায় : আমরা সেবন করি
.............................................................................................
নুসরাত কেন চলে যাবে...
.............................................................................................
এই দেশের সড়কে কে নিরাপদ?
.............................................................................................
রাজনীতির হঠাৎ হাওয়ার চমক
.............................................................................................
রাজনীতিতে ব্যবসায়ীদের অংশগ্রহণ প্রসঙ্গে
.............................................................................................
ওজোনস্তরের নতুন দুঃসংবাদ
.............................................................................................
বিজ্ঞান গবেষণা ও বাংলাদেশ
.............................................................................................
বিশ্ব আদালতে রোহিঙ্গা গণহত্যার বিচার চাই
.............................................................................................
চীনা ‘ইউয়ান’, ভারতীয় ‘রুপী’, তুর্কী ‘লিরা’ সবার দাম কমছে
.............................................................................................
এখনো নিয়মিত মৃত্যু সড়কে কে দায় নেবে
.............................................................................................
মাঠের লড়াইয়ে লক্ষ্য হোক জয়
.............................................................................................
একটি শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের আশায়
.............................................................................................
আর কত রক্ত ঝড়বে জাতির বিবেকের?
.............................................................................................
হুমকিতে নয়, আলোচনায়ই সমাধান
.............................................................................................
বাঙালির সবচেয়ে বড় উৎসব বাংলা নববর্ষ
.............................................................................................
প্রশ্ন ফাঁস, পরীক্ষা বাতিল এবং অবিচার...
.............................................................................................
ভাষাশ্রদ্ধায় আসুন উচ্চারণ করি ‘বিজয় বাংলাদেশ’
.............................................................................................
চার বছরের উন্নয়ন অগ্রগতি ধারাবাহিকতা রক্ষা করাই বড় চ্যালেঞ্জ
.............................................................................................
শিক্ষা ধ্বংসে বইয়ের বোঝা-সৃজনশীল এবং ফাঁসতন্ত্র
.............................................................................................
প্রশ্নফাঁস আর কোচিংবাণিজ্যে শিক্ষার অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ
.............................................................................................
প্রশ্ন ফাঁসের দায় কে নেবে?
.............................................................................................
মায়ের ভাষার অবহেলা কেন করছি আমরা?
.............................................................................................
সবাই জেগে উঠুক ভেজালের বিরুদ্ধে
.............................................................................................
নির্বাচন কমিশনের কর্মক্ষমতা ও ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ
.............................................................................................
প্রশ্ন ফাঁস ও শিক্ষার দৈন্যদশা রোধ সম্ভব
.............................................................................................
মশা আর মাছি ধুলার সঙ্গে বেশ আছি!
.............................................................................................
বাংলাদেশ ব্যাংকের তদারকি ও নিয়ন্ত্রণক্ষমতা বাড়াতে হবে
.............................................................................................
প্যারাডাইস পেপার্স : সারাবিশ্বে সমস্যা ও সমাধান
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধুর অগ্নিগর্ভ ভাষণ : ইউনেস্কোর স্বীকৃতি
.............................................................................................
রোহিঙ্গাদের ত্রাণ ও পূনর্বাসনে দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনী
.............................................................................................
নিরাপদ পথ দিবস চাই
.............................................................................................
রোহিঙ্গা গণযুদ্ধের সূচনা হোক, স্বাধীন হোক আরকান
.............................................................................................
দর্শনহীন শিক্ষার ফল ব্লু হোয়েল সংস্কৃতি
.............................................................................................
সাবধানে চালাবো গাড়ী, নিরাপদে ফিরবো বাড়ী
.............................................................................................
বন্ধুদেশের ঋণের বোঝা এবং নতুন প্রজন্মের ভাবনা
.............................................................................................
চালে চালবাজী : সংশ্লিষ্টদের চৈতন্যোদয় হোক
.............................................................................................
৫ প্রস্তাবে বাংলাদেশে সংকট : দুর্ভিক্ষ আসন্ন
.............................................................................................
ভুখা মানুষের স্বার্থে সরকারকে কঠোর হতে হবে
.............................................................................................
রোহিঙ্গা তরুণের চিঠি এবং আমাদের করণীয়
.............................................................................................
ষোড়শ সংশোধনী বাতিল প্রসঙ্গে অনেকের অভিমত
.............................................................................................
তরুন প্রজন্মের সৈনিকেরা জেগে উঠলে কোন অপশক্তিই বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও উন্নয়নের পথ রুদ্ধ করতে পারবে না
.............................................................................................
আদর্শ সংবাদ ও সাংবাদিকতা
.............................................................................................
নারী অধিকার প্রতিষ্ঠায় সাহসী হতে হবে
.............................................................................................
পাবনা বইমেলা সাহিত্যকে সম্মৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে
.............................................................................................
আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো...
.............................................................................................
ক্ষণজন্মা কিংবদন্তী মাদার বখশ
.............................................................................................
গ্রামীণ মানুষের সম্পদ বাড়ছে না, ঋণ বাড়ছে
.............................................................................................
Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale
Digital Load Cell
Digital Indicator
Digital Score Board
Junction Box | Chequer Plate | Girder
Digital Scale | Digital Floor Scale

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা ডট কম
মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত ।

প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ মো: হারুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
বার্তা সম্পাদক: মো: শরিফুল ইসলাম রানা
সহ: সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বিশেষ প্রতিনিধি : মো: আকরাম খাঁন
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed BY : Dynamic Solution IT   Dynamic Scale BD