| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

  
Share Button
   সম্পাদকীয়
ডিবি পরিচয়ে তুলে নেওয়া
  তারিখ: 18 - 09 - 2018

গত বৃহস্পতিবার ভোরে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরিঘাটে বাস থেকে তিনজনকে তুলে নিয়ে যায় ডিবি পরিচয় দেওয়া একদল লোক। এরপর শুক্রবার রূপগঞ্জ থানায় তাঁদের লাশ পায় স্বজনরা। তিনজনকে কারা, কেন খুন করেছে সে রহস্যের কিনারা করতে না পারলেও রহস্য উদ্ঘাটনের চেষ্টা করছে পুলিশ। হজ পালন শেষে দেশে ফিরে আসা মাকে আনতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে গিয়েছিলেন দুই ভাই। সঙ্গে ছিলেন এক বন্ধু, তাঁদের তিনজনকেই ডিবি পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। যাত্রাবাড়ীর মীরহাজিরবাগের মেস থেকে ডিবি পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে ঢাকা কলেজ ও স্থানীয় মাদরাসার দুই শিক্ষার্থীকে। গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে তাঁদের কোনো খোঁজ মিলছে না। এই পাঁচজনের পরিবার গত শনিবার ঢাকার ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনে এক সংবাদ সম্মেলন করেছে। নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতিকে ঢাকার পুরানা পল্টন থেকে শনিবার রাতে ডিবি পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে তাঁর পরিবার। পরিবারের পক্ষ থেকে স্থানীয় থানায় যোগাযোগ করা হলে জানানো হয়েছে এ বিষয়ে তারা কিছু জানে না।
আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পরিচয় দিয়ে কাউকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে উচ্চ আদালতের স্পষ্ট নির্দেশনা আছে। যেখানে বলা হয়েছে, আটকাদেশ (ডিটেনশন) দেওয়ার জন্য পুলিশ কাউকে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার করতে পারবে না। কাউকে গ্রেপ্তার করার সময় পুলিশ তার পরিচয়পত্র দেখাতে বাধ্য থাকবে। গ্রেপ্তারের তিন ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তার ব্যক্তিকে এর কারণ জানাতে হবে। বাসা বা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ছাড়া অন্য স্থান থেকে গ্রেপ্তার ব্যক্তির নিকটাত্মীয়কে এক ঘণ্টার মধ্যে টেলিফোনে বা বিশেষ বার্তাবাহক মারফত বিষয়টি জানাতে হবে। গ্রেপ্তার ব্যক্তিকে তাঁর পছন্দসই আইনজীবী ও নিকটাত্মীয়ের সঙ্গে পরামর্শ করতে দিতে হবে। কিন্তু এই নির্দেশনা কি মানা হচ্ছে? একের পর এক তুলে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটছে। এতে জনমনে নিরাপত্তা নিয়ে একধরনের ভীতির সঞ্চার হবে। যাঁদের তুলে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে, আইনের চোখে তাঁরা অপরাধী হলেও আইনের আশ্রয় নেওয়ার অধিকার তো সবারই আছে। অপরাধীদের বিরুদ্ধেও সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকতে হবে। এ ধরনের ঘটনা অন্য কোনো দেশে কি ঘটে থাকে? একের পর এক এ ধরনের ঘটনা ঘটতে থাকলে তাতে আতঙ্কিত হওয়ার যথেষ্ট কারণ থাকে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কোনো শাখা থেকে এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়ে থাকলে এর সুযোগ নিতে পারে দুর্বৃত্তরাও। দেখা যাচ্ছে, সাম্প্রতিক ঘটনাগুলোর ব্যাপারে স্থানীয় থানা কর্তৃপক্ষ কিছুই জানে না। পরিচয় না দিয়ে এভাবে আটক করা বা তুলে নেওয়ার ঘটনায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কেউ দুর্বৃত্তদের ব্যবহার করতে পারে। সামনে নির্বাচন। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষও সক্রিয় হয়ে ডিবির ওপর দোষ চাপিয়ে দিতে পারে। কাজেই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে আরো সতর্ক হয়ে কাজ করতে হবে। মানতে হবে আদালতের নির্দেশনা।





         
   আপনার মতামত দিন
     সম্পাদকীয়
নিরাপদ হোক ঈদযাত্রা
.............................................................................................
দুর্যোগে করণীয়
.............................................................................................
পুঁজিবাজারে দরপতন
.............................................................................................
কৃষিতে কৃষকের অরুচি সুরক্ষামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ জরুরি
.............................................................................................
প্রকল্পে সরাসরি অর্থ ছাড় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত করুন
.............................................................................................
ঝুঁকিতে দুই কোটি শিশু এদের স্বাস্থ্য ও শিক্ষা নিশ্চিত করুন
.............................................................................................
অ্যান্টিবায়োটিকের অপব্যবহার ভয়ংকর পরিণতি থেকে রক্ষা পেতে হবে
.............................................................................................
বাড়ছে শ্রমিক অসন্তোষ মজুরি কমিশনের সুপারিশ আমলে নিন
.............................................................................................
রমজানে বাজারদর স্থিতিশীল রাখার ব্যবস্থা নিতে হবে
.............................................................................................
শিল্পায়নে বাধা
.............................................................................................
সড়কে মর্মান্তিক মৃত্যু ফিটনেসবিহীন গাড়ি চলাচল বন্ধ করুন
.............................................................................................
ডাক্তারদের প্রাইভেট প্র্যাকটিস প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়িত হোক
.............................................................................................
পেট কাটলেন নার্স, ডাক্তার বললেন ‘ঝামেলা আছে সেলাই করে দাও’
.............................................................................................
বাড়ছে উত্তাপ-উত্তেজনা
.............................................................................................
নির্বাচনের পরিবেশ
.............................................................................................
ক্ষতিপূরণ পেতে ভোগান্তি
.............................................................................................
জননিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা
.............................................................................................
পরিবেশের প্রধান শত্রু প্লাস্টিক
.............................................................................................
বিদেশে পাড়ি জমাচ্ছে রোহিঙ্গারা
.............................................................................................
খুরা রোগের টিকা
.............................................................................................
চিকিৎসা বীমা
.............................................................................................
মাদকবিরোধী কর্মপরিকল্পনা
.............................................................................................
পানিও নিরাপদ নয়
.............................................................................................
মুদ্রাপাচার বেড়েই চলেছে
.............................................................................................
মুদ্রাপাচার বেড়েই চলেছে
.............................................................................................
মাদকে মৃত্যুদন্ড
.............................................................................................
বিশ্বমানের চিকিৎসা
.............................................................................................
গুজবের পিছে ছুটছে মানুষ
.............................................................................................
মিয়ানমারের নতুন উসকানি
.............................................................................................
স্বর্ণ নীতিমালা
.............................................................................................
শিশু যখন শ্রমিক
.............................................................................................
বেহাল স্বাস্থ্যসেবা
.............................................................................................
সম্ভাবনার কাঁকড়া শিল্প
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন
.............................................................................................
ক্ষতিকর এনার্জি ড্রিংকস
.............................................................................................
মির্জাপুরে কাঠ পোড়ানো চুল্লি
.............................................................................................
হুমকিতে তিন-চতুর্থাংশ মানুষ
.............................................................................................
বেহাল সড়ক ও সেতু
.............................................................................................
সর্বোচ্চ মৃত্যু বাংলাদেশে
.............................................................................................
নতুন মাদক খাত
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন
.............................................................................................
সম্পর্কে নতুন মাত্রা
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা বিল ২০১৮ বিতর্কিত ধারাগুলো পর্যালোচনা করুন
.............................................................................................
পরিবেশদূষণ বড় ঘাতক
.............................................................................................
ডিবি পরিচয়ে তুলে নেওয়া
.............................................................................................
ভুলে ভরা এনআইডি
.............................................................................................
পদ্মার ভয়াবহ ভাঙন
.............................................................................................
বিপর্যস্ত স্বাস্থ্যসেবা
.............................................................................................
ক্যান্সার শনাক্তে প্রযুক্তি
.............................................................................................
নদীতে বিলীন হচ্ছে জনপদ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
উপদেষ্টা: আজাদ কবির
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ হারুনুর রশীদ
সম্পাদক মন্ডলীর সহ-সভাপতি: মামুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
যুগ্ম সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বার্তা সম্পাদক: মুজিবুর রহমান ডালিম
স্পেশাল করাসপনডেন্ট : মো: শরিফুল ইসলাম রানা
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]