শুক্রবার , ১৭ রবিঃ আউয়াল ১৪৪১ | ১৫ নভেম্বর ২০১৯| ৩০ কার্তিক ১৪২৬ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

  
Share Button
   সম্পাদকীয়
নতুন মাদক খাত
  তারিখ: 24 - 09 - 2018

গত মে মাসের মাঝামাঝি সময়ে শুরু হয় মাদকবিরোধী অভিযান। শুরুতে ব্যাপক সাড়া ফেললেও উল্লেখযোগ্য অর্জন নিয়ে প্রশ্ন তোলা যায়। আন্তর্জাতিক মাদকবিরোধী দিবসের প্রাক্কালে এক সংবাদ সম্মেলনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, মাদক কারবার পুরোপুরি নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত দেশব্যাপী মাদকবিরোধী অভিযান চলবে। সরকারের পক্ষ থেকে সব সময় জানানো হয়েছে, তালিকা ধরে ধরে অভিযান চালানো হচ্ছে। কিন্তু অভিযানে এখন পর্যন্ত শীর্ষ মাদক কারবারিদের আটক হওয়ার খবর খুব একটা পাওয়া যায়নি। সীমান্ত এলাকায় কিছুদিনের জন্য মাদক চোরাচালানে ভাঁটা পড়লেও একেবারে বন্ধ করা যায়নি মাদক কারবার। নতুন নতুন রুটে মাদক আসছে দেশে। আসছে নতুন নতুন মাদকও। বাংলাদেশ কিছু মাদক চোরাচালানের ট্রানজিট রুট হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। এর সাম্প্রতিক উদাহরণ হচ্ছে নতুন মাদক ‘খাত’। গ্রিন টি-র মতো দেখতে এই মাদক সেবনও করতে হয় চায়ের মতো করে। ইথিওপিয়া থেকে বাংলাদেশে এসে এখান থেকে বিশ্বের অন্যান্য জায়গায় ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে ‘খাত’ নামের নতুন এই মাদক। গত ৩১ আগস্ট হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কার্গো ভিলেজ এলাকা থেকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের গোয়েন্দারা ৪৬৮ কেজি ‘খাত’ আটক করে। একই দিন শান্তিনগর থেকেও উদ্ধার করা হয় ‘খাত’। চলতি মাসে এখন পর্যন্ত ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে প্রায় চার টন ‘খাত’ উদ্ধার করা হয়েছে। অবস্থাদৃষ্টে ধারণা করা যেতে পারে, বাংলাদেশের অভ্যন্তরে একটি ‘খাত’ সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে। এই সিন্ডিকেটের মাধ্যমে মাদকটি বাংলাদেশে আসছে, চালান হচ্ছে বিদেশে। ইথিওপিয়া থেকে আসা ‘খাত’ মাদকে গ্রিন টি-র লেবেল লাগিয়ে রপ্তানি করা হয়। গোয়েন্দারা এরইমধ্যে ৩৪ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নাম পেয়েছে, যারা সরাসরি ‘খাত’ সিন্ডিকেটের সঙ্গে জড়িত।
নতুন মাদক ‘খাত’ উদ্ধারের সংবাদে এটা পরিষ্কার হয়ে গেল যে দেশে মাদক কারবারি সিন্ডিকেট এখনো সক্রিয়। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযানকে একেবারেই তোয়াক্কা করছে না তারা। অল্প সময়ে বেশি লাভ হয় বলেই সমাজের জন্য ক্ষতিকর এই কারবারের দিকে ঝুঁকছে অনেকে। ফলে দেশে মাদকসেবীর সংখ্যাও দ্রুত বাড়ছে। শুধু তরুণ-যুবকরাই নয়, কিশোররাও মাদকের দিকে ঝুঁকছে। একবার যারা মাদকে আসক্ত হয়ে পড়ে তারা আর তা থেকে মুক্ত হতে পারে না। মাদকের অপব্যবহার শুধু মাদকেই সীমিত থাকে না, আরো বহু অপরাধের কারণ হয়। অন্যদিকে মাদকসেবীরা যেমন পরিবারের জন্য, তেমনি সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য বোঝা হয়ে দাঁড়ায়। এভাবে চলতে থাকলে সমাজ ক্রমেই পঙ্গু হয়ে যাবে, সব ধরনের উন্নয়ন প্রচেষ্টা মুখ থুবড়ে পড়বে। তাই দেশের বৃহত্তর স্বার্থে মাদকবিরোধী অভিযান আরো জোরদার করতে হবে। ‘খাত’সহ সব ধরনের মাদক চোরাচালান বন্ধে জোরদার ব্যবস্থা নিতে হবে।





         
   আপনার মতামত দিন
     সম্পাদকীয়
দ্বিখন্ডিত শহরে দুর্ভোগও দ্বিগুণ
.............................................................................................
অভিন্ন নদীর পানিবণ্টন দ্রুততম সময়ে সমঝোতায় আসা প্রয়োজন
.............................................................................................
ঘরে ফিরছে মানুষ ঈদ যাত্রা নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন করুন
.............................................................................................
নিরাপদ হোক ঈদযাত্রা
.............................................................................................
দুর্যোগে করণীয়
.............................................................................................
পুঁজিবাজারে দরপতন
.............................................................................................
কৃষিতে কৃষকের অরুচি সুরক্ষামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ জরুরি
.............................................................................................
প্রকল্পে সরাসরি অর্থ ছাড় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত করুন
.............................................................................................
ঝুঁকিতে দুই কোটি শিশু এদের স্বাস্থ্য ও শিক্ষা নিশ্চিত করুন
.............................................................................................
অ্যান্টিবায়োটিকের অপব্যবহার ভয়ংকর পরিণতি থেকে রক্ষা পেতে হবে
.............................................................................................
বাড়ছে শ্রমিক অসন্তোষ মজুরি কমিশনের সুপারিশ আমলে নিন
.............................................................................................
রমজানে বাজারদর স্থিতিশীল রাখার ব্যবস্থা নিতে হবে
.............................................................................................
শিল্পায়নে বাধা
.............................................................................................
সড়কে মর্মান্তিক মৃত্যু ফিটনেসবিহীন গাড়ি চলাচল বন্ধ করুন
.............................................................................................
ডাক্তারদের প্রাইভেট প্র্যাকটিস প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়িত হোক
.............................................................................................
পেট কাটলেন নার্স, ডাক্তার বললেন ‘ঝামেলা আছে সেলাই করে দাও’
.............................................................................................
বাড়ছে উত্তাপ-উত্তেজনা
.............................................................................................
নির্বাচনের পরিবেশ
.............................................................................................
ক্ষতিপূরণ পেতে ভোগান্তি
.............................................................................................
জননিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা
.............................................................................................
পরিবেশের প্রধান শত্রু প্লাস্টিক
.............................................................................................
বিদেশে পাড়ি জমাচ্ছে রোহিঙ্গারা
.............................................................................................
খুরা রোগের টিকা
.............................................................................................
চিকিৎসা বীমা
.............................................................................................
মাদকবিরোধী কর্মপরিকল্পনা
.............................................................................................
পানিও নিরাপদ নয়
.............................................................................................
মুদ্রাপাচার বেড়েই চলেছে
.............................................................................................
মুদ্রাপাচার বেড়েই চলেছে
.............................................................................................
মাদকে মৃত্যুদন্ড
.............................................................................................
বিশ্বমানের চিকিৎসা
.............................................................................................
গুজবের পিছে ছুটছে মানুষ
.............................................................................................
মিয়ানমারের নতুন উসকানি
.............................................................................................
স্বর্ণ নীতিমালা
.............................................................................................
শিশু যখন শ্রমিক
.............................................................................................
বেহাল স্বাস্থ্যসেবা
.............................................................................................
সম্ভাবনার কাঁকড়া শিল্প
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন
.............................................................................................
ক্ষতিকর এনার্জি ড্রিংকস
.............................................................................................
মির্জাপুরে কাঠ পোড়ানো চুল্লি
.............................................................................................
হুমকিতে তিন-চতুর্থাংশ মানুষ
.............................................................................................
বেহাল সড়ক ও সেতু
.............................................................................................
সর্বোচ্চ মৃত্যু বাংলাদেশে
.............................................................................................
নতুন মাদক খাত
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন
.............................................................................................
সম্পর্কে নতুন মাত্রা
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা বিল ২০১৮ বিতর্কিত ধারাগুলো পর্যালোচনা করুন
.............................................................................................
পরিবেশদূষণ বড় ঘাতক
.............................................................................................
ডিবি পরিচয়ে তুলে নেওয়া
.............................................................................................
ভুলে ভরা এনআইডি
.............................................................................................
পদ্মার ভয়াবহ ভাঙন
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা ডট কম
মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত ।

প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ মো: হারুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
বার্তা সম্পাদক: মো: শরিফুল ইসলাম রানা
সহ: সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বিশেষ প্রতিনিধি : মো: আকরাম খাঁন
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]