| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

  
Share Button
   স্বাস্থ্য-তথ্য
ক্যান্সার ও জন্মত্রুটির জন্য দায়ী প্লাস্টিক কণা ঢুকে যাচ্ছে শরীরে
  তারিখ: 27 - 10 - 2018

ক্যান্সার, জন্মত্রুটি ও অ্যান্ডোক্রাইন হরমোন নিঃসরণে বাধাসৃষ্টিকারী প্লাস্টিক কণা ঢুকে যাচ্ছে মানুষের শরীরে। খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণে ব্যবহৃত প্লাস্টিকের মোড়ক, বোতলজাত পানি, তরল ওষুধ ও ফলের রসের জন্য ব্যবহৃত বোতলের মতো বিভিন্ন ব্যবহারে আমাদের শরীরে মাইক্রো (অত্যন্ত ছোট কণা) আকারে ঢুকে যাচ্ছে প্লাস্টিকের কণা। গবেষণা থেকে জানা যায়, প্রতিটি মানুষের দেহে বছরে ১৪ হাজার থেকে ৭০ হাজার পিস ছোট প্লাস্টিকের কণা ঢুকে যায় নানাভাবে। 
অস্ট্রিয়ার মেডিক্যাল বিশ^বিদ্যালয়ের একটি গবেষণা বলছে, তারা গবেষণায় অংশগ্রহণকারী প্রতিটি মানুষের মল থেকে ৯ ধরনের মাইক্রোপ্লাস্টিক পেয়েছেন। তারা ইউরোপজুড়ে একটি গবেষণা চালান মানুষের দেহে কী পরিমাণ প্লাস্টিক রয়েছে তা জানতে। গবেষণায় অংশগ্রহণকারী প্রতিটি মানুষের কাছ থেকে তারা ১০ গ্রাম মল সংগ্রহ করেন এবং প্রত্যেকের মল থেকে গড়ে মাইক্রোপ্লাস্টিকের ২০টি কণা (পার্টিকল) পেয়েছেন তারা। গবেষকেরা বলছেন, ‘মানুষ প্লাস্টিক গিলে খাচ্ছে। যারা গবেষণায় অংশ নিয়েছেন তাদের প্রত্যেকের মলে ৫০টা থেকে ৫০০ পর্যন্ত পার্টিকল পাওয়া গেছে। এসব বেশির ভাগই পলিপ্রপাইলিন এবং পলিইথিলিন টেপেপথালেটের কণা (পিইটি)। 
ফলাফলে বলা হয়েছে, মনুষ্যমল জমা দেয়ার আগে প্রতিটি অংশগ্রহণকারী ডায়েরিতে লিখে রেখেছেন তারা কী খেয়েছেন। ডায়েরি থেকে দেখা গেছে, অংশগ্রহণকারীদের সবাই প্লাস্টিক বোতল থেকে পানীয় পান করেছে এবং প্লাস্টিক দিয়ে মোড়া খাবার খেয়েছেন। গবেষকেরা বলেন, প্লাস্টিক শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে (ইমিউন) শেষপর্যায়ে নিয়ে আসে এবং প্লাস্টিক কণা টক্সিক পদার্থ, ভাইরাস অথবা অন্যান্য ক্ষতিকর কিছু পরিবহনে সহায়তা করে। এই গবেষণায় নেতৃত্বদানকারী অস্ট্রিয়ার ভিয়েনা মেডিক্যাল বিশ^বিদ্যালয়ের ড. ফিলিপ শবি বলেন, ‘প্লাস্টিক কণা মানুষের শরীরে গ্যাস্ট্রোইন্টেসটিনাল সমস্যা তৈরি করে।’ তিনি বলেন, ‘সবচেয়ে ছোট মাইক্রোপ্লাস্টিক কণাটি রক্তসংবহন সিস্টেম, লিম্ফেটিক সিস্টেমে এবং লিভারে ঢুকে যেতে পারে।’
ড. ফিলিপ শবি বলেন, ‘এখন মানুষের দেহের বিভিন্ন অঙ্গে মাইক্রোপ্লাস্টিকের উপস্থিতি রয়েছে এমন প্রথম সাক্ষ্য আমাদের সামনে রয়েছে। আমাদের আরো গবেষণা প্রয়োজন যে এটা মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য কী ধরনের হুমকি হয়ে দাঁড়াতে পারে।’ পরীক্ষায় ব্রিটেন, ফিনল্যান্ড, ইতালি, নেদারল্যান্ডস, পোল্যান্ড, রাশিয়া ও অস্ট্রিয়া থেকে আটজন করে সাধারণ মানুষ অংশগ্রহণ করেন। অংশগ্রহণকারীদের কেউ নিরামিষভোজী ছিলেন না এবং এদের মধ্যে ছয়জন সামুদ্রিক মৎস্যভোজী। ধারণা করা হয় যে বিশে^ উৎপাদিত প্লাস্টিকের ৫ শতাংশ শেষ পর্যন্ত সাগরে গিয়ে জমা হয়। সাগরে বেড়ে ওঠা মাছ প্লাস্টিক খেয়ে থাকে এবং শেষ পর্যন্ত তা মানুষের খাদ্যশৃঙ্খলে ঢুকে পড়ে। সাগরে বেড়ে ওঠা টোনা, গলদা চিংড়ি ও বাগদা চিংড়িতে যে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে প্লাস্টিক রয়েছে তা গবেষণায় প্রমাণিত। 
গবেষকেরা বলছেন, ‘খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ ও মোড়কীকরণে ব্যবহৃত প্লাস্টিক থেকে আমাদের খাদ্যে প্লাস্টিক ঢুকে যাচ্ছে।’ গবেষকেরা ইউরোপের গ্যাস্ট্রোএন্টেরোলজির সর্ববৃহৎ সম্মেলন ইউইজি সপ্তাহে এসব তথ্য তুলে ধরেন। 
টরন্টোর ইয়র্ক বিশ^বিদ্যালয়ের পরিবেশবাদী বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক অ্যালিস্টার বক্সাল গবেষণার এ ফলাফল সম্পর্কে বলেন, ‘আমি বিস্মিত নই। মাইক্রোপ্লাস্টিক পাওয়া গেছে বোতল, ট্যাপ ওয়াটার, মাছ, পেশিকোষে এমনকি বিয়ারেও। এটা নিশ্চিতই বলা যায় যে আমাদের ফুসফুসে অথবা খাদ্যহজম প্রক্রিয়াতেও মাইক্রোপ্লাস্টিক পাওয়া যাবে।’ 
মাইক্রোপ্লাস্টিক মানবদেহে কী ধরনের ক্ষতি করে থাকে এর বিশদ গবেষণা এখন পর্যন্ত খুব বেশি পাওয়া যায় না। কিছু কিছু সীমিত আকারে গবেষণায় বলা হয়েছে, মাইক্রোপ্লাস্টিক ক্যান্সার সৃষ্টি করতে পারে, জন্মত্রুটির জন্য দায়ী, রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতাকে ভারসাম্যহীন করে দেয় অথবা হরমোন নিঃসরণে বিঘœ ঘটিয়ে থাকে। 
কোরিয়ার একটি বিশ^বিদ্যালয়ের গবেষণায় প্রাপ্ত তথ্য থেকে জানা গেছে, ১৯৫০ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত বিশে^ মোট ২৯৯ মিলিয়ন টন প্লাস্টিক উৎপাদিত হয়েছে। একবার উৎপাদিত হলে এগুলোকে ধ্বংস করা যায় না, মাটির সাথে মিশেও যায় না। শেষ পর্যন্ত খুব ছোট কণা আকারে পরিবেশে থেকে যায়।

 

 
 




         
   আপনার মতামত দিন
     স্বাস্থ্য-তথ্য
ডেঙ্গু থেকে বাঁচতে যা করবেন
.............................................................................................
ওজন কমাবে পালংশাক
.............................................................................................
গাড়ি চালানোর সময় মনে রাখতে হবে
.............................................................................................
তেলের নানাগুণ রূপ-লাবণ্য বৃদ্ধিতে
.............................................................................................
দুই কোটি ২০ লাখ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে আজ
.............................................................................................
যা জানা জরুরি রক্তদানের আগে
.............................................................................................
মনের ক্ষুধা বনাম পেটের ক্ষুধা
.............................................................................................
এলার্জি ও শ্বাসকষ্ট হলে ভয় পাওয়ার কারণ নেই
.............................................................................................
স্ট্রোক, প্যারালাইসিস প্রতিরোধ এবং চিকিৎসা
.............................................................................................
সাধারণ পুষ্টিহীনতা এবং সমাধান
.............................................................................................
ত্বকের খুঁত ঢাকতে প্রাইমার
.............................................................................................
চল্লিশের পরও নারীর তারুণ্য ধরে রাখবে যেসব খাবার
.............................................................................................
গরমে খাবার সংরক্ষণ পুষ্টিগুণ ঠিক রেখে
.............................................................................................
রক্ত থেকে বিষাক্ত উপাদান দূর করতে করনীয়
.............................................................................................
চার কাজে জেনে নিন আপনি কতটুকু সুস্থ
.............................................................................................
প্রাকৃতিক দূর্যোগে মনোরোগ বিশেষজ্ঞের প্রয়োজনীয়তা
.............................................................................................
এইডস প্রতিরোধে কলা
.............................................................................................
ঘরেই চাষ হোক অ্যালোভেরা
.............................................................................................
রক্তচাপ কমে গেলে যা করবেন
.............................................................................................
রোজায় সুস্থ থাকতে যেসব খাবার
.............................................................................................
গরমে ডিহাইড্রেশন
.............................................................................................
চশমা ব্যবহারকারীর জন্য ৭ পরামর্শ
.............................................................................................
৭২ ঘণ্টায় দূষণমুক্ত ফুসফুস
.............................................................................................
ডায়াবেটিস রোগীদের পায়ের বিশেষ যত্ন
.............................................................................................
ঢ্যাঁড়সের যত উপকার
.............................................................................................
হেঁচকি উঠলে যা করতে
.............................................................................................
খালি পেটে ঘুমালে কি হতে পারে
.............................................................................................
ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে যা করতে হবে
.............................................................................................
পাইলস চিকিৎসায় অসাধারণ চিকিৎসা পদ্ধতি
.............................................................................................
মিষ্টি কুমড়ার পুষ্টিগুন
.............................................................................................
বাতরোগ থেকে যেভাবে মুক্তি পেতে পারেন
.............................................................................................
রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সহায়ক সফেদা
.............................................................................................
বাংলাদেশিদের ফল কম খাওয়ায় মৃত্যু হচ্ছে: ল্যানসেট
.............................................................................................
দুর্লভ এই গ্রুপের রক্ত রয়েছে বিশ্বে ৪৩ জনের শরীরে
.............................................................................................
ঝুঁকিপূর্ণ নিম্ন রক্তচাপও
.............................................................................................
জ্বর জ্বর লাগলেই ওষুধ নয়
.............................................................................................
যে খাবারে মস্তিষ্কের স্বাস্থ্য গড়ে
.............................................................................................
প্রতিদিন কতটুকু পানি!
.............................................................................................
তারুণ্য ধরে রাখবে যে খাবারগুলো
.............................................................................................
এক কোয়া রসুনেই ধরে রাখুন যৌবন
.............................................................................................
সাদা নাকি লাল, কোন ডিমে বেশি পুষ্টি?
.............................................................................................
এখনো দাম কমেনি শীতের সবজির
.............................................................................................
লোভ ধ্বংস ডেকে আনে
.............................................................................................
ক্যান্সার ও জন্মত্রুটির জন্য দায়ী প্লাস্টিক কণা ঢুকে যাচ্ছে শরীরে
.............................................................................................
সিলেটের বক্ষব্যাধি হাসপাতালকে রেফারেন্স ল্যাবরেটরি হস্তান্তর
.............................................................................................
উন্নত খাদ্যাভ্যাস হতাশা কমাতে
.............................................................................................
ঘড়ির ঘণ্টায় ঘুম না ভাঙলে যা করবেন
.............................................................................................
মানসিক শান্তির জন্য সাইকেল ও হাঁটা
.............................................................................................
অতিরিক্ত লবণ গ্রহণের অপকারিতা
.............................................................................................
ভিটামিন ‘ডি’ কেন খাবেন
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
উপদেষ্টা: আজাদ কবির
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ হারুনুর রশীদ
সম্পাদক মন্ডলীর সহ-সভাপতি: মামুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
যুগ্ম সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বার্তা সম্পাদক: মুজিবুর রহমান ডালিম
স্পেশাল করাসপনডেন্ট : মো: শরিফুল ইসলাম রানা
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]