| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

  
Share Button
   সম্পাদকীয়
পেট কাটলেন নার্স, ডাক্তার বললেন ‘ঝামেলা আছে সেলাই করে দাও’
  তারিখ: 19 - 01 - 2019

মাগুরা পলি ক্লিনিকে নার্স দিয়ে অস্ত্রোপচারের অভিযোগ উঠেছে ক্লিনিকের মালিক ডা. মো. মুক্তাদির রহমানের বিরুদ্ধে। বর্তমানে ওই নারী ফরিদপুর মেডিকেলে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মাগুরা সদর উপজেলার আবালপুর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের স্ত্রী তনু বেগমের (৩৮) জরায়ুতে টিউমার ধরা পড়ে। গত ১৩ জানুয়ারি তিনি পলি ক্লিনিকে ভর্তি হন। এ সময় রোগীর কোনো পরীক্ষা নিরীক্ষা ছাড়াই বলা হয় এখনই অপারেশন না করলে তার মৃত্যু হতে পারে। ১৪ জানুয়ারি শনিবার সকাল ৯টার দিকে ডা. মো. মুক্তাদির রহমান নিজে অপারেশন না করে ক্লিনিকের দুই সেবিকাকে অস্ত্রোপচার করতে বলেন।

অপারেশন থিয়েটারে (ওটি) ওই দুই নার্স অস্ত্রোপচার করতে গেলে রোগী তনু বেগম ডাক্তার কোথায় জানতে চান। এ সময় নার্সরা ‘ডাক্তার এখনই আসবেন’ বলে জানালেও নিজেরাই অস্ত্রোপচার করেন। পরে ওই নারীর জরায়ু ও টিউমারে অতিরিক্ত চর্বি দেখে ভয় পেয়ে ডাক্তারকে ফোন করলে প্রায় ১৫ মিনিট পর ডাক্তার সেখানে যান। কিন্তু রোগীর অবস্থা খারাপ দেখে নার্সদের বলেন ‘ঝামেলা আছে সেলাই করে দাও’।

পরে ডা. মুক্তাদির রহমান ওটি থেকে বের হয়ে রোগীর স্বামীকে বলেন, আপনাদের রোগীর অপারেশন এখানে হবে না। রোগীর অবস্থা খুবই খারাপ। এখনই ফরিদপুর নিয়ে যেতে হবে। সেখানে আমার পরিচিত ডাক্তাররা ব্যবস্থা নেবে।

রোগীর স্বামী রাজ্জাক বলেন, ডা. মুক্তাদির রহমান আমাদের ফরিদপুরে পাঠিয়ে দেন। কিন্তু সেখানে গিয়ে দেখি আমাদের ফরিদপুর ডায়াবেটিস হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। ডায়াবেটিস হাসপাতালের চিকিৎসক জানান, আপনারা রোগীকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

মেডিকেলে ভর্তির পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দেখে বলেন, রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক। এই মুহূর্তে তাকে অপারেশন করা যাবে না। এরপর থেকে তনু বেগম সেখানেই মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি জানান, মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা সিজারিয়ান রোগীদের পলি ক্লিনিকে পাঠানো হয়। পরে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে অপারেশন করা হয়। এ ধরনের ঘটনা ডা. মুক্তাদির রহমান এর আগেও একাধিকবার পলি ক্লিনিকে ঘটিয়েছেন বলেও তারা অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে পলি ক্লিনিকসহ ডাক্তার মুক্তাদির রহমানের শাস্তি দাবি করেছেন রোগীর স্বামী আব্দুর রাজ্জাক।

এ ব্যাপারে ডা. মো. মুক্তাদির রহমান মুঠোফোনে বলেন, আসলে মাগুরায় এসব রোগীর অপারেশন হয় না। আমরা শুধু উপরের চামড়াটাই কেটেছিলাম। রোগীকে সেলাই করে পাঠিয়ে দিয়েছি। অপারেশন আমার নার্সরাই করে থাকে। আমি সময় পাই না।





         
   আপনার মতামত দিন
     সম্পাদকীয়
নিরাপদ হোক ঈদযাত্রা
.............................................................................................
দুর্যোগে করণীয়
.............................................................................................
পুঁজিবাজারে দরপতন
.............................................................................................
কৃষিতে কৃষকের অরুচি সুরক্ষামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ জরুরি
.............................................................................................
প্রকল্পে সরাসরি অর্থ ছাড় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত করুন
.............................................................................................
ঝুঁকিতে দুই কোটি শিশু এদের স্বাস্থ্য ও শিক্ষা নিশ্চিত করুন
.............................................................................................
অ্যান্টিবায়োটিকের অপব্যবহার ভয়ংকর পরিণতি থেকে রক্ষা পেতে হবে
.............................................................................................
বাড়ছে শ্রমিক অসন্তোষ মজুরি কমিশনের সুপারিশ আমলে নিন
.............................................................................................
রমজানে বাজারদর স্থিতিশীল রাখার ব্যবস্থা নিতে হবে
.............................................................................................
শিল্পায়নে বাধা
.............................................................................................
সড়কে মর্মান্তিক মৃত্যু ফিটনেসবিহীন গাড়ি চলাচল বন্ধ করুন
.............................................................................................
ডাক্তারদের প্রাইভেট প্র্যাকটিস প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়িত হোক
.............................................................................................
পেট কাটলেন নার্স, ডাক্তার বললেন ‘ঝামেলা আছে সেলাই করে দাও’
.............................................................................................
বাড়ছে উত্তাপ-উত্তেজনা
.............................................................................................
নির্বাচনের পরিবেশ
.............................................................................................
ক্ষতিপূরণ পেতে ভোগান্তি
.............................................................................................
জননিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা
.............................................................................................
পরিবেশের প্রধান শত্রু প্লাস্টিক
.............................................................................................
বিদেশে পাড়ি জমাচ্ছে রোহিঙ্গারা
.............................................................................................
খুরা রোগের টিকা
.............................................................................................
চিকিৎসা বীমা
.............................................................................................
মাদকবিরোধী কর্মপরিকল্পনা
.............................................................................................
পানিও নিরাপদ নয়
.............................................................................................
মুদ্রাপাচার বেড়েই চলেছে
.............................................................................................
মুদ্রাপাচার বেড়েই চলেছে
.............................................................................................
মাদকে মৃত্যুদন্ড
.............................................................................................
বিশ্বমানের চিকিৎসা
.............................................................................................
গুজবের পিছে ছুটছে মানুষ
.............................................................................................
মিয়ানমারের নতুন উসকানি
.............................................................................................
স্বর্ণ নীতিমালা
.............................................................................................
শিশু যখন শ্রমিক
.............................................................................................
বেহাল স্বাস্থ্যসেবা
.............................................................................................
সম্ভাবনার কাঁকড়া শিল্প
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন
.............................................................................................
ক্ষতিকর এনার্জি ড্রিংকস
.............................................................................................
মির্জাপুরে কাঠ পোড়ানো চুল্লি
.............................................................................................
হুমকিতে তিন-চতুর্থাংশ মানুষ
.............................................................................................
বেহাল সড়ক ও সেতু
.............................................................................................
সর্বোচ্চ মৃত্যু বাংলাদেশে
.............................................................................................
নতুন মাদক খাত
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন
.............................................................................................
সম্পর্কে নতুন মাত্রা
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা বিল ২০১৮ বিতর্কিত ধারাগুলো পর্যালোচনা করুন
.............................................................................................
পরিবেশদূষণ বড় ঘাতক
.............................................................................................
ডিবি পরিচয়ে তুলে নেওয়া
.............................................................................................
ভুলে ভরা এনআইডি
.............................................................................................
পদ্মার ভয়াবহ ভাঙন
.............................................................................................
বিপর্যস্ত স্বাস্থ্যসেবা
.............................................................................................
ক্যান্সার শনাক্তে প্রযুক্তি
.............................................................................................
নদীতে বিলীন হচ্ছে জনপদ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
উপদেষ্টা: আজাদ কবির
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ হারুনুর রশীদ
সম্পাদক মন্ডলীর সহ-সভাপতি: মামুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
যুগ্ম সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বার্তা সম্পাদক: মুজিবুর রহমান ডালিম
স্পেশাল করাসপনডেন্ট : মো: শরিফুল ইসলাম রানা
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]