| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

  
Share Button
   জাতীয়
রেলের বেহাত হওয়া হাজার হাজার একর জমি উদ্ধারে জোরালো তৎপরতা নেই
  তারিখ: 11 - 04 - 2019

 গারাদেশে রেলের হাজার হাজার একর জমি বেহাত হয়ে রয়েছে। কিন্তু ওসব জমি উদ্ধারে জোরালো তেমন কোনো উদ্যোগ নেই। বর্তমান সরকার রেল, নদী ও সড়কের অবৈধ দখলকৃত জমি উদ্ধারে বিশেষ কর্মসূচি গ্রহণ করে। আর ওই কর্মসূচির শুরুর পর এক মাসে (ফেব্রুয়ারি-মার্চ) সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর ১৮শ’ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে বেদখল হওয়া ২০০ কোটি টাকা মূল্যের জমি উদ্ধার হয়। কিন্তু একই সময়ে রেলের জমি উদ্ধারে কয়েকটি অভিযান চললেও উল্লেখ করার মতো কোন উচ্ছেদ হয়নি। রেল মন্ত্রী নিজেও দখলকৃত জমি উদ্ধারে অভিযান শুরু না হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেন। তবে তবে শিগগিরই অভিযান শুরু হবে বলে জানিয়েছেন। বাংলাদেশ রেলপথ মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।
সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, সারা দেশে রেলওয়ের মালিকানাধীন জমি রয়েছে প্রায় ৬১ হাজার ৬০৫ দশমিক ৮৪ একর। তার মধ্যে রেলওয়ে বিভিন্নভাবে ব্যবহার করছে ৩১ হাজার ৩১১ দশমিক ৫০ একর জমি। তাছাড়া ৭৯৫ দশমিক ১৯ একর মৎস্য, ৩০ দশমিক ৫৫ একর নার্সারি, ১২ দশমিক ৪৭ একর সিএনজি, ৪৫ দশমিক ৬৭ একর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং ২১০ দশমিক ৬৯ একর সরকারি-আধা সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের কাছে লাইসেন্সের মাধ্যমে ইজারা দেওয়া আছে। বাণিজ্যিক লাইসেন্সের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কাছে ইজারা দেয়া হয়েছে ৯০৯ দশমিক ৮৪ একর জমি। কিন্তু স্বাধীনতার পর থেকে এ পর্যন্ত রেলওয়ের প্রায় ৪ হাজার ৪৬৫ দশমিক ৬২ একর জমি বেহাত হয়ে গেছে। তার মধ্যে শুধু পশ্চিমাঞ্চলেই দখল হয়েছে ৩ হাজার ৩৮৭ দশমিক ২৭ একর। আর পূর্বাঞ্চলে ১ হাজার ৭৮ দশমিক ১৫ একর। তাছাড়া সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কাছে খাতা-কলমে (শক্ত ডকুমেন্ট ছাড়া) লিজ বা ইজারা দেয়া আছে ১২ হাজার ৭২১ দশমিক ৪ একর জমি। আর বর্তমানে রেলের দখলে অব্যবহৃত জমি রয়েছে মাত্র ১৩ হাজার ১০৭ একর। তার মধ্যে কৃষি জমি ১০ হাজার ৭১৬ দশমিক ৮১ একর।
সূত্র জানায়, যুগ যুগ ধরে অবৈধভাবে রেলের জমি বেদখল হলেও রেলের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের তেমন মাথা ব্যাথা নেই। ফলে জমি উদ্ধারে দীর্ঘদিনের নিষ্ক্রিয়তায় ইইতিমধ্যে অনেক জায়গা পুরোপুরি বেদখল হয়ে গেছে। প্রভাবশালীরা কোন নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করেই রেলের এক শ্রেণীর অসাধু কর্মকর্তাদের যোগসাজসে রেলের জমি দখল অব্যাহত রেখেছে। ওসব দখলদাররা অবৈধভাবে দখলকৃত জায়গায় কাঁচা-পাকা স্থাপনা এবং অবৈধ দোকান ও বস্তি বসিয়ে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। আর ওসব বেহাত হওয়া জমি উদ্ধারে বিভিন্ন সময়ে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হলেও কার্যত কোন সফলতা আসেনি। অবৈধ দখলদাররা রেলের জমি দখলের সাথে সাথে রেল লাইনের দু’ধারে বড় বড় মাদকের আখড়া গড়ে তুলেছে। তাতে একদিকে রেল লাইনে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি যেমন বেড়েছে, তেমনি জমি থেকে প্রাপ্ত বিপুল অঙ্কের রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। তাছাড়া ওসব মাদক আখড়া থেকে রাজধানীসহ সারা দেশে মাদক ছড়িয়ে পড়ছে।
সূত্র আরো জানায়, রেললাইনের দুপাশে ১০ ফুট জায়গা খালি রাখার নিয়ম রয়েছে। সরকারি নির্দেশনা ছাড়াও যে কোন দুর্ঘটনা এড়ানো ও বাড়তি সতর্কতার জন্য এমন বিধান। অথচ রাজধানীর মতো দেশের জেলা শহরগুলোর কোথাও এমন খালি রাখার চিত্র তেমন চোখে পড়ে না। ঢাকার নারায়ণগঞ্জ, গে-ারিয়া, শ্যামপুর, জুরাইন, শাহজাহানপুর, মালিবাগ, মগবাজার, কারওয়ানবাজার, তেজগাঁও, নাখালপাড়াসহ উত্তরা ও টঙ্গীর বিভিন্ন অংশে রেললাইনের দু’ধারে বস্তি, দোকান, বাজার, ছাপড়া ঘর, রাজনৈতিক দল ও অঙ্গ সংগঠনের নামে-বেনামে পাকা ও আধা-পাকা স্থাপনা রয়েছে। তার বাইরে অনেক এলাকায় সরকারি-আধা সরকারি প্রতিষ্ঠান ও বাস-ট্রাকের স্ট্যান্ড বানিয়ে দখল করা হয়েছে। বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান নারায়ণগঞ্জ থেকে টঙ্গী পর্যন্ত ৩৫ কিলোমিটার রেললাইনের দু’পাশের প্রায় ২শ একর জমি দখল করে নিয়েছে। কোথাও জাল দলিল ও কাগজপত্র তৈরি করে আবাসন কোম্পানির ভবনও তোলা হয়েছে। তাছাড়া বিমানবন্দর ও তেজগাঁও রেলস্টেশন এলাকায় ১৯ একর এবং নারায়ণগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের বাইরে ২৯ একর জমি বেদখল হয়ে গেছে। তাছাড়া ঢাকা ছাড়া চট্টগ্রামে রেলের ২১৫ থেকে ২৩০ একর জায়গা বেদখল হয়ে আছে। তার মধ্যে বিভিন্ন সরকারি-আধা সরকারি প্রতিষ্ঠানের দখলেই ১৫০ একর জমি। আর বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের দখলে আছে ৭৩ একর জমি। পাকশীতে দখল করা জমির মধ্যে ২ হাজার ৫৮ একরই বিভিন্ন ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের দখলে। লালমনিরহাটে রেলের ৮৪১ একর জমি বিভিন্ন ব্যক্তির দখলে আছে। একইভাবে ঢাকা-ময়মনসিংহ রেললাইনের দু’পাশের অনেক জায়গা দখল হয়ে গেছে। সিলেটের শায়েস্তাগঞ্জ, জামালপুরসহ বিভিন্ন স্থানেও একই অবস্থা। কোথাও মার্কেট আবার কোথাও বাড়ি-ঘর ও বস্তি বানিয়ে ওসব জায়গা দখল করা হয়েছে। অথচ লাখো কোটি টাকার এসব জমি উদ্ধারে রেল যেমন ব্যর্থ হচ্ছে, তেমিন বছরে হাজার কোটি টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। ফলে লাগাতার লোকসানের মধ্যে পরে থাকলেও রেলের পক্ষে লাভের মুখ দেখা সম্ভব হচ্ছে না।
এদিকে রেল সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ১৯৭৬ সালে রেলওয়েতে পৃথকভাবে পূর্ব ও পশ্চিমাঞ্চলে প্রধান ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তার কার্যালয় করা হলেও জনবল অনেক কম। যার কারণে রেলের সম্পদের ওপরে যথাযথভাবে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হচ্ছে না। তাছাড়া প্রতিনিয়ত দলীয় ক্ষমতাশালী ও প্রভাবশালীরা নানা অজুহাতে রেলের জায়গা লিজ নিয়ে দখলের চেষ্টা চালু রেখেছে। ১৯৬০ সালে ফুলবাড়িয়া থেকে রেলস্টেশন কমলাপুরে স্থানান্তরিত হওয়ার পরে সেখানকার বিপুল পরিমাণ জমি সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান দখল করে নেয়। তাছাড়া টঙ্গী থেকে নারায়ণগঞ্জ পর্যন্ত অনেক জায়গা বেদখল হয়ে আছে। অনেক সময় উচ্ছেদ অভিযানও চালানো হয়েছে। কিন্তু পরে আবারো তা বেদখল হয়ে যায়। আগে সরকারি জায়গা দখল করার এত প্রবণতা না থাকলেও এখন তা বেড়েই চলছে। আর রেললাইনের পাশে থাকা বস্তিগুলো নিয়ে আদালতের একটি নিষেধাজ্ঞা থাকায় সেগুলো নিয়ে কিছু করা যাচ্ছে না।
অন্যদিকে চলতি বছর ১১ মার্চ চট্টগ্রামের পাহাড়তলীর সেগুনবাগান এলাকায় রেলওয়ের জমি দখল করে গড়ে তোলা ২২টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে করে প্রশাসন। জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানে সেগুনবাগানের এফ-৪ বাংলো সংলগ্ন রেলওয়ের মালিকানাধীন জমিতে তৈরি সেমিপাকা ও টিন শেড ২২টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। ওই সময় দখলকৃত শূন্য দশমিক পনের একর সরকারি জমি উদ্ধার করা হয়। তবে নগরবিদরা মনে করেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর রেল, সড়ক ও নদীর অবৈধ দখলকৃত জমি উদ্ধারে গৃহীত বিশেষ কর্মসূচি শুরুর পর গত এক মাসে (ফেব্রুয়ারি-মার্চ) সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর ১৮শ’ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে। তাতে সরকারি সংস্থাটি বেদখল হওয়া ২০০ কোটি টাকা মূল্যের জমিও উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। বর্তমানে দেশে চলমান নদীখেকোদের বিরুদ্ধে পরিচালিত অভিযানের ন্যায় রেলের জায়গা অবৈধভাবে দখলদারদের বিরুদ্ধে জোড়ালো অভিযান চালানো জরুরি। তবে উচ্ছেদের সাথে দখলদারদের স্থায়ীভাবে প্রতিহত করা সম্ভব হবে।
এ প্রসঙ্গে রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন জানান, রেল সেক্টরটি বর্তমানে অগোছালো অবস্থায় রয়েছে। রেলকে গুছিয়ে একটি সুন্দর অবস্থায় ফেরানোর আগে জমি উদ্ধারে গেলে কোন সুফল আসবে না। কারণ জমি দখলের সাথে শক্তিশালী সিন্ডিকেট জড়িত। প্রশাসন একদিক দিকে জমি উদ্ধার করলে প্রভাবশালীরা একদিন পরেই আবারো দখল শুরু করে। যে কারণে কার্যত কোন সুফল আসে না। রেলের বেদখল হওয়া জমি উদ্ধারে সুনির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছতে ইতোমধ্যে একটি বৈঠক করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলছে। তাছাড়া উদ্ধারের কাজও অনেক ব্যয়বহুল। যার কারণে সব কিছু গুছিয়ে খুব শিগগিরই দখলকৃত জমি উদ্ধারে অভিযান শুরু করা হবে।

 





         
   আপনার মতামত দিন
     জাতীয়
বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার আমিনুল হকের ইন্তেকাল
.............................................................................................
তিন দিনের সরকারি সফরে ব্রুনেইয়ের পথে প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
১০ বছরের মধ্যে বুড়িগঙ্গাকে একটি ভাল অবস্থানে নিয়ে যেতে চাই: নৌ-প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
ফের প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদা পাচ্ছেন রাসিক মেয়র লিটন
.............................................................................................
ভোটার তালিকায় রোহিঙ্গা ঠেকাতে কঠোর ইসি
.............................................................................................
মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বারবার বিকৃত হয়েছে: রেলমন্ত্রী
.............................................................................................
রোববার ব্রুনাই যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
২১ এপ্রিলই শবেবরাত
.............................................................................................
সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ বছর করতে আসছে সিদ্ধান্ত প্রস্তাব
.............................................................................................
ধর্মপ্রাণ মানুষকে মাদক ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জিহাদ করতে হবে: আমু
.............................................................................................
২৩ এপ্রিল থেকে ভোটার তালিকা হালনাগাদে তথ্য সংগ্রহ শুরু
.............................................................................................
দেশজুড়ে ৯৬ ঘণ্টার ধর্মঘট পালন করছে পাটকল শ্রমিকরা
.............................................................................................
পোকা দৌড়াচ্ছে ১০ টাকা কেজির চালে
.............................................................................................
সব বিভাগীয় শহরে বিটিভির কেন্দ্র স্থাপন করার প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে: তথ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
পূর্বাচল স্টেডিয়াম বানিয়ে বিশ্বকে দেখিয়ে দেবে বাংলাদেশ
.............................................................................................
হজযাত্রীদের ইমিগ্রেশন সৌদির পরিবর্তে বাংলাদেশে সম্পন্ন করার সিদ্ধান্ত
.............................................................................................
পহেলা বৈশাখে ৬টার পর অনুষ্ঠান নয়, মুখোশ থাকবে হাতে: ডিএমপি
.............................................................................................
নানা সীমাবদ্ধতায়ও প্রতি বছরই দেশে আমনের উৎপাদন বাড়ছে
.............................................................................................
নগদ টাকার সংকটে ভুগছে সরকার
.............................................................................................
নুসরাতের হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ
.............................................................................................
দেশে প্রতিদিন পানিতে ডুবে ৩০ শিশুর মৃত্যু
.............................................................................................
শাস্তির মুখোমুখি না হওয়ায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের তোয়াক্কা নেই
.............................................................................................
রেলের বেহাত হওয়া হাজার হাজার একর জমি উদ্ধারে জোরালো তৎপরতা নেই
.............................................................................................
অগ্নিদগ্ধ নুসরাত জাহান রাফিকে বাঁচানো গেল না
.............................................................................................
টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে অধিকতর গবেষণার উপর প্রধানমন্ত্রীর গুরুত্বারোপ
.............................................................................................
আজ বিশ্ব হোমিওপ্যাথি দিবস
.............................................................................................
পদ্মা সেতু: মাওয়ায় ১০ম স্প্যান বসতে যাচ্ছে আজ
.............................................................................................
অপরিকল্পিত নগরায়ন এবং অসচেতনতায় রাজধানীতে অগ্নিঝুঁকি দিন দিন তীব্র হচ্ছে
.............................................................................................
বিপুলসংখ্যক মামলার তদন্ত নির্ধারিত সময়ে শেষ করতে পারেনি দুদক
.............................................................................................
রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনের দায়িত্ব মিয়ানমারকেই নিতে হবে: পম্পেও
.............................................................................................
গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি বিনিয়োগ ও কর্মসংস্থানের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে
.............................................................................................
ভোটার তালিকা হালনাগাদ শুরু ২৩ এপ্রিল
.............................................................................................
উন্নয়ন প্রকল্পে গতি আনতে অর্থ ছাড় ও ব্যবহারে বৃদ্ধি পেয়েছে পিডিদের ক্ষমতা
.............................................................................................
নদীবন্দরে ২ নং নৌ হুশিয়ারী সংকেত
.............................................................................................
বিনিয়োগের অভাবে পিছিয়ে পড়ছে বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন
.............................................................................................
জনবল সঙ্কটে সেবার মান রক্ষা করতে পারছে না রেলওয়ে
.............................................................................................
রেড এলার্ট জারির মতো কোন ঘটনা এখনও ঘটেনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
সড়ক দুর্ঘটনাকে এক নম্বর চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিতে হবে: ইলিয়াস কাঞ্চন
.............................................................................................
রাষ্ট্রের অনৈতিক কাজের বিচার হয় না: আবুল মকসুদ
.............................................................................................
স্থল ও স্থলভাগে বড় পরিসরে গ্যাস অনুসন্ধানে যাচ্ছে সরকার
.............................................................................................
বাধ্য না হলে বাণিজ্যিক ও আবাসিক ভবন মালিকদের বীমায় আগ্রহ নেই
.............................................................................................
সরকারি প্রণোদনায় লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে বোরো আবাদ
.............................................................................................
বৈদ্যুতিক সামগ্রীর যথাযথ তদারকির অভাব ও নিন্মমান ক্রমাগত অগ্নিঝুঁকি বাড়াচ্ছে
.............................................................................................
শিগগিরই দেশে যক্ষ্মা রোগের ওষুধ তৈরি হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
৭০ শতাংশ বহুতল ভবনই ত্রুটিযুক্ত
.............................................................................................
আলোচনার মাধ্যমেই রোহিঙ্গা সংকট সমাধান : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
ডিএনসিসির ঝুঁকিপূর্ণ অর্ধডজন মার্কেট ভেঙ্গে ফেলার উদ্যোগ
.............................................................................................
প্রতিনিয়ত ব্যাপক পরিবেশ দূষণেও বিশেষায়িত আদালতে মামলা নেই
.............................................................................................
সমুদ্র বন্দর ব্যবহারে মাশুলে ছাড় চায় ভুটান
.............................................................................................
রাস্তা পারাপারে ওভারব্রিজ ব্যবহার না করলে এক ঘণ্টার কাউন্সিলিং
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
উপদেষ্টা: আজাদ কবির
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ হারুনুর রশীদ
সম্পাদক মন্ডলীর সহ-সভাপতি: মামুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
যুগ্ম সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বার্তা সম্পাদক: মুজিবুর রহমান ডালিম
স্পেশাল করাসপনডেন্ট : মো: শরিফুল ইসলাম রানা
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]