১৮ জিলক্বদ ১৪৪১ , ঢাকা, শুক্রবার, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭, ১০ জুলাই , ২০২০ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

  
Share Button
   কৃষিজগৎ
উৎপাদন খরচের সঙ্গে শ্রমের মূল্য যোগ করে ধানের মণ হওয়া উচিত ১২শ টাকা: বারকাত
  তারিখ: 26 - 05 - 2019

উৎপাদন খরচের সঙ্গে শ্রমের মূল্য যোগ করে এবার ধানের দাম প্রতি মণ ১ হাজার ২০০ টাকা হওয়া উচিত বলে মন্তব্য করে কৃষকের সেই দাম প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে সরকারকে আহ্বান জানিয়েছেন অর্থনীতি সমিতির সভাপতি আবুল বারকাত। আসন্ন বাজেট নিয়ে গতকাল শনিবার ঢাকার সিরডাপ মিলনায়তনে অর্থনীতি সমিতির প্রস্তাব তুলে ধরার সময় এই আহ্বান জানান। এবার বোরো ধান আবাদ করে উৎপাদন খরচ উঠছে না বলে কৃষকদের মধ্যে অসন্তোষ চলছে। মাঠের পাকা ধানে আগুন দেওয়ার ঘটনাও ঘটেছে।

বারকাত বলেন, এবছর বোরো ধানে কৃষকের প্রকৃত লোকসান হবে কমপক্ষে ৫০০ টাকা। এ নিয়ে সরকারের চিন্তিত হওয়ার যথেষ্ট কারণ আছে। এবার বোরো ধান প্রতি মণ ১ হাজার ৪০ টাকায় কেনার সিদ্ধান্ত রয়েছে সরকারের। কিন্তু সরকারি কেনায় দেরি হওয়ায় ৫০০-৬০০ টাকায় দালালদের কাছে ধান বিক্রি করতে বাধ্য হয়েছেন অনেক কৃষক। অর্থনীতির অধ্যাপক বারকাত বলেন, বর্তমানে প্রতিমন বোরো ধান উৎপাদনে ৬০০ টাকার বেশি উৎপাদন খরচের যে হিসাবটি দেওয়া হয়, তা সংশ্লিষ্ট কৃষাণ ও কৃষাণীর পারিশ্রমিক বাদ দিয়ে করা হয়। ওই পারিশ্রমিক হিসাব করলে আরও বেশি। তাই বোরো ধানের বিক্রয় মুল্য এক হাজার ২০০ টাকা করা উচিৎ। সরকারকে তিনি বলেন, সরকারিভাবে সংগ্রহের ক্রয়মূল্য শুধু উৎপাদন খরচের তুলনায় কমপক্ষে ২০ শতাংশ বাড়ালেই হবে না। নিশ্চিত করতে হবে, প্রকৃত কৃষকই যেন ঝামেলা ছাড়াই ওই বাজারমূল্য পান। কৃষকদের জন্য স্বল্প সুদে ঋণের ব্যবস্থা এবং কৃষিঋণ মওকুফের সুপারিশও করেন অর্থনীতি সমিতির সভাপতি।

দেশকে খাদ্যে স্বয়সম্পূর্ণ রাখতে হলে একজন কৃষক যখন উৎপাদনে যাওয়ার প্রস্তুতি নেন, তখন তার জন্য স্বল্পসুদে পারলে বিনা সুদে ঋণের ব্যবস্থা করতে হবে। কোনো কারণে ফসল মার খেলে বা প্রাকৃতিক দুর্যোগের কবলে পড়ে ফসল নষ্ট হয়ে গেলে, ওই ঋণ মওকুফ করে দিতে হবে। আগামী অর্থবছরের জন্য অর্থমন্ত্রীর আভাসের চেয়ে দ্বিগুণ অঙ্কের বাজেটের প্রস্তাব দিয়ে তার অর্থ সংস্থানে রাজস্ব আদায় বাড়ানোর বড় তিনটি ক্ষেত্র দেখান তিনি। এই তিনটি হচ্ছে- পাচার হওয়া ও কালো টাকা উদ্ধার এবং সম্পদ কর। এই তিনটি নতুন উৎস থেকেই সরকার মোট ৯৫ হাজার কোটি টাকা অতিরিক্ত রাজস্ব আয় করতে পারেন। আর এ টাকা দিয়ে প্রতি বছর তিনটি পদ্মা সেতু করা সম্ভব, বলেছেন অর্থনীতি সমিতির সভাপতি আবুল বারকাত। অর্থনীতি সমিতির পক্ষ থেকে ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য ১২ লাখ ৪০ হাজার ৯০ কোটি টাকার ছায়া বাজেট প্রস্তাব করেন তিনি। আগামী ১৩ জুন জাতীয় সংসদে আগামি অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাব করতে যাচ্ছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বাজেটের অঙ্ক সোয়া ৫ লাখ কোটি টাকা হতে পারে বলেও আভাস দিয়েছেন তিনি। অর্থমন্ত্রী হিসেবে নিজের প্রথম বাজেটে কর না বাড়িয়ে রাজস্ব আয় বাড়ানোর নতুন ক্ষেত্র অনুসন্ধানের কথা বলে আসছেন মুস্তফা কামাল। অর্থনীতি সমিতি তাদের প্রস্তাবিত বিশাল বাজেটে রাজস্ব আয় ধরেছে ১০ লাখ ২ হাজার ৫১০ কোটি টাকা। এর মধ্যে ৬৯ শতাংশ প্রত্যক্ষ কর ও ৩১ শতাংশ পরোক্ষ কর। মোট বাজেট বরাদ্দের প্রায় ৮১ শতাংশের জোগান আসবে রাজস্ব আদায় থেকে। অর্থপাচার রোধ, কালো টাকা উদ্ধার ও সম্পদ করসহ রাজস্ব আদায়ের আরও নতুন উৎস দেখিয়ে বারকাত বলেন, আমাদের প্রস্তাবিত বাজেটে রাজস্ব আয়ের ২০টি নতুন উৎস নির্দিষ্ট করেছি, যা আগে ছিল না। ২ লাখ ৮৪ হাজার টাকা ঘাটতির এই বিকল্প বাজেটে অর্থায়নে কোনো বৈদেশিক ঋণের প্রয়োজন হবে না বলে দাবি করেন তিনি। আগামী ৩ বছরের মধ্যে কমপক্ষে ৫ লাখ ভ্যাট লাইসেন্সধারীকে ভ্যাটের আওতায় আনার প্রস্তাব করেছে অর্থনীতি সমিতি। এনবিআর ও পরিসংখ্যান ব্যুরোর তথ্য মতে বাংলাদেশের ভ্যাট লাইসেন্সধারীর সংখ্যা প্রায় ৯ লাখ। কিন্তু পরিতাপের বিষয় যে বড়জোর ১ লাখ লাইসেন্সধারীর কাছ থেকে বর্তমানে ভ্যাট আদায় হয়। খেলাপি ঋণের প্রসঙ্গে জনতা ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান বারকাত করেন, অভ্যাসগত ঋণ খেলাপিদের মোকাবেলার জন্য সর্বাত্মক পদক্ষেপ নিতে হবে। তবে তাদের পূর্ণউদ্যমে চালু শিল্প প্রতিষ্ঠান বন্ধ করা ঠিক হবে না। সমস্যাটি জটিল, তবে সমাধান সম্ভব বলে মনে করি। বিকল্প বাজেটে খাতওয়ারি বরাদ্দে শিক্ষা ও প্রযুক্তিতে মোট ২ লাখ ৮৪ হাজার ৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখছে অর্থনীতি সমিতি। এরপর রয়েছে জনপ্রশাসন, পরিবহন ও যোগাযোগ, বিদ্যুৎ ও জ¦ালানি, স্বাস্থ্য, সামাজিক নিরাপত্তা ও কল্যাণ খাত। কৃষিকে গুরুত্ব দিয়ে ১ লাখ ভূমিহীন পরিবারের মধ্যে কমপক্ষে ২ লাখ বিঘা খাস জমি বন্দোবস্ত এবং ২০ হাজার জলাহীন প্রকৃত মৎস্যজীবী পরিবারের মধ্যে কমপক্ষে ৫০ হাজার বিঘা খাস জলাশয় বন্দোবস্ত দেওয়ার সুপারিশ করেছে সমিতি। ভূমিহীন ও প্রান্তিক কৃষকদের জন্য সুদবিহীন ঋণ ও বীমার ব্যবস্থার পাশাপাশি চলতি বোরো মৌসুমে সঙ্কটে পড়া কৃষকদের ধানের ন্যায্যমূল্য পাওয়া নিশ্চিতের দাবিও জানিয়েছে তারা। কর্মসংস্থানে গুরুত্ব দিয়ে অর্থনীতির অধ্যাপক বারকাত বলেন, দেশে প্রতিবছর ৩০ লাখ মানুষ শ্রমবাজারে প্রবেশ করে, কিন্তু তার মধ্যে ২০ লাখ মানুষেরই কর্মসংস্থান হয় না। কর্মসংস্থান বাড়ানো ও বেকারত্ব কমাতে ‘জাতীয় কর্মসংস্থান পরিকল্পনা ও বাস্তবায়ন কোষ’ গঠন, যুবকদের উদ্যোক্তা ও উদ্ভাবক হতে উৎসাহিত করতে স্টার্ট আপ পুঁজি সরবরাহ এবং শিক্ষাখাতে জিডিপির কমপক্ষে ৫% বরাদ্দের প্রস্তাব দেন বারকাত।

তামাকে শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়ে তিনি বলেন, তামাকের ওপর শুল্কারোপের ক্ষেত্রে কয়েক স্তরবিশিষ্ট মূল্যস্তর বাতিল করে প্রতি ১০ শলাকার সিগারেটের উপর কমপক্ষে ৬০ টাকা আবগারি শুল্ক, প্রতি ২৫ শলাকার বিড়ির উপর ১৫ টাকা আবগারি শুল্ক, আর প্রতি ১০০ গ্রাম ধোঁয়াবিহীন তামাকজাত পণ্যের ওপর ১৫০ টাকা আবগারি শুল্ক আরোপ করা হোক। নারীর উন্নয়ন ও ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করতে দরিদ্র নারীদের সরকারিভাবে ক্ষুদ্র-অনুদান, প্রশিক্ষণ, গার্মেন্টসসহ কর্মজীবী নারীদের আবাসন ও ডে-কেয়ার সেন্টার স্থাপন, একশভাগ নিরাপদ প্রসব নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট বরাদ্দ ৪ গুণ বাড়ানো, ক্রীড়া খাতে নারীদের জন্য বরাদ্দ ৪ গুণ বাড়ানো, মাধ্যমিক স্কুলে মেয়েদের বিজ্ঞান শিক্ষায় বরাদ্দ ৩ গুণ বাড়ানো এবং নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে বরাদ্দ ৩০ গুণ বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে অর্থনীতি সমিতি। তাদের আরও কয়েকটি সুপারিশ হচ্ছে- ব্যক্তি পর্যায়ে করহার কমিয়ে ৩ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশে রাখা, বছরে কমপক্ষে ১ কোটি টাকা আয়কর দেওয়ার যোগ্য মানুষের সংখ্যা ৫০ হাজারে বাড়ানো, প্রতিবন্ধীদের জন্য নির্দিষ্ট উপখাতভিত্তিক কমপক্ষে ২ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা ইত্যাদি। বারকাত বলেন, আগামী বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ, মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণজয়ন্তীর প্রাক্কালের বাজেট।

আসন্ন অর্থবছরের বাজেট হতে হবে বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক-অর্থনৈতিক দর্শনের প্রতিফলন আমাদের ‘স্বাধীনতার ঘোষণার’ সঙ্গে সম্পূর্ণ সাযুজ্যপূর্ণ, বাজেট হতে হবে আমাদের ১৯৭২ এর মূল সংবিধানের সঙ্গে পুরোপুরি সঙ্গতিপূর্ণ। স্বাগত বক্তব্যে অর্থনীতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. জামালউদ্দিন আহমেদ বলেন, আমাদের বিকল্প বাজেট প্রণয়ন প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ স্বেচ্ছাশ্রমের ফল। তাও সমিতির গুটিকয়েক ব্যক্তির। আর সরকার যে খসড়া বাজেট আগামি জুন মাসে সংসদে উত্থাপন করবে, তা বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দেশি-বিদেশি পরামর্শকসহ কয়েক হাজার কর্মকর্তার যৌথ কর্মকা-।

 





         
   আপনার মতামত দিন
     কৃষিজগৎ
কৃষিকে বাণিজ্যিকীকরণ করে লাভবান করা সরকারের এখন মূল লক্ষ্য
.............................................................................................
সুস্বাস্থ্য ও প্রশান্তির জন্য ছাদ বাগান
.............................................................................................
বিপর্যস্ত দক্ষিণাঞ্চলের কৃষি, শীতে হতাশ কৃষক
.............................................................................................
শিগগিরই ‘গোল্ডেন রাইস’ অবমুক্ত করা হবে: কৃষিমন্ত্রী
.............................................................................................
পাটে নয়, পাটখড়িতে লাভ গুনছেন চাষীরা
.............................................................................................
উচ্চ ফলনশীল ধানের ৩ টি নতুন জাত উদ্ভাবন করেছে ‘ব্রি’
.............................................................................................
রংপুরে কৃষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
উৎপাদন খরচের সঙ্গে শ্রমের মূল্য যোগ করে ধানের মণ হওয়া উচিত ১২শ টাকা: বারকাত
.............................................................................................
কুড়িগ্রামে তিন কেজি ধানের দামে ১ কেজি লবণ
.............................................................................................
সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান কিনলেন নাটোরের জেলা প্রশাসক
.............................................................................................
নওগাঁর আত্রাইয়ে বোরো সিদ্ধ চাল সংগ্রহের উদ্বোধন
.............................................................................................
রংপুর জেলার এবার ২৫ হাজার ১ শত ৯০ মেট্রিক টন চাল ও ৩ হাজার ৯ শত ৯৮ মেট্রিক টন ধান সংগ্রহ করা হবে
.............................................................................................
দিনাজপুরে পূনর্ভবা নদীর বুকে চাষ হচ্ছে বোরো ধান!
.............................................................................................
জাতীয় কৃষি যন্ত্রপাতি মেলা শুরু হচ্ছে আজ
.............................................................................................
বরিশালে বোরো ধানের বাম্পার ফলনেও হাসি নেই কৃষকের মুখে
.............................................................................................
চাঁদপুরে সবুজের মাঝে চোখ জুড়ানো বেগুনি রঙের ধানক্ষেত
.............................................................................................
নভোএয়ার কাপ গলফ টুর্নামেন্টের বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ
.............................................................................................
লাভের আশায় আগাম সবজি চাষ বগুড়ায় (ভিডিওসহ)
.............................................................................................
স্বাস্থ্য ও কৃষি খাতে বায়োটেকনোলজি ব্যবহারে এগোচ্ছে বাংলাদেশ: মতিয়া
.............................................................................................
‘ড্রাগন-স্ট্রবেরি’ কৃষিপণ্যের তালিকায় নতুন
.............................................................................................
মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পে ভয়াবহ জলাবদ্ধতায় পাকা ধান ও সবজি ক্ষতিগ্রস্ত
.............................................................................................
সেচ কাজে প্রিপেইড কার্ড ব্যবহার করছে বরেন্দ্র অঞ্চলের কৃষকরা
.............................................................................................
সেচের পানির অভাবে ফরিদগঞ্জ ও মতলবে ষোল’শ একর জমির ফসল বিনষ্টের আশংকা
.............................................................................................
চাল-পেঁয়াজের দাম কমছে না
.............................................................................................
জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ শুরু ২৪ ফেব্রুয়ারি
.............................................................................................
সাড়ে ৫ লাখ কৃষককে ৫৯ কোটি টাকার বীজ-সার দেবে সরকার
.............................................................................................
লিচু পল্লিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন বাগানিরা
.............................................................................................
চলনবিলে কৃষকের কান্না
.............................................................................................
বছরে ৫ কোটি টাকার লিচু উৎপন্ন হয় মাগুরায়
.............................................................................................
‘হাওরবাসীর পাশে থাকতেন নিয়াজ উদ্দিন পাশা’
.............................................................................................
ডুমুরিয়ায় বোরো ধান ক্ষেতে ব্লাস্ট রোগের আক্রমণ
.............................................................................................
দক্ষিণাঞ্চলে চলছে বর্ষার আমেজ, ফসলের জন্য আশীর্বাদ
.............................................................................................
মাগুরায় গমের ভালো ফলনের আশা কৃষি বিভাগের
.............................................................................................
৩৩ কোটিতে আড়াইশ কোটি টাকার ফসল
.............................................................................................
ছাদে বাগান
.............................................................................................
হারিয়ে যাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী ঢেঁকি
.............................................................................................
কপি চাষে স্বাবলম্বী কৃষক
.............................................................................................
বার্ড ফ্লু কী, কিভাবে বাঁচবেন
.............................................................................................
শিবপুরে শিমের পচন রোগে কৃষক দিশেহারা
.............................................................................................
হাতের মুঠোয় কৃষিসেবা
.............................................................................................
দুটি ভেড়া বদলে দিয়েছে রিমার ভাগ্য
.............................................................................................
কৃষি খাতের উন্নয়ন ও উৎপাদন বাড়ানোর বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া হবে: কৃষিমন্ত্রী
.............................................................................................
কাউখালীতে ছাড়িয়ে যাবে আমনের লক্ষ্যমাত্রা
.............................................................................................
টবে গোলাপের চাষ
.............................................................................................
বন্যা সহিঞ্চু বিআর ৫২ জাতের ধান উদ্ভাবন ফলনও ভালো
.............................................................................................
বিশ্ববাজারে কমলেও দেশীয় বাজারে গমের দাম ঊর্ধ্বমুখী
.............................................................................................
দীর্ঘমেয়াদি লক্ষ্য পূরণে কৃষিতে ব্যাপক হারে যন্ত্রের ব্যবহার বাড়ানোর উদ্যোগ
.............................................................................................
রংপুর বিভাগের আগাম আলুর আবাদ বাড়ছে
.............................................................................................
খেঁজুরের রস সংগ্রহে ব্যস্ত রাণীনগরের গাছিরা
.............................................................................................
মানিকগঞ্জে কচি ডাবের ব্যাপক সমারোহ
.............................................................................................
Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale
Digital Load Cell
Digital Indicator
Digital Score Board
Junction Box | Chequer Plate | Girder
Digital Scale | Digital Floor Scale

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা ডট কম
মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত ।

প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ মো: হারুনুর রশীদ
ইউরোপ মহাদেশ বিষয়ক সম্পাদক- প্রফেসর জাকি মোস্তফা (টুটুল)
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
বার্তা সম্পাদক: মো: শরিফুল ইসলাম রানা
সহ: সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বিশেষ প্রতিনিধি : মো: আকরাম খাঁন
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed BY : Dynamic Solution IT   Dynamic Scale BD