| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

  
Share Button
   স্বাস্থ্য-তথ্য
যা জানা জরুরি রক্তদানের আগে
  তারিখ: 17 - 06 - 2019

রক্তদান মহৎ কাজ হলেও কিছু পূর্বপ্রস্তুতিরও প্রয়োজন রয়েছে। যে রক্তদান করছে তার কাছে বিষয়টা সাধারণ মনে হলেও রোগী এবং তার পরিবার পরিজনরাই জানেন রক্তদাতা তাদের কতটা উপকার করলেন।
কিছু রক্তের গ্রুপ দুর্লভ ঠিক, তবে প্রয়োজনের সময় সহজলভ্য গ্রুপের রক্তদানকারী খুঁজে পেতেও বেগ পেতে হয়। আর শুধু বাংলাদেশ নয়, পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই রক্তের চাহিদা ও যোগানের মধ্যে রয়েছে বিস্তর ব্যবধান। তবে মহান এই কাজ করার আগে চাই কিছু সাবধানতা ও প্রস্তুতি।

স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে ভারতের ইন্দ্রপৃষ্ঠ হাসপাতালের ‘ট্রান্সফিউশন মেডিসিন’, ‘মোলিকিউলার বায়োলজি’ এবং ‘ট্রান্সপ্লান্ট ইমিউনোলজি’ বিভাগের পরামর্শদাতা ডা. মোহিত চৌধুরির দেওয়া পরামর্শ অবলম্বনে এই বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হল।
রক্ত এক ধরনের জটিল টিস্যু যা লোহিত রক্তকণিকা, শ্বেতকণিকা, অনুচক্রিকা ও ‘প্লাজমা’য়ের মিশ্রণে গঠিত। দান করা রক্ত লোহিত রক্তকণিকা, অনুচক্রিকা, ‘প্লাজমা এবং ‘ক্রায়োপ্রিসিপিটেইট’য়ে বিভক্ত করা হয়।
এক ব্যাগ রক্ত থেকে বের করে আনা যায় কয়েকটি উপাদান। আর তাই বলা হয়, এক ব্যাগ রক্ত বাঁচাতে পারে তিনটি জীবন।
রক্তদানকারীরা সরাসরি রক্ত কিংবা রক্তের যে কোনো উপাদান দান করতে পারেন। রক্তের নির্দিষ্ট উপাদান দান করার জন্য বিশেষ যন্ত্রের প্রয়োজন হয় যা আমাদের দেশে খুব একটা সহজলভ্য নয়। আর রক্তের নির্দিষ্ট উপাদান দান করার প্রক্রিয়াকে বলা হয় ‘অ্যাফেরেসিস’।
সাধারণত একটি রক্তের ব্যাগে ৪৫০ মি.লি. লিটার রক্ত ধারণ করা যায়। আর এইটুকুই একজন রক্তদাতা একবারে দান করতে পারেন। মানুষের শরীরে রক্তে পরিমাণ নির্ভর করে তার ওজন, বয়স এবং উচ্চতার ওপর।
একজন মানুষ এক ব্যাগ রক্ত দান করার পর তার ওজন, বয়স এবং উচ্চতার ওপর ভিত্তি করে কয়েক ঘণ্টা থেকে কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই স্বাস্থ্যের উপর কোনোরকম প্রভাব ছাড়াই রক্তে ঘাটতি পূরণ হয়ে যায়।
রক্তদান করার জন্য দাতার বয়স অবশ্যই ১৮ বছর বা তার বেশি হতে হবে। ওজন ৪৫ কেজির নিচে হলে ওই ব্যক্তি রক্তদান করতে পারবেন না। এছাড়াও যে কোনো ধরনের ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস কিংবা ছত্রাকজনীত রোগে আক্রান্ত থাকলেও ওই ব্যক্তি রক্তদান করতে পারবেন না।
গর্ভবতী ও বুকের দুধ খাওয়াচ্ছেন এমন নারীরাও রক্তদান করতে পারবেন না।
রক্তদানের দুতিন ঘণ্টা আগে পরিপূর্ণ খাবার খাওয়া উচিত যাতে রক্তে শর্করার মাত্রা স্থিতিশীল থাকে। যেহেতু শরীরের থেকে বেশ বড় মাত্রার তরল বেরিয়ে যাবে তাই রক্তদাতাকে পানি, শরবত ইত্যাদি পানীয় পান করতে হবে পর্যাপ্ত পরিমাণে, যাতে রক্তচাপ কমে না যায়।
রক্তদান করার পর কফিযুক্ত পানীয় বর্জন করতে হবে আর খেতে হবে লৌহ ও ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার ও পানীয়।
দান করা রক্ত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে ব্যবহার করা হয়। তাই প্রতি ব্যাগ রক্তই ‘এইচআইভি’, ‘হেপাটাইটিস’, ‘সিফিলিস’ এবং অন্যান্য সংক্রমণে আক্রান্ত কিনা তা পরীক্ষা করা হয়।
রক্তদাতার মাধ্যমে গ্রহীতার শরীরের যাতে নতুন কোনো রোগের জীবাণু প্রবেশ করতে না দেওয়াই এই পরীক্ষাগুলোর উদ্দেশ্য।
গড় হিসেবে একজন মানুষ তিন মাস অন্তর অন্তর রক্তদান করতে পারেন। তবে রক্তের উপাদানের ক্ষেত্রে হিসেব ভিন্ন।
যেমন অনুচক্রিকা একজন তিন দিন পর পর দান করতে পারবেন, তবে এক বছরে সর্বোচ্চ ২৪ বার দান করা যাবে।
রক্তদানকে নিয়মিত অভ্যাসে পরিণত করা উচিত প্রতিটি সুস্থ মানুষের।

 





         
   আপনার মতামত দিন
     স্বাস্থ্য-তথ্য
নির্ঘুম কাটঁতে কিছু খাবার
.............................................................................................
অতিরিক্ত লবণ তামাকের মতো ক্ষতিকর
.............................................................................................
চুল পড়া সমস্যা, মাত্র ১ মাসে চুল পড়া কমাবে
.............................................................................................
আনন্দের পাশাপাশি ঈদে ডেঙ্গু রোগীর যত্ন
.............................................................................................
কাঁঠাল পুষ্টিগুণের দিক থেকেও অনন্য
.............................................................................................
যেসব খাবার ডেঙ্গু হলে উপকারী
.............................................................................................
পানি পান যে সময়ে জরুরি
.............................................................................................
কোয়েলের ডিমের যত গুণ
.............................................................................................
ছত্রাকজনিত রোগ ও চিকিৎসা
.............................................................................................
কীভাবে বুঝবেন বাত কেন হয়
.............................................................................................
গরমে যে খাবারগুলো খাবে না
.............................................................................................
বর্ষায় পায়ের যত্ন
.............................................................................................
আখের রসে ওজন কমবে
.............................................................................................
প্রাকৃতিক উপাদানে ঠোঁটের যত্ন নিন
.............................................................................................
যে খাবার আজীবন যৌবন ধরে রাখবে
.............................................................................................
কেন পাকা আম খাবেন?
.............................................................................................
যেভাবে মুখের দুর্গন্ধ দূর করবেন
.............................................................................................
মায়েদের জন্য উপকারী খাবার
.............................................................................................
দৃষ্টিশক্তি নিয়ে যত ধারণা
.............................................................................................
বর্ষায় স্যাঁতসেঁতে ভাব দূর করতে
.............................................................................................
৭ কারণে হাত-পা অবশ হতে পারে
.............................................................................................
অতিরিক্ত ঘামের ফলে ঠান্ডার সমস্যা
.............................................................................................
প্রাকৃতিকভাবে ওজন বাড়ায় আম
.............................................................................................
পক্ষাঘাতগ্রস্ত মানুষের স্নায়ু ‘পুনর্বহাল’ সম্ভব!
.............................................................................................
বুঝেশুনে শিশুর যত্ন নিন
.............................................................................................
বাড়িতে থাকুক একটি তুলসি গাছ
.............................................................................................
ইচ্ছে হলেই ওষুধ নয়
.............................................................................................
বর্ষায় ত্বক সুস্থ রাখতে করনীয়
.............................................................................................
মহৌষধ অশ্বগন্ধা
.............................................................................................
কাঁঠালের পাঁচ গুণ
.............................................................................................
জামের ১০ উপকার
.............................................................................................
তিলের তেল দিয়ে চুলের যত্ন
.............................................................................................
রাতের খাবারের পর হাঁটলে ওজন কমে
.............................................................................................
ঘরোয়া উপায়ে গ্যাস্ট্রিক দূর করুন
.............................................................................................
মানসিক সমস্যা হতে পারে অপর্যাপ্ত ঘুমে!
.............................................................................................
কুসুম গরম পানিতে কমবে ওজন!
.............................................................................................
সারা দিন কম্পিউটার-মুঠোফোনে চোখ রাখলে যেসব ক্ষতি হতে পারে
.............................................................................................
ডেঙ্গু থেকে বাঁচতে যা করবেন
.............................................................................................
ওজন কমাবে পালংশাক
.............................................................................................
গাড়ি চালানোর সময় মনে রাখতে হবে
.............................................................................................
তেলের নানাগুণ রূপ-লাবণ্য বৃদ্ধিতে
.............................................................................................
দুই কোটি ২০ লাখ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে আজ
.............................................................................................
যা জানা জরুরি রক্তদানের আগে
.............................................................................................
মনের ক্ষুধা বনাম পেটের ক্ষুধা
.............................................................................................
এলার্জি ও শ্বাসকষ্ট হলে ভয় পাওয়ার কারণ নেই
.............................................................................................
স্ট্রোক, প্যারালাইসিস প্রতিরোধ এবং চিকিৎসা
.............................................................................................
সাধারণ পুষ্টিহীনতা এবং সমাধান
.............................................................................................
ত্বকের খুঁত ঢাকতে প্রাইমার
.............................................................................................
চল্লিশের পরও নারীর তারুণ্য ধরে রাখবে যেসব খাবার
.............................................................................................
গরমে খাবার সংরক্ষণ পুষ্টিগুণ ঠিক রেখে
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
উপদেষ্টা: আজাদ কবির
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ হারুনুর রশীদ
সম্পাদক মন্ডলীর সহ-সভাপতি: মামুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
যুগ্ম সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বার্তা সম্পাদক: মুজিবুর রহমান ডালিম
স্পেশাল করাসপনডেন্ট : মো: শরিফুল ইসলাম রানা
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]