রবিবার , ২২ মহররম ১৪৪০ | ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৭ আশ্বিন ১৪২৬ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

  
Share Button
   জাতীয়
মক্কা-মদিনাতেও প্রতারণর শিকার হাজিরা
  তারিখ: 27 - 08 - 2019

গত দশ দিন হলো দেশে ফিরছেন হাজিরা। এই হাজিদের অনেকেই পবিত্র মক্কা-মদিনায় অসাধু হজ এজেন্সি ও স্থানীয় মোয়ালে­মদের চরম অব্যবস্থাপনা ও প্রতারণার যে বর্ণনা দিচ্ছেন তা রীতিমত মর্মস্পর্শী। কেউ কেউ এয়ারপোর্টে নেমে রীতিমত কেঁদে ফেলছেন। তারা প্রতারক এজেন্সিগুলোর বিচার দাবি করছেন। উন্নত মানের বাসা,স্বাস্থ্যসম্মত ভালো খাবার ও গাইড খরচের নামে এজেন্সিগুলো নানা কৌশলে অর্থ হাতিয়ে নিলেও কাঙ্ক্ষিত সেবা পাননি হাজিরা। তাদেরকে জিম্মি করে চরম দুর্ভোগে ফেলা হয়।

অভিযোগ উঠেছে, চিকিৎসা ও পরিবহন সুবিধাসহ যেসব সুযোগ-সুবিধা হাজিদের দেওয়ার কথা ছিলো তা দেওয়া হয়নি। তাদের যে ধরনের বাড়িতে রাখার প্রতিশ্রুতি ও প্রলোভন দিয়ে সৌদি আরবে নেওয়া হয়,বাস্তবে তা হয়নি। রাখা হয় অত্যন্ত নিম্নমানের ঘরে গাদাগাদি করে। পবিত্র কাবা শরিফের কাছাকাছি বাড়ি ভাড়ার কথা বলে তাদের রাখা হয় ৫-১০ কিলোমিটার দূরবর্তী স্থানে। গাড়ির কথা বললেও সেখানে গাড়ি দেওয়া হয়নি। গাইডের অভাবেও অপরিচিত জায়গায় হাজিদের অনেক ভোগান্তিতে পড়তে হয়। আবার কিছু এজেন্সির বিরুদ্ধে হজ যাত্রীদের খাবার না দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এজেন্সিগুলো খাবার সরবরাহ বাবদ মোটা অংকের অর্থ নিলেও হাজিদের নির্ভর করতে হয়েছে বাইরে থেকে কিনে আনা খাবারের ওপর। আবার অনেকে দেশ থেকে নেওয়া চিড়া মুড়ি খেয়েই দিন পার করেছেন।কেউ কেউ সৌদি আরবে বাংলাদেশ দূতাবাস ও মক্কায় বাংলাদেশের হজ অফিসে লিখিত অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার পাননি।

বাংলাদেশ থেকে যে সব কর্মকর্তা হাজিদের সেবার কথা বলে সৌদি আরব গিয়েছিলেন তাদেরও খোঁজ পাননি কোন হাজি। মক্কা বাংলাদেশ হজ মিশনের তথ্যমতে,এ বছর বাংলাদেশ থেকে মা আম্বিয়া ও এম তাইব্যা ট্যুরস এন্ড ট্রাভেলসের মাধ্যমে হজে যাওয়া ৪১৬ জন হাজি সৌদি আরবের মক্কায় সীমাহীন মানবেতর জীবনযাপন করছেন। গতকাল পর্যন্ত ৫৬ টি বেসরকারি হজ এজেন্সির বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ পেয়েছে বাংলাদেশ হজ মিশন। ৫৬ টি বেসরকারি এজেন্সির ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে যৌথ ব্যবস্থা নিচ্ছে সৌদি-বাংলাদেশ সরকার। হজ পালন করতে গিয়ে এখন পর্যন্ত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে ৯৪ জন বাংলাদেশি ইন্তেকাল করেছেন।

রবিবার ও গতকাল সোমবার বিমান বন্দরে সাংবাদিকদের সাথে দুর্ভোগের কথা বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন কয়েকজন হাজি। খুলনা,হবিগঞ্জ,চট্টগ্রাম ও নোয়াখালীর একাধিক হাজি বলছিলেন তাদের দুর্ভোগের কথা। তারা বলেন,প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেনি অধিকাংশ এজেন্ট।কাবা থেকে বহু দূরে নিম্নমানের হোটেলে রাখা হয় তাদেরকে। যেখান থেকে পায়ে হেঁটে মক্কায় সালাত আদায় করা অসুস্থ ও বৃদ্ধদের জন্য প্রায় অসম্ভব ছিল। পলিথিনে করে গলধ:করন অযোগ্য পঁচা-বাসি খাবার দেওয়া হয় তাদেরকে। হজ গাইড লাপাত্তা থাকায় হজের কিছু রুকন ও আহকাম প্রতিপালনে সমস্যায় পড়েন তারা। পশু কোরবানি নিয়েও ছিল অস্বচ্ছতা। পশু ক্রয়ের জন্য টাকা নিয়ে হাজিদের অজ্ঞাতে কোরবানি দেওয়া হয়েছে বলে জানান তারা। কোরবানির পশুর জন্য প্রতিজনের কাছ থেকে নেওয়া হয় ৪৯০ সৌদি রিয়াল।

কেবল বেসরকারি নয়,সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ করতে যাওয়া হাজিদের খাবার মেনুতে ছিল ‘মুলার ঝোল’,বাসি-পচা খাবার। এদিকে হাজিরা দেশের ফেরার জন্য শিডিউল বিপর্যয়ের মুখে পড়েছেন। একটি বিমান যান্ত্রিক ক্রুটির কারণে গ্রাউন্ডেড হওয়ায় দুর্দশায় পড়েছেন সেই বিমানের সব হাজি। তারা কবে দেশে ফিরতে পারবেন তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।বাংলাদেশের মহিলা হাজি আমেনা খাতুন বলেন, আমরা মক্কায় এসে পৌঁছানোর পর প্রতিশ্রুতির অনেক কিছুরই মিল খুঁজে পাইনি। আমাদের পবিত্র কাবা শরীফের পাশে রাখার কথা বলেছিল কিন্তু আল্লাহর ঘর থেকে প্রায় ৮ কিলোমিটার দূরে আমাদের রাখা হয়। পবিত্র হারাম শরীফ গিয়ে জামাতের সঙ্গে নামাজ আদায় করতে খুবই কষ্ট হয়। খাবারের মান এতো নিম্ন বলার অপেক্ষা রাখে না, আরো কষ্ট হয়েছে আমাদের যে বিল্ডিং এ রাখা হয় সেখানে অনেক সময় পানি ছিল না।

বৈশাখী টেলিভিশনের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক টিপু আলম মিলন তার দুর্ভোগের চিত্র তুলে ধরে ইত্তেফাককে বলেন,বাংলাদেশ সরকার সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পবিত্র হজ পালনের জন্য প্রতিবছর নানা পদক্ষেপ নিলেও কিছু হজ এজেন্সির প্রতারণা,অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে হজযাত্রীদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়। পবিত্র কাবা শরীফের খুব কাছে থাকার ব্যবস্থা করে দিবে ফাইভ স্টারের মতো হোটেলে রাখা হবে,কিন্তু বাস্তবে কাবা থেকে কয়েক কিলোমিটার দূরে নিম্নমানের হোটেলে রাখা হয়। কাউকে কাউকে রাখা হয় পাহাড়ের ওপরে।দুই জনের ধারণক্ষমতা সম্পন্ন হোটেল কক্ষে গাদাগাদি করে রাখা হয় ৮-১০ জনকে। খাবার দেওয়া হয় পলিথিনের প্যাকেটে করে। যে খাবার খুবই নিম্নমানের। দুর্গন্ধময় বাথরুমে লাইন ধরে কয়েক ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়েছে। ডায়াবেটিস রোগী ও বয়োবৃদ্ধরা বাথরুম ব্যবহার করতে না পেরে ভয়াবহ সমস্যায় পড়েন। খাওয়ার পানি ছিলো না. বাথরুমে টিস্যু ছিলো না। রুমের ভেতর দুর্গন্ধ।

টিপু আলম মিলন বলেন,কোরবানির পশু নিয়ে সবচেয়ে অস্বচ্ছতার আশ্রয় নিয়েছেন হজ এজেন্টরা। আমাদের কাছ থেকে পশু ক্রয়ের টাকা নিয়ে আদৌ তারা কোরবানি দিয়েছেন কি না তা নিশ্চিত নই আমরা। কারণ তারা ছবি দেখিয়ে বলেছেন পাহাড়ে ছাগল রাখা আছে। আমরা সেই পশু দেখতে যেতে চাইলে তারা নানা টালবাহানা করেছেন।

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের হাজী আবদুর রহমান বলেন,আমরা হারাম শরীফ মসজিদে রাত কাটিয়েছি। মিনা যেতে হাজিদের কষ্টের শেষ ছিলনা । হাজি রহিমা খাতুন কান্না জড়িত কণ্ঠে বলছিলেন, তাদের যেখানে রাখা হয়েছিলো সেটা ছিলো খুবই নোংরা ভবন। কাফেলার হাজিদের ডায়রিয়া হয়েছিলো। তাদের কয়েকজনকে আবার রাখা হয় একটি ভবনের আন্ডার গ্রাউন্ডে। যেখানে কোনো বাতাস চলাচলের ব্যবস্থা ছিলো না। এমনকি মোবাইলের নেটওয়ার্কও ছিলো না। বৃদ্ধ হাজি আবদুল কুদ্দুস বলেন, পলিথিনে দেওয়া হয় খাবার। অনেক সময় পচা ও দুর্গন্ধযুক্ত খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন।

হাজী রহমত উল্লাহ বলেন, বাংলাদেশ দূতাবাস ও মক্কা হজ অফিসে লিখিত অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার পাওয়া যায়নি।বেসরকারি ব্যবস্থাপনার মতোই সরকারি ব্যবস্থাপনায় যারা হজে গিয়েছেন তাদের দুর্ভোগও ভয়াবহ। এ বছর বাংলাদেশ থেকে মোট ৭ হাজার ১৯৮ জন সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ পালন করতে সৌদি আরবে যান।হজের সময়ে মক্কায় সরকারি ব্যবস্থাপনায় যাওয়া ‘এ’ ক্যাটাগরির হাজিদের জন্য সরবরাহকৃত খাবারের মান নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন দেশে ফেরা কয়েকজন হাজি। প্রতিদিন দুপুরে একবেলা খাবারের জন্য হাজিদের কাছ থেকে সৌদি ১৪ রিয়াল (বাংলাদেশি টাকায় ৩১৫ টাকা) নেওয়া হলেও চাহিদামতো খাবার পাননি কোন হাজি।

বাংলাদেশ বিমানের বিজি ৩৫০৬ নং ফ্লাইটে আসা ঠাকুরগাঁয়ের ইমরান হোসেন ক্ষোভের সাথে বলেন, মূলার ঝোল আর অর্ধসিদ্ধ করলা কোনো জনমেই খাইনি। দুর্গন্ধযুক্ত গোস্ত খেয়ে অনেকে অসুস্থও হয়েছেন। এদিকে জেদ্দায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফিরতি হজ ফ্লাইটের শিডিউল বিপর্যয়ের পর হাজারো বাংলাদেশি বিপাকে পড়েছেন। জেদ্দা বিমানবন্দরে তাদের রাত কাটছে নির্ঘুম। প্রচণ্ড গরমে অসুস্থ হয়ে পড়েন অনেকে। সঙ্কট কাটাতে শিডিউল ফ্লাইট বাদ দিয়ে ’এয়ার এশিয়া’র ভাড়া (লিজ) করা বিমানে কিছুসংখ্যক হাজিকে দেশে পাঠানো গেলেও আসনসংখ্যা কম হওয়ায় নতুন সমস্যা দেখা দেয়। গতকালও ঢাকা-জেদ্দা ও ঢাকা-রিয়াদ রুটে হজ এবং শিডিউল ফ্লাইট নির্ধারিত সময়ের অনেক দেরিতে ছেড়ে গেছে।

এদিকে বাংলাদেশের ধর্ম মন্ত্রণালয় প্রকাশিত বুলেটিনে জানানো হয়, ২৫ আগস্ট পর্যন্ত পবিত্র হজ পালন শেষে ৩৮ হাজার ৬১৬ জন হাজি দেশে ফিরেছেন। মোট ১০৬টি ফ্লাইটে তারা দেশে ফেরেন। এর মধ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে ৪৫টি ও সৌদি এয়ারলাইন্সে ৬১টি রয়েছে।

চলতি বছর সরকারি-বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১ লাখ ২৬ হাজার ৯২৩ জন হজে যান। গত ১০ আগস্ট পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হয়। ১৭ আগস্ট থেকে ফিরতি হজ ফ্লাইট শুরু হয়েছে। চলবে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।





         
   আপনার মতামত দিন
     জাতীয়
ট্রেন যোগাযোগ ব্যবস্থাকে আরো গতিশীল করার কাজ চলছে: রেলমন্ত্রী
.............................................................................................
যোগ্য ব্যক্তির আবেগ প্রগতির জন্য অপরিহার্য: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী
.............................................................................................
রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠাতে কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোকে সহযোগিতার আহবান
.............................................................................................
আজ নিউইয়র্ক যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
ডাক্তার-ফার্মাসিস্টদের একযোগে কাজ করার আহ্বান স্পিকারের
.............................................................................................
স্থলবন্দরগুলোকে আরো গতিশীল করার নির্দেশ নৌ-প্রতিমন্ত্রীর
.............................................................................................
রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের জন্য একটি বড় ধরনের বোঝা: প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
নার্সিং প্রশিক্ষণ আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করা হবে: প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
দ্রুত শতভাগ খতিয়ান অনলাইনে আপলোড করা হবে: ভূমিমন্ত্রী
.............................................................................................
নদী আমাদের মায়ের মতো: পরিকল্পনামন্ত্রী
.............................................................................................
জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি হলেন রাবাব ফাতেমা
.............................................................................................
সরকার ২০৩০ সালের মধ্যে এসডিজি লক্ষ্য অর্জনে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ: স্পিকার
.............................................................................................
এপর্যন্ত ৩৭টি পদক অর্জন করেছেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
মানব পাচারে জড়িত দালাল চক্রের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ
.............................................................................................
এখন বাংলাদেশেই বিশ্ব মানের শিক্ষা অর্জন সম্ভব: পানিসম্পদ উপমন্ত্রী
.............................................................................................
কর ন্যায্যতাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার: পরিকল্পনামন্ত্রী
.............................................................................................
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ব্রিটিশ এমপিদের সহায়তা চেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
ঢাকা ডেন্টাল কলেজকে বিশ্ববিদ্যালয় করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
৫ অক্টোবর দিল্লিতে হাসিনা-মোদী বৈঠক
.............................................................................................
সরকার খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য নিরলসভাবে কাজ করছে: কৃষিমন্ত্রী
.............................................................................................
আজ বিশ্ব ওজন দিবস
.............................................................................................
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে জাপানের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ সফরে বিমানবন্দরে প্রটোকল নিয়ে নতুন নির্দেশনা
.............................................................................................
কোটি টাকা ঘুষ দিয়েও প্রাথমিকের শিক্ষক হওয়া সম্ভব নয়: ফিজার
.............................................................................................
রেলের উন্নয়নে সরকার মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে: রেলমন্ত্রী
.............................................................................................
বরিশালে ছিনতাই হওয়া পাঁচ মণ ইলিশসহ গ্রেফতার ৩
.............................................................................................
সবার আস্থা ও গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করেছে ফায়ার সার্ভিস: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
পরিবেশ দূষণের প্রভাব বিবেচনায় নিয়ে গাড়ি আমদানীর ক্ষেত্রে ট্যাক্স নির্ধারণের প্রস্তাব
.............................................................................................
নবম ওয়েজবোর্ডের গেজেট প্রকাশ: ৮৫ শতাংশ বৃদ্ধি করে নতুন বেতন কাঠামো
.............................................................................................
সৈয়দ আশরাফের অসমাপ্ত কাজ বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীর
.............................................................................................
 সুষ্ঠু শ্রম অভিবাসনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সংশ্লিষ্টদের ঐক্য চান প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী
.............................................................................................
দেশের ৯২ শতাংশ মানুষ বিদ্যুৎ সুবিধা পাচ্ছে: স্পিকার
.............................................................................................
সারাদেশে স্বাভাবিকভাবেই সার-বীজ বিতরণ হচ্ছে: কৃষিমন্ত্রী
.............................................................................................
প্রতিটি ইউনিয়নে ভূমি অফিস ভবন নির্মাণ করা হবে: ভূমিমন্ত্রী
.............................................................................................
ড্রোন আমদানির নীতিমালা করছে সরকার: পর্যটন প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
মাতৃত্বকালীন ছুটি ৬ মাস থেকে ৮ মাস করা হবে: ডেপুটি স্পিকার
.............................................................................................
দেশের প্রথম সৌরবিদ্যুৎকেন্দ্রের যাত্রা শুরু
.............................................................................................
নৌপথ খননের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী খুবই আন্তরিক: খালিদ মাহমুদ
.............................................................................................
রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে চীনের ভূমিকা আরও জোরালো হবে: চীনা রাষ্ট্রদূত
.............................................................................................
প্রতিবন্ধী, বেদে ও হিজড়াদের ঘর দেবে সরকার: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
জাতির প্রতি দায়বদ্ধতা থেকে দিনরাত পরিশ্রম করছি: সংসদে প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
বিশ্বের শীর্ষ নারী নেত্রীদের তালিকায় শেখ হাসিনা
.............................................................................................
নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশন সমস্যার সমাধানে সরকার বদ্ধপরিকর: পরিকল্পনামন্ত্রী
.............................................................................................
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কেনিয়ার হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ
.............................................................................................
সংসদে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি বিএনপি’র এমপি হারুনের কৃতজ্ঞতা
.............................................................................................
সংসদে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট (সংশোধন) বিল, ২০১৯ উত্থাপন
.............................................................................................
শিক্ষাখাতে অনিয়মকারীদের চিহ্নিত করে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে: শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
সরকার পাট খাতের সমস্যা সমাধানে সচেষ্ট: পাটমন্ত্রী
.............................................................................................
প্রয়োজনে অবৈধ দখল উচ্ছেদ করা হবে: রেলমন্ত্রী
.............................................................................................
সংসদ অধিবেশন শুরু, চলবে ১২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
উপদেষ্টা: আজাদ কবির
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ হারুনুর রশীদ
সম্পাদক মন্ডলীর সহ-সভাপতি: মামুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
যুগ্ম সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বার্তা সম্পাদক: মুজিবুর রহমান ডালিম
স্পেশাল করাসপনডেন্ট : মো: শরিফুল ইসলাম রানা
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]