| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

  
Share Button
   অর্থ-বাণিজ্য
৯ মাসেও চালু হয়নি জামালপুরে যমুনা ইউরিয়া সার কারখানায়
  তারিখ: 07 - 09 - 2019

 জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ি উপজেলার তারাকান্দি অবস্থিত দেশের সর্ববৃহৎ দানাদার ইউরিয়া সার উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান যমুনা সার কারখানা। কারখানাটি গত ৯ মাস যাবত অ্যামোনিয়া গ্যাস প্লান্টের কনভার্টার হিটারে ভয়াবহ অগ্নিকা-ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে বন্ধ রয়েছে সার কারখানা। কিন্তু বিকল্প পন্থায় কারখানাটি চালু করতে ইউরোপ থেকে প্রসেস লাইসেন্সর একদল বিশেষজ্ঞ নিয়ে এলেও আজও কারখানা চালু করা সম্ভব হয়নি। ফলে হাজার কোটি টাকা লোকসান গুনতে হচ্ছে কারখানাটির। অপর দিকে কারখানা বন্ধ থাকায় কারখানা সংশ্লিষ্ট প্রায় ৩৫হাজার শ্রমিক-কর্মচারীসহ পরিবহন সংশ্লিষ্ট আরো প্রায় ৫ হাজার শ্রমিক বেকার হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা যায়, ১০১৮ সালের ২৭ নভেম্বর ভোর ৬টা কারখানায় অ্যামোনিয়া গ্যাস প্লান্টের কনভার্টার হিটারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় ২০০ কোটি টাকার বেশি ক্ষতি গ্রস্ত হয়। ফলে কারখানার উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়। ফলে বিকল্প পন্থায় কারখানাটি চালু করতে ইউরোপ থেকে প্রসেস লাইসেন্সর একদল বিশেষজ্ঞ আনা হয়। কিন্তু কারখানাটি চালু করতে ৩৩২ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রার প্রয়োজন হয়। সেখান ইরোপিয়ান বিশেষজ্ঞ দর ২৮০ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা তুলতে সক্ষম হলেও কারখানাটি চালু করা সম্ভব হয়নি। ফলে ইউরোপীয় বিশেষজ্ঞ দলকে ৬৬ হাজার ইউরোর অথাৎ আরো কয়েকশ’ কোটি টাকা বিল দিতে হচ্ছে বলে স্বীকার করেছেন কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও এক বৎসর কারখানা বন্ধ থাকলে ক্ষতির পরিমাণ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে বলে ধারণা করছেন কারখানা সংশিষ্টরা।

এ ছাড়া কারখানা চালু অবস্থায় অ্যামোনিয়া তরল গ্যাস ডিলারদের মাধ্যমে বাজারে বিক্রি করা হইতো। কিন্তু কারখানা বন্ধ থাকায় গ্যাসের চাহিদা বেড়ে গেছে ফলে এর প্রভাব পড়েছে বাজারেও। ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বিসিআইসির ডিলাররা। অপরদিকে জেএফসিএল শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়ন এর সাবেক সাধারন সম্পাদক মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন, শ্রমিক নেতা মো. জাহিদুর রহমান জানান, কারখানা বন্ধ থাকায় প্রায় ৩০ থেকে ৩৫ হাজার কারখানা সংশ্লিষ্ট শ্রমিক-কর্মচারী বেকার হয়ে তারা মানবেতর জীবন যাপন করছে বলে জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে তারাকান্দির পরিবহন শ্রমিক নেতা মাসুদ আলী জানান- কারখানা এলাকায় প্রায় ৬শ ট্রাক আছে, প্রতিদিন ৩ থেকে ৪ শ ট্রাকে সার পরিবহন করা হয়ে থাকে। কারখানা বন্ধ থাকার কারণে পরিবহন সংশ্লিষ্ট ট্রাকের চালক-হেলপার,ট্রাক মালিকরাসহ আরো প্রায় ৫ হাজার শ্রমিক বেকার হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। এদিকে জামালপুর, শেরপুর, টাঙ্গাইল জেলা এবং উত্তরবঙ্গের ১৬টি জেলাসহ, মোট ১৯ জেলায় এ কারখানার আওতাধীন উৎপাদিত যমুনা দানাদার ইউরিয়া সার সরবরাহ করা হয়ে থাকে। এবার জামালপুরসহ দেশের উত্তরাঞ্চল জেলা গুলো মধ্যে ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কৃষক। তাদের ক্ষতি পুশিয়ে নিতে পানি নামার সাথে সাথেই বিভিন্ন ফসল উৎপাদনে ব্যস্ত হয়ে পড়বেন। তাই কৃষকরা চাহিদা অনুযায়ী সার না পেলে তাদের ফসল উৎপাদন ব্যাহতের আশঙ্কা রয়েছে। অপরদিকে দীর্ঘদিন কারখানা বন্ধ থাকায় আগামি ইরি-বোরো মৌসুমে সার সংকট দেখা দিতে পারে,এমন হতাশা ব্যক্ত করেছেন বিসিআইসির ডিলাররাসহ অনেকেই। কারখানা সুত্রে জানাযায়, যমুনা সার কারখানাটি ১৯৯১ইং সালের ৩১ ডিসেম্বর থেকে সার উৎপাদনে যায়। তখন থেকেই ১হাজার ৭ শত মেঃ টন ইউরিয়া সার উৎপাদন হয়ে আসছিল। কিন্তু যন্ত্রপাতি পুরনো হওয়া এবং চাহিদার তোলনায় তিতাসগ্যাস সরবরাহ না থাকার কারণে গড়ে সার উৎপাদন নেমে এসেছিল ১ হাজার ৬শত মেঃ টনে। সে হিসাব অনুযায়ী গত ৯ মাসে সার উৎপাদন ব্যাহত হয়েছে প্রায় ৪ লাখ ৩২ হাজার মেঃ টন। এসব সারের চাহিদা পুরণের জন্য সরকারী ভাবে বিদেশ থেকে আমদানি করা হয়েছে ৩ লাখ ৫৫ হাজার ৮ মেঃ টন ইউরিয়া সার। সরেজমিনে দেখাগেছে, কারখানা বাল্ক স্টোরে সারের বস্তা রাখার কোন প্রকার নিয়ম না থাকলেও বাল্ক স্টোরে ১২৭ মেঃ টন গুটি ইউরিয়া রাখা হয়েছে। এ ছাড়া কারখানায় দুটি মাত্র গুদামে রয়েছে। গুদাম দুইটিতে ১২ হাজার মেঃ টন সার মজুদ রাখা সম্ভব হয়েছে। অবশিষ্ট আমদানি করা ২৮ হাজার ৮১ মেঃ টন ইউরিয়া সার মূল কারখানার ভেতরে প্রশাসনিক ভবনের সামনে রাস্তায়, খোলা আকাশের নিচে রাখা হয়েছে। খোলা আকাশের নীচে রাখা বিপুল পরিমাণ ইউরিয়া সার রোদ পুড়ে বৃৃষ্টিতে ভিজে গলে জমাট বেঁধে নষ্ট হচ্ছে।

এ বিষয়ে বিসিআইসির ডিলার আবুল হোসেন সরকার বলেন বিদেশ থেকে আমদানি করা সার তোলনা মুলক ভাবে মানহীন এবং নি¤œমানের। এই সার ব্যবহার করে কৃষকরা আশানুরূপ ফসল না হওয়ায় সার নিতে চরম অনীহা প্রকাশ করেন কৃষকরা। ট্রাক ও ট্যাংক লরি মালিক সমিতি তারাকান্দি শাখার সভাপতি আশরাফুল আলম মানিক বলেন, আমদানীকৃত ইউরিয়া সারের মান অত্যন্ত খারাপ। ট্রাকে তোলার সময় অনেক বস্তা থেকে পানি ঝরে। সার ডিলারদের গুদামে নিয়ে গেলে তারা নিতে চান না। এ সংক্রান্ত বিষয়ে যমুনা সার কারখানার ব্যবস্থাপক (বাণিজ্যিক) ওয়ায়েছুর রহমান এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, চাহিদানুযায়ী ইউরিয়া সার মজুদ রয়েছে। ফলে কৃষক পর্যায়ে ইউরিয়া সার নিয়ে কোন সংকট হবে না। তিনি আরও বলেন, টানা কয়েক মাস সার রাখা হলে নিচের কিছু বস্তা নষ্ট হতে পারে। তবে সার জমাট বেঁধে গেলেও এর গুণগত মান নষ্ট হয় না বলে জানান। এ বিষয়ে কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক খান জাভেদ আনোয়ারের কাছে কারখানা চালু করা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সার কারখানা স্থাপনকারী প্রতিষ্ঠান জাপানের মিট সু বিসি হ্যাপি ইন্ডাস্ট্রিয়াল করপোরেশন। সেই মিতসুবিশি কোম্পনীর সঙ্গে বিসিআইসির যোগাযোগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে।

স্টার্ট অফ হিটারটি তৈরীর জন্য প্রতিষ্ঠানটি ফেব্রিকেশনের কাজ করছে। বিশেষজ্ঞ দলের একটি টিম সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি আসার কথা রয়েছে এবং অক্টোবরে আরও একটি দল স্টাট অফ হিাটরসহ অন্যান্য যন্ত্রংশ নিয়ে কারখানা আসবেন। নভেম্বরে মেরামতের কাজ শেষ হলে ডিসেম্বরে কারখানা সার উৎপাদনে যাবে বলে আশা প্রকাশ করছেন তিনি।





         
   আপনার মতামত দিন
     অর্থ-বাণিজ্য
সরবরাহ বাড়লেও কমছে না ইলিশের দাম
.............................................................................................
আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সিদ্ধান্ত গ্রহণে দক্ষিণের আরো ভূমিকায় চায় বাংলাদেশ
.............................................................................................
এডিবি ২০২০-২২ অর্থবছরে বাংলাদেশকে পাঁচ বিলিয়ন ডলার অর্থ সহায়তা দেবে
.............................................................................................
বাধা কাটলে সিআইএসভুক্ত দেশগুলোতে রপ্তানি বাড়বে: বাণিজ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
ভরিতে স্বর্ণের দাম ১ হাজার ১৬৬ টাকা কমলো
.............................................................................................
শেয়ার কেনা-বেচার কার্যক্রম সরাসরি দেখতে চায় বিএসইসি
.............................................................................................
ভারতের অন্যান্য রাজ্যতেও যেতে পারে ত্রিপুরায় এলপিজি রপ্তানি করবে বাংলাদেশ
.............................................................................................
১০০ অর্থনৈতিক অঞ্চলে ব্যাংকগুলোকে সম্পৃক্ত করার সুপারিশ
.............................................................................................
বিমানের চতুর্থ ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ আসছে বৃহস্পতিবার
.............................................................................................
বাংলাদেশে বিএমডব্লিউ-মার্সিডিজ গাড়ির অ্যাসেম্বল করতে চায় জার্মানি: অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................
৯ মাসেও চালু হয়নি জামালপুরে যমুনা ইউরিয়া সার কারখানায়
.............................................................................................
ডিপিডিসির বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করা যাবে বিকাশে
.............................................................................................
পোশাক খাতেকে এগিয়ে নিতে অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে: শিল্পমন্ত্রী
.............................................................................................
এসএফ ডেনিমের ৭০০ শ্রমিক এক সঙ্গে চাকরি হারালেন
.............................................................................................
দেশের ২১ স্থানে সড়ক রক্ষায় এক্সেল লোড বসানোর প্রস্তাব
.............................................................................................
৬৬ প্রতিষ্ঠান পেলো জাতীয় রফতানি ট্রফি
.............................................................................................
জনতা ব্যাংকে এক বছরে দ্বিগুণেরও বেশি খেলাপি ঋণ বেড়েছে
.............................................................................................
প্রতিযোগিতামূলক বাজারে টিকে থাকতে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার নিশ্চিতের আহ্বান
.............................................................................................
বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তির মাধ্যমে ১৪২ কোটি টাকার রাজস্ব আয়
.............................................................................................
দেশে বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম উৎপাদনে কোম্পানি গঠন করা হচ্ছে
.............................................................................................
উদ্যোগ বস্তবায়ন হলে খেলাপি ঋণ কমবে: অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................
৩৬ কোম্পানির ৩ হাজার ৩শ’ ৯০ কোটি টাকার ভ্যাট ফাঁকি
.............................................................................................
টাকা তুলে নিচ্ছেন গ্রাহক
.............................................................................................
দারিদ্র্য বিমোচন ও আর্থসামাজিক উন্নয়নের প্রাণিসম্পদ
.............................................................................................
এখন থেকে নিজের আয়ে চলতে হবে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোকে: অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................
চার রাষ্ট্রীয় ব্যাংকে পুনঃঅর্থায়ন করা হবে না: অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................
চিনিশিল্পের দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের অপসারণের সুপারিশ
.............................................................................................
পণ্য আমদানি বাড়াতে উরুগুয়ের প্রতি আহ্বান বাণিজ্যমন্ত্রীর
.............................................................................................
চামড়া ব্যবসায়ীদের পাওনা ৩ কিস্তিতে পরিশোধের সিদ্ধান্ত
.............................................................................................
গ্রামীণফোন ও রবির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে বিটিআরসি
.............................................................................................
একনেকে তথ্য ভান্ডার সুরক্ষাসহ ১২ প্রকল্পের অনুমোদন
.............................................................................................
কোরিয়ান ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান অর্থমন্ত্রীর
.............................................................................................
নতুন নীতিমালা আসছে ব্যাংকের তহবিল ব্যয় হিসাবে
.............................................................................................
১৭৫ কোটি ডলারের রেমিট্যান্স ১০ দিনে
.............................................................................................
৯ দিন বন্ধের পর স্থলবন্দরগুলোতে আমদানি-রফতানি শুরু
.............................................................................................
চামড়া কেনা শুরু করেছেন ট্যানারি মালিকরা, বিক্রি না করার ঘোষণা আড়তদারদের
.............................................................................................
চামড়া সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হয়নি, রপ্তানি আয় কমার শঙ্কা
.............................................................................................
১১ কোম্পানির ১৩ পণ্যের অনুমোদন বাতিল
.............................................................................................
১২৮০ কোটি টাকার ৪ ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন
.............................................................................................
কোরবানীর পশুর চামড়ার দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার
.............................................................................................
ট্রলার বোঝাই গরু আসছে মিয়ানমার থেকে
.............................................................................................
এটিএম বুথে ঈদের ছুটিতে পর্যাপ্ত টাকা রাখার নির্দেশ
.............................................................................................
ঈদ সামনে রেখে বেড়েছে রেমিট্যান্স, জুলাইয়ে এসেছে ১৬০ কোটি ডলার
.............................................................................................
ঈদে পোশাক শ্রমিকদের পর্যায়ক্রমে ছুটি ঘোষণা
.............................................................................................
ডিএসইর সূচক বাড়লেও কমেছে সিএসইতে
.............................................................................................
চট্রগ্রাম বন্দরে পৌঁছেছে রেলওয়ের ২৬টি নতুন কোচ
.............................................................................................
অনলাইনে ভ্যাট নিবন্ধনের সময় বাড়লো
.............................................................................................
আম উৎপাদনে বিশ্বে ৭ম ও পেয়ারা উৎপাদনে ৮ম বাংলাদেশ
.............................................................................................
ভ্রমণে জানুয়ারি থেকে সঙ্গে নেওয়া যাবে ১২০০০ ডলার
.............................................................................................
রেমিট্যান্স পাঠালেই সবাই প্রণোদনা পাবে: অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
উপদেষ্টা: আজাদ কবির
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ হারুনুর রশীদ
সম্পাদক মন্ডলীর সহ-সভাপতি: মামুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
যুগ্ম সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বার্তা সম্পাদক: মুজিবুর রহমান ডালিম
স্পেশাল করাসপনডেন্ট : মো: শরিফুল ইসলাম রানা
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]