সারাদেশ
মতলব উত্তরে সরকারি রাস্তার ইট তুলে নেওয়ার অভিযোগ ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে
তারিখ: 18 - 11 - 2020


চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলায় এক ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান সরকারি রাস্তার ইট তুলে নিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি উপজেলার ফতেপুর পূর্ব ইউনিয়নের বারহাতিয়া গ্রামের। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা।


আজ মঙ্গলবার স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফতেপুর পূর্ব ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বারহাতিয়া মেইন রোড থেকে গ্রামের ভেতর হয়ে কাঁঠাল বাগান পর্যন্ত আড়াই কিলোমিটার সড়ক। সেখান থেকে ইউপি চেয়ারম্যান আজমল হোসেন চৌধুরীর নাম করে তার লোকেরা ইট তুলে নিয়েছেন। গ্রামবাসীরা কিছু জানতে চাইলে চেয়ারম্যানের সঙ্গে কথা বলতে বলেন ওই লোকগুলো।

গ্রামবাসীরা অভিযোগ করেন, আজমল চেয়ারম্যানের লোকজন ইট খুলে নিচ্ছে। কিছু জিজ্ঞেস করলে বলে, তারা কিছু জানে না, চেয়ারম্যান ইট খুলে নিয়ে যেতে বলেছে। ফলে এখন গ্রামের প্রধান সড়কটি অচল হয়ে গেছে।

ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি শাহজাহান সরকার বলেন, ২০১৮ সালের মাঝামাঝি সময়ে এই রাস্তাটি ইটের হেরিংবন দিয়ে মেরামত করা হয়। ফলে দুই বছর ধরে সড়কটি দিয়ে সবাই চলাফেরা করতে পারছে। কিন্তু এখন চেয়ারম্যানের লোকজন ইট খুলে নিয়ে যাওয়ায় রাস্তাটি আবার চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি ও ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি আবুল হাসনাত জানান, রাস্তার কাজ হলে সেটা রাষ্ট্রের সম্পদ হয়ে যায়। এই রাস্তায় অবৈধভাবে কারো হাত দেয়ার ক্ষমতা নেই।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান আজমল হোসেন চৌধুরী বলেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করেই রাস্তা থেকে ইট খুলে নিচ্ছেন।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. আওরঙ্গজেব বলেন, তার সঙ্গে কেউ যোগাযোগ করেনি। রাস্তার ইটে হাত দেয়ার ক্ষমতা কারো নেই।

স্বাধীন বাংলা ডট কম
প্রকাশক কর্তৃক ৩৭/২, ফায়েনাজ অ্যাপার্টমেন্ট (১৫ম তলা), কালভার্ট রোড, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত ।
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: ৩৭/২, ফায়েনাজ অ্যাপার্টমেন্ট (১৫ম তলা), কালভার্ট রোড, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।
ফোন : ০২-৯৫৬২৮৯৯ মোবাইল: ০১৬৭০-২৮৯২৮০
ই-মেইল : swadhinbangla24@gmail.com
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ ( সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় )
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ মো: হারুনুর রশীদ
সম্পাদক ও প্রকাশক মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী
ইউরোপ মহাদেশ বিষয়ক সম্পাদক- প্রফেসর জাকি মোস্তফা (টুটুল)