বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
মাদক-সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ রুখতে স্কাউটদের এগিয়ে আসার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

 মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ রুখতে স্কাউটদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। গতকাল সোমবার গাজীপুরের মৌচাকে নবম জাতীয় কাব ক্যাম্পুরীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ আহ্বান জানান তিনি। বাংলাদেশের চিফ স্কাউট আবদুল হামিদ বলেন, আমি আশা করি মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, বাল্য-বিবাহ ও ধর্মান্ধতা রোধসহ সামাজিক জনসচেতনতা সৃষ্টিতে স্কাউটরা বরাবরের মতো নিজেদের সক্রিয় রাখবে। কাব স্কাউটদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আগামী দিনে তোমরাই বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেবে। তোমরাই জাতির পিতার স্বপ্নের ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত, ধর্মনিরপেক্ষ উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণ করবে। সব সময় মনে রাখতে হবে অনেক ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত এ দেশ আমাদের। এজন্য তোমাদের যোগ্য ও দক্ষ হয়ে গড়ে উঠতে হবে। সমাজসেবা, সমাজ উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে তোমরা সক্রিয় ভূমিকা রাখবে। বৃক্ষরোপণ, পরিবেশ ও জীব-বেচিত্র্য সংরক্ষণ, জলবায়ুর উষ্ণতারোধে জনসচেতনতা তৈরিতে ভূমিকা রাখবে। বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, ভবন ধস ও ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় উদ্ধার কাজে তথা জাতীয় দুর্যোগে স্কাউটদেরকে সবার আগে এগিয়ে আসতে হবে। স্কাউটদের সেবাধর্মী কার্যক্রম ভবিষ্যতে আরও বিস্তৃতি লাভ করবে বলে আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি। স্কাউটদের কঠোর পরিশ্রম করার তাগিদ দিয়ে আবদুল হামিদ বলেন, স্কাউটিং একজন শিক্ষার্থীকে লেখাপড়ার পাশাপাশি সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে হাতে কলমে শিক্ষা দেয়। স্কাউটিংকে দেশসেবা ও মানবিক কল্যাণে কাজে লাগাতে হবে। স্কাউটিং এর শিক্ষা ব্যক্তি, পরিবার ও সামাজিক জীবনে প্রতিফলিত করা গেলে জাতীয় উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে। জীবনে বড় হতে হলে কঠোর পরিশ্রম আর অনুশীলনের বিকল্প নেই। সরকার ঘোষিত উন্নয়ন যাত্রায় জনগণকে সম্পৃক্ত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজকে পরিপূর্ণতা দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘ভিশন ২০২১’, ‘ভিশন ২০৪১’ এবং শতবর্ষ মেয়াদি ‘ব-দ্বীপ পরিকল্পনা ২১০০’ গ্রহণ করেছেন। জাতিসংঘ ‘টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ট ২০৩০’ অর্জনসহ ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করা এসব মহাপরিকল্পনার উদ্দেশ্য। তবে উন্নয়নকে এগিয়ে নিতে জনগণকে ইতিবাচক, আধুনিক ও বিজ্ঞানমনস্ক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে উন্নয়ন যাত্রায় সামিল হতে হবে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক, বাংলাদেশ স্কাউটসের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, প্রধান জাতীয় কমিশনার ও দুদক কমিশনার মোজাম্মেল হক খান। ক্যাব কাম্পুরী উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট ও খাম অবমুক্ত করেন রাষ্ট্রপতি। এ ছাড়া ৪৮ জনকে প্রেসিডেন্ট’স স্কাউট অ্যাওয়ার্ড এবং চারজনকে প্রেসিডেন্ট`স রোভার স্কাউট অ্যাওয়ার্ড দেন তিনি।

মাদক-সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ রুখতে স্কাউটদের এগিয়ে আসার আহ্বান রাষ্ট্রপতির
                                  

 মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ রুখতে স্কাউটদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। গতকাল সোমবার গাজীপুরের মৌচাকে নবম জাতীয় কাব ক্যাম্পুরীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ আহ্বান জানান তিনি। বাংলাদেশের চিফ স্কাউট আবদুল হামিদ বলেন, আমি আশা করি মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, বাল্য-বিবাহ ও ধর্মান্ধতা রোধসহ সামাজিক জনসচেতনতা সৃষ্টিতে স্কাউটরা বরাবরের মতো নিজেদের সক্রিয় রাখবে। কাব স্কাউটদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আগামী দিনে তোমরাই বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেবে। তোমরাই জাতির পিতার স্বপ্নের ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত, ধর্মনিরপেক্ষ উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণ করবে। সব সময় মনে রাখতে হবে অনেক ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত এ দেশ আমাদের। এজন্য তোমাদের যোগ্য ও দক্ষ হয়ে গড়ে উঠতে হবে। সমাজসেবা, সমাজ উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে তোমরা সক্রিয় ভূমিকা রাখবে। বৃক্ষরোপণ, পরিবেশ ও জীব-বেচিত্র্য সংরক্ষণ, জলবায়ুর উষ্ণতারোধে জনসচেতনতা তৈরিতে ভূমিকা রাখবে। বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, ভবন ধস ও ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় উদ্ধার কাজে তথা জাতীয় দুর্যোগে স্কাউটদেরকে সবার আগে এগিয়ে আসতে হবে। স্কাউটদের সেবাধর্মী কার্যক্রম ভবিষ্যতে আরও বিস্তৃতি লাভ করবে বলে আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি। স্কাউটদের কঠোর পরিশ্রম করার তাগিদ দিয়ে আবদুল হামিদ বলেন, স্কাউটিং একজন শিক্ষার্থীকে লেখাপড়ার পাশাপাশি সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে হাতে কলমে শিক্ষা দেয়। স্কাউটিংকে দেশসেবা ও মানবিক কল্যাণে কাজে লাগাতে হবে। স্কাউটিং এর শিক্ষা ব্যক্তি, পরিবার ও সামাজিক জীবনে প্রতিফলিত করা গেলে জাতীয় উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে। জীবনে বড় হতে হলে কঠোর পরিশ্রম আর অনুশীলনের বিকল্প নেই। সরকার ঘোষিত উন্নয়ন যাত্রায় জনগণকে সম্পৃক্ত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজকে পরিপূর্ণতা দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘ভিশন ২০২১’, ‘ভিশন ২০৪১’ এবং শতবর্ষ মেয়াদি ‘ব-দ্বীপ পরিকল্পনা ২১০০’ গ্রহণ করেছেন। জাতিসংঘ ‘টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ট ২০৩০’ অর্জনসহ ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করা এসব মহাপরিকল্পনার উদ্দেশ্য। তবে উন্নয়নকে এগিয়ে নিতে জনগণকে ইতিবাচক, আধুনিক ও বিজ্ঞানমনস্ক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে উন্নয়ন যাত্রায় সামিল হতে হবে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক, বাংলাদেশ স্কাউটসের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, প্রধান জাতীয় কমিশনার ও দুদক কমিশনার মোজাম্মেল হক খান। ক্যাব কাম্পুরী উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট ও খাম অবমুক্ত করেন রাষ্ট্রপতি। এ ছাড়া ৪৮ জনকে প্রেসিডেন্ট’স স্কাউট অ্যাওয়ার্ড এবং চারজনকে প্রেসিডেন্ট`স রোভার স্কাউট অ্যাওয়ার্ড দেন তিনি।

ডেইরি সেক্টরের উন্নয়নে ৫০০ কোটি টাকার প্রকল্প: প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী
                                  

জাতির মেধা বিকাশে প্রাণিজ আমিষের বিকল্প নেই। সুস্বাস্থ্য ও মেধায় অগ্রগামী হতে না পারলে, দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। উন্নয়নের ধারাবাহিতকা ধরে রাখতে উন্নত শিক্ষা ও গবেষণা দরকার। দেশের প্রাণিজ আমিষের একটা অংশ পোল্ট্রি সেক্টর থেকে আসে। কিন্তু প্রাণিজ আমিষের অন্যতম ডেইরি সেক্টর তুলনামূলকভাবে পিছিয়ে আছে। তবে ডেইরি সেক্টরের উন্নয়নে ৫০০ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার।

প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে দেশে দুধের ঘাটতি মেটানো সম্ভব হবে। গতকাল শনিবার সকালে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন মিলায়তনে বাংলাদেশ অ্যানিমেল হাজবেন্ড্রি অ্যাসোসিয়েশনের (বাহা) দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খসরু। সম্মেলনে ‘বাংলাদেশে নিরাপদ প্রাণিজ আমিষ উৎপাদনের দৃষ্টিভঙ্গি’ নিয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পশুপুষ্টি বিভাগের অধ্যাপক ড. খান মো. সাইফুল ইসলাম। মূল প্রবন্ধে তিনি বলেন, গত ১০ বছরে বাংলাদেশে মানুষের খাদ্যাভ্যাসের সঙ্গে প্রাণিসম্পদেরও আমূল পরিবর্তন এসেছে। বাংলাদেশে প্রাণিসম্পদের পরিমাণ প্রায় ২৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। দুধ, ডিম ও মাংসের উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় পাঁচ গুণ। বর্তমানে দেশের মানুষ মাথাপিছু গড়ে প্রতিদিন ১৬৫ মিলি দুধ, ১২৫ গ্রাম মাংস এবং বছরে ১০৪টি ডিম খেতে পারছে। প্রাণিসম্পদের এ উন্নয়নে পশুপালন গ্র্যাজুয়েটদের অবদান অনস্বীকার্য। তবে উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি খাদ্য নিরাপত্তায় জোর দিতে হবে।

এছাড়াও সম্মেলনের টেকনিক্যাল সেশনে ৫০টি গবেষণাপত্র উপস্থাপন করা হয়। সম্মেলনে বাহার সভাপতি ও পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেনের সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাকৃবির ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. জসিমউদ্দিন খান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য মো. জাকির হোসেন আকন্দ, পশুপালন অনুষদের ডিন এবং বাকৃবি ডিন কাউন্সিলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মো. নুরুল ইসলাম, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. আবদুল জব্বার শিকদার এবং বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. নাথু রাম সরকার।

টেকসই উন্নয়ন ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ ঘনিষ্টভাবে জড়িত: খাদ্যমন্ত্রী
                                  

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি বলেছেন, প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ ও টেকসই উন্নয়ন ঘনিষ্টভাবে জড়িত। তিনি আরো বলেন, নিত্য নতুন টেকসই প্রযুক্তি উদ্ভাবনের মাধ্যমে প্রাকৃতিক সম্পদকে মানুষের কল্যাণে ব্যবহার করতে হবে। গতকাল শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তনের সেমিনার হলে বাংলাদেশ বোটানিক্যাল সোসাইটির আয়োজনে ‘বার্ষিক বোটানিক্যাল সম্মেলন’ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ বোটানিক্যাল সোসাইটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এম আবদুল গফুরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপাচার্য ড. ফারজানা ইসলাম, বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক জেড এন তাহমিদা বেগম ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মো. আমির হোসেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ বোটানিক্যাল সোসাইটির সাংগঠনিক সভাপতি অধ্যাপক ড. ফিরোজ হোসেন, সাংগঠনিক সচিব অধ্যাপক ড. এম মাহফুজুর রহমান ও উদ্ভিদবিজ্ঞাণ বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. নুহু আলম।

সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, দেশের মানুষের খাদ্য-পুষ্টির চাহিদা পূরণ, দারিদ্র্য বিমোচন, প্রচলিত ও অল্প প্রচলিত উদ্ভিদের গুরুত্ব অপরিসীম। তিনি বলেন, দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও ঐতিহ্যের মূল চালিকা শক্তি উদ্ভিজ্য প্রাকৃতিক সম্পদ ও এর সফল টেকসই ব্যবহার অত্যন্ত জরুরি একটি বিষয়। খাদ্যমন্ত্রী আরো বলেন, উদ্ভিদরাজি প্রকৃতির অমূল্য সম্পদ। এই সম্পদসমূহ টিকে থাকলে জীব জগৎ ও মানুষ বেঁচে থাকবে।

আমাদের দেশে জ্ঞানের মৃত্যু হয়েছে: ব্যারিস্টার মইনুল
                                  

 আমাদের দেশে জ্ঞানের মৃত্যু হয়েছে উল্লেখ করে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন বলেছেন, আজ পতাকার কথা বলা হয়, দেশের কথা বলা হয়। কিন্তু যার দেশ, তার যে ভোট নেই; এই কথা বলা হয় না। দেশে এত চিন্তাশীল বুদ্ধিমান লোক আছে, কিন্তু এই কথা বলা হচ্ছে না। তিনি বলেন, আজ বুয়েট-ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে টর্চার সেল চলছে। ছাত্ররা মারামারি করছে। তারা কিছুতেই সুশিক্ষা নিয়ে বের হতে পারছে না।

সে জন্য মনে হচ্ছে আমাদের দেশে জ্ঞানের মৃত্যু হয়েছে। এটা আমার খুবই খারাপ লাগে। গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে রাষ্ট্রবিজ্ঞানী অধ্যাপক তালুকদার মনিরুজ্জামানের স্মরণসভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। স্মরণসভায় সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আরেক উপদেষ্টা আকবর আলি খান বলেন, আদর্শ শিক্ষক বলতে যা বোঝায়, মনিরুজ্জামান তাই ছিলেন। তিনি কখনো উপাচার্য হতে চাননি, প্রক্টর হতে চাননি। দেশের শিক্ষকরা যদি মনিরুজ্জামানকে অনুসরণ করতেন তা হলে শিক্ষাব্যবস্থা অনেক দূর এগিয়ে যেত। তিনি সব সময় পড়াশোনা, গবেষণা নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন। রাষ্ট্রবিজ্ঞানে মনিরুজ্জামানের অবদান অনেক।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীনের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, ড. মাহবুব উল্লাহ, অধ্যাপক দিলারা চৌধুরী, সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আ ন ম এহছানুল হক মিলন, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য জহির উদ্দিন স্বপন প্রমুখ।

বিমানে অনিয়ম ঠেকাতে ১২টি পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে: পর্যটন মন্ত্রী
                                  

বাংলাদেশ বিমানের অনিয়ম ঠেকাতে ১২ পদক্ষেপের কথা সংসদে তুলে ধরেছেন বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী মো. মাহবুব আলী। গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে নোয়াখালী-২ আসনের মোরশেদ আলমের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান তিনি। মোরশেদ আলম মন্ত্রীর কাছে জানতে চান-বাংলাদেশ বিমানের সকল প্রকার অনিয়ম রোধে সরকার কী কী পদক্ষেপ নিয়েছে? জবাবে মন্ত্রী জানান, বাংলাদেশ বিমানের অনিয়ম ঠেকাতে সরকার নিম্ন বর্ণিত পদক্ষেপসমূহ গ্রহণ করেছে।

এগুলো হলো- টিকিট কেনার ক্ষেত্রে সিট ব্লকিং পদ্ধতি বাতিল, নিয়োগ পদ্ধতিতে স্বচ্ছতা আনায়ন, আরএফআইডি মেশিনের মাধ্যমে হাজিরা, ই-টিকেটিং পদ্ধতি, লাগেজ হ্যান্ডেলিং ব্যবস্থার উন্নয়ন, পেনশন সহজীকরণ, হজ অ্যাপস চালু, ওয়েবসাইট এবং অনলাইনে টিকিট বুকিং, মোবাইল অ্যাপস চালু, ই-জিপি টেন্ডারিং পদ্ধতি চালু, সিএন্ডএফ এজেন্ট তালিকাভুক্তিকরণ ও ইঞ্জিন মেইনটেনেন্স পাওয়ার বাই হাওয়ার। মন্ত্রী বলেন, বিমান ইতোমধ্যে সিট বুকিং পদ্ধতি বাতিল করেছে। ফলে টিকিট বিক্রি থেকে রাজস্ব আয় বেড়েছে। আর ইতোমধ্যে বিমানে নিয়োগ পদ্ধতিতে ব্যাপক পরিবর্তন আনা হয়েছে। বর্তমানে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমমে আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন অনলাইনে গ্রহণ ও টেলিটকের সহযোগিতায় আবেদন বাছাই করা হচ্ছে। এ ছাড়া শারীরিক ফিটনেস, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা এবং চূড়ান্ত নির্বাচনের মাধ্যমে কার্যক্রম শেষ করা হচ্ছে। তিনি বলেন, আরএফআইডি মেশিনে হাজিরা গ্রহণের মাধ্যমে বিমানের সব শ্রেণির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঠিক সময়ে কর্মস্থলে উপস্থিতি ও প্রস্থান নিশ্চিত করা হয়েছে।

ফেস আইডি মেশিনের মাধ্যমে প্রাপ্ত হাজিরা শতভাগ অনুসরণ করে ওয়াকল সিস্টেমে হাজিরা প্রেরণ করা হয়। মন্ত্রী বলেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ২০০৭ সালের ৪ মার্চ থেকে দেশের অভ্যন্তরে ও বিদেশের সব অফিস থেকে আন্তর্জাতিক গন্তব্যের জন্য ই-টিকিট ব্যবস্থা চালু করেছে। ২০১৩ সাল থেকে হজযাত্রীদের এবং ২০১৪ সাল থেকে অভ্যন্তরীণ যাত্রীদের জন্য ই-টিকিট চালু করা হয়েছে। ই-টিকিট পদ্ধতিকে আরও কার্যকরের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। তিনি বলেন, যাত্রা শেষে হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে ব্যাগেজ পেতে আগে যাত্রীদের সময় লাগত আড়াই থেকে তিন ঘণ্টা। ব্যাগেজ এরিয়া ইউনিটির মাধ্যমে কেপিআই নির্ধারণের ফলে প্রথম ব্যাগেজ ১৮ মিনিট ও শেষ লাগেজ ৬০ মিনিটে দেওয়া হচ্ছে। এতে একদিকে যেমন যাত্রী সেবার মান বৃদ্ধি পেয়েছে তেমনি কর্মী উৎপাদনশীলতা ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত সম্ভব হয়েছে। বর্তমানে ওই সময়ের মধ্যে লাগেজ সরবরাহের হার ৯৮ শতাংশ।

 

তিন দিনব্যাপী ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা’ শুরু হচ্ছে আজ
                                  

 রাজধানীর শেরেবাংলা নগরস্থ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) তিন দিনব্যাপী ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা’ আজ বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে। প্রযুক্তির মহাসড়ক ‘ফাইভ জি‘র বিস্ময়কর প্রভাব প্রদর্শনে দেশে এই প্রথম এ মেলা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। মেলায় লাইভ দেখা যাবে ‘ফাইভ-জি’। ‘ফাইভ জি’ প্রযুক্তি কেবল মোবাইলে কথা বলা কিংবা ইন্টারনেট ব্রাউজ করার প্রযুক্তি নয়, বিদ্যুৎ এবং গ্যাসের মতই শিল্পের জন্যও এই প্রযুক্তি অত্যাবশ্যক। ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলার প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে, ‘বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলার প্রযুক্তির মহাসড়ক’। এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল বুধবার পৃথক বাণী প্রদান করেছেন। ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা’ উপলক্ষে গতকাল বুধবার বিআইসিসি’র উইন্ডি হলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার জানান, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব আহমেদ ওয়াজেদ জয় বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় এ মেলার উদ্বোধন করবেন। তিনি বলেন, ডিজিটাল প্রযুক্তি উদ্ভাবন, উপযোগী মানব সম্পদ সৃষ্টি, ডিজিটাল প্রযুক্তির আধুনিক সংস্করণের সাথে জনগণের সেতুবন্ধন তৈরি এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি বাস্তবায়ন অগ্রগতি তুলে ধরাই ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা’র অন্যতম মূল লক্ষ্য। পরিবর্তিত বিশ্বে নতুন সভ্যতার রূপান্তরে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, আইওটি, রোবটিক্স, বিগডাটা, ব্লকচেইন প্রভৃতি বিষয় এ মেলায় প্রদর্শিত হবে বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন। এর পাশাপাশি ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচির অগ্রগতি, অবস্থান এবং ভবিষ্যৎ চ্যালেঞ্জসমূহ তুলে ধরা হবে। মোস্তাফা জব্বার বলেন,তিনি মনে করেন, বাঙালি জাতির ইতিহাসের মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ,মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের বছরে (২০২০ সাল) ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলার এই আয়োজন অত্যন্ত সময়োচিত কর্মসূচি। এ সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রীর সভাপতিত্বে মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে, বিশেষ অতিথি থাকবেন ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ, কে, এম রহমতুল্লাহ এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব নূর-উর-রহমান। ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি বাংলাদেশের রাজনীতিক ইতিহাসের সবচেয়ে প্রেরণাদায়ী এক দর্শন এ কথা উল্লেখ করে মোস্তাফা জব্বার বলেন, এই কর্মসূচি এ দেশের দুর্বার গতিতে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাওয়ার সোপান। তিনি উল্লেখ করেন, প্রজ্ঞাবান রাজনীতিক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদৃষ্টিসম্পন্ন কর্মসূচি দিনবদলের সনদ ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি গত এগারো বছরে -পাল্টে দিয়েছে চিরচেনা বাংলাদেশ -অভাবনীয় রূপান্তর ঘটেছে মানুষের জীবনযাত্রার। অনাহার, অর্ধাহার, দারিদ্র্য এবং অনুন্নত যোগাযোগাযোগসহ অভাব আর অপ্রতুলতার মতো শব্দগুলো আজ হারিয়ে যেতে বসেছে ৫৫ হাজার বর্গমাইলের এই জনপদ থেকে। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এ মেলায় আইএসপিসহ ৮২টি প্রতিষ্ঠান, প্যারেন্টাল কন্ট্রোল, ট্রিপল প্লে (এক ক্যাবলে ল্যান্ডফোনের লাইন, ইন্টারনেট ও ডিশ সংযোগ), মোবাইল অ্যাপস, ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা ও ডিজিটাল প্রযুক্তি ইত্যাদি প্রদর্শন করা হবে। এছাড়াও ওয়ালটন, স্যামসাং, সিম্ফনির মতো প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের উৎপাদিত পণ্য দেখাবে, দেশি সফটওয়্যার কোম্পানিগুলো তাদের তৈরি সফটওয়্যার ও সেবা উপস্থাপন করবে। টেলিকম অপারেটরগুলো তাদের ভয়েস, ইন্টারনেট ও মূল্য সংযোজিত সেবা (ভ্যাস) দেখাবে। এ ছাড়া জেডটিই, হুয়াওয়ে, নকিয়া, এরিকসন ফাইভ-জি প্রযুক্তি প্রদর্শন করবে। দেখাবে লাইভ ব্যবহারের উপযোগিতাও। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট টেলিমেডিসিন ও এটিএম সেবা দেখাবে। জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ভিশন মেলার মাধ্যমে টেলিমেডিসিন দেখাবে। এ মেলায় ২৫টি স্টল, ২৯টি মিনিপ্যাভিলিয়ন এবং ২৮টি প্যাভিলিয়ন থাকবে। পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান, মোবাইল ফোন অপারেটরসহ আরও অনেক প্রতিষ্ঠান এতে অংশ নেবে। মেলায় বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে পৃথক কর্নার থাকবে। সেই কর্ণারে প্রযুক্তির মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর জীবনী তুলে ধরা হবে। মেলায় ১৩টি সেমিনারের মাধ্যমে সরকারের মন্ত্রী এবং দেশি ও বিদেশি অভিজ্ঞ বক্তারা বর্তমানের প্রযুক্তি ও আগামি দিনে প্রযুক্তির গন্তব্য নিয়ে কথা বলবেন। ট্যালেন্ট গ্যাপ, ডিজিটাল অর্থনীতি, ডিজিটাল গ্রোথ, এসডিজির অ্যাচিভমেন্ট ইত্যাদি বিষয়ে বক্তারা আলোচনা করবেন। মেলায় ডিজিটাল ডাক ঘর উদ্যেক্তা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটায়। এছাড়াও একইদিনে বিকেল ৫টায় ডিজিটাল অর্থনীতি: শিল্প ও বাণিজ্যে ডিজিটাল প্রযুক্তি বিষয়ক সেমিনারে প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। তিন দিনব্যাপী এ মেলা শেষ হবে আগামি ১৮ জানুয়ারি। সমাপণী দিনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল।

নদীর পানি দূষণমুক্ত রাখতে সুয়্যারেজ মাস্টারপ্ল্যান হয়েছে: এলজিআরডি মন্ত্রী
                                  

 স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম জানিয়েছেন, ঢাকার চারপাশে নদীর পানি দূষণমুক্ত রাখতে ঢাকা ওয়াসা ইতোমধ্যে একটি সুয়্যারেজ মাস্টারপ্ল্যান প্রণয়ন করেছে। গতকাল বুধবার সংসদে বিরোধী দলের সদস্য বেগম সালমা ইসলামের তারকা চিহ্নিত এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রী জানান, সরকার গৃহীত মাস্টারপ্ল্যানের আলোকে রাজধানীর চারপাশে চারটি সুয়্যারেজ ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট নির্মাণ করা হবে। মাস্টারপ্ল্যানের অংশ হিসেবে বর্তমানে ‘দাশেরকান্দি সুয়্যারেজ ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট’ নামে একটি পয়ঃশোধনাগার নির্মাণাধীন রয়েছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, যা সমাপ্ত হলে সরাসরি পয়ঃবর্জ্য নদীতে গিয়ে যে দূষণ হয় তা অনেকাংশে বন্ধ হবে।

নারী নির্যাতনের ঘটনাকে বিচারহীন রাখতে চায় না সরকার: আইনমন্ত্রী
                                  

ধর্ষণসহ নারী নির্যাতনের যেকোনও ঘটনাকে কোনোভাবেই সরকার বিচারহীন অবস্থায় রেখে দিতে চায় না বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট অডিটোরিয়ামে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন (এমজেএফ) আয়োজিত ‘মানুষের জন্য মানবাধিকার পদক-২০২০’ শীর্ষক সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, মানবাধিকার সম্পর্কে সরকারের অনেক অর্জন বা সাফল্য রয়েছে। তবে বেশ কিছু চ্যালেঞ্জ রয়ে গেছে। বিশেষ করে নারী নির্যাতন বন্ধের ক্ষেত্রে।

সরকার ধর্ষণসহ নারী নির্যাতনের অন্যান্য ঘটনাকে কোনোভাবেই বিচারহীন অবস্থায় রেখে দিতে চায় না এবং রেখে দেবে না। এ বিষয়ে সরকার অনেক সজাগ। এ ক্ষেত্রে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থা/সংগঠনগুলোর সহযোগিতা প্রয়োজন। কারণ, তারা নারী নির্যাতন প্রতিরোধে প্রত্যন্ত অঞ্চলে ব্যাপক কাজ করছে। মন্ত্রী আরও বলেন, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, উন্নয়ন এবং সমৃদ্ধির সঙ্গে মানবাধিকার অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত। সেজন্য সরকার সব উন্নয়নের প্রয়াসে মানবাধিকারভিত্তিক দৃষ্টিভঙ্গি গ্রহণ করে আসছে। এমজেএফ-এর গভর্নিং বোর্ডের সদস্য পারভীন মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল, ডিএফআইডি বাংলাদেশের কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ জুডিথ হার্বাটসন, ঢাকাস্থ সুইডিশ দূতাবাসের ডেপুটি হেড অব মিশন ক্রিসটিন জোহানসন, এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর মহাপরিচালক কেএম আবদুস সালাম, এমজেএফ’র নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম প্রমুখ। এর আগে, মানবাধিকার রক্ষায় কাজ করে যাচ্ছেন এমন ১০ জনকে সম্মাননা ও পদক প্রদান করা হয়।

পদকপ্রাপ্তরা হলেন- গাইবান্ধা জেলার মোছা. বেলী বেগম, দিনাজপুর জেলার মোছা. রেহানা বেগম, মালতী রানী, কুষ্টিয়া জেলার মোছা. সালেহা বেগম, মোছা. হালিমা খাতুন ও মোছা. নুরজাহান বেগম, সিরাজগঞ্জ জেলার মো. খায়রুজ্জামান মুন্নু, কিশোরগঞ্জ জেলার আনোয়ারা বেগম, ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার মো. হেদায়তুল আজিজ (মুন্না) এবং খাগড়াছড়ি জেলার চঞ্চল কান্তি চাকমা।

 

টাকা দিয়ে চাকরি নেয়ার দিন শেষ: খাদ্যমন্ত্রী
                                  

 খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, টাকা দিয়ে চাকরি নেয়ার দিন প্রায় শেষ হয়ে গেছে। এখন মেধাবীরাই চাকরি পাবে। গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ রবিদাস ফোরামের (বিআরএফ) প্রথম কেন্দ্রীয় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, আমি গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারি, আমার দপ্তরে যাঁরা মেধা দিয়ে টিকবে, তাদেরই চাকরি হবে। যাঁরা দালালের মাধ্যমে টাকা দেবে এবং যাঁরা টাকা নেবে, তারা বিপদে পড়বে। তিনি বলেন, যাঁরা কোটা নিয়ে চিন্তা করে, তাদের বলবো মেধা কোটার জন্য নিজেকে তৈরি করুন।

রবিদাস সম্প্রদায়ের উদ্দেশে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের অনগ্রসর জনগোষ্ঠী (দলিত, হরিজন, আদিবাসী, চা জনগোষ্ঠী, তৃতীয় লিঙ্গ, বেদে) একসঙ্গে যুক্ত হয়ে নিজেদের দাবি আদায়ের চেষ্টা করুন। বাঙালি হিসেবে সংবিধান অনুযায়ী সমঅধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য সব অধিকার আদায় করে নিতে হবে। এসময় খাদ্যমন্ত্রী ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর জন্য আলাদা মন্ত্রণালয় খোলার দাবি জানান। কেননা, আলাদা মন্ত্রণালয় খোলা গেলে সব সম্প্রদায়ের সমস্যার সমাধান হবে। এর জন্য যা যা করা লাগে, তা করবেন বলে আশ্বাস দেন মন্ত্রী।

বাংলাদেশ রবিদাস ফোরামের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি চাঁদমোহন রবিদাসের সভাপতিত্বে প্রথম কেন্দ্রীয় সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন ঐক্য ন্যাপের সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্য, বিআরএফএর প্রতিষ্ঠাতা ও মহাসচিব রিপন রবিদাস প্রাণকৃষ্ণসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে এক কোটি গাছের চারা বিতরণ করা হবে ৫ জুন
                                  

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপনের অংশ হিসেবে আগামি ৫ জুন সারা দেশের ৪৮২টি উপজেলায় একযোগে এক কোটি গাছের চারা বিতরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন। গতকাল সোমবার সচিবালয়ে সাবেক সচিব আবদুল্লাহ আল মোহসীন চৌধুরীর বিদায় ও নবনিযুক্ত সচিব জিয়াউল হাসানের বরণ অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এ কথা জানান।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এ বছরের ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ১৭ মার্চ পর্যন্ত বছরব্যাপী ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপনের ঘোষণা দিয়েছে সরকার। মন্ত্রী বলেন, পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণসহ আমাদের অস্তিত্ব রক্ষার স্বার্থে অধিক পরিমাণে বৃক্ষ রোপণ করা প্রয়োজন। এ লক্ষ্যে মুজিববর্ষ উদযাপনের অংশ হিসেবে আগামি ৫ জুন সারা দেশের ৪৮২টি উপজেলায় একযোগে এক কোটি গাছের চারা বিতরণ করা হবে। ফলদ, বনজ ও ঔষধিসহ সকল প্রকার গাছের চারা বিতরণ করা হলেও দেশীয় ফলজ গাছকে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। এ সময় সুন্দরবন রক্ষাসহ দেশের বনাঞ্চল বৃদ্ধিতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নবনিযুক্ত সচিবসহ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন মন্ত্রী। শাহাব উদ্দিন বলেন, দেশের মানুষকে বিশুদ্ধ পরিবেশ উপহার দিতে সচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি কঠোরভাবে আইন প্রয়োগ করা হবে। এর অংশ হিসেবে গত এক মাসে সারাদেশে সাড়ে ৩০০ ইটভাটা ধ্বংস করা হয়েছে।

হাইকোর্টের নির্দেশনা মোতাবেক আগামি এক বছরের মধ্যে পলিথিন ও একবার ব্যবহার্য প্লাস্টিকের ব্যবহার শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনতে কাজ করবে সরকার। এ সময় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, বন শিল্প করপোরেশনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আহসানুল জব্বার, বন অধিদফতরের প্রধান বন সংরক্ষক শফিউল আলম চৌধুরী, পরিবেশ অধিদফতরের মহাপরিচালক এ কে এম রফিক আহাম্মদ, জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুদ আহমদ, বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক মো. মাসুদুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

 

দেশে ভিক্ষুকের সংখ্যা আড়াই লাখ: সমাজকল্যাণমন্ত্রী
                                  

 সমাজকল্যাণমন্ত্রী মো. নুরুজ্জামান আহমেদ জানিয়েছেন, বাংলাদেশে ভিক্ষুকের সংখ্যা নির্ধারণের জন্য সমন্বিতভাবে কোনো জরিপ পরিচালিত হয়নি। তবে জেলা পর্যায়ের জেলা প্রশাসক এবং জেলা সমাজসেবা অফিসের উপপরিচালকের কার্যালয়ের জরিপ অনুযায়ী সারাদেশে ভিক্ষুকের সংখ্যা ২ লাখ ৫০ হাজার। গতকাল সোমবার জাতীয় সংসদে চট্টগ্রাম-৪ আসনের এমপি দিদারুল আলমের এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সারাদেশের ভিক্ষুকদের পুনর্বাসন কার্যক্রমে মন্ত্রণালয়ের চাহিদায় সাড়ে ৪০০ কোটি টাকার বিপরীতে মাত্র ৩ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। বরাদ্দ পাওয়া পুরো টাকাই ভিক্ষুকদের পুনর্বাসনে মাঠ পর্যায়ে পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রী বলেন, চলতি (২০১৯-২০) অর্থবছরে ৪ কোটি টাকা বরাদ্দ রয়েছে। দেশের ০.১৭ শতাংশ মানুষ ভিক্ষাবৃত্তির মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করে। ভিক্ষুকদের পুনর্বাসনে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ডিসিদের আর্থিক সহায়তা প্রদান করে। মো. ফরিদুল হক খানের অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, দেশের ১৮ জেলায় ৫১টি উপজেলা ও ইউনিয়নের অধীনে বয়স্ক ভাতা, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা মহিলা ভাতা এবং অসচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতা উপকারভোগীদের ডিজিটাল পদ্ধতি তথা জিটুপি পদ্ধতিতে প্রদান করা হচ্ছে। বিশ্বব্যাংকের আর্থিক সহায়তায় ২১৪৪৩.৭৮ লাখ টাকা প্রাক্কলিক ব্যয়ে সিটিএম প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে।

এ কে এম রহমতুল্লাহর প্রশ্নের জবাবে নুরুজ্জামান আহমেদ বলেন, সরকারি শিশু পরিবারে পিতৃহীন অথবা পিতৃ-মাতৃহীন ৬-১৮ বছরের শিশুদের লালন পালন করে। বয়স ১৮ বছর উত্তীর্ণ হলে তাদের বিবাহ, চাকরি, সামাজিকভাবে, প্রশিক্ষণের এবং শিক্ষার মাধ্যমে পুনর্বাসন করা হয়। ছয় বিভাগে ছয়টি এতিম ও প্রতিবন্ধী ছেলে-মেয়ের জন্য কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র পরিচালিত হচ্ছে। সরকারি শিশু পরিবার শুরু থেকে এখন পর্যন্ত ৬৯ হাজার ২৮৬ জনকে পুনর্বাসন করা হয়েছে।

 

সার্টিফিকেট বাণিজ্য বন্ধে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে মনিটরিং হচ্ছে: শিক্ষামন্ত্রী
                                  

শিক্ষার গুণগতমান অব্যাহত রাখার স্বার্থে ও সার্টিফিকেট বাণিজ্য বন্ধ করার জন্য বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে প্রতিনিয়ত মনিটরিং করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। গতকাল সোমবার জাতীয় সংসদের অধিবেশনে মন্ত্রীদের জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য নাছিমুল আলম চৌধুরীর এক প্রশ্নের লিখিত উত্তরে এ কথা জানান শিক্ষামন্ত্রী।

এ সময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশনের সভাপতিত্ব করেন। এ প্রপ্রশ্নোত্তর পর্ব টেবিলে উপস্থাপিত হয়। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কিছু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মান নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কিছু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে সার্টিফিকেট বাণিজ্যের অভিযোগও পাওয়া যাচ্ছে। এদের অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয় আদালতের স্থগিতাদেশ নিয়ে পরিচালিত হচ্ছে। দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয় আদালতের রায় অনুযায়ী সরকারের পক্ষ থেকে বন্ধ করা হয়েছে। তিনি বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেকটি প্রোগ্রামের জন্য মোট ক্রেডিট আওয়ারস ও সেমিস্টার পূর্ব থেকে নির্ধারণ করার মাধ্যমে প্রতিটি প্রোগ্রামে নির্দিষ্ট সংখ্যক আসনের ভিত্তিতে শিক্ষার্থী ভর্তি করায় শিক্ষার নামে সার্টিফিকেট বাণিজ্য বহুলাংশে বন্ধ হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, কতিপয় অসাধু চক্রের যোগসাজশে পরিচালিত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আউটার ক্যাম্পাস বন্ধ করা হয়েছে এবং অননুমোদিত ক্যাম্পাসগুলো বন্ধের বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। দূরশিক্ষণে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা বন্ধ করা হয়েছে। প্রত্যেক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন অনুযায়ী অভ্যন্তরীণ গুণগতমান নিশ্চিতকরণ সেল/ইউনিট গঠন করা হয়েছে। শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের জ্ঞাতার্থে বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে সময় সময় জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে কমিশনের ওয়েবসাইটে আপলোড রাখা হচ্ছে। আওয়ামী লীগের সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারীর অপর প্রশ্নের লিখিত জবাবে শিক্ষামন্ত্রী জানান, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্তরে বর্তমানে ছাত্র/ছাত্রীর অনুপাত ১ঃ ১ দশমিক ১৮। গ্রামকে শহরের ন্যায় গড়ে তোলার লক্ষ্যে বর্তমান সরকার প্রত্যেক উপজেলায় একটি করে কলেজ জাতীয়করণ করেছে। এতে গ্রামের শিক্ষার্থীরাও শহরের মতো পড়াশোনার সুযোগ-সুবিধা পাবে।

তিনি বলেন, নারী প্রগতির ক্ষেত্রে বাধা হিসেবে ধর্ষণ, নিগ্রহ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কর্মস্থলে চলার পথে নিরাপত্তাহীনতা, সাইবার ক্রাইম, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নামধারীদের হাতে ছাত্রী নিগ্রহ এসবের যথাযথ প্রতিকার ও আইনের যথাযথ প্রয়োগ আগের তুলনায় অনেক বেড়েছে। সরকারি দলের সংসদ সদস্য মমতাজ বেগমের প্রশ্নের জবাবে ডা. দীপু মনি বলেন, বিশ্বের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে শিক্ষাক্ষেত্রে চতুর্থ শিল্প বিপ্লব উত্তরণে বর্তমান সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছে। দেশের এমপিওভুক্ত প্রায় ২৭ হাজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত প্রায় ৫ লাখ শিক্ষক-কর্মচারীর বেতন-ভাতা প্রক্রিয়াকরণ অনলাইনে করা হয়েছে। এ ছাড়া সরকারি কলেজে আইসিটি শিক্ষকের ২৫৫টি পদ সৃষ্টি করা হয়েছে এবং ৩৮তম বিসিএসের মাধ্যমে এ পদগুলো পূরণ করা হবে।

ভালো ফলাফলের চেয়ে ভালো মানুষ হওয়া জরুরি: শিক্ষামন্ত্রী
                                  

 শিশুদের ভালো ফলাফলের চেয়ে ভালো মানুষ হওয়া জরুরি বলে মনে করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, ‘ভালো মানুষ হওয়ার জন্য শিশুদের শিক্ষা গ্রহণের পাশাপাশি সফট স্কিলগুলো অর্জন করা প্রয়োজন। কারণ শিক্ষার পাশাপাশি কর্মজগতে প্রয়োজন দক্ষতা।’ গতকাল রোববার দুপুরে গুরুদাসপুর উপজেলার গুরুদাসপুর পাইলট উচ্চবিদ্যালয় চত্বরে কল্লোল ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আয়োজিত বড়াইগ্রাম-গুরুদাসপুর উপজেলার ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংবর্ধনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘কোমলমতি শিশুদের পরীক্ষায় জিপিএ-৫ অর্জন একমাত্র উদ্দেশ্য হতে পারে না। কারণ সবার একই বিষয়ে সমান দক্ষতা থাকে না। তাই যার যে বিষয়ে দক্ষতা রয়েছে তাকে সে বিষয়ে আরও দক্ষ করে গড়ে তুলতে অভিভাবক ও শিক্ষকদের সহযোগিতা করা উচিত।’ শিশুদের শিক্ষা গ্রহণের পাশাপাশি মানবিকতা, মূল্যবোধ, পরমত সহিষ্ণুতা, বিতর্ক, সংস্কৃতিচর্চা ও খেলাধুলায় অংশ নিয়ে প্রকৃত মানুষ হলেই কেবল তারা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে পারবে দাবি করে দীপু মনি বলেন, এ ক্ষেত্রে সাধারণ পাঠ্যবইয়ের পাশাপাশি অবসর সময়ে শিশুদের বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনীসহ বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লেখা সমস্ত বই পড়তে হবে।’ গত এক বছরে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে অনেক যুগোপযোগী করা হয়েছে দাবি করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষা ব্যবস্থাকে আরও কার্যকর শিক্ষায় রূপ দিতে মূল্যায়ন পদ্ধতি পরিবর্তন করা হচ্ছে। কোচিং বাণিজ্য আর গাইড, নোট বিক্রিতে জড়িতদের কোনোক্রমেই ছাড় দেওয়া হবে না।’

এ ক্ষেত্রে সব শিক্ষক ও অভিভাবকদের সহযোগিতার আহ্বান জানান তিনি। কল্লোল ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি কোহেলি কুদ্দুস মুক্তি অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন নাটোর-৪ (বড়াইগ্রাম-গুরুদাসপুর) আসনের সাংসদ আবদুল কুদ্দুস। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সৈয়দা রুবিনা হক এমপি,অতিরিক্ত সচিব সাইদুর রহমান, জেলা প্রশাসক শাহরিয়াজ ও পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা।

মধ্যপ্রাচ্যে স্থিতিশীলতা চায় বাংলাদেশ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
                                  

মধ্যপ্রাচ্য নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন বলেছেন, ‘আমরা মধ্যপ্রাচ্যে স্থিতিশীলতা চাই। মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিতিশীলতা দেখা দিলে তা আমাদের জন্য অসুবিধাজনক হবে। আমরা মনে করি যুদ্ধ কোনও সমাধান নয়। আমরা যেখানে যাই সেখানে স্থিতিশীলতা ও শান্তির পক্ষে বলেই যাচ্ছি। এক্ষেত্রেও আমরা তাই করেছি।’ গতকাল রোববার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আবুধাবি সফর উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা জাতীয় অখন্ডতায় বিশ্বাস করি। অন্য কেউ দখল করুক এটি আমরা চাই না।’ মধ্যপ্রাচ্যে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা তাদের বলবো তারা যেন সজাগ থাকেন। যাতে সমস্যা থেকে দূরে থাকতে পারেন। আমরা ইতোমধ্যে তাদের পরামর্শ দিয়েছি।’ আবুধাবিতে এনভয় কনফারেন্স বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মধ্যপ্রাচ্যে আমাদের অনেক স্বার্থ আছে এবং এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রদূতদের উপদেশ, দিকনির্দেশনা দেবেন এবং তারাও তাদের সমস্যা তুলে ধরবেন।’ তিনি বলেন, ‘ওই অনুষ্ঠানে মিশনের কার্যাবলি, কর্মপরিকল্পনা, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন, বাংলাদেশের ৫০তম স্বাধীনতাবার্ষিকী উদযাপন, অর্থনীতি, কূটনীতি, মধ্যপ্রাচ্য থেকে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধি, দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যসহ অন্যান্য বিষয় বাধা-বিপত্তিগুলো উপস্থাপন করার সুযোগ পাবেন রাষ্ট্রদূতরা।’ মধ্যপ্রাচ্যে স্বার্থের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা বিনিয়োগ বাড়াতে চাই, বাণিজ্য বাড়াতে চাই, দক্ষ লোক পাঠাতে চাই। কিছু কিছু অসুবিধা হচ্ছে এবং আমাদের রাষ্ট্রদূতেরা সেটি তুলে ধরবেন।’

সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে কয়েক বিলিয়ন ডলারের একাধিক বিনিয়োগের প্রস্তাব পাওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘রিফাইনারি, জ্বালানিসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে বিনিয়োগ প্রস্তাব আছে এবং প্রতিটি বিষয়ে কাজ চলছে। প্রক্রিয়াটি অত্যন্ত লম্বা এবং প্রধানমন্ত্রী গেলে পরে এটি ত্বরান্বিত হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আগামী বছর প্রধানমন্ত্রীকে ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরাম প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে এবং তিনি নীতিগতভাবে সেটি গ্রহণ করেছেন।’ এছাড়া ঢাকায় ক্লাইমেট এডাপ্টেশন সেন্টার তৈরি করতে হতে যাচ্ছে। খুব শিগগিরই অনেক ধরনের পদক্ষেপ আমরা অন্যান্যের জানাতে পারবো এবং অন্যান্যের পদক্ষেপ সম্পর্কে জানতে পারবো।

আজ আবুধাবি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
                                  

 ‘আবুধাবি সাসটেইনাবিলিটি সপ্তাহে’ যোগ দিতে সরকারি সফরে সংযুক্ত আরব আমিরাত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ রোববার বিকেল ৫টায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ‘বিজি-০২৭’ ভিভিআইপি ফ্লাইটে আবুধাবির উদ্দেশে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছাড়বেন প্রধানমন্ত্রী। স্থানীয় সময় রাত ৮টা ৫৫ মিনিটে আবুধাবি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথার প্রধানমন্ত্রীর। সংযুক্ত আরব আমিরাতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ ইমরান বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানাবেন। এরপর বিমানবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা শেষে মোটর শোভাযাত্রা সহযোগে প্রধানমন্ত্রীকে নেওয়া হবে সফরকালীন আবাসস্থল শাংগ্রি-লা হোটেলে। আগামীকাল সোমবার সকাল ১১টায় আবুধাবি জাতীয় প্রদর্শন কেন্দ্রে ‘আবুধাবি সাসটেইনাবিলিটি সপ্তাহ’ এবং ‘জায়েদ সাসটেইনাবিলিটি পুরস্কার’ বিতরণ অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিন। বিকেলে সফরকালীন আবাসস্থল শাংগ্রি-লা হোটেলে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূতদের নিয়ে ‘দূত সম্মেলনে’ অংশ নেবেন শেখ হাসিনা। পরদিন মঙ্গলবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রধানমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম, আবুধাবির ক্রাউন প্রিন্স শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ান এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের স্থপতি ও প্রতিষ্ঠাতা রাষ্ট্রপতির স্ত্রী শেখ ফাতিমা বিনতে মুবারাক আল কেতবির সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ দিন বিকেলে আবুধাবি জাতীয় প্রদর্শন কেন্দ্রে ‘দি ক্রিটিক্যাল রোল অব ওমেন ইন ডেলিভারিং ক্লাইমেট’ বিষয়ক কী নোট সাক্ষাৎকার পর্বে অংশগ্রহণ করবেন শেখ হাসিনা। এরপর স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে ৫টায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিজি-১১০২ ভিভিআইপি ফ্লাইটে ঢাকার উদ্দেশে আবুধাবি ছাড়বেন প্রধানমন্ত্রী। স্থানীয় সময় রাত ১২টার দিকে ঢাকা হযরত শাহজালাল আন্তজার্তিক বিমানবন্দর পৌছানোর কথা প্রধানমন্ত্রীর। আবুধাবি সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরসঙ্গীদের মধ্যে রয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমেদ, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব মোহাম্মদ তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্স (এসএসএফ) মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মজিবুর রহমান।

 

 

খুলনায় বিনা চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ
                                  

 খুলনার কয়রা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক না থাকায় বিনা চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠছে। বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে আহত একজনকে গত শুক্রবার দুপুরে এ হাসপাতালে নেওয়া হয়। তখন কর্তব্যরত চিকিৎসক জরুরি বিভাগে না থাকায় বিনা চিকিৎকায় এ মৃত্যু হয় বলে নিহতের স্বজনদের অভিযোগ। নিহত মনি শংকর ওই উপজেলার আমাদি গ্রামের নিরঞ্জন সরকারের ছেলে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালে বিক্ষোভ করলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রজ্ঞা লাবনী জানিয়েছেন, জরুরি বিভাগে আনার আগেই ওই রোগীর মৃত্যু হয়।

মনি শংকরের স্ত্রী মিনতি সরকার বলেন, গত শুক্রবার আমাদি গ্রামের এক চিংড়ি হ্যাচারিতে ঝুলে থাকা বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে মনি শংকর আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে সেখানে কোনো চিকিৎসককে পাওয়া যায়নি। আমি হাসপাতালে উপস্থিত নার্সসহ অন্যান্য কর্মকর্তার পায়ে ধরি কিন্তু কেউ আমার স্বামীর পাশে আসেননি। মনি শংকরের ভাই ভবতোষ সরকার বলেন, মনি শংকর কথা বলতে বলতে আমাদের সামনেই মারা গেছে। আমরা এক ডাক্তারের বাসায় গেলে তিনি আমাদের বলেন, ‘এটা আমাদের কাজ না’, স্যারের সঙ্গে কথা বলেন। ঘণ্টাখানেক পর অবশ্য একজন ডাক্তার আসেন কিন্তু তিনি কিছু না বলেই চলে যান। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডা. পার্থ প্রতিম চিকিৎসকের অভাবে রোগী মৃত্যুর অভিযোগ নাকচ করে করে বলেন, হাসপাতালে নিয়ে আসার পথে হয়তো ওই রোগী মারা যেতে পারেন। প্রায় অর্ধশতাব্দী আগে প্রতিষ্ঠিত এ হাসপাতালে প্রায়ই ডাক্তার থাকেন না বলে অভিযোগ করছেন স্থানীয় বাসিন্দা নিশিত রঞ্জন মিস্ত্রী। তিনি বলেন, এখানে আগত রোগীদের ডাক্তারা বিভিন্ন অজুহাতে শহরের ক্লিনিকে পাঠান। ওইসব ক্লিনিক মালিকদের সঙ্গে ডাক্তারদের গোপন কমিশন চুক্তি রয়েছে বলে তার অভিযোগ। তিনি বলেন, হাসপাতালটির ইতিহাসে মাত্র এক বছরের (২০১৩-১৪) জন্য একজন গাইনি চিকিৎসক এসেছিলেন। তিনি বদলি হওয়ার পর আর কেউ আসেননি। এ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকরা সব ধরনের চিকিৎসা সেবা দিতে সক্ষম বলে দাবি করেন সেখানকার এক চিকিৎসক। কিন্তু প্রয়োজনীয় উপকরণ ও জনবল না থাকায় সেটা সম্ভব হয় না।

আক্ষেপ করে তিনি বলেন,যে কারণে জেলা শহরের বড় হাসপাতালে রেফার করতে হয়। অথচ অভিযোগ করা হয়, যোগ্যতার অভাবে আমরা সঠিকভাবে চিকিৎসাসেবা দিতে পারি না। হাসপাতালটিতে জনবল সংকট কথা স্বীকার করে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. পার্থ প্রতিম বলেন, এখানে চিকিৎসকের পদ রয়েছে ২৯টি। এর মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ কর্মকর্তাও রয়েছেন। মেডিকেল কর্মকর্তা আছেন দুইজন। এ ছাড়া একজন করে রয়েছেন জুনিয়র কনসালট্যান্ট মেডিসিন, মেডিকেল কর্মকর্তা (আয়ুর্বেদিক), ডেন্টাল সার্জন ও মেডিকেল কর্মকর্তা (উপ-স্বাস্থ্যকেন্দ্র) পদে। আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা পদটি শূন্য। জুনিয়র কনসালট্যান্ট সার্জারি, গাইনি, শিশু, ইএনটি, অর্থোপেডিক্স, কার্ডিওলজি, চক্ষু ও চর্ম চিকিৎসকের পদগুলো শূন্য। সহকারী সার্জন, মেডিকেল কর্মকর্তা (সমমান), ইনডোর মেডিকেল কর্মকর্তা, ইমার্জেন্সি মেডিকেল কর্মকর্তা, প্যাথলজিস্ট ও এনেসথেটিস্ট পদও খালি।

চিকিৎসা সহকারীসহ তৃতীয় শ্রেণির ১২২টি পদের ৪৭টিই খালি। চতুর্থশ্রেণির ৪৭ জনের স্থলে আছেন মাত্র আট জন বলে জানান তিনি। এছাড়াহাসপাতালটিতে অনেক যন্ত্রপাতি না থাকার কথা পেড়ে তিনি জানান,১৫ বছর ধরে একমাত্র এক্স-রে মেশিনটি নষ্ট। আল্ট্রাসনোগ্রাম করার জন্য প্যাথলজিস্ট নেই। ভবনটির অবস্থাও ঝুঁকিপূর্ণ। এ ব্যাপারে খুলনার সিভিল সার্জন ডা. সুজাত আহমেদের মুঠোফোনে কয়েক দফা যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।


   Page 1 of 391
     জাতীয়
মাদক-সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ রুখতে স্কাউটদের এগিয়ে আসার আহ্বান রাষ্ট্রপতির
.............................................................................................
ডেইরি সেক্টরের উন্নয়নে ৫০০ কোটি টাকার প্রকল্প: প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
টেকসই উন্নয়ন ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ ঘনিষ্টভাবে জড়িত: খাদ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
আমাদের দেশে জ্ঞানের মৃত্যু হয়েছে: ব্যারিস্টার মইনুল
.............................................................................................
বিমানে অনিয়ম ঠেকাতে ১২টি পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে: পর্যটন মন্ত্রী
.............................................................................................
তিন দিনব্যাপী ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা’ শুরু হচ্ছে আজ
.............................................................................................
নদীর পানি দূষণমুক্ত রাখতে সুয়্যারেজ মাস্টারপ্ল্যান হয়েছে: এলজিআরডি মন্ত্রী
.............................................................................................
নারী নির্যাতনের ঘটনাকে বিচারহীন রাখতে চায় না সরকার: আইনমন্ত্রী
.............................................................................................
টাকা দিয়ে চাকরি নেয়ার দিন শেষ: খাদ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
মুজিববর্ষ উপলক্ষে এক কোটি গাছের চারা বিতরণ করা হবে ৫ জুন
.............................................................................................
দেশে ভিক্ষুকের সংখ্যা আড়াই লাখ: সমাজকল্যাণমন্ত্রী
.............................................................................................
সার্টিফিকেট বাণিজ্য বন্ধে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে মনিটরিং হচ্ছে: শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
ভালো ফলাফলের চেয়ে ভালো মানুষ হওয়া জরুরি: শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
মধ্যপ্রাচ্যে স্থিতিশীলতা চায় বাংলাদেশ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
আজ আবুধাবি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
খুলনায় বিনা চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ
.............................................................................................
সম্পত্তি দখলমুক্ত করে রেলকে সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় আনা হবে: রেলমন্ত্রী
.............................................................................................
কৃষি সম্মানজনক পেশা হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে: মন্ত্রী
.............................................................................................
আখেরি মোনাজাতে জনতার ঢল
.............................................................................................
ভারত সফরে যাচ্ছেন না পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
দুর্নীতি-মাদকমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে সরকার দৃঢ়প্রতিজ্ঞ: রাষ্ট্রপতি
.............................................................................................
শিগগিরই পলিটেকনিকে ৭ হাজার শিক্ষক নিয়োগ হবে: শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান রাষ্ট্রপতির
.............................................................................................
রপ্তানি সম্প্রসারণে নতুন বাজার খোঁজার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
.............................................................................................
সিটি ভোটের আগে সিইসি’র ভারত সফর
.............................................................................................
স্বনির্ভর জাতি গঠনে তৃণমূলে নারীর ক্ষমতায়ন জরুরি: স্পিকার
.............................................................................................
সারাদেশে সুষম উন্নয়নের বিষয়কে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার: এলজিআরডি মন্ত্রী
.............................................................................................
আরও ৫ হাজার চিকিৎসক ও ১৫ হাজার নার্স নিয়োগ দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
ঠাকুরগাঁওয়ে দুর্যোগ সহনীয় একশ বাড়ি নির্মাণের ঘোষণা ত্রাণ প্রতিমন্ত্রীর
.............................................................................................
১০ জানুয়ারি বাণিজ্যমেলা বন্ধ রাখার অনুরোধ করবো: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
শিশুদের যোগ্য হিসেবে গড়তে পারলেই তৈরি হবে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
পুরোনো ফাইল নিষ্পত্তি করে নতুন বছর শুরু প্রধানমন্ত্রীর
.............................................................................................
দেশ আজ উন্নয়নের মডেল হিসেবে বিশ্বে পরিচিত: গণপূর্ত মন্ত্রী
.............................................................................................
লাইট ইঞ্জিনিয়ারিংকে ২০২০ সালের বর্ষপণ্য ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর
.............................................................................................
বাংলাদেশ মিশনগুলোকে প্রবাসীবান্ধব হওয়ার নির্দেশনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর
.............................................................................................
রাষ্ট্রপতি স্বর্ণপদক পাচ্ছেন শাবিপ্রবির ২০ শিক্ষার্থী
.............................................................................................
শিগগিরই লিমিটেড কোম্পানির জন্যে ৭ দিনে নামজারি: ভূমিমন্ত্রী
.............................................................................................
সেনাবাহিনীকে যুগোপযোগী ও আধুনিক করা হবে: প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
পঞ্চাশ বছর হতে চলল, এবার জনগণ হোক দেশের মালিক: ড. কামাল
.............................................................................................
আজ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল নির্মাণকাজ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
যুগোপযোগী সঠিক শিক্ষার পরিবেশ নিশ্চিত করেছে সরকার: খাদ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
ভিক্ষুকদের পুনর্বাসন করে নতুন আত্মকর্মসংস্থান তৈরী করছে সরকার: রেলপথমন্ত্রী
.............................................................................................
বর্তমানে রাজনীতিবিদরা রিকশাচালকের মতো কথাবার্তা বলেন: ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
গবেষণা যেন আন্তর্জাতিক মানের ও মানবকল্যাণের হয়: রাষ্ট্রপতি
.............................................................................................
৩০ জানুয়ারি ঢাকা সিটির উত্তর ও দক্ষিণের ভোট
.............................................................................................
আমরা কি বাংলাদেশের নাগরিক না, প্রশ্ন ভিপি নুরের বাবার
.............................................................................................
আমিরাতে প্রবাসীদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশ গড়ায় কাজ করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
.............................................................................................
আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব নির্ধারণ আজ
.............................................................................................
আওয়ামী লীগের দুই দিনব্যাপী ২১তম জাতীয় সম্মেলন শুরু হচ্ছে আজ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা ডট কম
মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত ।

প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ মো: হারুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
বার্তা সম্পাদক: মো: শরিফুল ইসলাম রানা
সহ: সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বিশেষ প্রতিনিধি : মো: আকরাম খাঁন
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]