৩ শাবান ১৪৪১, ঢাকা, রবিবার, ১৫ চৈত্র ১৪২৬, ২৯ মার্চ , ২০২০ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
২৪ ঘণ্টায় দেশে কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়নি

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কারো শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়নি। আজ রবিবার (২৯ মার্চ) করোনাভাইরাসসংক্রান্ত সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে করা ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। 

ফ্লোরা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় আমরা আইডিসিআর-এ মোট কল পেয়েছি দুই হাজার ৭২৬টি। এর সবই কোভিড-১৯ সংক্রান্ত পরামর্শের জন্য। গত ২৪ ঘণ্টায় আমরা ১০৯টি নমুনা পরীক্ষা করেছি। এর মধ্যে কারো শরীরেই কনোনা সংক্রমণ পাওয়া যায়নি। তার মানে সর্বমোট সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা ৪৮। এর মধ্যে ১৫ জন সংক্রমণ থেকে মুক্ত এবং তাঁরা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছে। 

আইইডিসিআর পরিচালক বলেন, যে ১০৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে তাতে আইইডিসিআর, জনস্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান এবং চট্টগ্রামে অবস্থিত বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড  ইনফেকশাস ডিজিসেস (বিআইটিআইডি)-এর তথ্য সংযোজিত হয়েছে।

আইইডিসিআর পরিচালক আরো বলেন, এ পর্যন্তু আমাদের সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন ধরনের আদেশ-নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন সময় জনস্বার্থে যে আদেশ ও নির্দেশনা দেওয়া হয়, সেগুলো আপনারা অবশ্যই মেনে চলবেন। জনসাধারণের ভালোর জন্য, সুস্থতা-সুস্বাস্থ্য নিশ্চিতকরণে আমরা সরকারি পদক্ষেপগুলো নিয়েছি। তিনি বলেন, আপনারা সবাই ঘরের ভেতর থাকুন। জরুরি কাজে বাইরে বের হলে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করুন। কাশি শিষ্টাচার মেনে চলুন। সাবান পানিতে হাত ধুতে হবে। অসুস্থ হলে অবশ্যই ঘরের ভেতর থাকুন।   

২৪ ঘণ্টায় দেশে কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়নি
                                  

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কারো শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়নি। আজ রবিবার (২৯ মার্চ) করোনাভাইরাসসংক্রান্ত সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে করা ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। 

ফ্লোরা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় আমরা আইডিসিআর-এ মোট কল পেয়েছি দুই হাজার ৭২৬টি। এর সবই কোভিড-১৯ সংক্রান্ত পরামর্শের জন্য। গত ২৪ ঘণ্টায় আমরা ১০৯টি নমুনা পরীক্ষা করেছি। এর মধ্যে কারো শরীরেই কনোনা সংক্রমণ পাওয়া যায়নি। তার মানে সর্বমোট সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা ৪৮। এর মধ্যে ১৫ জন সংক্রমণ থেকে মুক্ত এবং তাঁরা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছে। 

আইইডিসিআর পরিচালক বলেন, যে ১০৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে তাতে আইইডিসিআর, জনস্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান এবং চট্টগ্রামে অবস্থিত বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড  ইনফেকশাস ডিজিসেস (বিআইটিআইডি)-এর তথ্য সংযোজিত হয়েছে।

আইইডিসিআর পরিচালক আরো বলেন, এ পর্যন্তু আমাদের সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন ধরনের আদেশ-নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন সময় জনস্বার্থে যে আদেশ ও নির্দেশনা দেওয়া হয়, সেগুলো আপনারা অবশ্যই মেনে চলবেন। জনসাধারণের ভালোর জন্য, সুস্থতা-সুস্বাস্থ্য নিশ্চিতকরণে আমরা সরকারি পদক্ষেপগুলো নিয়েছি। তিনি বলেন, আপনারা সবাই ঘরের ভেতর থাকুন। জরুরি কাজে বাইরে বের হলে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করুন। কাশি শিষ্টাচার মেনে চলুন। সাবান পানিতে হাত ধুতে হবে। অসুস্থ হলে অবশ্যই ঘরের ভেতর থাকুন।   

করোনায় বিনামূল্যে সাড়ে ৬ হাজার টন চাল বরাদ্দ
                                  

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলায় দেশের বিভিন্ন এলাকায় বসবাসরত নিম্ন আয়ের মানুষদের মধ্যে বিনামূল্যে চাল বিতরণ করা হবে। এ জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়েছে সাড়ে ছয় হাজার টন চাল। এই চাল খুুব শিগগিরই জেলা প্রশাসকদের মাধ্যমে বিতরণ করা হবে। মানবিক সহায়তা হিসেবে ত্রাণ হিসেবে এ চাল দেয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতর থেকে এ সংক্রান্ত একটি বরাদ্দপত্র জেলা প্রশাসকদের কাছে পাঠানো হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

খাদ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, করোনাভাইরাসজনিত বর্তমান অবস্থা মোকাবেলা করার জন্য রাজধানী ঢাকাসহ দেশের ৬৪ জেলায় বর্তমানে চালের মজুদ আছে ১৮ হাজার ২১৭ টন। এ থেকে ৬ হাজার ৫০০ টন চাল বিতরণ করা হবে।।

এই চাল বিতরণের বিষয়ে বলা হয়েছে, ‘দেশের ৬৪ জেলার জেলা প্রশাসকগণ দুর্যোগ পরিস্থিতিতে মানবিক সহায়তা বাস্তবায়নে নির্দেশিকা ২০১২-২০১৩ অনুসরণ করে বরাদ্দকৃত চাল বিতরণ করবেন এবং সরকারি বিধি-বিধান পালনপূর্বক নিরীক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় হিসাব সংরক্ষণ করে তা সংশ্লিষ্ট অধিদফতরকে অবহিত করবেন। বরাদ্দকৃত চালের ব্যয় চলতি ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের ত্রাণকার্য (চাল) মঞ্জুরি খাত থেকে নির্বাহ করা হবে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের হিসাব থেকে দেখা যায় বর্তমানে ঢাকায় চালের মজুদ ৩০৩ টন, গাজীপুরে ১১৪ টন, ময়মনসিংহে ২৬৫৬ টন, ফরিদপুরে ২০৭ টন, কিশোরগঞ্জে ৪৪৪ টন, নেত্রকোনায় ৫৮৫ টন, টাঙ্গাইলে ২৪৪ টন, নরসিংদীতে ১২০ টন, মানিকগঞ্জে ২৪৭ টন, মুন্সীগঞ্জে২৩৫ টন, নারায়ণগঞ্জে ২৩৫ টন, গোপালগঞ্জে ৩১২ টন, জামালপুরে ২৪৪ টন, শরীয়তপুরে ১৯৮ টন, রাজবাড়ী ২০৭ টন, শেরপুর ২২৪ টন, চট্রগ্রাম ৫৩২ টন, রাঙ্গামাটিতে ৫১৩ টন, খাগড়াছড়ি ২১৫ টন, কুমিল্লাতে ২১৩ টন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৩০০ টন, চাঁদপুরে ২৩৪ টন, নোয়াখালীতে ২২৬ টন, ফেনীতে ৬৬৮ টন, লক্ষ্মীপুরে ৫০০ টন, বান্দরবানে ২৫২ টন, রাজশাহীতে ৩৯৮ টন, নওগাঁয় ১৯২ টন, পাবনায় ১৮০ টন, সিরাজগঞ্জে ৩৫৩ টন, বগুড়ায় ৩১৮ টন, নাটোরে ১৫৫ টন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১৪৮ টন, জয়পুরহাটে ১৯৬ টন, রংপুরে ৪৮৫ টন, দিনাজপুরে ২২৬ টন, কুড়িগ্রামে ২৫৮ টন, ঠাকুরগাঁওয়ে ২৪৮ টন, পঞ্চগড়ে ৩৭১ টন, নীলফামারী ২৮১ টন, গাইবান্ধায় ২০৯ টন, লালমনিরহাটে ২১২ টন চাল মজুদ আছে।

এ ছাড়াও খুলনায় ৪৪০ টন, বাগেরহাটে ৫৯৩ টন, যশোরে ২৪ টন, কুষ্টিয়ায় ১২০ টন, কুষ্টিয়ায় ১২০ টন, সাতক্ষীরায় ২০০ টন, ঝিনাইদহে ২২৮ টন, মাগুরায় ১১০ টন, নড়াইলে ১৮৬ টন, মেহেরপুরে ৩১৬ টন, চুয়াডাঙ্গায় ২৫৮ টন, বারিশালে ১৯৫ টন, পটুয়াখালীতে ২০৬ টন, পিরোজপুরে ২৮৯ টন, ভোলায় ২৭৭ টন, বরগুনায় ২০৮ টন, ঝালকাঠিতে ২০৮ টন, সিলেটে ৩২১ টন, হবিগঞ্জে ৩৭৫ টন, সুনামগঞ্জে ২৯৫ টন এবং মৌলভীবাজার ৫৭৫ টনসহ সারা দেশে ১৮ হাজার ২১৭ টন চাল মজুদ আছে। তা থেকেই ৬ হাজার ৫০০ টন চাল দুস্থ ও নিম্ন আয়ের মানুষদের মধ্যে ত্রাণ হিসেবে বিতরণ করা হবে।

এ বিষয়ে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, করোনাভাইরাস যাতে দ্রুত ছড়িয়ে ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি করতে না পারে সে জন্য সরকার দেশজুড়ে ১০ দিনের ছুটি ঘোষণা করেছে। সেই সাথে সবাইকে নিজ নিজ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ঘরে অবস্থান করতে বলা হয়েছে। নিরাপত্তার স্বার্থে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়। রাস্তাঘাটে সব ধরনের সমাবেশ বন্ধ করা হয় শপিং মল ও হাট-বাজার বন্ধ ঘোষণা করা হয়। ফলে দিন এনে দিন খায় এমন মানুষসহ নিম্নআয়ের মানুষদের ভোগান্তি বেড়ে যায়।

১০ দিন ঘরে থাকা অবস্থায় যাতে এসব মানুষদের খাদ্যাভাব দেখা না দেয় সে জন্য সরকার বিশেষ ব্যবস্থায় এই চাল বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছে। এতে করে সীমিত পর্যায়ে হলেও নিম্ন আয়ের মানুষদের দুঃখ দুর্দশা কিছু লাঘব হবে। প্রয়োজনে আরো চাল বিতরণ করা হবে বলেও তিনি জানান।

অতি দ্রুত প্রতিরোধ ব্যবস্থা নেয়া না হলে করোনা অত্যন্ত দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে: জাতিসংঘ
                                  

জাতিসংঘ শনিবার জানিয়েছে যে অতি দ্রুত প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হলে করোনাভাইরাস অত্যন্ত দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে। আর এসব ব্যবস্থা সবাইকে মেনে চলারও আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।

জাতিসংঘ এক বিবৃতিতে জানায়, ‘কোভিড-১৯ ছড়িয়ে পড়া কমানোর জন্য বাংলাদেশ সরকার যেসব ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে, তার সাথে জাতিসংঘ সম্পূর্ণরূপে একমত ও সহযোগিতা করতে প্রস্তুত। আমরা সবাইকে এসব ব্যবস্থা মেনে চলার আহ্বান জানাচ্ছি ’ ।

জাতিসংঘ, সুশীল সমাজ ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সাথে অংশীদারিত্বে বাংলাদেশ সরকার অতি দ্রুততার সাথে বেশ কিছু ব্যবস্থা নিয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন ও আইসোলেশন, ভাইরাসটির ঝুঁকির ব্যাপারে ব্যাপকভাবে অবহিত করা, সামাজিক দূরত্ব, সামাজিক সুরক্ষা এবং বিদ্যালয় ও জনসমাগম হয় এমন স্থানগুলো বন্ধ করে দেয়া।

 

এসব ব্যবস্থার ফলে সরকার ও জাতিসংঘের সংস্থা, সুশীল সমাজ ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো দেশব্যাপী স্বাস্থ্যব্যবস্থা আরও জোরদার করার জন্য বেশ কিছুটা সময় পাবে এবং তার ফলশ্রুতিতে বাংলাদেশ সরকারকে এ মহামারি দমন করতে সহযোগিতা করতে পারবে।

এ জন্য প্রণীত ‘জাতীয় প্রস্তুতি ও সাড়াপ্রদান পরিকল্পনা হলো’ একটি পরিকল্পনার নথি, যা যৌথভাবে জাতিসংঘ ও বাংলাদেশ সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তর বেশ কিছু সুশীল সমাজের অংশীদার ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতায়  প্রস্তুত করেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বৈশ্বিক নির্দেশনার সাথে সঙ্গতি রেখে প্রস্তুত করা এ নথির উদ্দেশ্য হলো বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯ মহামারির প্রেক্ষাপটে সরকারের সাড়াপ্রদানে সহায়তা করতে জাতিসংঘের সংস্থা ও অংশীদারদের কার্যকরভাবে প্রস্তুত করা।

শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী
                                  

মাঠ প্রশাসনে দায়িত্ব পালনের সময় সরকারি কর্মকর্তারা শৃঙ্খলা ভঙ্গ করলে কঠোর শাস্তি দেওয়া হবে বলে সতর্ক করেছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

শনিবার সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলছেন, সরকারি চাকুরেদের জনগণের সেবক হিসেবে কাজ করতে হবে। জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) মাধ্যমে তাদের সেই নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে, এর ব্যত্যয় হলে ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যেতে পারে। বেআইনি ও অকর্মকর্তাসুলভ আচরণের দায়ে যশোরের মনিরামপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইয়েমা হাসানকে শনিবারই প্রত্যাহার করা হয়েছে। কুড়িগ্রামের ডিসি সুলতানা পারভীনের ঘটনার পর আমরা জেলা প্রশাসকদের নির্দেশনা দিয়েছিলেন। আবারও তাদের বেশকিছু নির্দেশনা দিয়েছি। আমরা বলেছি, আপনাদের (ডিসি) অধীনে যারা কাজ করেন তারা যেন জনগণের সেবক হিসেবে কাজ করেন। বাহাদুরি দেখানোর জন্য কোনো কাজ করলে, শৃঙ্খলাবিধি ভঙ্গ করলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আমার ঘরে আমার স্কুল : সংসদ টিভির ক্লাস রুটিন
                                  

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে দেশের সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় সংসদ টেলিভিশনে আগামীকাল রবিবার থেকে মাধ্যমিকের ক্লাস সম্প্রচার শুরু হচ্ছে। ‘আমার ঘরে আমার ক্লাস’ শিরোনামে প্রতিদিন ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির আটটি ক্লাস সম্প্রচার করা হবে। সকাল ৯টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত এই ক্লাস প্রচারিত হবে। এরপর বেলা ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত একই ক্লাস পুনঃপ্রচার করা হবে। আগামীতে দশম শ্রেণির ক্লাসও সম্প্রচার করা হবে।

এটুআইয়ের সহায়তায় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা (মাউশি) অধিদপ্তর এই ক্লাস সম্প্রচার করছে। ইতিমধ্যে মাউশি অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে চলতি সপ্তাহের বিস্তারিত ক্লাস সূচি প্রকাশ করা হয়েছে। 

জানা যায়, প্রথম পর্যায়ে ২৯ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল পর্যন্ত ক্লাস রুটিন প্রকাশ করা হয়েছে। প্রতিদিন প্রতিটি শ্রেণির ২টি করে ক্লাস সম্প্রচার করা হবে। ক্লাসের ব্যাপ্তি হবে ২০ মিনিট। সকাল ৯টা ৫ মিনিটে ক্লাস শুরু হবে। দুপুর ১২টায় ক্লাস শেষ হবে। 

তবে ষষ্ঠ শ্রেণির ক্লাস ৯টা ৫ থেকে ৯টা ৪৫ পর্যন্ত, সপ্তম শ্রেণীর ক্লাস ৯টা ৫০ থেকে ১০টা ৩০ পর্যন্ত, অষ্টম শ্রেণির ক্লাস ১০টা ৩৫ থেকে ১১টা ১৫ পর্যন্ত, নবম শ্রেণির ক্লাস ১১টা ২০ থেকে ১২টা পর্যন্ত চলবে। প্রতিদিন ২টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ক্লাসসমূহ পুনঃপ্রচার করা হবে। পরবর্তী ক্লাস রুটিন আগামী ১ এপ্রিল মাউশির ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

ক্লাস রুটিন

বিমান চলাচল স্থগিত ৭ এপ্রিল পর্যন্ত
                                  

নভেল করোনাভাইরাস সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়ায় তিন দেশ ছাড়া বিশ্বের সব দেশের সঙ্গে বিমান চলাচল আরো এক সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেছে বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। আগে এই সময়সীমা ছিল ৩১ মার্চ পর্যন্ত, যা বাড়িয়ে ৭ এপ্রিল করা হয়েছে। এছাড়া অভ্যন্তরীণ বিমান চলাচল ৪ এপ্রিল থেকে বাড়িয়ে ৭ এপ্রিল করা হয়েছে।  

আজ শনিবার বেবিচকের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ফ্লাইটে যাত্রী পরিবহনের (সিডিউল পেসেঞ্জার ফ্লাইট) ক্ষেত্রে বিমান চলাচল নিষেধাজ্ঞা ৩১ মার্চ এর পরিবর্তে আগামী ৭ এপ্রিল পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েয়ে। একই সাথে অভ্যন্তরীণ যাত্রী পরিবহনের ক্ষেত্রে বিমান চলাচল নিষেধাজ্ঞা ৭ এপ্রিল পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। বিশেষ ফ্লাইট ও কার্গো ফ্লাইট যথারীতি চলবে।’

এর আগে গত ২১ মার্চ নভেল করোনাভাইরাসের ব্যাপক সংক্রমণ ঠেকাতে ইংল্যান্ড, চীন, হংকং, ব্যাংকক ছাড়া ১০ দেশের সঙ্গে বিমান চলাচল ৩১ মার্চ পর্যন্ত স্থগিত করেছিল বাংলাদেশ। দেশগুলো হলো-কাতার, বাহরাইন, কুয়েত, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, তুরস্ক, মালয়শিয়া, ওমান, সিঙ্গাপুর ও ভারত। এছাড়া কিছু দেশ করোনাভাইরাস সংক্রমন ঠেকাতে বাংলাদেশের সঙ্গে বিমান চলাচল স্থগিত করে। এছাড়া ইউরোপের সঙ্গেও সব ধরনের বিমান চলাচল স্থগিত করা হয়।

সূত্র জানায়, যুক্তরাজ্যের ক্ষেত্রে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ কোনো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেননি। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সেখানে ৩০ মার্চ থেকে আগামী সাত দিনের জন্য তাদের ফ্লাইট স্থগিত করেছে। চীনের সঙ্গে কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই। হংকং ও থাইল্যান্ড রুটে যাত্রী স্বল্পতার কারণে এয়ারলাইন্সগুলো তাদের ফ্লাইট স্থগিত করেছে। ফলে কার্যত চীনের সঙ্গে ফ্লাইট চালু আছে। দেশিয় এয়ারলাইনসগুলোর মধ্যে সপ্তাহের রবিবার মাত্র একদিন ফ্লাইট চালাচ্ছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস।  

৩০ জুন পর্যন্ত জরিমানা ছাড়া গাড়ির ফিটনেস নবায়নের সুযোগ
                                  

যানবাহনের ফিটনেসের সময়সীমা অতিক্রান্ত হওয়ার পরও জরিমানা ছাড়া নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে ৩০ জুনের মধ্যে তা নবায়নের সুযোগ পাওয়া যাবে বলে শনিবার জানিয়েছে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ।

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটিকালে যেসব যানবাহনের ফিটনেসের সময়সীমা অতিক্রান্ত হবে সেগুলো এর আওতাভুক্ত হবে বলে জানানো হয়েছে।

সড়ক পরিবহন ও জনপথ বিভাগের জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাসের বলেন, এ সময়ের মধ্যে যানবাহন মালিকরা কোনো জরিমানা ছাড়াই তাদের যানবাহনের ফিটনেস নবায়নের সুযোগ পাবেন।

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বাংলাদেশ ১৭ মার্চ থেকে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ এবং ২৬ মার্চ থেকে আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সরকারি ছুটি ঘোষণা করেছে।

সেই সাথে সরা দেশে ট্রেনসহ সব গণপরিবহন চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে।

 

পদ্মাসেতুর ২৭তম স্প্যানে দৃশ্যমান হলো ৪ কিলোমিটার
                                  

শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে পদ্মাসেতুর ২৭তম স্প্যান বসানোর মাধ্যমে দৃশ্যমান হলো সেতুর চার হাজার ৫০ মিটার। ২৬তম স্প্যান বসানোর ১০ দিনের মাথায় বসানো হয়েছে ২৭তম স্প্যানটি।

করোনাভাইরাস আতঙ্কের মধ্যেই দেশি-বিদেশি প্রকৌশলীদের চেষ্টায় ২৭ ও ২৮ নম্বর পিলারের উপর স্প্যানটি বসানো সম্ভব হয়। আর ১৪টি স্প্যান বসিয়ে ২.১ কিলোমিটার দৃশ্যমান বাকি পদ্মাসেতুর। শনিবার সকাল ৯টার দিকে ২৭ ও ২৮ নম্বর পিলারের উপর স্প্যানটি বসানো হয় বলে নিশ্চিত করেছেন মূল সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান আবদুল কাদের।

 

এর আগে গত শুক্রবার সকালে মাওয়া কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে ভাসমান ক্রেন দিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় স্প্যানটিকে। আবহাওয়া ও কারিগরি কোনো জটিলতা দেখা না দেয়ায় অল্প সময়ের মধ্যেই স্প্যানটি স্থাপন করা সম্ভব হয়।

প্রকৌশল সূত্রে জানা যায়, পদ্মাসেতুতে বসানোর জন্য স্প্যান প্রস্তুত আছে পাঁচটি। এপ্রিলের ১৫ তারিখের মধ্যে আরো দুটি স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা আছে প্রকৌশলীদের।

সারাদেশে করোনাভাইরাস আতঙ্কের মধ্যে কাজের গতিতে প্রভাব পড়েছে। দেশি শ্রমিকের বড় একটি অংশ ছুটি নিয়েছে। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো।

 

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মাসেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদীশাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় বাংলাদেশকে ৩ লাখ ডলার দিল এডিবি
                                  

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় বাংলাদেশ সরকারকে ৩ লাখ ডলারের জরুরি সহায়তা প্রদানের অনুমোদন দিয়েছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)।

এডিবির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এ অনুদানের টাকা দিয়ে বিভিন্ন চিকিৎসা সামগ্রী যেমন- সুরক্ষার জন্য যন্ত্রপাতি, এন৯৫ মাস্ক, সুরক্ষা চশমা, অ্যাপ্রোন, থার্মোমিটার ও বায়োহ্যাজার্ড ব্যাগ সংগ্রহ করা হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, এ তালিকাটি স্বাস্থ্য অধিদপ্তর,বাংলাদেশ স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে তৈরি করা হয়েছে। এসব সামগ্রী করোনাভাইরাস মোকাবিলায় বাংলাদেশ সরকারের প্রচেষ্টাকে আরও শক্তিশালী করবে।

 

 

এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ বলেন, ‘করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বাংলাদেশকে সহায়তা করার জন্য এডিবি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং জটিল এই পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারকে সহায়তা পরিকল্পনার প্রথম পদক্ষেপ এটি।’

তিনি বলেন, এ সহায়তা করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ, প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ এবং ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি কমানোসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে।

জরুরি প্রয়োজনে শিল্পকারখানা খোলা রাখা যাবে
                                  

যে সকল রফতানিমুখী শিল্পপ্রতিষ্ঠানে আন্তর্জাতিক ক্রয় আদেশ বহাল রয়েছে এবং করোনাভাইরাস প্রতিরোধের ব্যবস্থা রয়েছে সে সকল কলকারখানা বন্ধের বিযয়ে সরকার কোনো নির্দেশনা প্রদান করেনি। স্বাস্থ্য অধিদফতর ও আইইডিসিআর কর্তৃক জারিকৃত স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নির্দেশিকা কঠোরভাবে প্রতিপালন সাপেক্ষে মালিকরা এসব (উল্লেখিত) প্রয়োজনবোধে বর্ণিত কলকারখানা সচল রাখতে পারবেন বলে জানিয়েছে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধিনস্থ কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতর। শুক্রবার কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফরের মহাপরিদর্শক স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি পত্র জারি করা হয়েছে। পত্রটি সকল মালিক ও শ্রমিক সংগঠনকে প্রেরণ করা হয়েছে।

পত্রে উল্লেখ করা হয়েছে,‘শিল্প কারখানা বন্ধের বিষয়ে কিছু প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় বিভিন্নমুখী বক্তব্য প্রচারিত হচ্ছে। এতে করে কারখানা মালিকরা শিল্প কারখানা চালু রাখার বিষয়ে দ্বিধাগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন। যেসকল রফতানিমুখি শিল্প প্রতিষ্ঠানে আন্তর্জাতিক ক্রয় আদেশ বহাল রয়েছে এবং করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জরুরি অপরিহার্য পণ্য পার্সোনাল প্রোটেকটিভ ইক্যুপমেন্ট, মাক্স, গ্লাভস, হ্যান্ড ওয়াস/স্যানিটাইজার, ওষুধ ইত্যাদির উৎপাদন কার্যক্রম চলমান রয়েছে সেসকল কলকারখানা বন্ধের বিযয়ে সরকার কোনো নির্দেশনা প্রদান করেনি। স্বাস্থ্য অধিদফতর ও আইইডিসিআর কর্তৃক জারিকৃত স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নির্দেশিকা কঠোরভাবে প্রতিপালন সাপেক্ষে মালিকরা প্রয়োজনবোধে বর্ণিত কলকারখানা সচল রাখতে পারবেন।’

পত্রে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, ‘গত ২৫ মার্চ প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে ভাষণে রফতানিমুখি শিল্পপ্রতিষ্ঠানের শ্রমিকদের বেতন ভাতা প্রদানের জন্য পাঁচ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনাসহ তাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি নিশ্চিতকরণে সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তবে প্রত্যেক কর্মীকে দেহের তাপমাত্রা পরিমাপক থার্মাল স্ক্যানার ব্যবহারের মাধ্যমে পরীক্ষা করে কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করানোর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মালিকপক্ষকে পত্রে অনুরোধ করা হয়। তাপমাত্রা স্বাভাবিকের বেশি হলে এবং সর্দি, কাশি ও শ্বাস প্রশ্বাসে সমস্যা থাকলে অর্থাৎ করোনা ভাইরাস সংক্রমণের উপসর্গ দেখা দিলে তাৎক্ষণিকভাবে ওই কর্মীকে বাধ্যতামূলক ছুটি প্রদান করে সংগনিরোধ বা কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা গ্রহণপূর্বক চিকিৎসার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মালিকপক্ষকে অনুরোধ করা হয়।’

চীন থেকে এলো আরো ৩০ হাজার টেস্ট কিট
                                  

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় আজ শুক্রবার বিকালে চীন থেকে আরো ৩০ হাজার টেস্ট কিট ঢাকায় পৌঁছেছে। 

চীনের আলীবাবা ফাউন্ডেশন ও জ্যাক মা ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়কে ওই অনুদান পাঠিয়েছে। 

ঢাকায় চীনের মিশন উপপ্রধান হুয়ালং ইয়ান সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এ তথ্য জানান। 

মোহাম্মদপুরের ৫৪ বাসা পুলিশের নজরদারিতে
                                  

রাজধানীর মোহাম্মদপুরের কাদেরাবাদ হাউজিংসহ ওই এলাকার ৫৪টি ভবন পুলিশের নজরদারিতে রয়েছে। বাধ্যতামূলক হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে বাড়িগুলো পুলিশের নজরদারি থাকবে বলে জানা গেছে।

আজ শুক্রবার ডিএমপির তেজগাঁও বিভাগের মোহাম্মদপুর থানা পুলিশ ওই ভবনগুলো ঝুঁকিপূর্ণ বলে চিহ্নিত করে।

মোহাম্মদপুর থানার ওসি আবদুল লতিফ বলেন, আইইডিসিআরের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ওই এলাকায় করোনায় আক্রান্ত রোগী থাকতে পারে কিংবা আছে পুরো মোহাম্মদপুর এলাকার এরকম ৫৪টি বাসার তালিকা আমরা পেয়েছি। আইইডিসিআর থেকে পুলিশ সদর দপ্তর মাধ্যমে পাওয়া ওই তালিকা অনুযায়ী ৫৪টি বাসাকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার রাজধানীর মহাখালীর রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা অনলাইনে নিয়মিত প্রেস বিফ্রিংয়ে জানান, ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে চার জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে দু’জন ঢাকার, দু’জন ঢাকার বাইরে। দু’জনের মধ্যে কো-মরবিডিটি বা আরো কিছু শারীরিক জটিলতা রয়েছে। তবে চার জনই শারীরিকভাবে সুস্থ।

জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে কাজ করছে নিরাপত্তা বাহিনী: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
                                  

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জমান খান কামাল বলেছেন, মানুষ যাতে অহেতুক জনসমাগম না করে সে লক্ষ্যে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে নিরাপত্তা বাহিনী কাজ করছে।

 

তিনি বলেন, ‘অহেতুক যেন কোন জনসমাগম না হয়, সে বিষয়ে আমাদের নিরাপত্তা বাহিনীকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সেই অনুযায়ী তারা জনগণকে উদ্বুদ্ধ করছেন। জনগণকে সরকারের নির্দেশনাগুলো মেনে চলতে বলছেন।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আজ শুক্রবার ধানমন্ডিতে নিজ বাসভবনে দেশের সার্বিক পরিস্থিতির বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে একথা বলেন।

আসাদুজ্জমান খান বলেন, রাস্তাঘাটে যারা বের হচ্ছেন তাদের নিষেধ করবেন যেন রাস্তায় না বের হন এবং অহেতুক যাতে ভিড় না করেন। অহেতুক যেন জনসমাগম না হয়, সে সম্পর্কে আমাদের নিরাপত্তা বাহিনীকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সে অনুযায়ী তারা জনগণকে উদ্বুদ্ধ করছেন। জনগণকে বলছেন, তারা যেন এই নির্দেশনা মেনে চলেন।

তিনি বলেন, আমার মনে হয় জনগণও সচেতন হয়েছে। আমরা আশা করি, আমরা এভাবে সচেতন থাকলে আমাদের দেশে করোনার বিস্তার অন্যান্য ইউরোপিয়ান দেশে যেমন হয়েছে সেরকম ঘটবে না।

যার যার অবস্থান থেকে করোনার বিরুদ্ধে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে আসাদুজ্জমান খান বলেন, যারা যেখানে আছেন সেখানে থেকে করোনার বিরুদ্ধে কাজ করে যান। সবাই যার যার বাসায় অবস্থান করুন। নিজেকে পরিস্কার রাখুন। নিয়ম মতো হাত ধোবেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সচেতন রয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি মনিটরিং সেল ২৪ ঘণ্টা খোলা রয়েছে। কোথায় কি হচ্ছে আমরা সব খোঁজ খবর রাখছি এবং সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নিচ্ছি।বাসস

রাজধানীর যেসব হাসপাতালে হবে করোনার চিকিৎসা
                                  

বাংলাদেশে প্রতিদিন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলছে। দেশে শুক্রবার নতুন করে আরও চার জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। এমন পরিস্থিতিতে রাজধানীতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের জন্য চিকিৎসা সেবা দিতে প্রস্তুত রাখা হয়েছে বেশ কিছু হাসপাতাল।

 

আইইডিসিআর এর তথ্যমতে রাজধানীতে এখন পর্যন্ত দশটি হাসপাতালে কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাসের চিকিৎসা দেওয়ার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সেই সঙ্গে ওই সব হাসপাতালে যোগাযোগের জন্য হাসপাতালগুলো নিজস্ব যোগাযোগ নম্বরও সরবরাহ করেছে।

রাজধানীর এসব হাসপাতাল হলো- উত্তরায় কুয়েত মৈত্রী ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল (যোগাযোগ:০১৯৯৯৯৫৬২৯০), কমলাপুরে বাংলাদেশ রেলওয়ে হাসপাতাল(যোগাযোগ:+৮৮০২৫৫০০৭৪২০), নয়াবাজারে মহানগর জেনারেল হাসপাতাল (যোগাযোগ: ০২৫৭৩৯০৮৬০,০২৭৩৯০০৬৬), মিরপুর মেটারনিটি হাসপাতাল(যোগাযোগ:০২৯০০২০১২), কামরাঙ্গীরচর ৩১ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল (যোগাযোগ:০১৭২৬৩২১১৮৯), আমিনবাজার ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল (যোগাযোগ:০১৭০০০০০০০০,০১৭১২২৯০১০০) কেরানীগঞ্জে জিনজিরা ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল, যাত্রাবাড়ীতে সাজেদা ফাউন্ডেশন হাসপাতাল (যোগাযোগ:০১৭৭৭৭৭১৬২৫), শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতাল, ঢাকা মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউট(যোগাযোগ:০১৮১৯২২০১৮০)

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় আরো চারজনের মধ্যে করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে দুইজন চিকিৎসক রয়েছেন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪৮ জনে পৌঁছালো। শুক্রবার সকালে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে রাজধানীর মহাখালী আইইডিসিআর থেকে অনলাইনে ব্রিফিং করছেন সংস্থার পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

তিনি আরো জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা করা হয় ১০৬ জনের। এ নিয়ে মোট ১০২৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলো।

করোনা ভাইরাসের লক্ষণগুলো দেখা দিলেই হটলাইন নম্বরগুলোতে যোগাযোগ করতে বলছে আইইডিসিআর। হটলাইন নম্বর ১৬২৬৩ ছাড়াও অন্যান্য নম্বরগুলো হচ্ছে- ০১৪০১১৮৪৫৫১, ০১৪০১১৮৪৫৫৪, ০১৪০১১৮৪৫৫৫, ০১৪০১১৮৪৫৫৬, ০১৪০১১৮৪৫৫৯, ০১৪০১১৮৪৫৬০, ০১৪০১১৮৪৫৬৩, ০১৪০১১৮৪৫৬৮, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯৩৭১১০০১১।

লকডাউনে পুলিশের লাঠিপেটায় ক্ষোভ
                                  

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দিন দিন বাড়তে থাকায় এখন সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য রাস্তায় পুলিশ ও সেনাবাহিনী কাজ করছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে মাস্ক না পরা বা বাইরে বের হওয়ার জন্য পুলিশের লাঠিপেটা,কান ধরে থাকার দৃশ্য স্থানীয় গণমাধ্যমে দেখা যাচ্ছে।

সাধারণ মানুষের সাথে পুলিশের এ`ধরণের আচরণ নিয়ে বিভিন্ন মহলে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

কক্সবাজারের টেকনাফের একজন মুদি দোকানদার নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, গতকাল তিনি পুলিশের মার খেয়েছেন।

তিনি বলেন, "আমি সকালে বাসা থেকে বের হয়ে দোকানের দিকে যাচ্ছিলাম। হঠাৎ করে টহলরত পুলিশ আমার দিকে তেড়ে আসে আমাকে বলে বাইরে বের হয়েছিস কেন? এই বলে আমাকে মারতে থাকে। তারা আমার উত্তরের অপেক্ষা না করেই মারে``। আমি দোকানে যাচ্ছি, দোকান খোলার জন্য সেটা তো অন্যায় না। এখন আমার কাছে জানতে চেয়ে উত্তর তাদের মন মত না হলে ব্যবস্থা নেবে। কিন্তু কিছু না শুনেই মারা শুরু করে। এ কেমন কথা"।

 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে আরো দুজন এমন ক্ষোভ জানিয়েছেন।

তারা বলছেন , আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সামাজিক দূরত্ব রাখা বা মানুষকে নিয়ম-কানুনের মধ্যে রাখার জন্য যেটা করছেন সেটার অবশ্যই ভালো দিকে আছে।

কিন্তু অনেকে আছেন যারা জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হচ্ছেন।

তাদের কাছে আগে শুনতে হবে, দরকার পরলে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তারা দেখতে চাইতে পারেন কিন্তু এভাবে কথা না শুনেই মারা বা হেনস্থা করা কাম্য নয়।

 

ফেরদৌস জাহান (ছদ্ম নাম) নামে একজন নারী একটি ব্যাংকে চাকরি করেন।

সব সরকারি বেসরকারি অফিস বন্ধের ঘোষণা হলেও ব্যাংকগুলোকে সীমিত আকারে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যেতে বলেছে।

এখন ফেরদৌস জাহান বলছেন, তাকে অফিস করতে হচ্ছে। কিন্তু তিনি ভয় পাচ্ছেন রাস্তায় যেভাবে পুলিশ পেটাচ্ছে তাতে করে তিনি বের হলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দ্বারা যদি হেনস্থার শিকার হন।

 তিনি প্রশ্ন করেন " যারা অফিস করতে বাধ্য, যেমন আমার মত তারা রাস্তাঘাটে পুলিশ পেটোয়া বাহিনী দিয়ে হেনস্থা হইলে তার দায়ভার নিবে কে?"।

তিনি খুব ক্ষোভের সঙ্গে বলছিলেন "আর এই পেটুয়া বাহিনীর হাত থেকে নিস্তার পেতে কোন নম্বরে কল দিতে হবে সেটাও জানতে চা‌ই"।

পুলিশ কী বলছে?
বাংলাদেশ পুলিশের এআইজি মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন কর্মকর্তা সোহেল রানা বলছিলেন, বল প্রয়োগের ঘটনা বিচ্ছিন্নভাবে হয়ে থাকতে পারে। তবে তিনি বলে পুলিশ সেটা ``একেবারেই প্রশ্রয় দিচ্ছে না।``

তিনি বলেন, ``সারাদেশে মাঠ পর্যায়ে যেসব পুলিশ সদস্য কাজ করছেন তাদের কঠোর নির্দেশ দেয়া হচ্ছে , যাতে করে সম্মানিত নাগরিকদের সাথে বিনয়ের সাথে, পেশাদার আচরণ করা হয়, তাদেরকে বোঝানো হয় করোনাভাইরাসের পরিস্থিতি এবং সচেতনতা সম্পর্কে । তারপরেও পুলিশের কোন কোন সদস্যের দ্বারা এই ঘটনা ঘটেছে। আমরা ঐসব এলাকার ইউনিট কমান্ডারদের বলেছি এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ``।

তবে সোহেল রানা বলেন যে, পুলিশের ``দুই একজন সদস্যের এ`ধরণের আচরণ বাংলাদেশ পুলিশকে প্রতিনিধিত্ব করে না।``

পুলিশ বলছে দেশের এই জরুরি পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের নাগরিকদের সর্বোচ্চ সচেতন থাকতে হবে। এবং সরকারের দেয়া নির্দেশ মেনে চলতে হবে।

জরুরি প্রয়োজনে যারা বাইরে বের হচ্ছেন, এবং যেগুলো সরকারের নির্দেশের আওতামুক্ত তাদের ব্যাপারে পুলিশ সদস্যরা বাংলাদেশ পুলিশের দেয়া নির্দেশনা মেনে চলছেন। এবং এতে করে কোনো নাগরিকের সমস্য হওয়ার কথা না বলে জানাচ্ছে সংস্থাটি।
সূত্র : বিবিসি

করোনা নিয়ে বাদ দিতে হবে যেসব ভুল ধারণা: ডাব্লিউএইচও
                                  

পুরো বিশ্ব কাঁপছে করোনা ঝড়ে। করোনা থেকে বাঁচতে মানুষ খুঁজছে নানা উপায়। তবে করোনা নিয়ে বেশ কিছু ভুল ধারণা যা মানুষের মনে বিভ্রান্তি তৈরী করছে। এমনকি যার কোন সঠিক বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যাও নেই। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এইসব ভ্রান্ত ধারণা সম্পর্কে মানুষকে সতর্ক করেছে।

গরম আবহাওয়াতে করোনা ছড়ায়:
এটা ঠিক যে অনেক সংক্রামক রোগ- বিশেষ করে ফ্লু শীতের মাসগুলোতেই বেশি হয়। ডিসেম্বরে প্রথম যখন চীনের উহানে করোনাভাইরাস ছড়ায় তখন সেখানে বেশ ঠাণ্ডা ছিল। পরবর্তীতে যেসব দেশে এই ভাইরাস ধ্বংসযজ্ঞ শুরু করে, সেগুলোর অনেকগুলোই শীতপ্রধান। ফলে, একটি সাধারণ ধারণা তৈরি হয়েছে যে গরম পড়লেই এই ভাইরাস মরে যাবে। কিছু কিছু গবেষণাতেও দেখা, গরম আবহাওয়াতে নতুন এই করোনাভাইরাসের স্থায়িত্ব অপেক্ষাকৃত কম। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, গরম পড়লেও আপনার উচিৎ হবে সর্বোচ্চ সাবধানতা অবলম্বন করা। মানুষের সংস্পর্শ এড়িয়ে চলুন, বারবার হাত ধুতে হবে, এবং চোখ, মুখ বা কান স্পর্শ করবেন না। 

ঠান্ডায় টিকবে না ভাইরাস:
শীতের দেশের বহু মানুষ মনে করছেন, ভারী বরফ পড়লে হয়তো করোনাভাইরাস টিকবে না। ভুল। বাইরের তাপমাত্রা যত বেশিই থাকুক না কেন আপনার শরীরের স্বাভাবিক তাপমাত্রা ৩৬.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে ৩৭ডিগ্রি সেলসিয়াস। সুতরাং বিভ্রান্তিতে না ভুগে, সাবধানতা অবলম্বন করুন।

গরম পানিতে গোসল কি বাঁচার উপায়?
শুধু গরম পানিতে গোসল করলেই কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ ঠেকানো সম্ভব নয়। বরঞ্চ বেশি গরম পানিতে গোসল করলে হিতে বিপরীত হতে পারে। গরম পানিতে গোসল নয়, সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে আপনি ভাইরাস ঠেকাতে পারেন।

রসুন খেলে কি সংক্রমণের ঝুঁকি কমবে?
সামাজিক গণমাধ্যমগুলোতে এই ভাইরাস ঠেকাতে রসুন খাওয়ার বহু পরামর্শ চোখে পড়েছে। কিন্তু ডব্লিউএইচও বলছে, এই ধারণা ঠিক নয়। রসুন স্বাস্থ্যকর একটি খাবার যার ভেতর জীবাণুনাশক কিছু উপাদান হয়তো রয়েছে। কিন্তু, নতুন এই করোনাভাইরাস ঠেকাতে রসুন কাজ করবে- এমন কোনো বৈজ্ঞানিক প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

কমবয়সীরা কি নিরাপদ, করোনাভাইরাস কি শুধু বয়স্কদেরই হামলা করে?
যে কোনো বয়সের লোকই নতুন এই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে। এটা ঠিক যে, বেশি বয়স্ক লোক এবং যারা হৃদরোগ বা ডায়াবেটিসের মত রোগে ভুগছেন, তাদের ওপর এই ভাইরাসের প্রতিক্রিয়া বেশি হবে, কিন্তু অল্পবয়সীরাও এই ভাইরাসে সমানভাবে আক্রান্ত হতে পারেন।

মশার কামড়ে কি করোনাভাইরাস ছড়াতে পারে?

এখন পর্যন্ত এমন কোনো প্রমাণ বিজ্ঞানীদের হাতে নেই যে মশার কামড়ের মাধ্যমে করোনাভাইরাস একজনের দেহ থেকে অন্যের দেহে যেতে পারে। নতুন এই করোনাভাইরাস শ্বাসযন্ত্রকে আক্রমণ করে, এবং আক্রান্ত মানুষের হাঁচি-কাশি, থুতুর মাধ্যমেই তা অন্যের শরীরে ঢোকে। সুতরাং কারো ভেতর এসব উপসর্গ দেখলে দূরে থাকুন।

 

শরীরে অ্যালকোহল বা ক্লোরিন ছিটিয়ে কি বাঁচা যাবে?
এক কথায় উত্তর - না। শরীরে যদি একবার ভাইরাস ঢুকে যায়, তাহলে শরীরে অ্যালকোহল বা ক্লোরিন ছিটিয়ে কোনো লাভ নেই। বরঞ্চ তাতে চোখ বা মুখের ক্ষতি হতে পারে।

নিউমোনিয়ার টিকা কি কোভিড-১৯ ঠেকাবে?
এখন যে যে ধরণের নিউমোনিয়ার টিকা বাজারে রয়েছে, সেগুলো নতুন এই করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কাজ করেনা। করোনাভাইরাসের জন্য সম্পূর্ণ নতুন টিকা তৈরির কাজ চলছে।

লবণ-পানি দিয়ে নাক ধুলে কি কাজ হবে?
 লবণ মিশ্রিত পানি দিয়ে নিয়মিত নাক ধুয়ে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচা যায়- এমন কোনো প্রমাণ এখনো নেই।

আ্যন্টিবায়েটিক দিয়ে করোনাভাইরাস ঠেকানো বা চিকিৎসা করা যাবে?
না, অ্যান্টিবায়োটিক কোনো ভাইরাসের ক্ষেত্রেই কাজ করেনা। করোনাভাইরাস একটি ভাইরাস এবং এর চিকিৎসায় কোনোভাবেই অ্যান্টিবায়োটিকের ব্যবহার ঠিক নয়। তবে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়ার সাথে সাথে যদি আপনি কোনো ব্যাকটেরিয়াতেও আক্রান্ত হন, তাহলে আপনাকে হয়তো অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়া হতে পারে।

করোনাভাইরাসের কোনো ওষুধ আছে?
এখন পর্যন্ত নতুন এই করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বা এর চিকিৎসায় কোনো ওষুধ আবিষ্কৃত হয়নি। তবে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর যে সব শারীরিক উপসর্গ দেখা দেবে, সেসব উপসর্গ - যেমন শ্বাসকষ্ট- প্রশমনে রোগীকে সাহায্য করতে হবে। এখন পর্যন্ত সেটাই এর চিকিৎসা।

সূত্র: বিবিসি


   Page 1 of 402
     জাতীয়
২৪ ঘণ্টায় দেশে কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়নি
.............................................................................................
করোনায় বিনামূল্যে সাড়ে ৬ হাজার টন চাল বরাদ্দ
.............................................................................................
অতি দ্রুত প্রতিরোধ ব্যবস্থা নেয়া না হলে করোনা অত্যন্ত দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে: জাতিসংঘ
.............................................................................................
শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
আমার ঘরে আমার স্কুল : সংসদ টিভির ক্লাস রুটিন
.............................................................................................
বিমান চলাচল স্থগিত ৭ এপ্রিল পর্যন্ত
.............................................................................................
৩০ জুন পর্যন্ত জরিমানা ছাড়া গাড়ির ফিটনেস নবায়নের সুযোগ
.............................................................................................
পদ্মাসেতুর ২৭তম স্প্যানে দৃশ্যমান হলো ৪ কিলোমিটার
.............................................................................................
করোনাভাইরাস মোকাবিলায় বাংলাদেশকে ৩ লাখ ডলার দিল এডিবি
.............................................................................................
জরুরি প্রয়োজনে শিল্পকারখানা খোলা রাখা যাবে
.............................................................................................
চীন থেকে এলো আরো ৩০ হাজার টেস্ট কিট
.............................................................................................
মোহাম্মদপুরের ৫৪ বাসা পুলিশের নজরদারিতে
.............................................................................................
জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে কাজ করছে নিরাপত্তা বাহিনী: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
রাজধানীর যেসব হাসপাতালে হবে করোনার চিকিৎসা
.............................................................................................
লকডাউনে পুলিশের লাঠিপেটায় ক্ষোভ
.............................................................................................
করোনা নিয়ে বাদ দিতে হবে যেসব ভুল ধারণা: ডাব্লিউএইচও
.............................................................................................
দেশে করোনায় চিকিৎসকসহ আরো ৪ জন আক্রান্ত
.............................................................................................
করোনা গুজব ঠেকাতে টিভির সংবাদ মনিটরিং
.............................................................................................
চীনের দেয়া টেস্টিং কিট-পিপিই ঢাকায়
.............................................................................................
বিশেষ ফ্লাইটে মালয়েশিয়া ও ভুটান ফিরলেন ৩৬৩ বিদেশি নাগরিক
.............................................................................................
আজ মহান স্বাধীনতা দিবস
.............................................................................................
দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫, নতুন আক্রান্ত শূন্য
.............................................................................................
ধৈর্য-সাহসিকতার সঙ্গে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান
.............................................................................................
‘হজ নিবন্ধন কার্যক্রম ৮ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে’
.............................................................................................
ছুটিতে সরকারি চাকরিজীবীদের কর্মস্থলে থাকতে হবে
.............................................................................................
মুক্তি পাচ্ছেন খালেদা জিয়া
.............................................................................................
ছুটিতে ২ ঘণ্টা চালু থাকবে ব্যাংকের শাখা
.............................................................................................
২৬ মার্চ ঢাকায় আসছে চীনের টেস্ট কিট ও পিপিই
.............................................................................................
টিসিবি এবং ভোক্তা অধিদফতরের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীর ছুটি বাতিল
.............................................................................................
৯ এপ্রিল পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ
.............................................................................................
টোলারবাগে মারা যাওয়া বৃদ্ধের পরিবারের ৩ সদস্য আক্রান্ত
.............................................................................................
২৬ মার্চ থেকে সব ট্রেন বন্ধ
.............................................................................................
২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল গণপরিবহন বন্ধ
.............................................................................................
সব ধরনের যাত্রীবাহী নৌযান বন্ধের ঘোষণা
.............................................................................................
করোনা ভাইরাস নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ১০ নির্দেশনা
.............................................................................................
করোনাভাইরাস: মঙ্গলবার থেকে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত দিলেই হবে লকডাউন : কাদের
.............................................................................................
মহান স্বাধীনতা জাতীয় পতাকা উত্তোলনে বিধি মেনে চলার আহ্বান
.............................................................................................
করোনাভাইরাস: সিএমপির হটলাইন চালু
.............................................................................................
করোনাভাইরাস: সিএমপির হটলাইন চালু
.............................................................................................
অতিরিক্ত পণ্য কেনা থেকে বিরত থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
.............................................................................................
স্বাধীনতা দিবসে স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা ও বঙ্গভবনে সংবর্ধনা বাতিল
.............................................................................................
ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে দেশে জরুরি অবস্থা জারির পরামর্শ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার
.............................................................................................
অনির্দিষ্টকালের জন্য ব্যাংককের ফ্লাইট বন্ধ করলো বাংলাদেশ বিমান
.............................................................................................
চাইলে ভিডিও প্রেস কনফারেন্সে সহায়তা দেবে আইসিটি বিভাগ: প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
চারটি বাদে দেশের সব বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ ঘোষণা
.............................................................................................
ধর্মীয়, রাজনৈতিক, সামাজিক সমাবেশ বন্ধের নির্দেশ
.............................................................................................
বিশ্ব ইজতেমার ময়দানে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে হবে করোনার চিকিৎসা
.............................................................................................
বিভাগীয় স্থাপন করা হচ্ছে করোনা ইউনিট
.............................................................................................
মংলা বন্দরের বে-টার্মিনাল পরিধি বাড়ানোর সুপারিশ সংসদীয় কমিটির
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা ডট কম
মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত ।

প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ মো: হারুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
বার্তা সম্পাদক: মো: শরিফুল ইসলাম রানা
সহ: সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বিশেষ প্রতিনিধি : মো: আকরাম খাঁন
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed BY : Dynamic Solution IT   Dynamic Scale BD