| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   চাকরি পাতা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
জনপ্রশাসনে ২৫৬ জন কর্মকর্তা উপসচিব হলেন

জনপ্রশাসনে ২৫৬ জন কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দিয়ে উপসচিব করা হয়েছে। এ বিষয়ে রাতে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। পদোন্নতি পাওয়া কর্মকর্তাদের বেশির ভাগই বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের ২৫তম ব্যাচের কর্মকর্তা। যাঁদের মধ্যে অনেকেই আবার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। 

এর আগে গত আগস্টে অতিরিক্ত সচিব পদে এবং সেপ্টেম্বরে যুগ্ম সচিব পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছিল।

জনপ্রশাসনে ২৫৬ জন কর্মকর্তা উপসচিব হলেন
                                  

জনপ্রশাসনে ২৫৬ জন কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দিয়ে উপসচিব করা হয়েছে। এ বিষয়ে রাতে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। পদোন্নতি পাওয়া কর্মকর্তাদের বেশির ভাগই বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের ২৫তম ব্যাচের কর্মকর্তা। যাঁদের মধ্যে অনেকেই আবার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। 

এর আগে গত আগস্টে অতিরিক্ত সচিব পদে এবং সেপ্টেম্বরে যুগ্ম সচিব পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছিল।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ
                                  

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদের বিশাল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ । ০১ আগস্ট  থেকে শুরু হয়েছে আবেদন প্রক্রিয়া, চলবে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত, আপনি আবেদন করতে চাইলে আগে দেখেনিন আপনাকে কি করতে হবে ।

পুরুষ প্রার্খীদের ক্ষেত্রে দ্বিতীয় শ্রেণি বা সমমানের গ্রেড পয়েন্টসহ স্নাতকোত্তর অথবা চার বছরমেয়াদি স্নাতক (সম্মান) ডিগ্রি থাকলেই আবেদন করা যাবে। মহিলা প্রার্খীদের ক্ষেত্রে উচ্চ মাধ্যমিকবা সমমানের গ্রেড পয়েন্টসহ স্নাতকোত্তর অথবা চার বছরমেয়াদি স্নাতক (সম্মান) ডিগ্রি থাকলেই আবেদন করা যাবে।

আবেদন যেভাবে

শুরু হয়ে গেছে আবেদন প্রক্রিয়া। চলবে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক ওয়েবসাইটেওয়েবসাইটের ( http://dpe.teletalk.com.bd  or www.dpe.ov.bdমাধ্যমে আবেদন করতে হবে |

অস্ট্রেলিয়া যাবেন যে ক্যাটাগরি ভিসায় !
                                  

বহু কৃষ্টির দেশ অস্ট্রেলিয়া। অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, স্বাস্থ্যকর আবহাওয়া, সামাজিক নিরাপত্তা, লেখাপড়ার চমৎকার পরিবেশ দেশটিকে সবার পছন্দের শীর্ষে রেখেছে। ২০১৭’র এপ্রিলে অস্ট্রেলিয়া সরকার হঠাৎ তাদের জনপ্রিয় প্রোগ্রাম সাব-ক্লাস ৪৫৭ বন্ধ করে দেয়। এ কারণে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়ে সরকার। তখন বিকল্প হিসেবে চালু করে সাব-ক্লাস ৪৮২ বা টেম্পোরারি স্কিলড শর্টেজ ভিসা (টিএসএসভি)। সাব-ক্লাস ৪৮২ মূলতঃ টিএসএসভি’র অন্তর্গত একটি ভিসা। এর অধীনে শর্ট টার্ম, মিডিয়াম ও শ্রমচুক্তিতে ভিসা হয়। এ ভিসায় বিদেশি শ্রমিকরা অস্ট্রেলিয়ায় যেকোনো বৈধ প্রতিষ্ঠানে চাকরি নিতে পারেন।

সাব-ক্লাস ৪৮২ ভিসা সর্ম্পকে আন্তর্জাতিক অভিবাসন আইন বিশেষজ্ঞ ও বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী শেখ সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেন, মূলতঃ ভারতীয়রা সাব-ক্লাস ৪৫৭-তে এগিয়ে রয়েছে। বাংলাদেশীরাও দ্রুত ও দক্ষতার সাথে ফাইল প্রসেস করলে স্বল্প সময়ে এই ভিসা পাওয়া সম্ভব। অস্ট্রেলিয়ার ডিমান্ড লিস্টে ৪৩২টি পেশা রয়েছে। অতএব বিভিন্ন সাব-ক্লাসে আবেদন করে পরিবারসহ অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ীভাবে বসবাস করা সম্ভব।

অস্ট্রেলিয়ায় যাওয়ার জন্য কয়েক ডজন ভিসা প্রোগ্রাম রয়েছে। তবে চারটি ক্যাটাগরিতে সেখানে যাওয়া তুলনামূলক সহজ। এর মধ্যে অন্যতম হলো- স্কিলড মাইগ্রেশন উইথ পিআর। মোট ৬০ পয়েন্ট প্রয়োজন এ ভিসার জন্য। পয়েন্ট হিসাব করা হয় ভিসাপ্রার্থীর বয়স, কাজের অভিজ্ঞতা, পড়াশোনা এবং ভাষার ওপর চূড়ান্ত দখলের ওপর। এরপর রয়েছে স্কিলড নমিনেটেড ১৯০ ভিসা। শর্ট লিস্টেড পেশাজীবীরা অত্যন্ত জনপ্রিয় এই প্রোগ্রামে আবেদন করতে পারবেন। এজন্য টেরিটরি থেকে স্পন্সর থাকতে হবে, যা পাওয়া খুব সহজ।

টেম্পোরারি গ্র্যাজুয়েট, সাব-ক্লাস ৪৮৫ ভিসা হলো আরেকটি জনপ্রিয় ক্যাটাগরি। বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ান স্টুডেন্ট ভিসা আছে বা কমপক্ষে দুই বছরের মধ্যে লেখাপড়া শেষ করেছেন এমন ব্যক্তিরা এই কোটায় আবেদন করতে পারবেন। গ্র্যাজুয়েট ওয়ার্ক স্টিম ও পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ওয়ার্ক স্টিমের ভিসার মেয়াদ ১৮ মাস থেকে চার বছর পর্যন্ত হতে পারে।

স্কিলড রিকগনাইজড গ্র্যাজুয়েট ৪৭৬ ভিসা। সদ্য ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করা ছেলেমেয়েরা এই কোটায় আবেদন করতে পারবেন। বয়স হতে হবে সর্বোচ্চ ৩১। এছাড়া গত এক বছরের মধ্যে যারা পড়াশোনা শেষ করেছেন তাঁরাই এই ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। কোন ধরনের ভিসার জন্য আপনি উপযুক্ত, তা সঠিক ও বিস্তারিতভাবে জানা সবচেয়ে জরুরি। এজন্য অভিজ্ঞ ইমিগ্রেশন আইনজীবীর পরামর্শ গ্রহণের বিকল্প নেই।

আরেকটি ভিসা ক্যাটাগরি হলো ট্রেনিং অ্যান্ড রিসার্চ ভিসা (৪০৭)-অকুপেশনাল ট্রেইনিং স্কিম। এই ভিসায় অস্ট্রেলিয়ায় এসে দুই বছর পর্যন্ত অস্থায়ীভাবে বসবাস ও পূর্ণকালীন কাজের সুযোগ পাওয়া যাবে । মেয়াদ শেষে ভিসা নবায়নেরও সুযোগ রয়েছে। এ ভিসার জন্য প্রার্থীর আইইএলটিএস স্কোর কমপক্ষে ৪.৫ থাকতে হবে, বয়স হতে হবে ১৮ বা তার বেশি।

এমপ্লয়ার নমিনেশন স্কিম (১৮৬)। এই স্কিমের আওতায় স্থায়ীভাবে পরিবারসহ বসবাস ও কাজ করা সুযোগ রয়েছে। নাগরিকত্বও পাওয়া সম্ভব এই স্কিমের মাধ্যমে। এজন্য প্রার্থীর অস্ট্রেলিয়ায় দুই বছর কাজ করার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। রিজিওনাল স্পন্সরড মাইগ্রেশন স্কিম (১৮৭)। স্কিল অ্যাসেসমেন্টের প্রয়োজন নেই এই ভিসায়। এই ক্যাটাগরিতে চাকরিদাতার দায়-দায়িত্ব কিছুটা কম, স্থায়ী নাগরিকত্ব পাওয়াও সম্ভব। রিজিওনাল এরিয়া থেকে জব অফারের প্রয়োজন হয়। পড়াশোনা করারও সুযোগ পাওয়া যায়।

স্কিলড রিজিওনাল সাব-ক্লাস ৪৮৯ ভিসা। রিজিয়নে দুই বছরের পড়াশোনার অভিজ্ঞতা, আইইএলটিএস স্কোর কমপক্ষে ৬ থাকলেই এই ক্যাটাগরিতে ভিসা পাওয়া সম্ভব। ভিসা প্রার্থীকে পড়াশোনা শেষে রিজিয়নে এক বছর কাজ করতে হবে। চাকরিদাতার বর্তমান কাজের ঠিকানা, কাজের ধরন, অভিজ্ঞতা, শিক্ষাগত যোগ্যতা ও বেতনের ওপর নির্ভর করে ভিসা পাওয়ার বিষয়টি।

অস্ট্রেলিয়ায় অভিবাসনের জন্য সবচেয়ে জরুরি সততা ও দক্ষতা। সঠিক প্রক্রিয়া অনুসরণ করলে ভিসা প্রাপ্তিতে কোনো জটিলতা নেই। প্রসংগত উল্লেখ্য, অস্ট্রেলিয়ান ভিসা নিয়ে বাংলাদেশে যেক’টি প্রতিষ্ঠান কাজ করছে তার মধ্যে ওয়ার্ল্ডওয়াইড মাইগ্রেশন কনসালট্যান্টস লিমিটেড অন্যতম।

তথ্যসূত্র: ভয়েস বাংল ডটকম।

ব্যাংকে চাকরিতে সুযোগ পাবেন সব বিষয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা
                                  

বেসরকারি ব্যাংকগুলোতে কর্মী নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তিতে নির্দিষ্ট বিষয় ও বিশ্ববিদ্যালয় ঠিক করে দেওয়া হয়। এখন থেকে বিষয় বা বিশ^বিদ্যালয়ের নাম নির্দিষ্ট করে দেওয়া যাবে না। সরকারি ব্যাংকগুলোর মতো এসব ব্যাংকের নিয়োগেও স্বীকৃত যে কোনো বিশ^বিদ্যালয় থেকে উত্তীর্ণদের পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ দিতে হবে। গতকাল ব্যাংকার্স সভায় ব্যাংকগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের (এমডি) এ নির্দেশ দিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির।

 

গতকাল রবিবার সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীকে নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকে অনুষ্ঠিত সভায় এসব আলোচনা হয়। ব্যাংকার্স সভা হিসেবে পরিচিতি এ বৈঠকে সাধারণত ব্যাংক খাতের সমসাময়িক সমস্যা ও তা থেকে উত্তোরণের বিভিন্ন উপায় নিয়ে আলোচনা শেষে কেন্দ্রীয় ব্যাংক দিকনির্দেশনা দিয়ে থাকে। বাংলাদেশ ব্যাংকের সভাকক্ষে গভর্নর ফজলে কবিরের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীরা ছাড়াও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নরসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী বলেন, ব্যাংকগুলো কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে কয়েকটি বিষয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আবেদনের সুযোগ দেয়। এতে বিপুল পরিমাণ শিক্ষিত যুবক বঞ্চিত হন। প্রকৃত মেধাবীদের সুযোগ দিতে এটি বাতিল করতে বলা হয়েছে। টেকনিক্যাল কয়েকটি পদ ছাড়া অন্য পদে সবাইকে সুযোগ দিতে হবে। যোগ্য ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার মাধ্যমে যাচাই করে নিতে হবে। আগেই কাউকে বাদ দেওয়া যাবে না। এ ছাড়া আবেদনপত্রের সঙ্গে কোনো ফি গ্রহণ করা যাবে না।

 

এ ছাড়া বৈঠকে বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, জুলাইয়ে বেসরকারি খাতে প্রায় ১৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে। এর পেছনে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রেখেছে ভোক্তা ঋণ। ভোক্তা ঋণের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২৮ শতাংশ। ভোক্তা ঋণ এবং অন্য বড় বড় গ্রাহক ও খাতে ঋণ বেশি দেওয়ার ফলে কেন্দ্রীভূত হয়ে যাচ্ছে। ঋণ কেন্দ্রীকরণ থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। কারণ কেন্দ্রীভূত হলে খেলাপি ঋণের ঝুঁকি বাড়ে। খেলাপি ঋণের ঝুঁকি কমাতে সতর্ক থাকতে হবে।

 

এস কে সুর চৌধুরী বলেন, বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধির উল্লেখযোগ্য অংশ হয়েছে ভোক্তা ঋণ। গত জুলাইতে সামগ্রিক খাতে প্রায় ১৭ শতাংশ ঋণ প্রবৃদ্ধি হয়েছে। অথচ ভোক্তা ঋণ বেড়েছে ২৮ শতাংশ। এভাবে নির্দিষ্ট খাতে ঋণ কেন্দ্রীভূত না করার বিষয়ে ব্যাংকগুলোকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

 

ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের সংগঠন এবিবির চেয়ারম্যান ও বেসরকারি মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের এমডি আনিস এ খান সাংবাদিকদের বলেন, আদায় বৃদ্ধি ও ভালো মানের ঋণ বিতরণের মাধ্যমে খেলাপি ঋণ নিয়ন্ত্রণে গভর্নর ব্যাংকারদের পরামর্শ দিয়েছেন। পাশাপাশি কিছু ব্যক্তি ও খাতে যেন ঋণ কেন্দ্রীভূত হয়ে না পড়ে সে বিষয়ে গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। এ ছাড়া ম্যানেজমেন্ট ট্রেইনি অফিসার ও প্রবেশনারি অফিসার পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি কোনো বিষয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম উল্লেখ না করতে নির্দেশ দিয়েছেন। আমরা নির্দেশনা মোতাবেক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করব।

 

জানা গেছে, বৈঠকে চেক জালিয়াতি রোধে চেক ছাপানোর সময় নির্ধারিত সব নিয়ম পরিপালনের পাশাপাশি নিরক্ষরদের জন্য কীভাবে চেকের মাধ্যমে লেনদেন করার ব্যবস্থা নেওয়া যায় সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

 

এ ছাড়া ইরানের সঙ্গে ব্যাংকিং লেনদেন, সামষ্টিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতি, সুদহারসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

 

বৈঠক সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন পর গত বছরের ১৬ জানুয়ারি ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। তবে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাহী নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব ট্রাস্টির আওতাধীন বৈদেশিক সম্পদ নিয়ন্ত্রণ কার্যালয় (ওএফএসি) কর্তৃক ইরানের ওপর আরোপিত অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার কারণে যুক্তরাষ্ট্রের আর্থিক ব্যবস্থাকে ব্যবহার করে ইরান সরকার বা ইরানের কোনো ব্যাংককে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে সুবিধা প্রদান করে এ ধরনের কোনো লেনদেন (ইউএস ডলারে) করা সম্ভব নয়। এ ছাড়া বাংলাদেশের সব ব্যাংকের নস্ট্রো অ্যাকাউন্ট আমেরিকার বিভিন্ন ব্যাংকের সঙ্গে রয়েছে। ইরানের ব্যাংকগুলোর সঙ্গে লেনদেন করলে নস্ট্রো অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিতে পারে যুক্তরাষ্ট্র। এ জন্য ইরানের সঙ্গে ব্যাংকিং সম্পর্ক স্থাপন ঝুঁকিপূর্ণ।

সার্জেন্ট নেবে পুলিশ
                                  

সার্জেন্ট পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে বাংলাদেশ পুলিশ। সাধারণত ৪০০ থেকে ৭০০ সার্জেন্ট নিয়োগ দেওয়া হয়ে থাকে। রেঞ্জভেদে শারীরিক পরীক্ষা নেওয়া হবে ১৩ থেকে ১৬ ফেব্রুয়ারি। বিস্তারিত জানাচ্ছেন আরাফাত শাহরিয়ার ও আনিসুর রহমান

 

আবেদনের যোগ্যতা

পুলিশ হেড কোয়ার্টার্সের রিক্রুটমেন্ট অ্যান্ড ক্যারিয়ার প্ল্যানিং বিভাগের এআইজি মো. মনিরুল ইসলাম জানান, শিক্ষাগত যোগ্যতা চাওয়া হয়েছে স্নাতক। থাকতে হবে মোটরসাইকেল ড্রাইভিং ও কম্পিউটার চালনায় দক্ষতা। ১ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখে সাধারণ ও অন্যান্য কোটার প্রার্থীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ১৯ থেকে ২৭ বছর। তবে মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ১৯ থেকে ৩২ বছর। শারীরিক যোগ্যতার ক্ষেত্রে পুরুষ প্রার্থীদের উচ্চতা কমপক্ষে ৫ ফুট ৮ ইঞ্চি, বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩২ ইঞ্চি, প্রসারিত অবস্থায় ৩৪ ইঞ্চি হতে হবে। মুক্তিযোদ্ধা কোটার পুরুষ প্রার্থীদের উচ্চতা কমপক্ষে ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি, বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩০ ইঞ্চি, প্রসারিত অবস্থায় ৩২ ইঞ্চি হতে হবে।

নারী প্রার্থীদের (সব কোটার ক্ষেত্রে) উচ্চতা কমপক্ষে ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি থাকতে হবে। বডি মাস ইনডেক্স অনুযায়ী উচ্চতার সঙ্গে ওজনের সামঞ্জস্যতা থাকতে হবে। প্রার্থীকে জন্মসূত্রে বাংলাদেশের স্থায়ী নাগরিক ও অবিবাহিত হতে হবে। তালাকপ্রাপ্ত পুরুষ বা নারীরা আবেদন করতে পারবেন না।

 

নেওয়া হয় ৪০০ থেকে ৭০০ সার্জেন্ট

বিগত সার্জেন্ট নিয়োগ পরীক্ষায় দেখা গেছে,  সাধারণত ৪০০ থেকে ৭০০ সার্জেন্ট নিয়োগ দেওয়া হয়ে থাকে। গতবার নেওয়া হয়েছিল ৬৫০ জন। পুলিশ হেড কোয়ার্টার্সের রিক্রুটমেন্ট অ্যান্ড ক্যারিয়ার প্ল্যানিং বিভাগের অ্যাডিশনাল এসপি মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান আল-মামুন জানান, এবার ৪০০ থেকে ৫০০ জন সার্জেন্ট নিয়োগ হতে পারে। তিনটি ধাপে নিয়োগ পরীক্ষা হয়ে থাকে—শারীরিক যোগ্যতা, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা।

 

শারীরিক পরীক্ষার সময়সূচি

১৩ থেকে ১৬ ফেব্রুয়ারি সকাল ৯টায় আট রেঞ্জের প্রাথমিক শারীরিক পরীক্ষা হবে ঢাকার রাজারবাগ পুলিশ লাইনে। ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগ বা রেঞ্জের প্রার্থীদের পরীক্ষা ১৩ ফেব্রুয়ারি, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগ বা রেঞ্জের ১৪ ফেব্রুয়ারি, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগ বা রেঞ্জের ১৫ ফেব্রুয়ারি এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগ বা রেঞ্জের পরীক্ষা হবে ১৬ ফেব্রুয়ারি।

 

যা যা লাগবে

শারীরিক মাপ ও শারীরিক পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সময় শিক্ষাগত যোগ্যতার সব সনদ, সর্বশেষ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানের দেওয়া মূল চারিত্রিক সনদ, নাগরিকত্ব সনদের মূল কপি, প্রার্থীর পরিচয়পত্রের মূল কপি, না থাকলে পিতা বা মাতার পরিচয়পত্রের মূল কপি, প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তা সত্যায়িত সদ্য তোলা পাসপোর্ট আকারের তিন কপি রঙিন ছবি সঙ্গে আনতে হবে। আরো লাগবে মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স এবং এমএস অফিস, ইন্টারনেট ও ট্রাবলশ্যুটিংয়ের ওপর তিন সপ্তাহের কম্পিউটার প্রশিক্ষণের অভিজ্ঞতার মূল সনদ। কোটায় আবেদনকারীদের জন্য লাগবে সংশ্লিষ্ট কোটার সনদের মূল কপি এবং তা প্রমাণের জন্য প্রয়োজনীয় প্রত্যয়নপত্র।

শারীরিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের ওই দিন তিন টাকা দিয়ে ফরম কিনতে হবে। আবেদনপত্রের সঙ্গে ইন্সপেক্টর জেনারেল, বাংলাদেশ পুলিশ, ঢাকার অনুকূলে যেকোনো রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক থেকে পরীক্ষা ফি বাবদ ৩০০ টাকা ‘১-২২১১-০০০০-২০৩১’ নম্বর কোডে ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে জমা দিয়ে চালানের মূলকপি যুক্ত করতে হবে।

প্রাথমিক শারীরিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের আবেদন ফরম পূরণ করে ২০ ফেব্রুয়ারির মধ্যে এআইজি, রিক্রুটমেন্ট অ্যান্ড ক্যারিয়ার প্ল্যানিং বিভাগ, বাংলাদেশ পুলিশ, পুলিশ হেড কোয়ার্টার্স, ঢাকা বরাবর পাঠাতে হবে। পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের লিখিত পরীক্ষার প্রবেশপত্র পাঠানো হবে।

 

শারীরিক পরীক্ষার প্রস্তুতি

মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান আল-মামুন জানান, শারীরিক পরীক্ষায় প্রার্থীকে দৌড়, জাম্পিং ও রোপ ক্লাইমিং পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। শারীরিক মাপ পরীক্ষায় উচ্চতা, বুকের প্রস্থ, বয়সের সঙ্গে ওজনের সামঞ্জস্য দেখা হয়। প্রার্থীর ফিটনেস যাচাইয়ের জন্য দৌড়, জাম্পিং, রোপ ক্লাইমিংয়ে অংশ নিতে হয়। এ সময় ব্যায়ামের উপযোগী ঢিলেঢালা পোশাক সঙ্গে রাখতে হবে। আগে থেকেই নিতে হবে শারীরিক প্রস্তুতিও।

 

লিখিত ও মনস্তত্ত্ব্ব পরীক্ষা

লিখিত পরীক্ষা হয় ২৫০ নম্বরের। ইংরেজি, বাংলা রচনা ও কম্পোজিশনে থাকে ১০০ নম্বর। সাধারণ জ্ঞান ও পাটিগণিতে ১০০ নম্বর এবং মনস্তত্ত্বে থাকে ৫০ নম্বর। এ পরীক্ষায় সাধারণত এসএসসি ও এইচএসসি লেভেলের ছাত্র-ছাত্রীদের উপযোগী প্রশ্ন করা হয়। তবে এসএসসি লেভেলের প্রশ্ন বেশি থাকে। প্রশ্নপদ্ধতি সম্পর্কে মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান আল-মামুন বলেন, প্রশ্নে ভিন্নতা থাকতে পারে, তবে ধরন ঠিক থাকবে। ইংরেজি, বাংলা রচনা ও কম্পোজিশন ১১ মার্চ এবং সাধারণ জ্ঞান ও পাটিগণিত পরীক্ষা হবে ১২ মার্চ সকাল ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত।

 

মনস্তত্ত্ব্ব পরীক্ষা

মনস্তত্ত্ব পরীক্ষা হবে ১০ মার্চ সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত। আইকিউ ও কুইজ টাইপের প্রশ্ন থাকতে পারে মনস্তত্ত্ব পরীক্ষায়। সাদৃশ্য, বৈসাদৃশ্য শব্দ বা সংখ্যা চিহ্নিতকরণ, সমস্যার সমাধান, সম্পর্ক নির্ণয়, গাণিতিক যুক্তি অভীক্ষা, ভাইরাল রিজনিং, সাধারণ জ্ঞান (পূর্ণরূপ, সঠিক উত্তর, সংক্ষিপ্ত টিকা) থেকে বেশি প্রশ্ন হয়ে থাকে। অনেক সময় গাণিতিক ধাঁধা থেকেও প্রশ্ন হয়ে থাকে। যেমন—এক সপ্তাহ আগে অমিত বলেছিল, গত পরশু তার জন্মদিন। আজ শুক্রবার হলে তার জন্মদিন কী বার ছিল?

মনস্তত্ত্ব অংশে ভালো করতে হলে বারবার চর্চা করতে হবে। বিসিএস লিখিত মানসিক দক্ষতা অংশ ও সার্জেন্ট রিক্রুটিং গাইডের মনস্তত্ত্ব অংশ অনুশীলন করলে ভালো ফল পাবেন।

 

ইংরেজি, বাংলা রচনা ও কম্পোজিশন

১০০ নম্বরের মধ্যে ইংরেজিতে ৫০, বাকি ৫০ থাকে বাংলা রচনা ও কম্পোজিশনে। বিগত নিয়োগ পরীক্ষায় দেখা গেছে, ইংরেজি অংশে সাধারণত ১৫ নম্বরের একটি রচনা আসে। ১০ নম্বরের আসে phrase and idioms এগুলো দিয়ে অর্থপূর্ণ বাক্য তৈরি করতে হয়। ইংরেজিতে একটি চিঠি লিখতে হয়, এতে থাকে ১০ নম্বর। Fill in the blanks থাকে ৫ নম্বরের। এ ছাড়া থাকে translation, এতে বরাদ্দ ১০ নম্বর। ইংরেজি অংশের জন্য কাজে আসবে প্রফেসরস প্রকাশনীর ‘ইংলিশ ফর কম্পিটেটিপ এক্সাম’ ও পিসি দাশের ‘অ্যাপলাইড ইংলিশ গ্রামার অ্যান্ড কম্পোজিশন’ বই দুটি।

বাংলা রচনা ও কম্পোজিশন অংশেও ১৫ নম্বরের একটি রচনা লিখতে হয়। বাগধারা দিয়ে বাক্য তৈরি করতে বলা হয়। এতে থাকে ১০ নম্বর। ভাব সম্প্রসারণে থাকে ১০। এককথায় প্রকাশে থাকে ৫ নম্বর ও বঙ্গানুবাদে থাকে ১০ নম্বর। এ অংশের জন্য বিসিএস লিখিত পরীক্ষার বাংলা বই ও হায়াৎ মামুদের ‘ভাষা শিক্ষা’ বইটি কাজে আসবে।

 

সাধারণ জ্ঞান ও পাটিগণিত

পাটিগণিতে ৫০ ও সাধারণ জ্ঞানে ৫০ নম্বর বরাদ্দ থাকে। সাধারণ জ্ঞান অংশে বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়ে প্রশ্ন থাকে। সাধারণত আলোচিত ঘটনা, মুক্তিযুদ্ধ, বাংলাদেশের সংবিধান, ঐতিহাসিক স্থান, আন্তর্জাতিক সংস্থা, বিশ্বরাজনীতি ইত্যাদি বিষয়ে প্রশ্ন হতে দেখা যায়। বহুল আলোচিত সাম্প্রতিক বিষয় থেকেও প্রশ্ন হতে পারে। সংক্ষিপ্ত প্রশ্নের পাশাপাশি বর্ণনামূলক প্রশ্নও আসে। টিকা, এককথায় প্রকাশও থাকতে পারে। এ অংশে ভালো করতে হলে আজকের বিশ্ব, নতুন বিশ্ব, এমপিথ্রি, তথ্যকোষ প্রভৃতি সাধারণ জ্ঞানের বই এবং কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স, কারেন্ট ওয়ার্ল্ড প্রভৃতি তথ্যভিত্তিক মাসিক সাময়িকী দেখতে পারেন।

পাটিগণিত অংশে পাঁচটি প্রশ্ন থাকে। প্রতিটি প্রশ্নের মান ১০। শতকরা, ঐকিক নিয়ম, লাভক্ষতি, ল.সা.গু-গ.সা.গু, সরল, মাননির্ণয়, সুদকষা, উৎপাদক ইত্যাদি বিষয় থেকে বেশি প্রশ্ন আসে। তবে অনেক সময় বীজগণিত ও জ্যামিতি থেকেও প্রশ্ন হতে দেখা যায়। এ অংশে ভালো করার জন্য ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির গণিত বইয়ের পাটিগণিত অংশ আয়ত্তে রাখতে হবে।

 

মৌখিক পরীক্ষা

মনস্তত্ত্ব ও লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মৌখিক পরীক্ষার জন্য ডাকা হবে। মৌখিক পরীক্ষার স্থান, তারিখ যথাসময়ে জানিয়ে দেওয়া হবে। মৌখিক পরীক্ষায় যেকোনো বিষয়ে প্রশ্ন হতে পারে, নির্দিষ্ট কোনো বিষয় নেই।

মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান আল-মামুন জানান, মৌখিক পরীক্ষায় দেশ, সংস্কৃতি, ইতিহাস, ঐতিহ্য ও স্নাতক পর্যায়ে পড়া বিষয়ের ওপর প্রশ্ন করা হতে পারে। এ ছাড়া সাইকোলজি ও মেন্টাল গ্রোথ যাচাই করা হতে পারে।

 

বেতন ও সুযোগ-সুবিধা

নিয়োগপ্রাপ্তদের ২০১৫ সালের জাতীয় বেতন স্কেলের দশম গ্রেড অনুযায়ী ১৬০০০-৩৮৬৪০ টাকা স্কেলে বেতন দেওয়া হবে।

এ ছাড়া রয়েছে ট্রাফিক ভাতা, বিনা মূল্যে পোশাক, ঝুঁকি ভাতা, স্বল্প মূল্যে রেশন ও চিকিৎসা সুবিধা। থাকবে নিয়মানুযায়ী উচ্চ পদে পদোন্নতিসহ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে যাওয়ার সুযোগ।

বিমানবাহিনীতে চাকরি পাচ্ছেন ভ্যানচালক ইমাম শেখ
                                  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিজের ভ্যানে বহন করলেও মনের না বলা কথা বলা হয়ে ওঠেনি কিশোর ভ্যানচালক ইমাম শেখের (১৭)। তবে তার সেই না বলা কথাটা অবশেষে শুনেছেন প্রধানমন্ত্রী। চাকরি পাচ্ছেন তিনি। শিক্ষাগত যোগ্যতা অনুসারে তাকে বিমান বাহিনীতে নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

আজ রোববার সকালে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ এ তথ্য জানিয়েছেন।

শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ জানান, যশোরের বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান বিমান ঘাঁটির স্কোয়াড্রন লিডার হারুন অর রশীদের নেতৃত্বে তিন সদস্যের দল ইমাম শেখের বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে যোগাযোগ করা হলে ইমাম শেখ বলেন, আমি বিমানবাহিনীতে চাকরি পাচ্ছি এমন খবর আমাকে জানানো হয়েছে।

গত শুক্রবার গোপালগঞ্জ সফররত প্রধানমন্ত্রীকে নিজের ভ্যানে বহন করেছেন ইমাম শেখ। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন নাতি-নাতনি, ভাগ্নে (ছোট বোন শেখ রেহানার ছেলে) রেদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি ও তার স্ত্রী পেপি। পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ভ্যানে গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় শৈশব স্মৃতির স্থানগুলো ঘুরেছেন বাংলাদেশের সরকারপ্রধান।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিক আলাপচারিতায় মুগ্ধ ইমাম শেখ। তিনি বলেন, আসলে আমি বিশ্বাস করতে পারতেছিলাম না দ্যশের প্রধানমন্ত্রী আপা আমার ভ্যানে চড়ছে। আমি নিজেরে ধন্য মনে করি। তিনি একবার আমার খবর জিগাইলেন। ওই সময় অন্য অফিসার কি যেন বললেন তারপর আমিও আর কিছু বলতে পারলাম না।  

কী বলতেন? আমার একটা চাকরির কথা বলতাম। কেন?  ইমাম শেখ জানালেন, তার বাবা আব্দুল লতিফ মানসিক রোগী, মা গৃহিণী। ইমাম শেখরা দুই ভাই, তিনবোন। ভাইও ভ্যান চালক। কিন্তু অর্ধেক বেলা পর্যন্ত ভ্যান চালাতে পারলেও অসুস্থ হয়ে পড়েন। ইমাম শেখ একাই সংসার চালায়। অবশেষে তার সেই না বলা কথাটা প্রধানমন্ত্রী শুনেছেন।    

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার দুই দিনের সফরে গোপালগঞ্জ যান প্রধানমন্ত্রী। সেখানে একাদশ জাতীয় রোভার মুট-এ যোগ দেন তিনি। এই আনুষ্ঠানিকতা শেষে কিছুটা সময় নিজের জন্য করে পান শেখ হাসিনা। এসময় নিজ বাড়িতে স্বজনদের সঙ্গে সময় কাটান প্রধানমন্ত্রী।

৫ পদে ৩৩১ লোক নেবে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক
                                  

সম্প্রতি রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক (রাকাব) ৫টি পদে মোট ৩৩১ জন লোক নেবে বলে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এই নিয়োগের বিজ্ঞপ্তিটি ২৭ ডিসেম্বর প্রথম আলোর ১২ পৃষ্ঠায় প্রকাশিত হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিটি https://goo.gl/yvz2k9 এই লিংকেও পাওয়া যাবে। আগামী ২৬ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখে সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে অনলাইনের মাধ্যমে দরখাস্ত করতে হবে।

যেসব পদে নিয়োগ
এখানে কম্পিউটার অপারেটর পদে ২৯ জন, সুপারভাইজার পদে ১১৪ জন, ক্যাশিয়ার পদে ১৩২ জন, ডেটা এন্ট্রি অপারেটর পদে ৫৪ জন এবং ড্রাইভার পদে ২ জন লোক নেওয়া হবে।

যেসব জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন
সুপারভাইজার, ক্যাশিয়ার এবং ডেটা এন্ট্রি অপারেটর পদে শুধু রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের সব জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। ড্রাইভার পদে শুধু নওগাঁ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, রংপুর, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, নীলফামারী, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। এ ছাড়া কম্পিউটার পদে সব জেলার স্থায়ী বাসিন্দারা আবেদনের সুযোগ পাবেন।

আবেদনের যোগ্যতা
বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী কম্পিউটার অপারেটর, সুপারভাইজার এবং ক্যাশিয়ার পদের প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় বা প্রতিষ্ঠান থেকে দ্বিতীয় শ্রেণি বা সমমানের সিজিপিএতে স্নাতক বা সমমানের ডিগ্রি পাস হতে হবে। ডেটা এন্ট্রি অপারেটর পদের প্রার্থীদের স্নাতক বা সমমান উত্তীর্ণ হতে হবে। ড্রাইভার পদের প্রার্থীদের এসএসসি পাস হতে হবে। কম্পিউটার অপারেটর ও ডেটা এন্ট্রি অপারেটর পদের প্রার্থীদের কম্পিউটার বিষয়ে ১ বছরের ডিপ্লোমাসহ ডেটা এন্ট্রি অপারেটিং কাজে ন্যূনতম ১ থেকে ২ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। ড্রাইভার পদের প্রার্থীদের বৈধ লাইসেন্সসহ হালকা ও ভারী যানবাহন চালনায় ৩ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। সব পদের প্রার্থীদের বয়স ০১-১২-২০১৬ তারিখে সর্বোচ্চ ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে।

আবেদনের প্রক্রিয়া
এসব পদে আবেদন করতে হবে অনলাইনের মাধ্যমে। রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ওয়েবসাইট www.rakub.org.bd এ Apply online নামে একটি লিংক থাকবে। ওই লিংকে প্রবেশ করে বিজ্ঞপ্তিতে বর্ণিত নির্দেশনা মোতাবেক অনলাইন রেজিস্ট্রেশন ও অনলাইন অ্যাপ্লিকেশন ফরম পূরণের মাধ্যমে দরখাস্ত করতে হবে। সরাসরি http://rakub.isoftgo.com ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেও অনলাইন অ্যাপ্লিকেশন ফরম পূরণ করা যাবে। এ ছাড়া google play store থেকে `isoft jobs` নামে অ্যানড্রয়েড মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করে রাকাব ক্যারিয়ার থেকে মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইন অ্যাপ্লিকেশন ফরম পূরণ করা যাবে। অনলাইনে আবেদন করার পর প্রাপ্ত Tracking Number এবং পাসওয়ার্ড যথাযথভাবে সংরক্ষণ করতে হবে। সঠিকভাবে অ্যাপ্লিকেশন ফরম পূরণপূর্বক আবেদনকারী তাৎক্ষণিকভাবে রোল নম্বরসংবলিত অ্যাপ্লিকেশন কপি ও প্রবেশপত্র ডাউনলোডের মাধ্যমে সংগ্রহ করতে পারবেন। পরীক্ষার স্থান ও সময়সূচি পরে রাকাবের ওয়েবসাইট ও এসএমএসের মাধ্যমে জানানো হবে।

বেতন-ভাতাদি
চূড়ান্তভাবে নিয়োগপ্রাপ্ত একজন কম্পিউটার অপারেটর জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী ১২ হাজার ৫০০ টাকা, সুপারভাইজার ও ক্যাশিয়ার ১১ হাজার এবং ডেটা এন্ট্রি অপারেটর ও ড্রাইভার ৯ হাজার ৩০০ টাকা স্কেলে বেতন পাবেন।

ওয়েবসাইট: www.rakub.org.bd

পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চে নতুন ৪৩০ পদ
                                  

সাংগঠনিক কাঠামো বাড়ানো হয়েছে পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের (এসবি)। বর্ধিত কাঠামোর জন্য জনবল নিয়োগ করতে এরই মধ্যে সৃষ্টি করা হয়েছে ৪৩০ পদ। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা বরাবরে পাঠানো উপসচিব নিয়োদ চন্দ্র মণ্ডলের সই করা চিঠিতে এ তথ্য জানা গেছে।

 

এসবির বর্ধিত সাংগঠনিক কাঠামোতে ৪৩০ পদের মধ্যে ১০টি স্থায়ী ক্যাডার পদ রয়েছে। এর মধ্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার চারজন ও  সহকারী পুলিশ সুপার ছয়জন রয়েছেন। এছাড়াও ইন্সপেক্টর পদে ২০ জন, এসআই (নিরস্ত্র) পদে ১০০ জন, এএসআই (নিরস্ত্র) পদে ৩০০ জন নিয়োগ দেয়া হবে। একই সঙ্গে তিনটি জিপ, দুটি পিকআপ ও ১৫টি মোটরসাইকেল দেয়ার জন্যও বলা হয়েছে।

২০১৫ সালের ১১ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী নীতিগতভাবে পুলিশের জন্য ৫০ হাজার পদের অনুমোদন দিয়েছিলেন। এসবিতে নবসৃষ্ট ৪৩০টি পদকে ওই ৫০ হাজার পদের মধ্যে সমন্বয় ও বিধিগত সব আনুষ্ঠানিকতা পালনের কথাও বলা হয় চিঠিতে।

কনস্টেবল থেকে মহাপরিদর্শক (আইজি) পর্যন্ত বর্তমানে পুলিশে ২ লাখ ৪ হাজার ৫৬৪টি পদ রয়েছে। এসবির বর্ধিত সাংগঠনিক কাঠামোর জন্য সৃষ্টি করা পদ পূরণ করা হলে পুলিশে পদের সংখ্যা দাঁড়াবে ২ লাখ ৪ হাজার ৯৯৪টি।

১ সপ্তাহের মধ্যে ১০ হাজার নার্স নিয়োগের সিদ্ধান্ত
                                  

এক সপ্তাহের মধ্যে ১০ হাজার নার্স নিয়োগ করা হবে জানিয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, নিয়োগ পাওয়া নার্সদের পুলিশি যাচাইয়ের কাজ পরে করা হবে।

আজ রোববার দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে ‘স্বাস্থ্য খাতে জনবল কৌশলপত্র ২০১৫’ আনুষ্ঠানিক প্রকাশ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ কথা জানান তিনি। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, পুলিশ ভেরিফিকেশনে (যাচাই) অনেক সময় লাগে। ভেরিফিকেশনের নামে অযথা সময় নষ্ট করা হয়। তাই ভেরিফিকেশন ছাড়াই নার্স নিয়োগ করা হবে। ভেরিফিকেশন পরে হবে। কারও দোষ-ত্রুটি পাওয়া গেলে চাকরি থেকে বাদ দেওয়া হবে।

স্বাস্থ্যসচিব মো. সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দুজন অতিরিক্ত সচিব রোকশানা কাদের ও মো. শাজেদুল ইসলাম বক্তব্য দেন।

বিনা খরচে কর্মী যাবে কাতারে
                                  

পারস্য উপসাগরের তেলসমৃদ্ধ দেশ কাতারে বিনা খরচে পুরুষকর্মী পাঠানো হবে। কাতার ফাউন্ডেশন এ প্রক্রিয়া বাস্তবায়ন করবে। কিছু দিনের মধ্যে বাংলাদেশের গণমাধ্যমে এ সংক্রান্ত বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হবে। তবে এ প্রক্রিয়ায় ঠিক কত সংখ্যক কর্মী যেতে পারবে তা এখনো জানা যায়নি।

জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) মহাপরিচালক সেলিম রেজা এ সুখবর জানিয়ে বলেন, দেশটিতে বর্তমানে বিদেশি কর্মীদের ন্যূনতম বেতন ৭শ রিয়াল। তা বাড়িয়ে ১২শ রিয়াল করারও প্রস্তাব করা হয়েছে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে। অভিবাসনের ক্ষেত্রে আমাদের অনেক সমস্যা রয়েছে। তবে উল্লেখযোগ্য উন্নয়নও হয়েছে। এর মধ্যে সৌদি আরবে নারীকর্মীরা বিনামূল্যে (জিরো কস্ট) যেতে পারছে। খুব শিগগিরই পুরুষকর্মীদেরও বিনা খরচে অভিবাসন প্রক্রিয়ায় আনার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, এতদিন বিভিন্ন দেশের শ্রমবাজার বন্ধ ছিল, এখন পর্যায়ক্রমে তা খুলেছে, অভিবাসন খরচ অনেকটা কমে যাবে।

আগামী ২ বছরে বাংলাদেশ থেকে ৩ লক্ষাধিক কর্মী নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে কাতার। কাতারে বাংলাদেশিরা নির্মাণশ্রমিক ও পরিচ্ছন্নকর্মী হিসেবে কাজ করছে। তবে ২০২২ সালে কাতারে অনুষ্ঠিতব্য ফুটবল বিশ্বকাপকে ঘিরে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ চলছে দেশটিতে। এ লক্ষ্যে সেবা ও নির্মাণ খাতে বাংলাদেশ থেকে পেশাগত ও দক্ষ শ্রমিক নেওয়ার আগ্রহ দেখিয়েছে কাতার। আর দক্ষ জনশক্তি রপ্তানিতে বাংলাদেশের পক্ষে সামগ্রিক প্রস্তুতিও নেওয়া হচ্ছে। অভিবাসী শ্রমিকদের দক্ষতা বাড়াতে বেশ কিছু প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়। প্রশিক্ষণ দিতে বর্তমানে ৭০টি ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে। আরও ৪০টি কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করা হবে। বর্তমানে ২ লাখ ৮০ হাজার বাংলাদেশি শ্রমিক কাজ করছেন দেশটিতে।

২০২২ সালে দেশটিতে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপ ফুটবল উপলক্ষে বর্তমানে অবকাঠামো উন্নয়নে চলছে মহাযজ্ঞ। এই যজ্ঞ নির্বিঘœ করতে বিপুলসংখ্যক বাংলাদেশি জনশক্তিকে কাজে লাগাতে চায় তারা। এ জন্য বিদেশি কর্মী নিয়োগে বাংলাদেশকে সর্বোচ্চ কোটা বরাদ্দ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে দেশটি।

জানা গেছে, কাতারে শ্রমবাজার সম্প্রসারণ, অভিবাসন ব্যয় কমানো, ভিসা ট্রেডিং বন্ধসহ, অভিবাসী কর্মীদের স্বার্থ ও অধিকার সংরক্ষণ বিষয় নিয়ে সরকারি পর্যায়ে ইতোমধ্যে আলোচনা হয়েছে। ফুটবল বিশ্বকাপ উপলক্ষে বিভিন্ন অবকাঠামো বিনির্মাণ ও সংস্কারের জন্য কাতারে ব্যাপক কর্মীর প্রয়োজন হবে। সে চাহিদা পূরণসহ অন্য খাতে বাংলাদেশি কর্মী নেওয়ার বিষয়টির দিকে দুদেশের সরকার জোর দিয়েছে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী ভিসা ট্রেডিং বন্ধে নেওয়া পদক্ষেপের অংশ হিসেবে চাহিদাপত্র (ডিমান্ড লেটার) প্রথমে জমা পড়বে কাতারের ডাইরেক্টরেট অব পাবলিক রিক্রুটমেন্টে। পরে ওই সংস্থা বাংলাদেশের বিএমইটির কাছে চাহিদাপত্রগুলো পাঠাবে। বিএমইটি কাজের নৈপুণ্য বিবেচনায় এনে ঠিক করবেÑ কোন এজেন্সি লোক পাঠাবে।

কাতারের বাংলাদেশ দূতাবাস সূত্র জানায়, ১ লাখ বাংলাদেশি কর্মীর জন্য ওয়ার্ক পারমিট ইস্যু করার সম্ভাবনা রয়েছে। পর্যায়ক্রমে তারা সব সেক্টরেই কর্মী নেবে। তবে ঠিক কত সংখ্যকÑ তা এ মুহূর্তে কৌশলগত কারণে বলা যাবে না। দেশটিতে ২০১৭-১৮ সাল পর্যন্ত চলবে অবকাঠামো উন্নয়নের কাজ। সেখানে বাংলাদেশি কর্মীদের আধিপত্য সবচেয়ে বেশি থাকবে। এরপর সেবা খাতের কাজ চলবে। এখানেও প্রাধান্য থাকবে বাংলাদেশিদের। কর্মরত বাংলাদেশিরা খুব ভালো আছেন। গত দুই বছর কাতার নিয়ে সেখানকার বাংলাদেশি শ্রমিকরা কোনো অভিযোগ করেননি। কাতারেরও বাংলাদেশি কর্মীদের কর্মদক্ষতা নিয়ে কোনো অভিযোগ নেই।

দূতাবাস সূত্র আরও জানায়, অবকাঠামোগত উন্নয়নের এই বিশাল পরিকল্পনা বাস্তবায়ন কাজে বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগ করবে তারা। তাই বাংলাদেশ থেকেই অন্তত ৫ লাখেরও বেশি কর্মী নিতে আগ্রহ দেখিয়েছে দেশটি। বিশ্ব ফুটবলের জমজমাট আয়োজনের অংশ হিসেবে আগেই নতুন করে ১৭টি পাঁচতারা হোটেল, ১০টি স্টেডিয়াম ও একাধিক নতুন বিমানবন্দর নির্মাণ করবে কাতার।

বেতারে ১১৪ জনবল নিয়োগ
                                  

বাংলাদেশ বেতারে ১৪টি পদে ১১৪ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে। প্রতিষ্ঠানটি ৩ অক্টোবর এ সংক্রান্ত নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। আগ্রহীরা আবেদন করতে পারেন। বিস্তারিত জানাচ্ছেন আতাউর রহমান
 
যেসব পদে নিয়োগ : ভাষা তত্ত্বাবধায়ক পদে একজন, সাঁট-লিপিকার কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে সাতজন, সাঁট-মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে ১২ জন, অনুষ্ঠান সচিব পদে পাঁচজন, ক্যাটালগার পদে একজন, স্টুডিও এক্সিকিউটিভ পদে চারজন, অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে ২২ জন, গুদামরক্ষক পদে ছয়জন, মোটরগাড়ি চালক পদে ১৩ জন, অ্যামোনিয়া মেশিন অপারেটর পদে একজন, ট্রেসার পদে একজন, ইকুইপমেন্ট অ্যাটেন্ডেন্ট পদে চারজন, অফিস সহায়ক পদে ২২ জন, এমএলএসএস পদে ১৫ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে।
 
যোগ্যতা : ভাষা তত্ত্বাবধায়ক পদে আবেদনের জন্য আবেদনকারীকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রিসহ নাটক, সঙ্গীত, চলতি ঘটনা, সাহিত্য এবং সংস্কৃতিতে জ্ঞান ও বিদেশী ভাষা সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থাকতে হবে। সাঁট-লিপিকার কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে আবেদনের জন্য প্রার্থীকে এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় পাস হতে হবে। এছাড়া বাংলা এবং ইংরেজি শর্টহ্যান্ডে সর্বনিু গতি মিনিটে ৭০ ও ১০০ শব্দ হতে হবে। সাঁট-মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর পদ ও অনুষ্ঠান সচিব পদে আবেদনের জন্য একই যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা প্রয়োজন। ক্যাটালগার পদে আবেদনের জন্য লাইব্রেরি বিজ্ঞানে সার্টিফিকেটসহ স্নাতক ডিগ্রি থাকতে হবে। স্টুডিও এক্সিকিউটিভ পদে আবেদনের যোগ্যতা এইচএসসি। অফিস সহকারী পদে এইচএসসি পাস ছাড়াও কম্পিউটার ব্যবহার সংক্রান্ত ওয়ার্ড প্রসেসিং, ডাটা এন্ট্রি, টাইপিংয়ে সর্বনিু গতি বাংলা ও ইংরেজিতে ২০ শব্দ। এছাড়া অন্যান্য পদের জন্য মর্যাদা অনুযায়ী অষ্টম শ্রেণী থেকে স্নাতকোত্তর পাস প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন।
 
বয়স : আবেদনের জন্য প্রার্থীদের বয়স ৩১ অক্টোবর, ২০১৬ তারিখে অনূর্ধ্ব ৩০ বছর হতে হবে। তবে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রতিবন্ধীদের জন্য বয়সসীমা ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিল থাকবে।
 
আবেদন বিস্তারিত : আগ্রহী প্রার্থীরা মহাপরিচালক, বাংলাদেশ বেতার, ১২১ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভিনিউ, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০ ঠিকানায় আবেদন করতে পারবেন। এছাড়া বিস্তারিত জানতে পারেন বাংলাদেশ বেতারের www.betar.gov.bd-এই সাইট থেকে। প্রথমে বিজ্ঞপ্তি দেখে সেটি পড়ে আবেদন করবেন। সব জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন না। বিজ্ঞপ্তি দেখে যোগ্য প্রার্থীরাই আবেদন করবেন। ওয়েবসাইটে দেয়া নির্দিষ্ট ফরমে আবেদন করতে হবে। আবেদনের সময় কোনো কাগজপত্র জমা দিতে হবে না। এক থেকে ১১ নম্বর পদের জন্য ১০০ টাকা এবং ১২ থেকে ১৪ নম্বর পদের জন্য ৫০ টাকা মহাপরিচালক, বাংলাদেশ বেতারের অনুকূলে নির্দিষ্ট কোড নম্বরে ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে জমা দিতে হবে। খামের ওপর স্পষ্ট করে পদের নাম, আবেদনকারীর পূর্ণ ঠিকানা লিখে জমা দিতে হবে।
 
ডেটলাইন : আবেদন করতে হবে ১০ নভেম্বর বিকাল ৫টার মধ্যে।
 
পরীক্ষা : প্রথমে লিখিত পরীক্ষা নেয়া হবে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর মৌখিক ও প্রযোজ্য ক্ষেত্রে ব্যবহারিক পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে।
 
বেতন : ভাষা তত্ত্বাবধায়ক পদে ১০ নম্বর গ্রেডে ১৬ হাজার টাকা থেকে ৩৮ হাজার ৬৪০ টাকা স্কেলে বেতন দেয়া হবে। সাঁট-লিপিকার পদে ১৩ নম্বর গ্রেডে ১১ হাজার থেকে ২৬ হাজার ৫৯০ টাকা স্কেলে বেতন দেয়া হবে। সাঁট-মুদ্রাক্ষরিক, অনুষ্ঠান সচিব, ক্যাটালগার পদে ১৪ নম্বর গ্রেডে ১০ হাজার ২৪০ টাকা থেকে ২৪ হাজার ৬৮০ টাকা স্কেলে বেতন দেয়া হবে। অফিস সহকারী, গুদাম রক্ষক, মোটর গাড়ি চালক পদে ১৬ নম্বর গ্রেডে ৯৩০০ থেকে ২২৪৯০ টাকা স্কেলে বেতন দেয়া হবে।

রূপালী ব্যাংক নেবে ৭৩৬ অফিসার
                                  

ন্যূনতম দ্বিতীয় শ্রেণি বা সমমানের গ্রেড পয়েন্টসহ স্নাতকোত্তর অথবা চার বছরমেয়াদি স্নাতক (সম্মান) ডিগ্রি থাকলেই আবেদন করা যাবে। কোনো তৃতীয় বিভাগ, শ্রেণি বা সমমানের গ্রেড থাকা চলবে না। থাকতে হবে কম্পিউটার বিষয়ে জানাশোনা। গ্রেডিং পয়েন্টে প্রকাশিত ফলাফলের ক্ষেত্রে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৩.০০ বা তার বেশি প্রথম বিভাগ, জিপিএ ২.০০ থেকে বেশি ৩.০০-এর কম দ্বিতীয় এবং জিপিএ ১.০০ থেকে বেশি ২.০০-এর কম হলে ধরা হবে তৃতীয় বিভাগ। বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে ৪ পয়েন্ট স্কেলে সিজিপিএ ৩.০০ বা বেশি প্রথম, ২.২৫ বা তার বেশি কিন্তু ৩.০০-এর কম দ্বিতীয়, ১.৬৫ বা তার বেশি কিন্তু ২.২৫-এর কম হলে ধরা হবে তৃতীয় বিভাগ বা শ্রেণি। ৫ পয়েন্ট স্কেলে ৩.৭৫ বা তার বেশি প্রথম, ২.৮১৩ বা তার বেশি কিন্তু ৩.৭৫-এর কম দ্বিতীয় এবং ২.০৬৩ বা তার বেশি কিন্তু ২.৮১৩-এর কম হলে ধরা হবে তৃতীয় বিভাগ বা শ্রেণি। ১ আগস্ট ২০১৬ তারিখে বয়সসীমা ৩০ বছর। তবে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রতিবন্ধী প্রার্থীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ৩২ বছর। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিটি পাওয়া যাবে oa.query@bb.org.bd লিংকে।

আবেদনযেভাবে

শুরু হয়ে গেছে আবেদন প্রক্রিয়া। চলবে ২৩ আগস্ট পর্যন্ত। বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটের (erecruitment.bb.org.bd) মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। আবেদন করার নিয়ম ও শর্ত পাওয়া যাবে ওয়েবসাইটে। আবেদনের সময় আপলোড করতে হবে ৬০০ বাই ৬০০ পিক্সেল এবং সর্বোচ্চ ৮০ কিলোবাইটের ছবি এবং ৩০০ বাই ৮০ পিক্সেল এবং সর্বোচ্চ ৬০ কিলোবাইটের স্বাক্ষরের স্ক্যান কপি। আবেদন শুরুর আগেই স্ক্যান কপি সঙ্গে রাখতে হবে। প্রাথমিকভাবে কোনো কাগজপত্র লাগবে না। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে জমা দিতে হবে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র। ফরমে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের প্রকাশিত বিভিন্ন পরীক্ষার ফলাফলের তারিখ উল্লেখ করতে হবে। চাকরিরত প্রার্থীদের আবেদন করতে হবে কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে। অনলাইনে আবেদন করার পর ট্র্যাকিং নম্বরযুক্ত ফরমটি সংরক্ষণ করতে হবে। প্রবেশপত্র ডাউনলোড করা যাবে বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইট থেকে। আবেদনের সময় কোনো সমস্যায় পড়লে ইমেইল করা যাবে oa.query@bb.org.bd ঠিকানায়।

পরীক্ষারধরন

ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির সদস্যসচিব এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক লাইলা বিলকিস আরা জানান, আবেদনপত্র প্রাথমিক যাচাই-বাছাইয়ের যোগ্যদের ডাকা হবে এমসিকিউ পরীক্ষায়। উত্তীর্ণদের ডাক পড়বে লিখিত পরীক্ষার জন্য। সবশেষে ভাইভা বা মৌখিক পরীক্ষা। সাধারণত পদের বিপরীতে তিন গুণ প্রার্থী ডাকা হয় ভাইভায়। বিভিন্ন ব্যাংকের বিগত বছরের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ঘেঁটে দেখা যায়, বিভিন্ন সরকারি ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষায় একই ধরনের প্রশ্ন করা হয়। সাধারণত এমসিকিউ পরীক্ষায় ১০০ ও লিখিত পরীক্ষায় বরাদ্দ থাকে ২০০ নম্বর। এমসিকিউ অংশে ১০০ নম্বরের মধ্যে বাংলায় ২৫, ইংরেজিতে ২৫, গণিতে ২৫ এবং সাধারণ জ্ঞানে ২৫ নম্বর বরাদ্দ থাকে। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য কাটা যায় ০.২৫ নম্বর। লিখিত পরীক্ষায় ২০০ নম্বরের মধ্যে বাংলা, ইংরেজি ও গণিতে ৫০ নম্বর করে থাকে। বাকি ৫০ নম্বর বরাদ্দ থাকে বাংলা থেকে ইংরেজি ও ইংরেজি থেকে বাংলা অনুবাদে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের ডাকা হয় ২৫ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষায়। তবে কর্তৃপক্ষ চাইলে নম্বর বণ্টন ও পরীক্ষার ধরনে পরিবর্তন আনতে পারে।

এবারপ্রস্তুতি

বাজারে বিভিন্ন সরকারি ব্যাংক নিয়োগ গাইড পাওয়া যায়। ব্যাংক জব সল্যুশন বইগুলোও কাজের। এসব গাইডে বিগত বছরের প্রশ্ন দেওয়া থাকে। ২০১৪ সালে রূপালী ব্যাংকে অফিসার পদে নিয়োগ পাওয়া বেশ কয়েকজন জানান, সরকারি ব্যাংকগুলোতে অফিসার পদের জন্য প্রায় একই ধরনের প্রশ্ন করা হয়। রূপালী ব্যাংকসহ অন্যান্য সরকারি ব্যাংক নিয়োগ পরীক্ষার বিগত বছরের প্রশ্ন দেখলে ভালো ধারণা পাওয়া যাবে প্রস্তুতির বিষয়ে। মাধ্যমিক শ্রেণির বাংলা, গণিত ও ইংরেজি বইও খুব কাজে দেবে।

বাংলা

মতিঝিলের রূপালী সদন করপোরেট শাখার কর্মকর্তা আনিসুর রহমান জানান, এমসিকিউ পরীক্ষায় ব্যাকরণ অংশে প্রবাদ প্রবচন, উপসর্গ, সন্ধি বিচ্ছেদ, সমার্থক শব্দ, পারিভাষিক শব্দ, বাগধারা, পদ, সমোচ্চারিত শব্দ, এক কথায় প্রকাশ, বিপরীত শব্দ, শুদ্ধ বানান, বচন, সমাস, কারক, বিভক্তিসহ নানা বিষয়ে প্রশ্ন থাকে। সাহিত্য অংশে বিভিন্ন কবি-সাহিত্যিকদের নাম-পরিচিতি, জন্ম-মৃত্যুকাল, বিভিন্ন গ্রন্থের নাম, বইয়ের বিভিন্ন চরিত্রের নাম, বিখ্যাত পঙিক্তমালাসহ সাহিত্যের অন্যান্য অংশ থেকে প্রশ্ন আসে। সাম্প্রতিক গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু নিয়ে রচনা এবং বাংলা থেকে ইংরেজি অনুবাদ থাকে লিখিত পরীক্ষায়। বোর্ড প্রকাশিত নবম-দশম শ্রেণির বাংলা ব্যাকরণ, ভাষা ও সাহিত্য এবং একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির বাংলা সাহিত্যের বই প্রস্তুতিতে সহায়ক হবে।

ইংরেজি

রূপালী ব্যাংক প্রধান কার্যালয়ের কমপ্লায়েন্স শাখায় কর্মরত অফিসার আজরব উদ্দিন খন্দকার জানান, গ্রামার অংশে এমসিকিউ পরীক্ষায় Fill in the banks, Phrases and idioms, Synonyms, Antonyms, Transformation of sentence, Right forms of verb, Appropriate word, Appropriate preposition, Correctly spelt word, Opposite meaning থেকে বেশি প্রশ্ন আসে। রচনামূলক অংশে সাধারণত জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে ইংরেজি রচনা আসতে পারে। বাংলা থেকে ইংরেজিতে অনুবাদও থাকে। ইংরেজিতে বেসিক ভালো হলে সহজেই বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর করা যায়। বাজারে বিভিন্ন প্রকাশনীর গ্রামার বই পাওয়া যায়। সেসব বই ছাড়াও নবম-দশম শ্রেণির পাঠ্য ইংলিশ গ্রামার বইটি বেশ কাজের।

গণিত

রূপালী ব্যাংকের মিটফোর্ড শাখার কর্মকর্তা সাবরিনা আক্তার জানান, পাটিগণিত ও বীজগণিত দুই অংশ থেকেই প্রশ্ন করা হয় এমসিকিউ ও রচনামূলক পরীক্ষায়। সব প্রশ্ন করা হয় ইংরেজিতে। পাটিগণিতে শতকরা, সুদকষা, অনুপাত-সমানুপাত, লসাগু, গসাগুসহ নানা বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। বীজগণিতে থাকে উত্পাদক নির্ণয়, সমীকরণ, মূলদ, অমূলদ, সূচক ও লগারিদমের সূত্রের প্রয়োগ বিষয়ে। গাণিতিক যুক্তি, শতকরা, লাভ-ক্ষতি, সুদকষা ও ঐক্যিক নিয়ম থেকে এমসিকিউ ও রচনামূলকে বেশি প্রশ্ন থাকে। জ্যামিতি, পরিমিতি থেকেও প্রশ্ন আসে। ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে নবম-দশম শ্রেণির পাটিগণিত, বীজগণিত ও জ্যামিতি বই পড়তে হবে। জিআরই ম্যাথ, সাইফুরের ম্যাথ বইগুলোর শর্টকাট টেকনিক প্রস্তুতিতে কাজে দেবে।

সাধারণজ্ঞান

সাধারণত কেবল এমসিকিউ পরীক্ষায় প্রশ্ন করা হয় সাধারণ জ্ঞান থেকে। রূপালী ব্যাংকের শ্যামবাজার শাখার কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন জানান, প্রশ্ন আসে বাংলাদেশ প্রসঙ্গ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি থেকে। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, ভাষা আন্দোলন, ভৌগোলিক অবস্থা, ঐতিহ্য, কৃষ্টি, সভ্যতার ইতিহাস, শিল্প ও বাণিজ্য, অর্থনীতি, কৃষি, জিডিপি, অর্থনৈতিক সমীক্ষা, সরকার, রাজনীতি ও বিচার ব্যবস্থাসহ সাম্প্রতিক ঘটনাবলি থেকে প্রশ্ন করা হয় বাংলাদেশ অংশে। বিশ্ব রাজনীতি, বিভিন্ন সংস্থা ও জোট, বিভিন্ন দেশ, মুদ্রা, আন্তর্জাতিক আইন, বিচারব্যবস্থা, দিবস, সন্মেলন, পুরস্কার, সম্মাননা, খেলাধুলাসহ সাম্প্রতিক বিশ্বের নানা ঘটনাপঞ্জি থেকে প্রশ্ন আসে আন্তর্জাতিক বিষয়াবলিতে। রূপালী ব্যাংকের মগবাজার শাখার কর্মকর্তা সাবিনা আক্তার জানান, বাজারে নানা প্রকাশনীর সাধারণ জ্ঞানের বই পাওয়া যায়। প্রস্তুতির জন্য দু-তিনটি বই হাতের কাছে রাখতে হবে। নিয়মিত চোখ রাখতে হবে বিভিন্ন পত্রপত্রিকা, সাধারণ জ্ঞান বিষয়ক মাসিক সাময়িকী ও নিউজভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে।

 

নিয়োগ, প্রশিক্ষণবেতন-ভাতা

রূপালী ব্যাংক প্রধান কার্যালয়ের মানবসম্পদ ও প্রশাসন বিভাগের মহাব্যবস্থাপক আবদুল মজিদ শেখ জানান, ‘নিয়োগের জন্য নির্বাচিত প্রার্থীদের তালিকা তৈরি করে দেবে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি। সেই ভিত্তিতে আমরা নির্বাচিতদের নিয়োগ দেব প্রধান কার্যালয়সহ বিভিন্ন শাখায়। রূপালী ব্যাংক প্রশিক্ষণ একাডেমির মাধ্যমে নির্বাচিতদের দেওয়া হবে বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ। ২০১৫ সালের জাতীয় বেতন স্কেল অনুসারে ১৬০০০-৩৮৬৪০ টাকা কাঠামোতে বেতন ও অন্যান্য আর্থিক সুবিধা পাবেন অফিসাররা।

অগ্রণী ব্যাংকে অফিসার নিয়োগ
                                  

অগ্রণী ব্যাংকে ২৭৬ জন অফিসার (ক্যাশ) নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি। বিজ্ঞপ্তিটি পাওয়া যাবে বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে (www.bb.org.bd)। জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী একজন অফিসার (ক্যাশ) ১৬০০০-৩৮৬৪০ টাকা স্কেলে বেতন পাবেন। পাশাপাশি পাবেন অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা।

আবেদনের যোগ্যতা

ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির সদস্যসচিব এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক লাইলা বিলকিস আরা জানান, আবেদনের জন্য দ্বিতীয় শ্রেণি অথবা সমমানের সিজিপিএসহ স্নাতক ডিগ্রি থাকতে হবে। শিক্ষাজীবনে কোনো তৃতীয় বিভাগ, শ্রেণি বা সমমানের গ্রেড থাকা চলবে না। এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ক্ষেত্রে জিপিএ ৩.০০ বা তার বেশি প্রথম বিভাগ, জিপিএ ২.০০ থেকে ৩.০০-এর কম দ্বিতীয় এবং জিপিএ ১.০০ থেকে ২.০০-এর কম হলে ধরা হবে তৃতীয় বিভাগ। বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে ৪ পয়েন্ট স্কেলে সিজিপিএ ৩.০০ বা তার বেশি প্রথম বিভাগ বা শ্রেণি, ২.২৫ বা তার বেশি কিন্তু ৩.০০-এর কম দ্বিতীয়, ১.৬৫ বা তার বেশি কিন্তু ২.২৫-এর কম তৃতীয় বিভাগ ধরা হবে।

৫ পয়েন্ট স্কেলে ৩.৭৫ বা তার বেশি প্রথম, ২.৮১৩ বা তার বেশি কিন্তু ৩.৭৫-এর কম দ্বিতীয় এবং ২.০৬৩ বা তার বেশি কিন্তু ২.৮১৩-এর কম হলে ধরা হবে তৃতীয় বিভাগ বা শ্রেণি। ১ মার্চ ২০১৬ তারিখে প্রার্থীদের বয়স সর্বোচ্চ ৩০ বছর হতে হবে। তবে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রতিবন্ধী প্রার্থীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ৩২ বছর।

আবেদন

শুরু হয়ে গেছে আবেদন প্রক্রিয়া। চলবে ১১ জুলাই পর্যন্ত। বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটের (erecruitment.bb.org.bd) Online Application বাটনের মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। অনলাইন আবেদন ফরমে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের প্রকাশিত বিভিন্ন পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের তারিখ উল্লেখ করতে হবে। আবেদন করার নিয়ম ও শর্ত ওয়েবসাইটেই পাওয়া যাবে। অনলাইনে আবেদন করার পর পাওয়া ট্র্যাকিং নম্বর ফরমটি সংরক্ষণ করতে হবে। প্রার্থীর নাম, পিতা-মাতার নাম ও অন্যান্য তথ্য এসএসসি বা সমমানের সনদে যেভাবে লেখা আছে, অনলাইন ফরমে সেভাবে পূরণ করতে হবে। আবেদনের সময় আপলোড করতে হবে ৬০০ বাই ৬০০ পিক্সেল এবং সর্বোচ্চ ৮০ কিলোবাইটের ছবি এবং ৩০০ বাই ৮০ পিক্সেল এবং সর্বোচ্চ ৬০ কিলোবাইটের স্বাক্ষরের স্ক্যান কপি। অনলাইনে আবেদন শুরুর আগেই ছবি এবং স্বাক্ষরের স্ক্যান কপি সঙ্গে রাখতে হবে।

অনলাইনে আবেদনের সময় কোনো কাগজপত্র পাঠাতে হবে না। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে জমা দিতে হবে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র। চাকরিরত প্রার্থীদের কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে আবেদন করতে হবে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে চাকরিরতদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাঠাতে হবে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে। আবেদনের সময় কোনো সমস্যায় পড়লে ইমেইল করা যাবে oa.query@bb.org.bd ঠিকানায়।

পরীক্ষার ধরন

এমসিকিউ, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হবে। বিভিন্ন ব্যাংক নিয়োগ গাইডে বিগত বছরের প্রশ্ন দেওয়া থাকে। বিগত বছরের প্রশ্ন দেখলেই প্রশ্নের ধরন সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যাবে।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন লোক নিয়োগ
                                  

পদ ও যোগ্যতা : অপারেটর (চালক) গ্রেড সি, ১৫৬টি। অষ্টম শ্রেণি পাস এবং ৫ বছরের অভিজ্ঞতা।

বেতনক্রম : ৯৩০০-২২৪৯০ টাকা।

আবেদনের শেষ তারিখ : ১০ জুন।

ঠিকানা : পরিচালক (প্রশা. ও অপা.), বিআরটিসি পরিবহন ভবন, ২১ রাজউক এভিনিউ, ঢাকা-১০০০।

কৃষি ব্যাংক নেবে ৭০৪ কর্মকর্তা
                                  

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকে ৭০৪ জন অফিসার নিয়োগের জন্য দরখাস্ত আহ্বান করেছে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি। বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের ওয়েবসাইট এবং বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিটি পাওয়া যাবে bit.ly/1XrlC6D লিংকে।

আবেদনের যোগ্যতা

ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির সদস্যসচিব এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক লাইলা বিলকিস আরা জানান, কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক বা সমমানের ডিগ্রি থাকলে অফিসার পদে আবেদন করা যাবে। এসএসসি থেকে স্নাতক পর্যায়ের পরীক্ষায় কমপক্ষে একটিতে থাকতে হবে প্রথম বিভাগ বা শ্রেণি অথবা সমমানের গ্রেড। কোনো তৃতীয় বিভাগ থাকা চলবে না। এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ক্ষেত্রে জিপিএ ৩.০০ বা তদূর্ধ্ব প্রথম বিভাগ, জিপিএ ২.০০ থেকে ৩.০০-এর কম দ্বিতীয় এবং জিপিএ ১.০০ থেকে ২.০০-এর কম হলে ধরা হবে তৃতীয় বিভাগ। বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে ৪ পয়েন্ট স্কেলে অর্জিত সিজিপিএ ৩.০০ বা তদূর্ধ্ব প্রথম শ্রেণি, ২.২৫ বা তদূর্ধ্ব কিন্তু ৩.০০-এর কম দ্বিতীয়, ১.৬৫ বা তদূর্ধ্ব কিন্তু ২.২৫-এর কম তৃতীয় শ্রেণি ধরা হবে। ৫ পয়েন্ট স্কেলে ৩.৭৫ বা তদূর্ধ্ব প্রথম, ২.৮১৩ বা তদূর্ধ্ব কিন্তু ৩.৭৫-এর কম দ্বিতীয় এবং ২.০৬৩ বা তদূর্ধ্ব কিন্তু ২.৮১৩-এর কম হলে ধরা হবে তৃতীয় শ্রেণি। ১ মার্চ ২০১৬ তারিখে আবেদনকারীর বয়সসীমা সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ৩২ বছর।

আবেদনের নিয়ম

ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে আবেদন প্রক্রিয়া। চলবে ৭ জুন পর্যন্ত। অনলাইনে বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটের (https://erecruitment.bb.org.bd) মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। ১৫ নভেম্বর ২০০৯ বা পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের সিভি ব্যাংকে রেজিস্ট্রেশন করা থাকলে পুনরায় নিবন্ধন করতে হবে না, সিভি আইডেন্টিফিকেশন নম্বর এবং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে আবেদন করা যাবে। তবে নতুন আবেদনকারীদের আবেদনের আগে নিবন্ধন করতে হবে। প্রার্থীর নাম, পিতা ও মাতার নাম এসএসসি বা সমমানের সনদে যেভাবে লেখা আছে, অনলাইন ফরমে সেভাবে পূরণ করতে হবে। ফলাফলের ঘরে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের প্রকাশিত পরীক্ষার ফলাফলের তারিখ উল্লেখ করতে হবে। বিবাহিত মহিলা প্রার্থীদের স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে ব্যবহার করতে হবে স্বামীর স্থায়ী ঠিকানা। আপলোড করতে হবে ৬০০ বাই ৬০০ পিক্সেল ও সর্বোচ্চ ৮০ কিলোবাইটের ছবি এবং ৩০০ বাই ৮০ পিক্সেল ও সর্বোচ্চ ৬০ কিলোবাইটের স্বাক্ষরের স্ক্যান কপি। আপলোড করা ছবি পরিবর্তন করা যাবে না। অনলাইনে আবেদন করার পর ট্র্যাকিং নম্বরযুক্ত ফরমটি সংরক্ষণ করতে হবে। আবেদনের সময় কোনো সমস্যায় oa.query@bb.org.bd ঠিকানায় ইমেইল পাঠাতে হবে।

অনলাইনে আবেদনের সময় কোনো কাগজপত্র লাগবে না। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে জমা দিতে হবে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র। চাকরিরত প্রার্থীদের কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে আবেদন করতে হবে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে চাকরিরত প্রার্থীদের নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে পাঠাতে হবে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র।

নিয়োগ পদ্ধতি

ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির সদস্যসচিব লাইলা বিলকিস আরা জানান, এমসিকিউ, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে বাছাই করা হবে। প্রবেশপত্রে পরীক্ষার মানবণ্টন উল্লেখ থাকবে।

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের গাজীপুর শাখার কর্মকর্তা মো. সোহেল আকন জানান, বিগত বছরগুলোতে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (বিআইবিএম) বা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ-এর মাধ্যমে নিয়োগ পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। ১০০ নম্বরের বহু নির্বাচনী পরীক্ষায় প্রশ্ন করা হয় বাংলা, ইংরেজি, গণিত, সাধারণ জ্ঞান এবং কম্পিউটার ও তথ্যপ্রযুক্তি থেকে। সময় এক ঘণ্টা। কেবল উত্তীর্ণরাই অংশ নিতে পারবেন লিখিত পরীক্ষায়। ১০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষায় সময় বরাদ্দ থাকে দুই ঘণ্টা। প্রশ্ন করা হয় বাংলা, ইংরেজি ও গণিত বিষয়ে। লিখিত পরীক্ষার ধাপ পেরোতে পারলে ডাকা হয় মৌখিক পরীক্ষায়।

পরীক্ষা প্রস্তুতি

বহু নির্বাচনী পরীক্ষার বাংলা অংশে ব্যাকরণ এবং সাহিত্য থেকে প্রশ্ন করা হয়। সাহিত্যে কবি-সাহিত্যিকদের জীবনী, সাহিত্যকর্ম, বিভিন্ন কবিতার চরণ, উপন্যাস বা গল্পের চরিত্র থেকে প্রশ্ন আসতে পারে। ব্যাকরণ অংশে আসে বাগধারা, এককথায় প্রকাশ, সন্ধিবিচ্ছেদ, সমাস, শব্দ, শুদ্ধ-অশুদ্ধ, সমার্থক, বিপরীতার্থক ও পারিভাষিক শব্দ। লিখিত পরীক্ষায় থাকে অনুবাদ, সাম্প্রতিক বা গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়ে রচনা বা অনুচ্ছেদ লিখন।

ইংরেজি বহু নির্বাচনী অংশে গ্রামারের পাশাপাশি ভোকাবুলারি থেকেও অনেক প্রশ্ন আসে। লিখিত পরীক্ষায় থাকে রচনা লিখন এবং অনুবাদ।

গণিতে বহু নির্বাচনী অংশে প্রায় সব ব্যাংক নিয়োগ পরীক্ষায় একই ধরনের প্রশ্ন করা হয়। প্রশ্ন দেখলেই এ বিষয়ে ধারণা পাওয়া যাবে। লিখিত পরীক্ষায় দুই থেকে পাঁচটি অঙ্ক আসতে পারে। সাধারণ জ্ঞানে সাম্প্রতিক বিষয়াবলির সঙ্গে কিছু নির্দিষ্ট বিষয় থেকে প্রায়ই সব পরীক্ষায় প্রশ্ন আসে। এর জন্যও দেখতে হবে বিগত বছরের প্রশ্ন। তথ্যপ্রযুক্তির জন্য কম্পিউটারের মৌলিক ধারণা, ইন্টারনেট, তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা সম্পর্কে প্রশ্ন থাকতে পারে।

বেতন-ভাতা

জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী একজন কর্মকর্তা ১৬০০০-৩৮৬৪০ টাকা স্কেলে বেতন পাবেন। পাশাপাশি দেওয়া হবে অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা। মো. সোহেল আকন জানান, কৃষি ব্যাংকের একজন কর্মকর্তা দৈনিক ২০০ টাকা ভাতা, প্রায় ৬০ লাখ টাকা ঋণ এবং চার থেকে পাঁচ বছরের মধ্যেই পদোন্নতির সুবিধা পান।

এক্সিম ব্যাংক পদ ট্রেইনি অফিসার
                                  

পদ ও যোগ্যতা : ম্যানেজমেন্ট ট্রেইনি অফিসার। চার বছরমেয়াদি স্নাতকসহ স্নাতকোত্তর। স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে সিজিপিএ ৪ স্কেলে ৩ বা প্রথম শ্রেণি, এসএসসি ও এইচএসসিতে জিপিএ ৫ থাকতে হবে।

পদ ও যোগ্যতা : ট্রেইনি অফিসার। চার বছরমেয়াদি স্নাতক। স্নাতক পর্যায়ে সিজিপিএ ২.২৫ বা দ্বিতীয় শ্রেণি, এসএসসি ও এইচএসসিতে জিপিএ ৪.৫ থাকতে হবে।

পদ ও যোগ্যতা : ট্রেইনি অফিসার (ক্যাশ)। চার বছরমেয়াদি স্নাতক। স্নাতকপর্যায়ে সিজিপিএ ২.২৫ বা দ্বিতীয় শ্রেণি, এসএসসি ও এইচএসসিতে জিপিএ ৪ থাকতে হবে।

আবেদনের শেষ তারিখ : ৩০ মে।

আবেদনের নিয়ম : ব্যাংক ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। একজন প্রার্থী একাধিক পদে আবেদন করতে পারবে না।

সূত্র : career.eximbankbd.com


   Page 1 of 3
     চাকরি পাতা
জনপ্রশাসনে ২৫৬ জন কর্মকর্তা উপসচিব হলেন
.............................................................................................
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ
.............................................................................................
অস্ট্রেলিয়া যাবেন যে ক্যাটাগরি ভিসায় !
.............................................................................................
ব্যাংকে চাকরিতে সুযোগ পাবেন সব বিষয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা
.............................................................................................
সার্জেন্ট নেবে পুলিশ
.............................................................................................
বিমানবাহিনীতে চাকরি পাচ্ছেন ভ্যানচালক ইমাম শেখ
.............................................................................................
৫ পদে ৩৩১ লোক নেবে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক
.............................................................................................
পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চে নতুন ৪৩০ পদ
.............................................................................................
১ সপ্তাহের মধ্যে ১০ হাজার নার্স নিয়োগের সিদ্ধান্ত
.............................................................................................
বিনা খরচে কর্মী যাবে কাতারে
.............................................................................................
বেতারে ১১৪ জনবল নিয়োগ
.............................................................................................
রূপালী ব্যাংক নেবে ৭৩৬ অফিসার
.............................................................................................
অগ্রণী ব্যাংকে অফিসার নিয়োগ
.............................................................................................
বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন লোক নিয়োগ
.............................................................................................
কৃষি ব্যাংক নেবে ৭০৪ কর্মকর্তা
.............................................................................................
এক্সিম ব্যাংক পদ ট্রেইনি অফিসার
.............................................................................................
এবি ব্যাংক চাকরি
.............................................................................................
লেফটেন্যান্ট পদে সেনাবাহিনীতে
.............................................................................................
৩৬১৬ জন সিনিয়র স্টাফ নার্স নেওয়া হবে
.............................................................................................
রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্প
.............................................................................................
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চাকরি
.............................................................................................
জনবল নেবে যুব উন্নয়ন অধিদফতর
.............................................................................................
ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে চাকরি
.............................................................................................
২০০ জনবল নেবে বিআরটিসি
.............................................................................................
শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্রে চাকরি
.............................................................................................
জনবল নেবে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর
.............................................................................................
সাউথইস্ট ব্যাংকের ৫ পদে চাকরি
.............................................................................................
ইউএনডিপিতে চাকরির সুযোগ
.............................................................................................
প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক » নিয়োগ ১৩২ জন
.............................................................................................
জনবল নেবে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
.............................................................................................
৩ শতাধিক জনবল নেবে আভা ডেভেলপমেন্ট
.............................................................................................
অর্ধশতাধিক জনবল নেবে বিএভিএস
.............................................................................................
২ শতাধিক জনবল নেবে ওয়ালটন
.............................................................................................
নন-ক্যাডার কর্মকর্তা নেবে বিপিএসসি
.............................................................................................
ভূমি মন্ত্রণালয়ে চাকরি
.............................................................................................
ভূমি সংস্কার বোর্ডে চাকরি
.............................................................................................
৩ শতাধিক জনবল নেবে পূবালী ব্যাংক
.............................................................................................
জে. এস. ট্রিমিংসে চাকরি
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
উপদেষ্টা: আজাদ কবির
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ হারুনুর রশীদ
সম্পাদক মন্ডলীর সহ-সভাপতি: মামুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
যুগ্ম সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বার্তা সম্পাদক: মুজিবুর রহমান ডালিম
স্পেশাল করাসপনডেন্ট : মো: শরিফুল ইসলাম রানা
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]