| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   শিক্ষা-সাহিত্য -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
প্রকাশিত হলো এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল, গড় পাসের হার ৭৩.৯৩%

উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। সারাদেশের এবারের পাসের হার ৭৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ। এদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৭ হাজার ২৮৬ জন।

আজ বুধবার সকাল ১০টার দিকে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে ফলের অনুলিপি হস্তান্তর করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৫৫ দিনেই এই ফল প্রকাশ করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সমাজ উন্নত করতে হলে শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশের এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।’

এবারের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পরীক্ষার্থী ছিল ১৩ লাখ ৫৮ হাজার ৫০৫। এর মধ্যে ৮টি সাধারণ বোর্ডের অধীনে এইচএসসিতে পরীক্ষার্থী ১১ লাখ ৩৮ হাজার ৫৫০। এছাড়া মাদরাসার আলিমে ৮৮ হাজার ৪৫১ এবং কারিগরিতে এইচএসসি (বিএম) ১ লাখ ২৪ হাজার ২৬৪ পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

যেভাবে ফল পাওয়া যাবে: আটটি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডের এইসএসসি পরীক্ষার্থী মোবাইলের মাধ্যমে ফল পেতে HSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের প্রথম তিন অক্ষর স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৯ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে ফল জানা যাবে।

আরও পড়ুন: টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদক কারবারি নিহত

মাদ্রাসা বোর্ডের শিক্ষার্থীদের ফল জানতে HSC লিখে স্পেস দিয়ে MAD স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৯ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে ফল পাওয়া যাবে।

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ফল জানতে HSC লিখে স্পেস দিয়ে TEC লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৯ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে ফল জানিয়ে দেয়া হবে। পরীক্ষার্থীরা সমন্বিত ওয়েবসাইট www.educationboardresults.gov.bd এবং সংশ্লিষ্ট বোর্ডের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল সংগ্রহ করতে পারবে।

প্রকাশিত হলো এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল, গড় পাসের হার ৭৩.৯৩%
                                  

উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। সারাদেশের এবারের পাসের হার ৭৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ। এদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৭ হাজার ২৮৬ জন।

আজ বুধবার সকাল ১০টার দিকে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে ফলের অনুলিপি হস্তান্তর করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৫৫ দিনেই এই ফল প্রকাশ করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সমাজ উন্নত করতে হলে শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশের এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।’

এবারের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পরীক্ষার্থী ছিল ১৩ লাখ ৫৮ হাজার ৫০৫। এর মধ্যে ৮টি সাধারণ বোর্ডের অধীনে এইচএসসিতে পরীক্ষার্থী ১১ লাখ ৩৮ হাজার ৫৫০। এছাড়া মাদরাসার আলিমে ৮৮ হাজার ৪৫১ এবং কারিগরিতে এইচএসসি (বিএম) ১ লাখ ২৪ হাজার ২৬৪ পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

যেভাবে ফল পাওয়া যাবে: আটটি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডের এইসএসসি পরীক্ষার্থী মোবাইলের মাধ্যমে ফল পেতে HSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের প্রথম তিন অক্ষর স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৯ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে ফল জানা যাবে।

আরও পড়ুন: টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদক কারবারি নিহত

মাদ্রাসা বোর্ডের শিক্ষার্থীদের ফল জানতে HSC লিখে স্পেস দিয়ে MAD স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৯ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে ফল পাওয়া যাবে।

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ফল জানতে HSC লিখে স্পেস দিয়ে TEC লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৯ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে ফল জানিয়ে দেয়া হবে। পরীক্ষার্থীরা সমন্বিত ওয়েবসাইট www.educationboardresults.gov.bd এবং সংশ্লিষ্ট বোর্ডের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল সংগ্রহ করতে পারবে।

এইচএসসি পরীক্ষার ফল ১৭ জুলাই
                                  

উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হবে আগামী ১৭ জুলাই। ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক সোমবার গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ১৭ জুলাই সকাল ১০টার দিকে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে ফলাফলের অনুলিপি তুলে দেওয়ার মাধ্যমে ফল প্রকাশের প্রক্রিয়া শুরু হবে। এরপর দুপুর ২টায় আনুষ্ঠানিকভাবে সব কলেজ-মাদ্রাসায় এসএমএস ও অনলাইনে ফল জানা যাবে।

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয় গত ১ এপ্রিল। এবার দেশের ৯ হাজার ৮১টি প্রতিষ্ঠানের ১৩ লাখ ৫১ হাজার ৫০৫ জন শিক্ষার্থী ছিলেন। এরমধ্যে ছাত্র ৬ লাখ ৬৪ হাজার ৪৯৬ জন এবং ছাত্রী ৬ লাখ ৮৭ হাজার ৯ জন। ৮টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের আওতায় এইচএসসি পরীক্ষায় মোট অংশ নেন ১১ লাখ ৩৮ হাজার ৭৪৭ জন। এরমধ্যে ছাত্র ৫ লাখ ৭৩ হাজার ৮১২ জন এবং ছাত্রী ৫ লাখ ৬৪ হাজার ৯৩৫ জন। এই পরীক্ষায় কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীন এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষায় ১ লাখ ২৪ হাজার ২৬৪ জন এবং মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীন আলিম পরীক্ষায় অংশ নেন ৮৮ হাজার ৪৫১ জন। এবার দেশের বাইরের ৮টি কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী ছিলেন ২৭৫জন। এছাড়া শাররিক প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থীদের জন্য বাড়তি ২০ মিনিট সময় বরাদ্ধ করা হয় এবং অটিজমসহ বিশেষ বিবেচনার দাবি রাখে, এমন শিক্ষার্থীদের ৩০ মিনিট বাড়তি সময় দেয়া হয়।

শিক্ষা বোর্ডও বাতিল করল ভিকারুননিসায় অধ্যক্ষ নিয়োগ প্রক্রিয়া
                                  

 শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পর এবার ঢাকা শিক্ষা বোর্ডও বাতিল করেছে রাজধানীর ভিকারুননিসা স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ নিয়োগ প্রক্রিয়া। গতকাল রোববার এই নিয়োগ প্রক্রিয়া বাতিল করে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড থেকে এক আদেশ জারি করা হয়।

আদেশে বলা হয়, গত ২৬ এপ্রিলের অধ্যক্ষ নিয়োগ প্রক্রিয়া যথাযথ না হওয়ায় তা বাতিল করা হলো। নিয়োগ কার্যক্রম পুনরায় শুরুর অনুরোধ করা হয়। গত ২৬ এপ্রিলের ওই নিযোগ কমিটি ভিকারুননিসার অধ্যক্ষ পদে দুদকের বিতর্কিত পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরের স্ত্রী রুমানা শাহীন শেফার নিয়োগ চূড়ান্ত করেছিল। অভিযোগ ওঠে, ৬০ লাখ টাকা ঘুষ দিয়ে ভিকারুননিসার স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ হতে চেয়েছিলেন রুমানা শাহীন শেফা। শেফা বর্তমানে মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক।


অভিভাবকদের পক্ষ থেকে অভিযোগ ওঠার পর শিক্ষা মন্ত্রণালয় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে। এই তদন্ত কমিটির প্রধান ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (উন্নয়ন) আহমদ শামীম আল রাজি। বাকি দুই সদস্য- ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক হারুনুর রশীদ ও মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের সহকারী পরিচালক (প্রশিক্ষণ) মো. আনোয়ারুল আউয়াল খান। তারা সরেজমিনে তদন্ত করে জুনে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব সোহরাব হোসাইনের কাছ তদন্ত প্রতিবেদন পেশ করেন।

বৃষ্টিতে ভিজেই অনশনে জবির শিক্ষার্থীরা
                                  

জকসু নির্বাচন, বাসের ডাবল ট্রিপ চালুসহ সাত দফা দাবিতে বৃষ্টিতে ভিজেই অনশনে বসেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত সাধারণ শিক্ষার্থীরা। রবিবার সকাল ১০টা থেকে ক্যাম্পাসের শহীদ মিনারের সামনে বিভিন্ন বিভাগের ১৩ জন শিক্ষার্থী আমরণ অনশনে বসেন।

 

অনশনরত শিক্ষার্থীরা জানান, ইতোপূর্বে বিভিন্ন দাবিতে আন্দোলনের সময় উপাচার্য দাবি মেনে নেয়ার আশ্বাস দিলেও তা বাস্তবায়ন করেন নাই। এখন সাত দফা দাবি মেনে নেয়ার মুখের আশ্বাস আমরা বিশ্বাস করি না। সাত দফা বাস্তবায়নের লিখিত আশ্বাস দেয়ার প্রস্তাবকে উপাচার্য নাকোচ করেছেন। এতে করে আমাদের দাবি আদায়ে প্রশাসন তালবাহার আশ্রয় নিয়েছেন। সাত দফা দাবি মেনে নেয়ার সময়সীমা লিখিতভাবে না দেয়া পর্যন্ত আমরা সাধারণ শিক্ষার্থীরা অনশন করবো।

আরো পড়ুন : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারে আগুন

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ক্যান্টিনের ভর্তুকি বাড়িয়ে খাবারের দাম কমাতে হবে ও মান উন্নয়ন করতে হবে, এক মাসের মধ্যে বাসের ডাবল শিফট চালু করতে হবে, আগামী চার মাসের মধ্যে জকসু নির্বাচন দিতে হবে, আগামী দুই মাসের মধ্যে ছাত্রী হলের কাজ শেষ করতে হবে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ৭০ শতাংশ শিক্ষক নিয়োগ দিতে হবে ও আবেদনের ক্ষেত্রে সিজিপিএ শর্ত শিথিল করে স্বচ্ছ নিয়োগ পরীক্ষার মাধ্যমে যোগ্যদের নিয়োগ দিতে হবে, জবির দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের কাজ অবিলম্বে শুরু করতে হবে এবং গবেষণা খাতে শর্ত কমিয়ে বাজেট বাড়াতে হবে।

 

জেএসসি পরীক্ষা ২ নভেম্বর ও এসএসসি শুরু ১ ফেব্রুয়ারি
                                  

চলতি বছরের ২ নভেম্বর জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) এবং আগামি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর তারিখ নির্ধারণ করে সূচি প্রকাশ করা হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ গতকাল বুধবার এই দুই পরীক্ষার সূচি প্রকাশ করে। গত কয়েক বছর ধরেই ১ ফেব্রুয়ারি এসএসসি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। সেদিন সরকারি ছুটি থাকলে পরীক্ষা নেওয়া হয় পরের দিন থেকে। এবার ১ নভেম্বর শুক্রবার হওয়ায় ২ নভেম্বর থেকে জেএসসি পরীক্ষা শুরু হবে। জেএসসি পরীক্ষার সূচি অনুসরণ করে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার সূচি প্রকাশ করবে বলে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান।

২০১৮ সালে এসএসসির তত্ত্বীয় পরীক্ষা ২৫ দিনে (২-২৫ ফেব্রুয়ারি) নেওয়া হলেও ২০২০ সালে এ পরীক্ষা হবে ২২ দিনে। পাবলিক পরীক্ষা নেওয়ার সময় ধীরে ধীরে আরও কমিয়ে আনা হবে বলে গত কয়েক বছর ধরে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছিল। সূচি অনুযায়ী এসএসসিতে সংগীতসহ সব বিষয়ের ব্যবহারিক পরীক্ষা ২৩ থেকে ২৯ ফেব্রুয়ারির মধ্যে শেষ করতে হবে। এবারও মাধ্যমিক পরীক্ষার শিক্ষার্থীদের বহু নির্বাচনী (এমসিকিউ) অংশের উত্তর আগে দিতে হবে। পরে নেওয়া হবে সৃজনশীল/রচনামূলক অংশের পরীক্ষা।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, পরীক্ষার্থীরা সাধারণ ক্যালকুলেটর ব্যবহার করতে পারবেন। কেন্দ্র সচিব ছাড়া অন্য কেউ পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল ফোন সঙ্গে নিতে পারবেন না। পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে অবশ্যই পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা কক্ষে নির্ধারিত আসনে বসতে হবে।

কোচিং সেন্টারের স্থাপনের আগে সরকারের পূর্বানুমোদন নিশ্চিতের পরামর্শ
                                  

 শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টার স্থাপনের আগে সরকারের বিধি বিধান যথাযথ অনুসরণের মাধ্যমে পূর্বানুমোদন নিশ্চিতকরণ বিধান চালুর সংশ্লিষ্টদের পরামর্শ দেয়া হয়েছে। সংসদ ভবনে মঙ্গলভার কমিটির সভাপতি মো. আফছারুল আমীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় এ পরামর্শ দেয়া হয়। কমিটির সদস্য শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, মো. আবদুল কুদ্দুস, এ. কে. এম শাহাজান কামাল, ফজলে হোসেন বাদশা, মো. আবদুস সোবহান মিয়া, এম এ মতিন এবং গোলাম কিবরিয়া সভায় অংশগ্রহণ করেন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবসহ মন্ত্রণালয়, অধিদপ্তর, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা বিভাগ এবং সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ সভায় উপস্থিত ছিলেন। মাদ্রাসা শিক্ষাকে আরো আধুনিক ও যুগোপুযোগী করতে এবং মাদ্রাসা ছাত্রছাত্রীদেরকে ধর্মীয় শিক্ষার পাশাপাশি সাধারণ শিক্ষা কারিকুলামের আওতায় আনার মাধ্যমে চাকরি ক্ষেত্রে সমান সুযোগ প্রদানের সম্ভাবনা অবারিত রাখার লক্ষ্যে মাদ্রাসা অধিদপ্তর ও মাদ্রাসা বোর্ডকে পদক্ষেপ নিতে পরামর্শ দেয়া হয়। এছাড়া, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও সদস্য নির্বাচনে নীতিমালা ঠিক করতে উপ-কমিটি গঠন করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। সংসদ সচিবালয় থেকে জানানো হয়, স্থায়ী কমিটির সদস্য মো. আবদুল কুদ্দুসকে আহ্বায়ক চার সদস্যসের ওই উপ-কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির সদস্যরা হলেন ফজলে হোসেন বাদশা, আবদুস সোবহান মিয়া এবং এম এ মতিন।

গত ২১ মে সংসদীয় কমিটির বৈঠকে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও সদস্য নির্বাচনে নূন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতা নির্ধারণ নিয়ে মতভিন্নতা দেখা দেয়। ২০১৬ সালে আদালতের রায়ে স্কুল-কলেজের পরিচালনা পর্ষদে অভিপ্রায়ের ভিত্তিতে স্থানীয় এমপির সভাপতি পদে মনোনীত হওয়ার বিধান বাতিল হয়। সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মাদ্রাসা শিক্ষাকে আরও আধুনিক ও যুগোপযোগী করতে এবং শিক্ষার্থীদেরকে ধর্মীয় শিক্ষার পাশাপাশি সাধারণ শিক্ষা কারিকুলামের আওতায় আনার মাধ্যমে চাকরি ক্ষেত্রে সমান সুযোগ দেওয়ার সম্ভাবনা রাখতে মাদ্রাসা অধিদপ্তর ও মাদ্রাসা বোর্ডকে এ সম্পর্কিত পদক্ষেপ গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

এছাড়া দেশে যে কোনো ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টার স্থাপনের আগে সরকারের বিধি-বিধান যথাযথ অনুসরণের মাধ্যমে সরকারের পূর্বানুমোদন নিশ্চিত করার সুপারিশ করা হয়।

প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ: নেত্রকোণার ১১ শিক্ষক বরখাস্ত
                                  

 নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত সন্দেহে আটক ১১ জন শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে আটজনকে দুই দিনের পুলিশ হেফাজতে (রিমান্ড) দিয়েছে আদালত। গতকাল সোমবার তাদের বরখাস্ত করা হয় বলে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ওবায়দুল্লাহ জানিয়েছেন। ওবায়দুল্লাহ বলেন, সাময়িক বরখাস্ত ১১ জনের মধ্যে তিনজন প্রধান শিক্ষক ও বাকি আটজন সহকারী শিক্ষক রয়েছেন। তারা সরকারি চাকরিবিধি ভঙ্গ করে অপরাধে জড়িয়ে কারাগারে আছেন। এ কারণেই তাদের বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার নিয়োগ পরীক্ষা চলাকালে কেন্দুয়ার টেংগুরি এলাকার ব্যবসায়ী শামিম আহমেদের বাড়ি থেকে ৩২ জনকে গ্রেফতার করা হয়, যাদের প্রশ্ন ফাঁসকারি চক্রের সদস্য বলছে পুলিশ; এদের মধ্যেই রয়েছেন সাময়িক বরখাস্ত ১১ শিক্ষক। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ৯৭ জনের বিরুদ্ধে থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও পাবলিক পরীক্ষা (অপরাধ) আইনে মামলা করেছে। বরখাস্তরা হলেন কেন্দুয়ার বলাইশিমুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবদুল মান্নান ছোটন, সহকারী শিক্ষক মরিয়ম আক্তার, বড়বাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুস সাকি ও পানগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তুহিন আক্তার, দিগদাইর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মজিবুর রহমান, নওপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হাওয়া বেগম, লিপা মুনালিসা, কেন্দুয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক তাহমিনা আক্তার, মদন উপজেলার জঙ্গলটেঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক জেবুন্নাহার ডলি, খাগরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক লাকি আক্তার, ও আটপাড়া উপজেলার তেলিগাতী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক স্মৃতি খানম।

পুলিশ রিমান্ডে পাঠানো আটজন হলেন বলাইশিমুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবদুল মান্নান ছোটন, নওপাড়া উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আজহারুল ইসলাম, শরিফুজ্জামান ভূইয়া মিন্টু, দিগদাইর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাথমিক শিক্ষক মজিবুর রহমান, বিকাশ দে, জুয়েল মিয়া, আবুল বাশার ও বিলাস সরকার। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কেন্দুয়া থানার এসআই আবুল বাশার জানান, আটজনকে শনিবার নেত্রকোণার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালত-১ এ হাজির করে সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়। গতকাল সোমবার দুপুরে শুনানি শেষে বিচারক শরিফুল হক তাদের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এসআই বাশার আরও বলেন, এই চক্রটির সঙ্গে জড়িত আছে এমন আরও অনেকের নাম তদন্তে বেরিয়ে আসছে। এসব যাচাইবাছাই করা হচ্ছে। প্রশ্নফাঁস চক্রের সদস্য সন্দেহে শুক্রবার ৩২ জনকে আটক করা হয়। আটকের সময় তাদের কাছ থেকে ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন, ডিভাইস ও প্রিন্টার জব্দ করে পুলিশ। শনিবার বিকালে তাদের নেত্রকোণা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সামনে হাজির করে পুলিশ।

 

প্রশ্নফাঁস: ঢাবি শিক্ষার্থীসহ ৭৮ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা
                                  

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ভর্তি পরীক্ষাসহ বিভিন্ন সরকারি চাকরির প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত থাকার অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ ৭৮ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। গত মঙ্গলবার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুর জামান আনসারী এ গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। আগামি ৩০ জুলাই পরোয়ানা জারির প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন ধার্য করেছেন আদালত। এর আগে গত ২৩ জুন (রোববার) ঢাবির ৮৭ শিক্ষার্থীসহ ১২৫ জনের নামে প্রশ্নপত্র ফাঁসের মামলায় চার্জশিট দেয় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির সিনিয়র এএসপি সুমন কুমার দাস ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ২৬ জুন মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য ছিলো। অভিযোগপত্রের বক্তব্য অনুযায়ী, আসামিদের মধ্যে অনেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি ও বিভিন্ন চাকরির নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস করে কোটি কোটি টাকার সম্পদ অর্জন করেছে। যাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য আসামি হলেন- হাফিজুর রহমান, ইব্রাহীম, মোস্তফা কামাল ও আইয়ুব আলী বাঁধন। তারাই প্রশ্নফাঁসের মূল হোতা। তাদের বিরুদ্ধে মানিলন্ডারিং আইনেও উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি মামলা করেছে সিআইডি। অভিযোগপত্রে অপর আসামিরা হলেন- রিমন হোসেন, তাজুল ওরফে মুকুল, রাকিবুল হাসান এছামী, খান বাহাদুর, সাইফুল ইসলাম, সজীব ইসলাম, বনি ইসরাইল, আশরাফুল ইসলাম আরিফ, মারুফ হাসান।

ডিজিটাল ডিভাইস জালিয়াত চক্রের হোতা বিকেএসপির বরখাস্ত হওয়া ক্রীড়া কর্মকর্তা অলিপ কুমার বিশ্বাস, ৩৮তম বিসিএস এ নন-ক্যাডারের সুপারিশপ্রাপ্ত ইব্রাহীম মোল্যা, হাফিজুর রহমান হাফিজ, মাসুদুর রহমান তাজুল, বিএডিসির সহকারী প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোস্তফা কামাল ও আইয়ুব আলী বাঁধন। আরও আছেন মহিউদ্দিন রানা, আবদুল্লাহ আল মামুন, ইশরাক হোসেন রাফি, ফারজাদ সোবহান নাফি, আনিন চৌধুরী, নাভিদ আনজুম তনয়, এনামুল হক আকাশ, নাহিদ ইফতেখার, রিফাত হোসেন, বায়েজিদ, ফারদিন আহম্মেদ সাব্বির, তানভি আহম্মেদ, প্রসেনজিৎ দাস, আজিজুল হাকিম, তানভির হাসনাইন, সুজাউর রহমান, রাফসান করিম, আখিনুর রহমান অনিক, কদমতলীর দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র রাহাত ইসলাম, জাহিদ হোসেন, হাজারীবাগ শেখ রাসেল সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র আবির ইসলাম নোমান, সুজন, তিতুমীর সরকারি কলেজের অনার্সের ছাত্র আল আমিন, সুফল রায় ওরফে শাওন, সাইদুল ইসলাম, সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী আহসান উল্লাহ ও শেরপুর সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী শাহাদাত হোসেন। ২০১৭ সালের ২০ অক্টোবর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দু’টি আবাসিক হলে সিআইডি অভিযান চালিয়ে মামুন ও রানা নামে দুই শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করে। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পরদিন পরীক্ষার হল থেকে গ্রেফতার হয় রাফি নামে ভর্তিচ্ছু একজন শিক্ষার্থী। ওইদিন শাহবাগ থানায় ২০০৬ সালের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৬৩ ধারা ও ১৯৮০ সালের পাবলিক পরীক্ষা আইনের ৯(খ) ধারায় মামলা করেন সিআইডি।

এ মামলাটিতে ৪৭ জনকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি তাদের মধ্যে থেকে ফৌজদারি কাযবিধির ১৬৪ ধারা মতে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেরেন। মামলাটিতে দু’টি ধারায় ৪টি অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন তদন্তকার্রী কর্মকর্তা। ধারা দু’টি হল ২০০৬ সালের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৬৩ ধারা ও ১৯৮০ সালের পাবলিক পরীক্ষা আইনের ৯(খ) ধারা। মামলাটিতে ১৮ বছরের নিচে হাজারীবাগ শেখ রাসেল সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র আবির ইসলাম নোমান আসামি থাকায় তার বিচার হবে শিশু আদালতে। তাই তাদের বিরুদ্ধে আলাদা দু’টি অভিযোগপত্র দাখিল করেছে তদন্ত কর্মকর্তা। গ্রেফতার হওয়া সব আসামি জামিনে রয়েছেন।

বিনামূল্যে বিতরণে মাধ্যমিকের ১৭ কোটি ১৯ লাখ বই ছাপাবে সরকার
                                  

 বিনামূল্যে বিতরণের জন্য ২০২০ শিক্ষাবর্ষের মাধ্যমিক স্তরের জন্য প্রায় ১৭ কোটি ১৯ লাখ বই ছাপাচ্ছে সরকার। এজন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৩৫ কোটি ৯৮ লাখ টাকা। ৩২০টি লটে এসব বই সরবরাহের কাজ পেয়েছে দেশীয় বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান। এ সংক্রান্ত একটি ক্রয় প্রস্তাবের অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। গতকাল বুধবার সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়।

কমিটির আহ্বায়ক অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল অসুস্থ থাকায় কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক এতে সভাপতিত্ব করেন। বৈঠকে আরো ছয়টি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব নাসিমা বেগম সাংবাদিকদের বলেন, ২০২০ শিক্ষাবর্ষের মাধ্যমিক স্তরের (বাংলা ও ইংরেজি ভার্সন), ইবতেদায়ি, দাখিল, মাধ্যমিক ও উচ্চ, এসএসসি ও দাখিল (ভোকেশনাল) এবং কারিগরি (ট্রেড বই) স্তরের বিনামূল্যে বিতরণের পাঠ্যপুস্তক মুদ্রণ, বাঁধাই ও সরবরাহের ক্রয় প্রস্তাবের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। তিনি জানান, ১৭ কোটি ১৮ লাখ ৯৯ হাজার ৯৩৮ কপি বই ছাপাবে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকশিক্ষা বিভাগ। এতে ব্যয় হবে ৪৩৫ কোটি ৯৮ লাখ টাকা। ৩২০টি লটে এসব বই সরবরাহের জন্য দেশীয় বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। বৈঠকে ঢাকা ওয়াসার ‘পদ্মা (যশলদিয়া) পানি শোধনাগার নির্মাণ (ফেজ-১) (২য় সংশোধিত)’ প্রকল্প বাস্তবায়ন কাজের খরচ বৃদ্ধির একটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। নাসিমা বেগম জানান, এই কাজে আগে ব্যয় ধরা হয়েছিলো ২২ কোটি ২৬ লাখ টাকা।

তিন কোটি ৮৮ লাখ টাকা বেড়ে বর্তমানে ব্যয় দাঁড়িয়েছে ২৬ কোটি ১৩ লাখ টাকা। ৈৈবঠকে ‘ঢাকা ওয়াসার অধীন সাভার উপজেলার তেতুলঝরা ভাকুর্তা এলাকায় ওয়েল্ডফিল্ড নির্মাণ (প্রথম পর্ব) শীর্ষক’ প্রকল্পের জন্য কোরিয়ার প্রতিষ্ঠান হোন্ডো রোটেন কোম্পানির সঙ্গে সরকারের চুক্তিতে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় ধরা হয়েছিলো ২৯২ কোটি ৮৮ লাখ টাকা। তবে বর্তমানে এটির ব্যয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩১৪ কোটি টাকা। ব্যয় বেড়েছে ২১ কোটি ১২ লাখ টাকা।

চাকরির জন্য ঘুরতে ঘুরতে বয়স শেষ, অনশনে মাস্টার্স পাস প্রতিবন্ধী
                                  

সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার প্রত্যন্ত বিয়াড়া গ্রামের আব্দুল কাদেরের মেয়ে চাঁদের কনা। বয়স ৩১। শিশুকাল থেকে শারীরিক প্রতিবন্ধকতার শিকার। হাতের উপর ভর দিয়ে হেঁটেই নানা চরাই উৎরাই পার হয়ে ২০১৩ সালে ইডেন কলেজ থেকে প্রথম বিভাগে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন।

এরপর যোগ্যতা অনুযায়ী একটি সরকারি চাকরির জন্য ছুটে বেড়িয়েছেন এ দুয়ার থেকে ও দুয়ার। কিন্তু সেই চাকরি আর ধরা দেয়নি। তাই নিরুপায় হয়ে বুধবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আমরণ অনশনে বসেছেন সেই চাঁদের কনা।

তার স্বজন ও প্রতিবেশীদের কাছ থেকে জানা যায়, মাত্র নয় মাস বয়সে পোলিওতে আক্রান্ত হয়ে দুটি পায়ের কার্যক্ষমতা হারায় চাঁদের কনা। তবুও বাবা-মায়ের সচেতনতা আর নিজের প্রতিবন্ধিকতা জয়ের অদম্য চেষ্টায় চলতে থাকে হাতে হেঁটে পড়ালেখা।

চাঁদের কনা যখন অনার্স ১ম বর্ষের ছাত্রী, তখন তার মা হাসনা হেনা বেগম মারা যান। এর কয়েক বছর পর ব্রেইন স্ট্রোক করে অসুস্থ হয়ে পড়েন তার বাবা। পরিবারের একমাত্র উপর্জনক্ষম ব্যক্তিকে হারিয়ে এবং বাবার অসুস্থতাজনিত কারণে তার জীবনে প্রতিবন্ধিতার সঙ্গে নেমে আসে চরম দারিদ্রতা। অবশেষে পড়ালেখার খরচ যোগাতে একটি বেসকারি টিভি চ্যানেলে সামান্য বেতনে চাকরি নেন তিনি। শত কষ্টের মাঝেও গার্হস্থ্য অর্থনীতিতে সফলতার সঙ্গে অর্জন করেন উচ্চতর ডিগ্রি।

 

চাঁদের কনা বলেন, সব প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে তিনি মাস্টার্স সম্পন্ন করেছেন। অর্জন করেছেন প্রথম বিভাগ। শুধু তাই নয়, পড়ালেখার পাশাপাশি বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে নিজেকে দক্ষ করে গড়ে তুলেছেন। ভাড় উত্তোলন থেকে শুরু করে টিভি-রেডিওতে সংবাদ পাঠ; টিভি প্রোগ্রাম গ্রন্থনা, উপস্থাপনা ও পরিচালনা; নাটক, গল্প ও কবিতা লেখা; অভিনয় করা ও কবিতা আবৃতি করা; গল্প বলা; ছবি আঁকা এবং কম্পিউটারে সকল কাজের অভিজ্ঞতা অর্জন করেন তিনি।

 

চাঁদের কনা আরও বলেন, রাজশাহী মাদার বক্স গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজে তিনি অনার্স পড়েছেন। পঞ্চম তলায় তার ক্লাস হতো। অন্যসব ছাত্র-ছাত্রীরা কলেজে আসতেন ৯টার দিকে। অথচ তিনি কলেজে যেতেন সকাল ৭টার দিকে। কারণ হাতে ভর দিয়ে পঞ্চম তলায় উঠতে তার দের ঘন্টার মতো সময় লেগে যেতো। স্কুল জীবন থেকে শুরু করে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন পর্যন্ত এমন হাজারো বাধা পেরিয়ে তিনি প্রতিবন্ধকতাকে জয় করেছেন; শুধুমাত্র তার স্বপ্ন একজন সরকারি কর্মকর্তা হওয়ার জন্য। এরপর যোগ্যতা অনুযায়ী সরকারি চাকরির জন্য বহু চেষ্টা করেছেন তিনি। এ বছরই তার সরকারি চাকরির বয়স শেষ। বাধ্য হয়ে আমরণ অনশনে বসেছেন।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনশনে বসা তার হুইল চেয়ার ঘিরে রয়েছে বিভিন্ন বার্তা লেখা ২০টির মতো প্লাকার্ড। গলায় ঝুলছে, ‘আমি আমার মা প্রধানমন্ত্রীর ভালবাসা চাই। তার সঙ্গে দেখা করতে চাই’ লেখা প্লাকার্ড।

এইচএসসির ফল প্রকাশের সম্ভাব্য তারিখ
                                  

উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল আগামী ২০, ২১ বা ২২ জুলাইয়ের যেকোনো দিন প্রকাশ হতে পারে। 

আন্তঃশিক্ষা বোর্ড উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশের সম্ভাব্য তিনটি তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। 

আগামী ২০, ২১ বা ২২ জুলাই ফল প্রকাশ করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব দিয়েছে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড। এ বিষয়ে আন্তঃশিক্ষা বোর্ডের সভাপতি অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক গণমাধ্যমকে বলেন, নিয়ম অনুযায়ী এইচএসসি পরীক্ষা শেষে ৬০ দিনের মধ্যে ফল প্রকাশ করা হয়।

সেই হিসেবে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশের জন্য ২০ থেকে ২২ জুলাই- তিনটি তারিখ প্রস্তাব করা হয়েছে। 

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সময় দিয়ে যে তারিখে সম্মতি দেবেন, সেদিনই ফল প্রকাশ করা হবে। তিনি আরও বলেন, প্রতিবছরের মতো এ বছরও প্রধানমন্ত্রীর কাছে ফলাফলের অনুলিপি তুলে দেয়া হবে। পরে সংবাদ সম্মেলন করে ফলের বিস্তারিত তুলে ধরা হবে। এরপর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে ফল প্রকাশ করা হবে।

উল্লেখ্য, গত ১ এপ্রিল থেকে এএইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়। শেষ হয় মে’র মাঝামাঝি সময়ে। এ বছর মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১৩ লাখ ৫১ হাজার ৩০৯ জন। এরমধ্যে আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের ১১ লাখ ৩৮ হাজার ৫৫০ জন, মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডে ৭৮ হাজার ৪৫১ জন এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে ১ লাখ ২৪ হাজার ২৬৫ জন। মোট কেন্দ্র সংখ্যা ছিল ২ হাজার ৫৮০টি।

ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিংয়ে ৮০১তম স্থানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
                                  

ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিংয়ে যৌথভাবে ৮০১তম স্থানে রয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। অপরদিকে এশিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ১২৭তম স্থান অর্জন করেছে। যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রতিষ্ঠান কিউএস’র অতি সাম্প্রতিক জরিপে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। বিশ্বের বিভিন দেশের বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক মান বিবেচনায় যুক্তরাজ্যভিত্তিক এ প্রতিষ্ঠানটি র‌্যাংকিং মূল্যায়ন করে থাকে। গতকাল শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

উল্লেখ্য, যুক্তরাজ্যভিত্তিক আরেকটি প্রতিষ্ঠান ‘টাইমস হায়ার এডুকেশন’ এশিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপর সম্প্রতি একটি জরিপ প্রকাশিত হয। এ জরিপে এশিয়ার ৪১৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান না থাকার বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনা চলছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামগ্রিক শিক্ষার গুণগত মান ও ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিংয়ের অবস্থান বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সর্বদা সচেতন রয়েছে এবং শিক্ষার গুণগত মান ও র‌্যাংকিং উন্নয়নে প্রয়াস অব্যাহত রেখেছে।

১৬দফা দাবিতে বুয়েট শিক্ষার্থীদের আন্দোলন অব্যাহত
                                  

 গবেষণা ও অবকাঠামোগত উন্নয়নসহ ১৬ দফা দাবিতে গতকাল বুধবার টানা পঞ্চম দিনের মতো আন্দোলন করেছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়টির শহীদ মিনারের পাদদেশে প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছেন তারা। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

এদিকে, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সমর্থন জানিয়েছে শিক্ষকদের সংগঠন বুয়েট শিক্ষক সমিতি ও বঙ্গবন্ধু পরিষদ, বুয়েট। শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলোÑগবেষণা উন্নয়নে এ খাতে বরাদ্দ বাড়ানো, নিয়মিত শিক্ষক মূল্যায়ন প্রোগ্রামের আয়োজন করা, আবাসিক হলের অবকাঠামো উন্নয়ন, বুয়েট গেটের জন্য সিভিল-আর্কিটেকচার ডিপার্টমেন্টের বিশেষজ্ঞ শিক্ষকদের নিয়ে কমিটি গঠন ও ডিজাইনের জন্য শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রতিযোগিতার আয়োজনে অফিসিয়াল নোটিশ দেওয়া, বিতর্কিত নতুন ডিএসডব্লিউকে (ছাত্রকল্যাণ পরিচালক) অপসারণ করে ছাত্রবান্ধব নতুন ডিএসডব্লিউ নিয়োগ দেওয়া, ‘সাবেকুন নাহার সনি’ ছাত্রী হলের নামকরণ করা, শিক্ষার্থীদের ১০৮ ক্রেডিট অর্জনের পর ডাবল সাপ্লি দেওয়ার যে পদ্ধতি গত মেয়াদে চালু ছিল তার পুনর্বহাল, ‘সিয়াম-সাইফ’ নামে সুইমিংপুল কমপ্লেক্স স্থাপনে ভিসির স্বাক্ষরসহ নোটিশ।

এ ছাড়া নির্মাণাধীন টিএসসি ভবন ও ন্যাম ভবনের কাজ সম্পন্ন করা, বুয়েটের যাবতীয় লেনদেনের ক্ষেত্রে ডিজিটাল পদ্ধতি চালু করা, নির্বিচারে ক্যাম্পাসের গাছ কাঁটা বন্ধ করে আগের গাছ কাটার ব্যাখ্যা দেওয়া এবং এরইমধ্যে যত গাছ কাঁটা হয়েছে ভিসির উপস্থিতিতে তার দ্বিগুণ গাছ রোপণ করা, শিক্ষার্থীদের প্রাতিষ্ঠানিক মেইল আইডি দেওয়া, ওয়াইফাই ও ব্যায়ামাগারের আধুনিকায়ন, মাঠের উন্নয়ন করা ও পরীক্ষার খাতায় রোল নম্বরের পরিবর্তে কোড সিস্টেম চালু করা। আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের শিক্ষার্থী আনিস রহমানবলেন, পঞ্চম দিনের মতো আমাদের অবস্থান কর্মসূচি চলছে। এখন পর্যন্ত দাবি পূরণে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনও আশ্বাস পাইনি। আন্দোলনের প্রথম দিন থেকেই আমরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে আসছি।

আজকে বুয়েটের সব প্রশাসনিক ভবনে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে আমাদের আন্দোলনের সঙ্গে শিক্ষকদের দু’টি সংগঠন একাত্মতা প্রকাশ করেছে। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাবো। সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মাসুম বিল্লাহবলেন, আমাদের দাবিগুলো মেনে নিলে আন্দোলন প্রত্যাহার করবো। তাই অবিলম্বে দাবিগুলো মেনে নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

 

১৬ দাবিতে বুয়েট শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
                                  

১৬ দফা দাবিতে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করছেন। দাবি মানতে উপাচার্যের কাছে স্মারকলিপি দেওয়ার মাধ্যমে তিন দিনের আল্টিমেটামের ঘোষণা দিয়েছেন তারা। গতকাল শনিবার সকাল থেকে বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ক্যাম্পাসের শহীদ মিনারের পাদদেশে অবস্থান নিয়ে কর্মসূচি পালন করেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। ১৭তম ব্যাচের শিক্ষার্থী রাকিব হাসান বলেন, আমাদের ক্যাম্পাসকে সংরক্ষিত রাখার জন্য প্রশাসনের কাছে দাবি জানিয়েছি।

যার সবগুলোই ক্যাম্পাস সম্পর্কিত। দাবি না মানা পর্যন্ত অহিংস আন্দোলন চালিয়ে যাবো। দাবিগুলো হলো- বুয়েট গেটের জন্য সিভিল-আর্কিটেকচার ডিপার্টমেন্টের বিশেষজ্ঞ স্যারদের নিয়ে কমিটি গঠন করতে হবে ও ডিজাইনের জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে প্রতিযোগিতা আয়োজন করার অফিসিয়াল নোটিশ দিতে হবে; বিতর্কিত নতুন ডিএসডাব্লিউ (ছাত্রকল্যাণ পরিচালক) কে অপসারণ করে ছাত্রবান্ধব ডিএসডাব্লিউ নিয়োগ দিতে হবে; ছাত্রী হলের নাম ‘সাবেকুন নাহার সনি হল’ হিসেবে নামকরণ করতে হবে; ১০৮ ক্রেডিট অর্জনের পর ডাবল সাপ্লি দেওয়ার যে পদ্ধতি গত টার্মে চালু হয়েছিল সেটা পুনর্বহাল রাখতে হবে; আবাসিক হলগুলোর অবকাঠামোগত যেসব কাজ ভিসি স্যারের অফিসে আটকে আছে সেটা ক্লিয়ার করতে হবে; সিয়াম-সাইফ সুইমিংপুল কমপ্লেক্স স্থাপনের জন্য ভিসি স্যারের সিগনেচারে নোটিশ দিতে হবে; নির্মাণাধীন টিএসসি ভবন ও নেম ভবনের কাজ শুরু করতে হবে; নিয়মিত শিক্ষক মূল্যায়ন প্রোগ্রাম চালু করতে হবে; বুয়েটের যাবতীয় লেনদেনের ডিজিটালাইজেশান প্রক্রিয়ার অফিয়াল উদ্যোগ নিতে হবে; নির্বিচারে ক্যাম্পাসের গাছ কাঁটা বন্ধ করতে হবে; কেন গাছ কাঁটা হয়েছে সেটার ব্যাখ্যা দিতে হবে; যতোগুলো গাছ কাঁটা হয়েছে তার দ্বিগুণ গাছ ভিসি স্যারকে উপস্থিত থেকে লাগাতে হবে; গবেষণায় বরাদ্দ বাড়াতে হবে; প্রাতিষ্ঠানিক মেইল আইডি দিতে হবে; বুয়েট ওয়াইফাই আধুনিকায়ন করতে হবে; ব্যায়ামাগার আধুনিকায়ন করতে হবে; বুয়েট মাঠের উন্নয়ন করতে হবে এবং পরীক্ষার খাতায় রোলের পরিবর্তে কোড সিস্টেম চালু করতে হবে। আন্দোলনকারীরা জানান, প্রতিদিন অবস্থান কর্মসূচি চলমান থাকবে।

 

কানাইঘাট স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের পৌর শাখা গঠিত
                                  

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে কানাইঘাট পৌরশহরে অবস্থিত কানাইঘাট প্রি-ক্যাডেট স্কুলে কানাইঘাট স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের পৌর শাখা গঠিত হয়েছে। কানাইঘাট স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি আসিফ আযহারের উপস্থিতিতে কানাইঘাট কলেজের শিক্ষার্থী মনির আহমদকে সভাপতি এবং ছাতক সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী এম. আফতাব উদ্দিনকে সাধারণ সম্পাদক করে উক্ত কমিটি গঠন করা হয়।

 

পৌর শাখার কমিটিতে দায়িত্বপ্রাপ্ত অন্যান্যদের মধ্যে রয়েছেন- সহ-সভাপতি: হারুন আহমদ (কানাইঘাট কলেজ) ও ফয়সাল আহমদ (কানাইঘাট কলেজ), যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক: মোশাররফ হোসেইন (কানাইঘাট কলেজ), সহ সাধারণ সম্পাদক: মো. রুবেল আহমদ (কানাইঘাট কলেজ), সাংগঠনিক সম্পাদক: ফয়সাল আহমদ (এম.সি. কলেজ), রুবেল আহমদ (কানাইঘাট কলেজ) ও মিজানুর রহমান (কানাইঘাট পাবলিক স্কুল), অর্থ সম্পাদক: তারেক আহমদ (কানাইঘাট কলেজ), প্রচার সম্পাদক: আবু রেদওয়ান (কানাইঘাট কলেজ), দপ্তর সম্পাদক: আবুল হাসনাত (কানাইঘাট কলেজ), পাঠাগার সম্পাদক: আবুল কালাম (কানাইঘাট কলেজ), স্কুল ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক: বুরহান উদ্দিন (কানাইঘাট পাবলিক স্কুল) এবং সদস্য: ফয়সল আহমদ (কানাইঘাট কলেজ), ছয়ফুর রহমান (গাছবাড়ী আইডিয়াল কলেজ) ও তোফায়েল আহমদ (সিলেট পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট) ও তামিম আহমদ প্রমুখ।

 

কমিটি গঠন উপলক্ষে আয়োজিত সভায় নবগঠিত কমিটির সদস্যরা তাদের নানান পরিকল্পনা ও মতামত তোলে ধরে বক্তব্য পেশ করেন। শিক্ষাক্ষেত্রে কাঙ্খিত লক্ষ্য অর্জনের পথে কানাইঘাট উপজেলায় কী কী প্রতিবন্ধকতা কাজ কছে সে ব্যাপারে আলোকপাত করেন তারা।  

গণিতকে সহজ ও বোধগম্য করতে সমন্বিত প্রয়োজন উদ্যোগ: শিক্ষা উপমন্ত্রী
                                  

 শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, শিক্ষার্থীদের ভীতি দূর করতে গণিতকে সহজ ও বোধগম্য করে উপস্থাপনে সমন্বিত প্রয়োজন উদ্যোগ। তিনি শিক্ষার্থীদের কাছে গণিতকে জনপ্রিয় করার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, এ ক্ষেত্রে পেশাজীবী, শিক্ষাবিদ ও গবেষকরা কার্যকর ভূমিকা পালন করতে পারেন। গতকাল সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এ এফ মুজিবুর রহমান গণিত ভবনে উন্নয়নশীল দেশগুলোয় গণিত গবেষণার উৎকর্ষ সাধনের লক্ষ্যে ‘রিসার্চ স্কুল অন ডায়নামিক্যাল সিস্টেমস এ- ইটস অ্যাপলিকেশন্স টু বায়োলজি’ শীর্ষক গণিত গবেষণা বিষয়ক আন্তর্জাতিক এ কর্মশালার উদ্বোধনকালে উপমন্ত্রী এ কথা বলেন।

ঢাবি উপাচার্য আক্তারুজ্জামান গণিতকে বিজ্ঞানের মা হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, বিজ্ঞান গবেষণার উন্নয়নে গণিত শিক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আন্তর্জাতিক এ কর্মশালায় গণিত বিষয়ক যৌথ গবেষণা প্রকল্প গ্রহণের ক্ষেত্রে গবেষক ও গণিতবিদদের জন্য একটি কমন প্ল্যাটফর্ম তৈরি করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। ঢাবির গণিত বিভাগ,ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর পিওর এ- অ্যাপ্লাইড ম্যাথমেটিক্স এবং এ এফ মুজিবুর রহমান ফাউন্ডেশন যৌথভাবে ১২ দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক এই কর্মশালার আয়োজন করেছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গণিত বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. অমল কৃ হালদারের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে নিযুক্ত ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত ম্যারি অনিক বর্ডিন, সিআইএমপিএ প্রতিনিধি অধ্যাপক ড. রিনাদ লিপলেডিওর,অধ্যাপক ড. লিদিয়া ফার্নান্দেজ রদ্রিগেজ এবং এ এফ মুজিবুর রহমান ফাউন্ডেশনের ট্রাস্টি এম নুরুল আলম বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। উল্লেখ্য, বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, ফ্রান্স, জার্মানী, ব্রাজিল, অস্ট্রিয়া, কম্বোডিয়া, ঘানা, মিশর, চীন, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া ও নেপালের শিক্ষক ও গবেষকগণ এই কর্মশালায় অংশগ্রহণ করছেন।


   Page 1 of 57
     শিক্ষা-সাহিত্য
প্রকাশিত হলো এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল, গড় পাসের হার ৭৩.৯৩%
.............................................................................................
এইচএসসি পরীক্ষার ফল ১৭ জুলাই
.............................................................................................
শিক্ষা বোর্ডও বাতিল করল ভিকারুননিসায় অধ্যক্ষ নিয়োগ প্রক্রিয়া
.............................................................................................
বৃষ্টিতে ভিজেই অনশনে জবির শিক্ষার্থীরা
.............................................................................................
জেএসসি পরীক্ষা ২ নভেম্বর ও এসএসসি শুরু ১ ফেব্রুয়ারি
.............................................................................................
কোচিং সেন্টারের স্থাপনের আগে সরকারের পূর্বানুমোদন নিশ্চিতের পরামর্শ
.............................................................................................
প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ: নেত্রকোণার ১১ শিক্ষক বরখাস্ত
.............................................................................................
প্রশ্নফাঁস: ঢাবি শিক্ষার্থীসহ ৭৮ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা
.............................................................................................
বিনামূল্যে বিতরণে মাধ্যমিকের ১৭ কোটি ১৯ লাখ বই ছাপাবে সরকার
.............................................................................................
চাকরির জন্য ঘুরতে ঘুরতে বয়স শেষ, অনশনে মাস্টার্স পাস প্রতিবন্ধী
.............................................................................................
এইচএসসির ফল প্রকাশের সম্ভাব্য তারিখ
.............................................................................................
ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিংয়ে ৮০১তম স্থানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
.............................................................................................
১৬দফা দাবিতে বুয়েট শিক্ষার্থীদের আন্দোলন অব্যাহত
.............................................................................................
১৬ দাবিতে বুয়েট শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
.............................................................................................
কানাইঘাট স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের পৌর শাখা গঠিত
.............................................................................................
গণিতকে সহজ ও বোধগম্য করতে সমন্বিত প্রয়োজন উদ্যোগ: শিক্ষা উপমন্ত্রী
.............................................................................................
একাদশে প্রথম পর্যায়ে ভর্তির জন্য মনোনীত ১৩ লাখ ১৮ হাজার ৮৬৬ জন
.............................................................................................
বাংলাদেশের উচ্চশিক্ষার ওপর জরিপ করবে জাইকা
.............................................................................................
সাধারণ শিক্ষায় যুক্ত হচ্ছে ভোকেশনাল কোর্স
.............................................................................................
শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় ৮০ শতাংশই অকৃতকার্য
.............................................................................................
এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলে সন্তুষ্ট না হয়ে উত্তরপত্র পুনঃমূল্যায়নের জন্য রেকর্ড সংখ্যক আবেদন!
.............................................................................................
একাদশ-দ্বাদশ কোর্সে ভর্তির আবেদন শুরু কাল থেকে
.............................................................................................
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩৪ দিনের ছুটি শুরু হচ্ছে রোববার
.............................................................................................
একাদশে ভর্তিতে কলেজগুলোকে ভাগ করা হবে
.............................................................................................
৪৫ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য ৮ হাজার ৮৮ কোটি টাকার বাজেট অনুমোদন
.............................................................................................
১০৭ প্রতিষ্ঠানে সবাই ফেল
.............................................................................................
এসএসসি ও সমমানে পাসের হার ৮২.২০
.............................................................................................
যেভাবে পাবে এসএসসি ও সমমানের ফলাফল
.............................................................................................
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আজকের সব পরীক্ষা স্থগিত
.............................................................................................
এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৬ মে
.............................................................................................
৩৯তম বিসিএসের ফল আজই প্রকাশিত হচ্ছে
.............................................................................................
নারায়ণগঞ্জে ৪১০ টন মেয়াদোত্তীর্ণ খেজুর জব্দ
.............................................................................................
কম খরচে হয়রানিমুক্ত চিকিৎসা নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির
.............................................................................................
চাকরিতে প্রবেশের বয়স না বাড়ালে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি
.............................................................................................
পাঠ্যপুস্তকে ভুল-ত্রুটি সংশোধনের কাজ চলছে: শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
শিক্ষাখাতে প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দে সরকার বদ্ধপরিকর: শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের শিক্ষার্থীদের দাবি পূরণের আশ্বাস কর্তৃপক্ষের
.............................................................................................
একাদশে ভর্তি শতভাগ মেধায়, কোটা পরে
.............................................................................................
ইতিহাসের এই দিনে
.............................................................................................
ঢাবিতে ছাত্রলীগের দুইপক্ষ মুখোমুখি : বৈশাখী কনসার্টের অনুমতি বাতিল
.............................................................................................
মুরাদনগরে চায়ের দোকানে আলিম পরীক্ষার ভিডিও ভাইরাল
.............................................................................................
ঢাবির ডিনস অ্যাওয়ার্ড পেলেন ২১ শিক্ষার্থী
.............................................................................................
বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে রাজপথে ববি শিক্ষার্থীরা
.............................................................................................
ভিসির পদত্যাগের দাবিতে ববি শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক অবরোধ
.............................................................................................
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন অব্যাহত
.............................................................................................
পুলিশ-ছাত্রলীগ সংঘর্ষে রণক্ষেত্র চবি ক্যাম্পাস
.............................................................................................
মদপানে রাবির দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যু
.............................................................................................
প্রক্টরের আশ্বাসেও অনড় নুর, অবস্থান চলছে
.............................................................................................
জাবিতে ছিনতাইয়ের অভিযোগে ৫ ছাত্রলীগ কর্মী বহিষ্কার
.............................................................................................
ভিসির ‘রাজাকারের বাচ্চা’ বক্তব্যের প্রতিবাদে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
উপদেষ্টা: আজাদ কবির
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ হারুনুর রশীদ
সম্পাদক মন্ডলীর সহ-সভাপতি: মামুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
যুগ্ম সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বার্তা সম্পাদক: মুজিবুর রহমান ডালিম
স্পেশাল করাসপনডেন্ট : মো: শরিফুল ইসলাম রানা
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]