বৃহস্পতিবার , ১৬ রবিঃ আউয়াল ১৪৪১ | ১৪ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   রাজধানী -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
নীতিমালা প্রণয়নের দাবিতে রাজধানীতে হকারদের বিক্ষোভ

পুনর্বাসন ছাড়া হকার উচ্ছেদ, হামলা-মামলা-নির্যাতন বন্ধ এবং হকার ব্যবস্থাপনায় জাতীয় নীতিমালা প্রণয়নের দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বাংলাদেশ হকার্স ইউনিয়ন। গতকাল বুধবার দুপুরে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের লিংক রোডে ঢাকার বিভিন্ন স্থান থেকে আসা হকাররা এ বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেন।

মিছিলটি বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের এক নম্বর গেট, দু’নম্বর গেট, সার্জেন্ট আহাদ পুলিশ বক্স, গুলিস্তান ফ্লাইওভার, গোলাপশাহ মাজার, জিরো পয়েন্ট, মতিঝিল শাপলা চত্বর, নটরডেম কলেজ, আরামবাগ, পল্টন থানা, কাকরাইল বিজয়নগর হয়ে পল্টন মোড়ে এসে শেষ হয়। মিছিল শেষে পল্টন মোড়ে হকার্স ইউনিয়নের উদ্যোগে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। আবদুল হাসিম কবিরের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন হকার্স ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সেকান্দার হায়াত, সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হযরত আলী, সহ-সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান বাবুল, সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন প্রমুখ। সমাবেশে বক্তারা বলেন, ফুটপাতে চাঁদাবাজির অভিযোগে হকার উচ্ছেদ করা হচ্ছে। হকার উচ্ছেদ করলে নাকি চাঁদাবাজি বন্ধ হয়ে যাবে। তারা বলেন, পত্র-পত্রিকায় পরিবহনসহ বিভিন্ন সেক্টরে চাঁদাবাজি ও লুটপাটের ঘটনা প্রকাশ হচ্ছে।

তাহলে কি পরিবহনসহ সব মন্ত্রণালয় বন্ধ করে দিলেই সমস্যার সমাধান হবে? মাথা ব্যাথার জন্য মাথা কেটে না ফেলে সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সমাবেশে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানান বক্তারা। সমাবেশে বক্তারা আরও বলেন, সরকার হকারদের আইনগত স্বীকৃতি দিয়ে তাদের কাছ থেকে ট্যাক্স ও টোল আদায় করলে সবধরণের চাঁদাবাজি এমনিতেই বন্ধ হয়ে যাবে। সিটি করপোরেশন তা না করায় চাঁদাবাজির সুযোগ তৈরি হচ্ছে। সমাবেশ থেকে ১১ নভেম্বর হকার গণমিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

 

নীতিমালা প্রণয়নের দাবিতে রাজধানীতে হকারদের বিক্ষোভ
                                  

পুনর্বাসন ছাড়া হকার উচ্ছেদ, হামলা-মামলা-নির্যাতন বন্ধ এবং হকার ব্যবস্থাপনায় জাতীয় নীতিমালা প্রণয়নের দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বাংলাদেশ হকার্স ইউনিয়ন। গতকাল বুধবার দুপুরে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের লিংক রোডে ঢাকার বিভিন্ন স্থান থেকে আসা হকাররা এ বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেন।

মিছিলটি বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের এক নম্বর গেট, দু’নম্বর গেট, সার্জেন্ট আহাদ পুলিশ বক্স, গুলিস্তান ফ্লাইওভার, গোলাপশাহ মাজার, জিরো পয়েন্ট, মতিঝিল শাপলা চত্বর, নটরডেম কলেজ, আরামবাগ, পল্টন থানা, কাকরাইল বিজয়নগর হয়ে পল্টন মোড়ে এসে শেষ হয়। মিছিল শেষে পল্টন মোড়ে হকার্স ইউনিয়নের উদ্যোগে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। আবদুল হাসিম কবিরের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন হকার্স ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সেকান্দার হায়াত, সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হযরত আলী, সহ-সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান বাবুল, সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন প্রমুখ। সমাবেশে বক্তারা বলেন, ফুটপাতে চাঁদাবাজির অভিযোগে হকার উচ্ছেদ করা হচ্ছে। হকার উচ্ছেদ করলে নাকি চাঁদাবাজি বন্ধ হয়ে যাবে। তারা বলেন, পত্র-পত্রিকায় পরিবহনসহ বিভিন্ন সেক্টরে চাঁদাবাজি ও লুটপাটের ঘটনা প্রকাশ হচ্ছে।

তাহলে কি পরিবহনসহ সব মন্ত্রণালয় বন্ধ করে দিলেই সমস্যার সমাধান হবে? মাথা ব্যাথার জন্য মাথা কেটে না ফেলে সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সমাবেশে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানান বক্তারা। সমাবেশে বক্তারা আরও বলেন, সরকার হকারদের আইনগত স্বীকৃতি দিয়ে তাদের কাছ থেকে ট্যাক্স ও টোল আদায় করলে সবধরণের চাঁদাবাজি এমনিতেই বন্ধ হয়ে যাবে। সিটি করপোরেশন তা না করায় চাঁদাবাজির সুযোগ তৈরি হচ্ছে। সমাবেশ থেকে ১১ নভেম্বর হকার গণমিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

 

রাজধানীতে অস্ত্র চোরাকারবারি গ্রেফতার
                                  

অস্ত্র চোরাকারবারে জড়িত থাকার অভিযোগে রাজধানীর মিরপুর থেকে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। গত সোমবার মো. হাফিজুর রহমান নামে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করার সময় তার কাছ থেকে একটি পিস্তল, দুটি রিভলবার এবং একটি শ্যুটারগান উদ্ধার করা হয়। গোয়েন্দা পুলিশে ঢাকা উত্তর বিভাগের উপকমিশনার মশিউর রহমান গতকাল মঙ্গলবার ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, হাফিজুর রহমান তার সহযোগী মো. হাবিবুর রহমান বিশ্বাস ও জিল্লুরের মাধ্যমে বেনাপোল দিয়ে চোরাই পথে অবৈধ অস্ত্র ও গুলি আনত বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, হাফিজুর রহমান এর আগে গরু ও মাদক চোরাকারবারে জড়িত ছিলেন। মাস সাতেক আগে তিনি অস্ত্রের কারবারে নামেন। ভারতের তৈরি অন্তত ২০টি অস্ত্র তিনি এর মধ্যে বাংলাদেশে এনে বিক্রি করেছেন। একজনের ‘চাহিদা অনুযায়ী’ রোববারের চালানটি তিনি দেশে আনেন।

উপ কমিশনার মশিউর বলেন, এই চক্রটি বিহার থেকে কলকাতার অস্ত্র ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে বিভিন্ন সীমান্ত এলাকায় অস্ত্র ও গুলি এনে গোপন স্থানে রাখে। পরে বাংলাদেশি অস্ত্র ব্যবসায়ীদের সাথে দর কষাকষি করে। দর চূড়ান্ত হলে তারা কলকতার উত্তর চব্বিশ পরগনার আংরাইল সীমান্তবর্তী গ্রাম এবং বাংলাদেশের বেনাপোলে পুটখালী গ্রামের নদীর তীরে গোসল করার কৌশলে অস্ত্রের চালান নিয়ে বাংলাদেশে ঢোকে।

পরে ক্রেতার চাহিদা অনুযায়ী দেশের বিভিন্ন স্থানে পৌঁছে দেয়। এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, চক্রটিকে দীর্ঘদিন অনুসরণ করার পর গত সোমবার রাত ১০টার পর মিরপুর মডেল থানাধীন কোরিয়া কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সামনে থেকে হাফিজকে গ্রেফতার করা হয়। তার কাছে চারটি অস্ত্রের সঙ্গে ১৭ রাউন্ড গুলিও পাওয়া যায়। হাফিজ প্রতিটি অস্ত্র মোটামুটি ৩০ হাজার টাকায় কিনে সন্ত্রাসী ও জঙ্গিদের কাছে চড়া দামে বিক্রি করত জানিয়ে উপকমিশনার মশিউর বলেন, তার সাথে আরও কয়েকজন আছে, তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। অস্ত্রসহ গ্রেফতারের ঘটনায় হাফিজের বিরুদ্ধে মিরপুর মডেল থানায় মামলা করা হয়েছে বলে জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।

রাজধানীতে নব্য জেএমবি’র ৪ সদস্য গ্রেফতার
                                  

 রাজধানী থেকে নব্য জেএমবি’র সক্রিয় ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)-এর কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্র্যান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট। গত সোমবার ভোর পৌনে ৬টায় রমনা স্টার গেটের সামনে থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে উগ্রবাদী বই ও মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায় সিটিটিসি। গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলো-আরিফ মোল্লা (২৮), মো. ইলিয়াস হোসেন ওরফে মিঠু (২৮), মো. ফরহাদ আলী ওরফে ফুয়াদ (৩১) ও মুনতাসিম বিল্লাহ ওরফে সাব্বির (২১)। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গ্রেফতার চারজনই নব্য জেএমবি’র সক্রিয় সদস্য।

তারা ২০১৮ সালের মাঝামাঝি সময়ে বগুড়ার দুপচাঁচিয়া থানার সঞ্জয়পুর গ্রামের নাগর নদীর তীরে রাকিবুল হাসান ওরফে আরতুগুলের নেতৃত্বে কথিত আইএসস’র মিডিয়ায় প্রচারের জন্য একটি ভিডিও ধারণ করেছিল। পরবর্তী সময়ে নরসিংদী জেলার ‘অপারেশন গর্ডিয়ান নট’ পরিচালনার পর আরতুগুল গ্রেফতার হলে অন্যরা আত্মগোপনে চলে যায়। সম্প্রতি অনুরূপ একটি ভিডিও তৈরির জন্য তাদের কথিত আমির নির্দেশনা দিলে, কীভাবে ভিডিওটি তৈরি করা যায় সে বিষয়ে শলাপরামর্শ করতে ঢাকায় আসে। এছাড়া গ্রেফতার জেএমবি সদস্যারা অনলাইনে বিভিন্ন আইডি ব্যবহার করে উগ্রবাদী মতাদর্শ প্রচার এবং তাদের সংগঠনের জন্য সদস্য সংগ্রহে তৎপর ছিল বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তথ্য দিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, তাদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস দমন আইনে রমনা থানায় মামলা করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার তাদের ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় ও যাত্রী হয়রানি বন্ধের দাবি
                                  

 বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় ও যাত্রী হয়রানি বন্ধের দাবি জানিয়েছে বিভিন্ন পরিবেশবাদী ও সামাজিক সংগঠন। গতকাল শনিবার শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তারা এ দাবি জানান। পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনসহ (পবা) সুবন্ধন সামাজিক কল্যাণ সংগঠন, কেন্দ্রীয় খেলাঘর আসর, গ্রিন ফোর্স, পরিবেশ আন্দোলন মঞ্চ, বিসিএইচআরডি এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, পর্যাপ্ত মানসম্মত বাস না থাকায় মোটর সাইকেল, পাঠাও, উবারসহ বাড়ছে অন্য পরিবহন। এতে মানুষের দুর্ভোগ ও পরিবহন ব্যয় বাড়ছে, বাড়ছে যানজট ও নৈরাজ্য। বিভিন্ন রুটে যে পরিমাণ বাস চালানোর কথা তা চলছে না। একটি সিন্ডিকেট পুরো পরিবহন সেক্টর দখলে নিয়েছে। পরিবহন সিন্ডিকেট হাইকোর্টের রুলকেও পরোয়া করে না। তাদের জিম্মায় চলে যাচ্ছে কোম্পানির বাস। যে কারণে যাত্রীরা সঠিক সেবা পাচ্ছে না। বিভিন্ন কোম্পানি যে পরিমাণ ও যে মানের বাস চালানোর শর্তে রুট পারমিট পায় তারা তার চেয়ে অনেক কম পরিমাণ এবং নিম্নমানের বাস চালায়। তারা আরও বলেন, কোম্পানির যেখানে ৫০টি বাস চালানোর কথা সেখানে তারা চালাচ্ছে ১০টি। যাত্রীদের গাদাগাদি করে এবং অতিরিক্ত ভাড়া দিতে বাধ্য করার জন্য কোম্পানিগুলো ইচ্ছাকৃতভাবে কম বাস চালায়। যাত্রীরা যথেষ্ঠ যানবাহন না পেয়ে চলন্ত বাসে ঝুঁকি নিয়ে উঠানামা করে এতে দুর্ঘটনা বেড়ে যায়। অন্যদিকে চাহিদা থাকায় গেট লক না দিয়ে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করে বাস কোম্পানিগুলো। সড়ক পরিবহন ২০১৮ আইন বাস্তবায়ন করার জন্য অভিনন্দন জানিয়ে বক্তারা বলেন, এরইমধ্যে মাঠ পর্যায়ে কিছুকিছু প্রস্তুতি দেখা যাচ্ছে। যেমন সড়কে নির্বিঘেœ চলাচলের লক্ষ্যে জনগণের জন্য ট্রাফিক আইন মেনে চলার বিধান করা হয়েছে। সে ক্ষেত্রে আইন অমান্য করা হলে জরিমানা হবে। কিন্তু রাজধানীতে কোথাও স্বয়ংক্রিয় ট্রাফিক সিগন্যাল নাই। পাবলিক বাস সার্ভিসের মানোন্নয়নে দক্ষভাবে পাবলিক বাস পরিচালনার জন্য অভিভাবক সংস্থা রাখা ও কর্মরত সব সংস্থার মধ্যে সমন্বয় করা দরকার।

পবা’র চেয়ারম্যান আবু নাসের খানের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, নাসফের সাধারণ সম্পাদক মো. তৈয়ব আলী, পবা’র সাধারণ সম্পাদক প্রকৌ. মো. আবদুস সোবহান, পরিবেশ আন্দোলন মঞ্চের সভাপতি আমির হাসান, সদস্য জি এম রুস্তম খান, সুবন্ধন সামাজিক সংগঠনের সভাপতি মো. হাবিবুর রহমান, খেলা ঘরের সাধারণ সম্পাদক রুনু আলী প্রমুখ।

 

র‌্যাব সেজে ডাকাতি, রাজধানীতে গ্রেফতার ৩
                                  

রাজধানীতে ডাকাতির অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ, যারা র‌্যাবের সাজ-সজ্জা নিয়ে মানুষের কাছ থেকে টাকা ও মালামাল হাতিয়ে নিতেন বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। গ্রেফতাররা হলেন, হারুন-অর রশীদ, আলম খান ও আবদুর রহমান। গত বুধবার বিকালে রাজধানীর খিলক্ষেতের তালেরটেক এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয় বলে গতকাল বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ডিবি) আবদুল বাতেন বলেন, তাদের কাছ থেকে র‌্যাব লেখা ৬টি জ্যাকেট, একটি ছুরি, একটি বেতার যন্ত্র, একটি হাতকড়া, ৫০০ ইয়াবা, একটি খেলনা পিস্তল ও একটি মাইক্রোবাস উদ্ধার করা হয়েছে। তারা ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন এলাকায় ব্যাংক কিংবা প্রতিষ্ঠানে আগত টাকা বহনকারী কিংবা ঢাকা উত্তোলনকারী ব্যক্তিকে টার্গেট করে তাদের পিছু নেয়।

ওই ব্যক্তি নির্জন স্থানে গেলে অথবা গাড়িতে উঠলে তাকে আটকে র‌্যাবের পরিচয় দিয়ে গাড়িতে তুলে অবৈধ অস্ত্র ও মাদক মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে টাকা ও মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনিয়ে নেয়। পরে সেই ব্যক্তিকে নির্জন স্থানে ফেলে পালিয়ে যায়। গ্রেফতার হারুনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় দুটি ডাকাতির মামলা ও দুটি অস্ত্র মামলা এবং আলমের বিরুদ্ধে দুটি ডাকাতির মামলা রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে খিলক্ষেত থানায় দুটি মামলা করা হয়েছে বলে পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের জন্য স্বাস্থ্য বীমা চালুর ঘোষণা মেষর আতিকের
                                  

 পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের জন্য স্বাস্থ্য বীমা চালুর ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। বীমা চালুর জন্য প্রকল্প করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে তাৎক্ষণিক নির্দেশও দেন তিনি। গতকাল বুধবার রাজধানীর মিরপুরে ডিএনসিসির ১০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয়ে পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের জন্য ফ্রি ক্যান্সার স্ক্রিনিং এবং সচেতনতামূলক মাসব্যাপী কার্যক্রমের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ ঘোষণা দেন আতিকুল ইসলাম। ডিএনসিসি মেয়র বলেন, আপনারা (পরিচ্ছন্নতা কর্মী) আমাদের ঘরে বাইরের সব জায়গা পরিষ্কার করেন।

সেই আপনাদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তায় আমাদের সবার কাজ করতে হবে। সবাই যদি এগিয়ে আসে, বীমা খাত যদি এগিয়ে আসে যে, আমাদের স্বাস্থ্য কর্মীদের জন্য স্বাস্থ্য বীমা করে দেবে, তাহলে আমাদের স্বাস্থ্য কর্মীরা অনেক ভালো থাকবে। আতিকুল ইসলাম আরও বলেন, পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের মধ্যে আমাদের দুই ধরনের শ্রমিক আছে। অস্থায়ী শ্রমিক এবং স্থায়ী শ্রমিক। দুই ধরনের শ্রমিকদের জন্যই কিভাবে স্বাস্থ্য বীমা চালু করা যায় তার একটি ফর্মুলা বের করার জন্য প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে আমি এখনই নির্দেশ দিচ্ছি। আপনারা যদি হাসপাতালে যান আপনাদের অনেক খরচ হবে। কিন্তু স্বাস্থ্য বীমা থাকলে আপনাদের খরচ হবে অনেক কম, কিন্তু লাভ হবে অনেক বেশি। পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের জন্য আবাসিক ভবন নির্মাণের কাজও প্রায় শেষ পর্যায়ে জানিয়ে তিনি বলেন, আপনাদের জন্য প্রায় ৭৮৪টি ফ্ল্যাট নির্মিত হতে যাচ্ছে। প্রতিটিতে দু’টি রুম, একটি করে বেলকুনি থাকবে। তবে পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের আরও আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান আতিক। তিনি বলেন, আপনারা যদি ভালো কাজ করতে না পারেন, তাহলে কিন্তু বাহির থেকে আউট সোর্সিং বা চুক্তিভিত্তিক মানুষ আনা হবে। কিন্তু আমরা সেটা করতে চাই না। পরীক্ষামূলকভাবে আমরা কিছুকিছু ওয়ার্ডে আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমে কাজ করছি। যারা ঠিকমত কাজ করছেন না তাদের বলতে চাই কোনো ধরনোর ফাঁকিবাজি চলবে না। আমি চাই আপনাদের কাজ আপনারাই করুন। ডিএনসিসিতে কর্মরত পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের ক্যান্সার স্ক্রিনিং কার্যক্রম বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে বর্জ্য সংগ্রহের কারণে মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকিতে থাকেন পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা।

এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করাকে বলা হয় ক্যান্সার নির্ণয়ের পরীক্ষা বা ক্যান্সার স্ক্রিনিং। আগে থেকেই স্ক্রিনিং করা হলে এবং প্রাথমিক পর্যায়ে ক্যান্সার ধরা পড়লে চিকিৎসা অনেকটা সহজ হয়ে যায়। যে কারণেই এ ক্যান্সার স্ক্রিনিং কার্যক্রম আয়োজন করা হয়েছে। ডিএনসিসি এবং আনোয়ার খান মেডিকেল কলেজের অকনোলজি বিভাগের যৌথ উদ্যোগে মাসব্যাপী এ কার্যক্রম শুরু হয়েছিল।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমডোর মোহম্মাদ মঞ্জুর হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মোমিনুর রহমান মামুন, আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা সালেহা বিনতে সিরাজ, ডিএনসিসির বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্থায়ী কমিটি আহ্বায়ক ও ১৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাকির হোসেন, ১০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবু তাহের, আনোয়ার খান মর্ডান মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. এখলাসুর রহমান, অনকোলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. এহতাশামুল হক প্রমুখ।

রাজধানীতে আন্তর্জাতিক চামড়াজাত পণ্যের মেলা
                                  

 ঢাকায় শুরু হচ্ছে দুই দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক চামড়াজাত পণ্যের মেলা ‘বাংলাদেশ লেদার ফুটওয়্যার অ্যান্ড লেদারগুডস ইন্টারন্যাশনাল সোর্সিং শো-ব্লিস’। আজ বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় শুরু হবে সর্ববৃহৎ এই ফুটওয়্যার এক্সপো। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১১টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ লেদার ফুটওয়্যার অ্যান্ড লেদারগুডস ইন্টারন্যাশনাল সোর্সিং শো-২০১৯ উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

লেদারগুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারস অ্যান্ড এক্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয় যৌথভাবে আন্তর্জাতিক এই মেলার আয়োজন করেছে। মেলায় হংকং, জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া, ইতালি, জাপান, ফ্রান্স, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ব্যবসায়ীরা অংশ নেবেন। আয়োজকরা জানান, বাংলাদেশের চামড়াজাত পণ্য বিশ্বের বড় বড় ক্রেতা ও ব্র্যান্ড প্রতিনিধিদের কাছে তুলে ধরতেই এই মেলার আয়োজন করা হয়েছে।

মাত্র ছয়টি পণ্য থেকে বাংলাদেশের ৯৩ শতাংশ রপ্তানি আয় আসে। এ পরিস্থিতিতে রপ্তানি খাতকে বৈচিত্র্যময় করতে সরকার চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য খাতকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় এই সোর্সিং প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।

রূপনগরে বেলুন ফোলানোর সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ৫ জনের মৃত্যু
                                  

রাজধানীর রূপনগর আবাসিক এলাকায় বেলুন ফোলানোর একটি সিলিন্ডার বিস্ফোরণে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় ১০-১১ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

আজ বুধবার বিকেল ৩টার দিকে ওই আবাসিক এলাকার ১১ নম্বর রোডে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে চারজন শিশু এবং একজন নারী। চার শিশুর বয়স ৮-১০ বছরের মধ্যে। আর নারীর বয়স ৩৫ বছর বলে জানা গেছে।

নিহত শিশুরা হলো- রমজান (৮), নুপুর (৭), শাহীন (৯), ফারজানা (৬) ও অজ্ঞাত (৭)।

 

রূপনগর থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ধানমণ্ডিতে বহুতল ভবনে আগুন
                                  

রাজধানীর ধানমণ্ডিস্থ বহুতল ভবনের আগুনে ধোঁয়ায় শ্বাস বন্ধ হয়ে ষাটোর্ধ্ব এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ সূত্রে এ খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে।

 

এর আগে আজ শনিবার সকাল নয়টা ২৫ মিনিটে ৬/এ এলাকার ঈদগাহ ময়দানের বিপরীতে একটি ১২তলা আবাসিক ভবনে অগ্নিকাণ্ড ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট ৪৫ মিনিটের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে তিনি সক্ষম হয়।

 

ঘটনার পরপরই ধানমণ্ডি মডেল থানা জানায়, এতে দুইজন নারী ও একজন পুরুষ আহত হয়েছেন। তাদের হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

কারওয়ান বাজারে দেড় শতাধিক ভাসমান স্থাপনা উচ্ছেদ
                                  

রাজধানীর সড়ক ও ফুটপাতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসসি)। গতকাল সোমবার কারওয়ান বাজারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ হোসেন এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন।

অভিযানে কারওয়ান বাজারের মুরগিপট্টির ফুটপাত, কাঠপট্টির ফুটপাত, কাঁচা বাজারের ফুটপাত থেকে প্রায় ১৬৫টি ভাসমান দোকান বা স্থাপনা অপসারণ করা হয়। গত ২২ সেপ্টেম্বর থেকে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) উত্তরা, মহাখালী, ফার্মগেট, মিরপুর, গুলশান, ভাষানটেকসহ বিভিন্ন স্থানে সড়ক ও ফুটপাত থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হচ্ছে। উচ্ছেদ করা এসব স্থানে পুনরায় যেন দখল না হয়ে যায় সে জন্য নিয়মিত মনিটরিং করছে ডিএনসিসি। সড়ক ও ফুটপাত দখল মুক্ত রাখতে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের এ উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

রাজধানীতে ১০ টন পলিথিন জব্দ, ৫ লাখ টাকা জরিমানা আদায়
                                  

রাজধানীর দুই কারখানা ও একটি গুদামে অভিযান চারিয়ে ১০ টন পলিথিন জব্দের পাশাপাশি পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর। গতকাল সোমবার দুপুরে অধিদপ্তরের মনিটরিং অ্যান্ড এনফোর্সমেন্ট উইংয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী তামজীদ আহমেদের নেতৃত্বে পুরান ঢাকার চকবাজারের ওয়াটার ওয়ার্কস এলাকার দুইটি কারখানা ও একটি গুদামে অভিযান চালানো হয়।

উইংয়ের সহকারী পরিচালক সালমান চৌধুরী শাওন বলেন, অভিযানে আনুমানিক ১০ টন পলিথিন ও প্লাস্টিকের দানা জব্দ করা হয়। পরে কারখানা ও গুদামের মালিকদের কাছ থেকে পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। পলিথিনের বিরূপ প্রতিক্রিয়ায় পরিবেশ ও প্রতিবেশের ‘মারাত্মক’ ক্ষতি হচ্ছে জানিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী তামজীদ আহমেদ বলেন, ইতোমধ্যে পলিথিনের যথেচ্ছ ব্যবহারের ফলে ছোট-বড় শহরের অনেক নদীনালা, ড্রেন বন্ধ হয়ে গেছে।

ফলে সামান্য বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হচ্ছে। নিষিদ্ধ পলিথিন তৈরির কারখানার বিরুদ্ধে পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি। এই অভিযানে সহায়তা করেন পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিদর্শক মির্জা আসাদুল কিবরিয়া ও নমুনা সংগ্রহকারী রাসুল ইয়া বারী কামাল। অভিযানে পুলিশের সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন।

 

 

রাজধানীতে অটোরিকশার ধাক্কায় আহত শিশুর মৃত্যু
                                  

 রাজধানীর নন্দিপাড়ায় সিএনজিচালিত অটোরিকশার ধাক্কায় আহত উজমা আক্তার জান্নাত (৭) মারা গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এর আগে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত জান্নাত চাঁদপুর সদর উপজেলার পুরান বাজার এলাকার মো. সোহাগের মেয়ে। থাকতো নন্দিপাড়া ব্যাংক কলোনি এলাকা।

সোহাগ বলেন, স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় তৃতীয় শ্রেণিতে পড়তো জান্নাত। সকালে বাসার সামনের রাস্তায় খেলা করছিল সে। এ সময় একটি অটোরিকশা তাকে ধাক্কা দেয়। এতে গুরুতর আহত হয় সে। তাৎক্ষণিকভাবে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন সন্ধ্যা ৬টার দিকে তার মৃত্যু হয়। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া জানান, ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে রাখা হয়েছে।

 

টঙ্গীতে বস্তার গুদামে আগুন: আহত ২
                                  

গাজীপুরের টঙ্গী আরিচপুর গরুহাটা রোডের বস্তাপট্টিতে গতকাল সোমবার সকালে বস্তার গুদামে এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস টঙ্গী ও উত্তরার ৫ ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেড়ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনেন। অগ্নিকান্ডে ৮টি গুদামের মালামাল ভস্মিভূত হয়েছে। ঘটনার সময় মালামাল সরাতে গিয়ে ২জন আহত হয়েছেন। তবে তাদের নাম ঠিকানা জানা যায়নি।


ব্যবসায়ী ইব্রাহিম জানান, সকাল ৮টার দিকে গুদামে সিগারেটের আগুন থেকে অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত হয়ে মুহুর্তের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা অন্যান্য গুদামগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। এতে গুদামে রক্ষিত সকল মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

খবর পেয়ে টঙ্গী ও উত্তরার ৫টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনেন। এ ব্যাপারে টঙ্গী ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র কর্মকর্তা আতিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করলে আগুন লাগার বিষয়টি নিশ্চিত করেন এবং ক্ষয়ক্ষতির পরিমান তদন্ত সাপেক্ষে বলা যাবে বলে জানান।

 

 

রাজধানীতে হচ্ছে আরও দুটি মেট্রোরেল প্রকল্প
                                  

 রাজধানীতে যানজট সংকট নিরসনে ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (এমআরটি) লাইন-৬ এরপর সরকার আরও দু’টি মেট্রো রেল প্রকল্প বাস্তবায়নের পরিকল্পনা করেছে। মেট্রোরেল লাইন-১ এবং মেট্রোরেল লাইন ৫ শিরোনামে এ দু’টি প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ৯৩ হাজার ৮০০ কোটি টাকা। পরিকল্পানা কমিশনের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা জানান, আজ মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির বৈঠকে এ প্রকল্প দু’টি অনুমোদন দেয়া হবে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

কমিশনের কর্মকর্তা জানান, শেরে বাংলানগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে একনেক চেয়ারপার্সন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সভাপতিত্ব করবেন। প্রকল্প দু’টির মোট বরাদ্দের মধ্যে রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে পাওয়া যাবে ২৫ হাজার ২৩২.৬০ কোটি টাকা এবং বাকি ৬৮ হাজার ৫৬৭.৩২ কোটি টাকা পাওয়া যাবে জাপান আর্ন্তজাতিক সহায়তা সংস্থা (জাইকা)-র কাছ থেকে প্রকল্প সহায়তা হিসাবে। ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড দু’টি প্রকল্পই বাস্তবায়ন করবে। পরিকল্পনা কমিশনের মুখপাত্র জানান, বিশ্বে সর্বাধিক জনবহুল নগরীগুলোর মধ্যে ঢাকা একটি। ২০০১ সালে এই নগরীতে নিবন্ধিত যানবাহনের সংখ্যা ছিল ২০ হাজার ৬০০, ২০১৩ সালে এই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ৯৫ হাজার ৪০০। তিনি বলেন, রাজধানীতে ক্রমবর্ধমান ট্রাফিক সমস্যা নিরসন চেষ্টায় সরকার ২০১৬ সালে ৬ বছর মেয়াদি রিভাইজড স্ট্রাটিক ট্রান্সপোর্ট প্লান অনুমোদন করে। পরিকল্পনায় রাজধানীতে ট্রাফিক সমস্যা নিরসনে গণপরিবহন নেটওয়ার্কে পাচঁটি এমআরটি লাইন স্থাপনের সুপারিশ করা হয়। এমআরটি লাইন-৬ এর কাজ চলমান রয়েছে।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রনালয়ের অপর এক কর্মকর্তা জানান, এমআরটি লাইন-১ প্রকল্পের কাজ ২০২৬ সালের ডিসেম্বরে শেষ হবে। প্রকল্প ব্যয় ধরা হয়েছে ৫২ হাজার ৫৬১.৪৩ কোটি টাকা। মোট প্রকল্প ব্যয়ের মধ্যে রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে পাওয়া যাবে ১৩ হাজার ১১১.১১ কোটি টাকা এবং বাকি টাকা পাওয়া যাবে জাইকার কাছ থেকে প্রকল্প সহায়তা হিসাবে। ৩১.২৪ কিলোমিটার এমআরটি লাইন-১ এর মধ্যে ১৬.২১ কিলোমিটার হবে আন্ডার গ্রাউন্ড হযরত শাহজালাল আর্ন্তজাতিক বিমান বন্দর থেকে কমলাপুর পযর্ন্ত। কুড়িল থেকে পূর্বাচল পযর্ন্ত ১১.৩৬ কিলোমিটার ইলিভেটেড সড়ক হবে। পাশাপাশি নতুন বাজার থেকে কুড়িল পযর্ন্ত ৩.৬৫ আন্ডারগ্রাউন্ড লানই করা হবে। অপর দিকে এমআরটি লাইন - ৫ নগরীকে উত্তরাঞ্চল ও দক্ষিনাঞ্চল দুটি রুটে বিভক্ত করবে।

প্রকল্পটি বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ৪১ হাজার ২৩৮.৫৪ কোটি টাকা। এরমধ্যে ১২ হাজার ১২১.৪৯ কোটি টাকা পাওয়া যাবে রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে এবং বাকি টাকা পাওয়া যাবে জাইকার কাছ থেকে প্রকল্প সহায়তা হিসাবে। এমআরটি লাইন ৫ হেমায়েতপুর থেকে শুরু হবে এবং আমিনবাজার, গাবতলি, মিরপুর-১, মিরপুর-১০, কচুক্ষেত, বনানী, গুলশান-১ হয়ে ভাটারা এসে শেষ হবে। সড়ক পরিবহন ও সেতু বিভাগের কর্মকর্তা জানান, এমআরটি ১ এবং এমআরটি ৫ প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে রাজধানীর যান চলাচল স্বাভাবিক হবে। বাসস।

র‌্যাব এর হাতে গ্রেফতার ‘ক্যাসিনো সম্রাট’
                                  

‘ক্যাসিনো সম্রাট’ হিসেবে আলোচিত যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী ওরফে সম্রাটকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। আজ রোববার ভোর ৫টার দিকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নের কুঞ্জুশ্রীপুর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার সহযোগী আরমানকেও গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

র‌্যাবের লিগ্যাল ও মিডিয়া উইংয়ের সিনিয়র সহকারী পরিচালক এএসপি মিজানুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে সম্রাটকে গ্রেপ্তারের বিস্তারিত তথ্য দেননি তিনি। এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানানো হবে বলে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।

একাধিক গোয়েন্দা সূত্র জানিয়েছে, ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরুর পর থেকে ঢাকাতেই অবস্থান করছিলেন সম্রাট। এ সময় তিনি গোয়েন্দা সংস্থার নজরদারিতে ছিলেন। ঢাকায় তিনি প্রভাবশালী নেতার বাসায় আত্মগোপনে ছিলেন। গত কয়েকদিন ধরে তিনি বিদেশে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন।

এদিকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের যে এলাকা থেকে সম্রাটকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সেই কুঞ্জুশ্রীপুর গ্রামটি সীমান্তের কাছাকাছি। ধারণা করা হচ্ছে, সীমান্ত দিয়ে ভারতে পালিয়ে যেতে চেয়েছিলেন তিনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কুঞ্জুশ্রীপুর গ্রামের যে বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছিলেন সেটি সম্রাটের আত্মীয়ের বাসা। বাড়িটি মনিরুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তির। তবে তার কোনো রাজনৈতিক পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি।

কুঞ্জুশ্রীপুর গ্রামের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, গভীর রাতে ওই এলাকায় একটি বাড়ি র‌্যাব ঘিরে রাখে। পরে সম্রাটকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায়।

আলকরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গণমাধ্যমকে বলেছেন, ঘটনার সময় তিনি এলাকায় ছিলেন না। তবে স্থানীয়রা তাকে ফোন করে ঘটনা সম্পর্কে বলেছেন।

প্রসঙ্গত, আলোচিত যুবলীগ নেতা ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট ঢাকার জুয়াড়িদের কাছে ‘ক্যাসিনো সম্রাট’ হিসেবে পরিচিত। রাজধানীর বেশ কয়েকটি ক্লাবে অবৈধ ক্যাসিনো সম্রাটের ইশারাতেই পরিচালিত হতো। রাতের পর রাত তার শেল্টারেই রাজধানীতে জুয়ার আসর বসতো।

তবে রাজধানীতে ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু হলে লাপাত্তা হয়ে যান যুবলীগের ঢাকা দক্ষিণের এই সভাপতি। সে সময় তাকে না পেলেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গ্রেপ্তার করে তার ডান হাত হিসেবে পরিচিত রাজধানীর ইয়াংমেনস ক্লাবের মালিক ও যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে।

এর আগে সম্রাটকে গ্রেপ্তার নিয়ে সৃষ্টি হয় ধোঁয়াশা। তিনি কোথায় ছিলেন তার কোনো সূত্র পাচ্ছিল না আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। ক্যাসিনো ব্যবসায় জড়িত ব্যক্তিদের একের পর এক গ্রেপ্তারের সময় তাকে দুই একবার তার কাকরাইলের কার্যালয়ে দেখা গেলেও খালেদ মাহমুদের গ্রেপ্তারের পর আড়ালে চলে যান এই যুবলীগ নেতা।

এর আগে সম্রাটকে গ্রেপ্তারের গুঞ্জন ওঠার পর বিষয়টি নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছিলেন, ‘অপেক্ষা করুন, যা ঘটবে দেখবেন। আপনারা অনেক কিছু বলছেন, আমরা যেটি বলছি ‘সম্রাট’ হোক আর যেই হোক, অপরাধ করলে তাকে আমরা আইনের আওতায় আনব। `আমি এটি এখনও বলছি- সম্রাট বলে কথা নয়; যে কেউ আইনের আওতায় আসবে। আপনারা সময় হলেই দেখবেন।’

এদিকে ক্যাসিনোকাণ্ডে এখন পর্যন্ত গ্রেপ্তার হয়েছেন খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া, যুবলীগ নেতা জিকে শামীম, কৃষক লীগের নেতা শফিকুল আলম ও মোহামেডান ক্লাবের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক লোকমান হোসেন ভূঁইয়া। জানা গেছে, রিমান্ডে নেওয়া হলে জিজ্ঞাসাবাদে তারা সবাই সম্রাটের নাম উল্লেখ করেছিলেন।

রাজধানীতে বন্ড সুবিধায় আনা ১শ’ টন কাপড় জব্দ
                                  

রাজধানীর ইসলামপুরের তিনটি মার্কেটে অভিযান চালিয়ে বন্ড সুবিধায় আনা ১শ’ টনের বেশি কাপড় জব্দ করেছে ঢাকা কাস্টমস বন্ড কমিশনারেট। রফতানির উদ্দেশ্য শুল্কমূক্ত সুবিধায় আনা এসব কাপড় চীন, দক্ষিণ কোরিয়া ও ভারত থেকে আমদানি করা হয়। গতকাল শনিবার বিকেলে উপকমিশনার রিজভী আহমেদের নেতৃত্বে একটি দল ইসলামপুরে কাপড়ের মার্কেটে অভিযান চালায়। ইসলামপুর ব্যবসায়ী সমিতির সহসভাপতি মো. মাতিনের তিনটি গুদামে ১শ’ টনের বেশি বন্ড সুবিধায় আনা ফেব্রিক্স পাওয়া যায়।

এ সময় কাপড়ের মালিককে পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে অভিযানে অংশগ্রহণকারী সহকারী কমিশনার মো. আল আমীন বলেন,বন্ড সুবিধায় আনা কাপড় ইসলামপুর মার্কেটে বিক্রি হচ্ছে,এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা অভিযান চালায়। তিনটি মার্কেটের তিনটি গুদামে যে কাপড় পাওয়া গেছে তা অন্তত ১শ’ টনের বেশি হবে। এর পুরোটাই বন্ড সুবিধা আমদানি করা হয়েছে। তিনি জানান,অভিযানের সময় গুদামে যারা ছিলেন, তারা কাপড় আমদানির কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। মালিকদের তলব করলেও তিনি আসেনি। সবক’টি গুদামের তালা ভাঙতে হয়েছে। আল আমীন বলেন, এসব কাপড়ের উৎস খোঁজা হচ্ছে। কোন কোন প্রতিষ্ঠান এসব কাপড় আমদানি করে ইসলামপুরে বিক্রি করেছে, তাদের চিহ্নিত করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

দায়ীদের বিরুদ্ধে কাস্টমস আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান। এর আগে বিভিন্ন অনিয়মের সঙ্গে জড়িত থাকায় ২৩২টি প্রতিষ্ঠানের বন্ড লাইসেন্স সাময়িকভাবে বাতিল করা হয়। এসব প্রতিষ্ঠান যাতে পণ্য আমদানি করতে না পারে, সেজন্য তাদের ব্যবসা শনাক্তকরণ নম্বর (বিআইএন) লক করা হয়েছে। এর মধ্যে কাগজে-কলমে অস্তিত্ব থাকলেও বাস্তবে কারখানা নেই ১৩২টি প্রতিষ্ঠানের। অথচ এসব প্রতিষ্ঠান বন্ড সুবিধার আওতায় বিনা শুল্কে শিল্পের কাঁচামাল আমদানি করে আসছিল। সুতা, কাপড়, কাগজ, এক্সেসরিজ, পিপি দানা খোলাবাজারে বিক্রি করাই এসব প্রতিষ্ঠানের মূল কাজ। প্রসঙ্গত, গত ফেব্রুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত ১৫০টিরও বেশি প্রিভেন্টিভ অভিযান চালানো হয়েছে। অভিযানের আওতায় প্রতিষ্ঠানের বন্ডেড ওয়্যারহাউসে আকস্মিক পরিদর্শন, রাতে ঢাকার প্রবেশপথে টহল, বন্ডের পণ্য বিক্রির মার্কেটে হানা এবং বিশেষ অনুসন্ধান চালানো হয়।


   Page 1 of 100
     রাজধানী
নীতিমালা প্রণয়নের দাবিতে রাজধানীতে হকারদের বিক্ষোভ
.............................................................................................
রাজধানীতে অস্ত্র চোরাকারবারি গ্রেফতার
.............................................................................................
রাজধানীতে নব্য জেএমবি’র ৪ সদস্য গ্রেফতার
.............................................................................................
বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় ও যাত্রী হয়রানি বন্ধের দাবি
.............................................................................................
র‌্যাব সেজে ডাকাতি, রাজধানীতে গ্রেফতার ৩
.............................................................................................
পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের জন্য স্বাস্থ্য বীমা চালুর ঘোষণা মেষর আতিকের
.............................................................................................
রাজধানীতে আন্তর্জাতিক চামড়াজাত পণ্যের মেলা
.............................................................................................
রূপনগরে বেলুন ফোলানোর সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ৫ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
ধানমণ্ডিতে বহুতল ভবনে আগুন
.............................................................................................
কারওয়ান বাজারে দেড় শতাধিক ভাসমান স্থাপনা উচ্ছেদ
.............................................................................................
রাজধানীতে ১০ টন পলিথিন জব্দ, ৫ লাখ টাকা জরিমানা আদায়
.............................................................................................
রাজধানীতে অটোরিকশার ধাক্কায় আহত শিশুর মৃত্যু
.............................................................................................
টঙ্গীতে বস্তার গুদামে আগুন: আহত ২
.............................................................................................
রাজধানীতে হচ্ছে আরও দুটি মেট্রোরেল প্রকল্প
.............................................................................................
র‌্যাব এর হাতে গ্রেফতার ‘ক্যাসিনো সম্রাট’
.............................................................................................
রাজধানীতে বন্ড সুবিধায় আনা ১শ’ টন কাপড় জব্দ
.............................................................................................
সাভারে অস্ত্রসহ যুবক আটক
.............................................................................................
ঢাকায় গাঁজার চালান আনার পথে ট্রাকের চালক-হেলপার আটক
.............................................................................................
চব্বিশ ঘণ্টায় ডেঙ্গু রোগী ভর্তি কমেছে
.............................................................................................
বনানীর নরডিক হোটেলে র‌্যাবের জঙ্গিবিরোধী কমান্ডো মহড়া
.............................................................................................
সব অবৈধ রিকশা-যানবাহন বন্ধ করা হবে: মেয়র খোকন
.............................................................................................
রাজধানীসহ সারাদেশে দুদকের ৫ অভিযান
.............................................................................................
গুলশানের স্পাতে অভিযান: ২ পুরুষ রিমান্ডে, ১৬ নারী কারাগারে
.............................................................................................
রাজধানীতে ফু-ওয়াং ক্লাবে পুলিশের অভিযান
.............................................................................................
৪ ক্লাবে পুলিশের অভিযান, ক্যাসিনো খেলার সরঞ্জাম-টাকা-মাদক উদ্ধার
.............................................................................................
ডিএনসিসির অভিযানে তিন শতাধিক অস্থায়ী স্থাপনা উচ্ছেদ, ৩ লাখ টাকা জরিমানা
.............................................................................................
১ ডিসেম্বর থেকে রাজধানীতে চালকদের ডোপ টেস্ট
.............................................................................................
হেল্প লাইন চালু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে
.............................................................................................
রাজধানীতে ১৫ লাখ টাকার নকল তার জব্দ, ৪ জনের কারাদন্ড
.............................................................................................
ফুটপাত দখল মুক্ত করতে ২২ সেপ্টেম্বর থেকে ডিএনসিসির অভিযান
.............................................................................................
গাজীপুরে ফ্রিজ তৈরি কারখানায় অগ্নিকাণ্ড
.............................................................................................
ঢাকায় দৈনিক চাহিদার চেয়ে ১০ কোটি লিটার পানি উদ্বৃত্ত থাকছে
.............................................................................................
ঢাকায় জলাবদ্ধতা আর থাকবে না: ডিএনসিসি মেয়র
.............................................................................................
অ্যাম্বুলেন্সে ইয়াবা পরিবহন, রাজধানীতে আটক ৩
.............................................................................................
ঢাকা-বরিশাল নৌপথে ছদ্মনামে ১১ লঞ্চঘাটের অনুমোদন, ক্ষতির মুখে ইজারাদার
.............................................................................................
২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ৬০৭ জন নতুন ডেঙ্গু রোগী
.............................................................................................
রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৫৩
.............................................................................................
আজ ঢাকায় আসছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
রাজধানীতে প্রাইভেটকার ভর্তি গাঁজাসহ আটক ৪
.............................................................................................
অভিযান চালিয়ে ১৩৪ বাড়ি-স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা পেয়েছে ডিএনসিসি
.............................................................................................
রাজধানীতে বাসা থেকে ইয়াবা উদ্ধার, বাবা-ছেলেসহ গ্রেপ্তার ৩
.............................................................................................
৮৬ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান শাহজালালে নিষিদ্ধ
.............................................................................................
ডেঙ্গুতে মৃত্যুর হার দশমিক ২ শতাংশের কম
.............................................................................................
চিরুনি অভিযানে অসহযোগিতা করলে ব্যবস্থা: মেয়র আতিকুল
.............................................................................................
কেরানীগঞ্জে যুবকের ঝুলন্ত লাশ লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
চকবাজারে যুবকের গলিত মরদেহ উদ্ধার
.............................................................................................
রূপনগরের চলন্তিকা ঝিলপাড় বস্তিটি ক্ষমতাসীন কিছু নেতাকর্মীর কাছে ছিল ‘টাকার খনি’
.............................................................................................
এডিস মশার লার্ভা: দুই সিটিতে ৭ লাখ ৪৪ হাজার টাকা জরিমানা
.............................................................................................
রাজধানীতে জেএমবির ৪ সদস্য আটক
.............................................................................................
রাজধানীতে মাদক বিক্রি ও সেবনের দায়ে গ্রেফতার ১৫
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা ডট কম
মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত ।

প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ মো: হারুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
বার্তা সম্পাদক: মো: শরিফুল ইসলাম রানা
সহ: সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বিশেষ প্রতিনিধি : মো: আকরাম খাঁন
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]