| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   রাজধানী -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
গাজীপুরে ফ্রিজ তৈরি কারখানায় অগ্নিকাণ্ড

গাজীপুরে ধীরাশ্রম এলাকায় মাইওয়ানের মিনিস্টার ফ্রিজ তৈরির কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার সকাল সোয়া ৭টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ১৫টি ইউনিট।

কেন্দ্রীয় ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার কামরুল হাসান জানান, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১৫টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। বেলা ১১ পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি।

টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. আতিকুর রহমান জানান, ধীরাশ্রম এলাকায় মাইওয়ানের মিনিস্টার ফ্রিজ তৈরির কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে জয়দেবপুর ও টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন। আগুন কারখানার ছয়তলার গুদামে ছড়িয়ে পড়েছে। 

আগুন লাগার কারণ ও হতাহতের বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ফায়ার সার্ভিসের এই কর্মকর্তা কিছু জানাতে পারেননি।

গাজীপুরে ফ্রিজ তৈরি কারখানায় অগ্নিকাণ্ড
                                  

গাজীপুরে ধীরাশ্রম এলাকায় মাইওয়ানের মিনিস্টার ফ্রিজ তৈরির কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার সকাল সোয়া ৭টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ১৫টি ইউনিট।

কেন্দ্রীয় ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার কামরুল হাসান জানান, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১৫টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। বেলা ১১ পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি।

টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. আতিকুর রহমান জানান, ধীরাশ্রম এলাকায় মাইওয়ানের মিনিস্টার ফ্রিজ তৈরির কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে জয়দেবপুর ও টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন। আগুন কারখানার ছয়তলার গুদামে ছড়িয়ে পড়েছে। 

আগুন লাগার কারণ ও হতাহতের বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ফায়ার সার্ভিসের এই কর্মকর্তা কিছু জানাতে পারেননি।

ঢাকায় দৈনিক চাহিদার চেয়ে ১০ কোটি লিটার পানি উদ্বৃত্ত থাকছে
                                  

স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, রাজধানী ঢাকায় বসবাসরত মানুষের দৈনিক পানির চাহিদার পরিমাণ ২২০-২৪৫ কোটি লিটার। তবে, ঢাকা ওয়াসা দৈনিক চাহিদার চেয়ে ১০ কোটি লিটার উদ্বৃত্ত উৎপাদন করছে অর্থাৎ ২৫৫ কোটি লিটার পানি উৎপাদনে সক্ষমতা অর্জন করেছে। গতকাল বুধবার জাতীয় সংসদে হাজী মো. সেলিমের লিখিত এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ তথ্য জনান। মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে পানির সিস্টেম লস ২০ শতাংশ। তবে, ঢাকা মেট্টো এলাকায় সিস্টেম লস (ডিএমএ) ৫-৭ শতাংশে নেমে এসেছে। যা আগে ৪০ ভাগ পর্যন্ত ছিল। ডিএমএ পদ্ধতি বর্তমান সরকারের একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ।

মোট ১৪৪ ডিএমএর মধ্যে ৬২টি ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। বর্তমানে ডিএমএর কাজ চলমান রয়েছে, আগামি ২০২১ সালের মধ্যে শতভাগ ডিএমএর আওতায় আসবে। তিনি বলেন, সিস্টেম লস কমানোর জন্য সরকার সব পানির পাইপ লাইন পরিবর্তন করে আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে দক্ষিণ এশিয়ার সেবা সংস্থাগুরোর মধ্যে সর্ব প্রথম এ পদ্ধতি চালু করেছে। চলতি বছরের মধ্যে সব বস্তিকে বৈধ পানি সরবরাহের নেটওয়ার্কের আওতায় আনার পরিকল্পনা নিয়েছে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ঢাকা উত্তর সিটিতে ২৭টি পার্ক রয়েছে। যার মধ্যে চারটি শিশু পার্ক। হাজী সেলিমের অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ঢাকা মহানগরীতে দক্ষিণ সিটির ইস্যু করা রিকশা সংখ্যা ৫২ হাজার ৭১২ এবং উত্তরের ২৭ হাজার ৩৯৭।

তবে বর্তমানে চলাচলরত রিকশার কোনো পরিসংখ্যান নেই। এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে তাজুল ইসলাম বলেন, এলজিইডির সহায়তায় ভূমিহীন ও অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ২৬৬.৩৭ কোটি টাকা ব্যয়ে বাসস্থান কাজ গত বছরে শেষ হয়েছে। এ ছাড়া ওই প্রকল্পের আওতায় চট্টগ্রামের ১৫ উপজেলায় ১০৪টি বাসস্থান নির্মাণ করেছে।

ঢাকায় জলাবদ্ধতা আর থাকবে না: ডিএনসিসি মেয়র
                                  

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এলাকায় কোন কোন এলাকায় জলাবদ্ধতা হয়, তার তালিকা করে কাজ শুরুর কথা জানিয়েছেন মেয়র আতিকুল ইসলাম। গতকাল সোমবার উত্তরায় নর্দমা উন্নয়ন কাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের কোনো এলাকায় আর জলাবদ্ধতা থাকবে না। মেয়র আতিক বলেন, যেসব এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়, সেসব এলাকার একটি তালিকা তৈরি করেছে ডিএনসিসি। ডিএনসিসির আওতাধীন যেসব এলাকায় জলাবদ্ধতা তৈরি হয়, তার তালিকা তৈরি করা হয়েছে। এসব এলাকায় পর্যায়ক্রমে জলাবদ্ধতা দূর করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

উত্তরার আলাওল এভিনিউ হতে ময়মনসিংহ রোডের পূর্বপাশ হয়ে ৪ নম্বর সেক্টরের শায়েস্তা খাঁ এভিনিউর কসাইবাড়ি রেলগেট পর্যন্ত সড়কে পাইপ বসানোসহ নর্দমা উন্নয়ন কাজ শুরু হয়েছে। এতে ব্যয় হচ্ছে ৩৫ কোটি ৪৭ লাখ টাকা। মেয়র আতিক বলেন, এর ফলে ৪ নং সেক্টরের বিভিন্ন সড়কের এবং ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়কের পূর্ব পাশের জলাবদ্ধতা দূর হবে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজটি শেষ করতে ঠিকাদারদের নির্দেশ দেন আতিক।

নির্মাণকাজ চলাকালে ভোগান্তি মেনে নিয়ে কাজটি শেষ হওয়া পর্যন্ত সহযোগিতা করতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। মেয়র আতিক জানান, আগামি ২০ সেপ্টেম্বর থেকে ডিএনসিসির প্রতিটি ওয়ার্ডে সড়ক ও ফুটপাত দখলমুক্ত করার জন্য অভিযান পরিচালনা করা হবে। নর্দমা উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল হাই, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাঈদ আহমেদ, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী ও প্রকল্প পরিচালক মো. শরীফ উদ্দিন, কাউন্সিলর মো. আফসার উদ্দিন খান উপস্থিত ছিলেন।

 

অ্যাম্বুলেন্সে ইয়াবা পরিবহন, রাজধানীতে আটক ৩
                                  

 রাজধানীর খিলগাঁও থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুই হাজার ইয়াবাসহ তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা দক্ষিণ বিভাগ। আটকরা হলেন- মো. আরমান (২৩), মিজানুর রহমান শিকদার ওরফে মিজান (২৫) ও জান্নাতুল ফেরদৌস আলিফ (২২)। এ সময় তাদের হেফাজতে থাকা দুই হাজার ইয়াবা ও ইয়াবা পরিবহনে ব্যবহৃত একটি অ্যাম্বুলেন্স জব্দ করা হয়েছে বলে জানানো হয়।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের এডিসি ওবায়দুর রহমান জানান, গত শনিবার রাতে খিলগাঁও থানাধীন নন্দীপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে গোয়েন্দা দক্ষিণের গাড়ি চুরি, ছিনতাই প্রতিরোধ ও উদ্ধার টিম তাদের আটক করে। আটকদের বিরুদ্ধে খিলগাঁও থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানানো হয়।

ঢাকা-বরিশাল নৌপথে ছদ্মনামে ১১ লঞ্চঘাটের অনুমোদন, ক্ষতির মুখে ইজারাদার
                                  

 বিআইডব্লিউটিএ’র অনুমোদিত ও ইজারা দেয়া ১১টি লঞ্চঘাটের পূর্বের নাম গোপন রেখে ব্যাপক অনিয়মের মাধ্যমে পাশ্ববর্তী এলাকার ছদ্মনাম ব্যবহার করে ঢাকা-বরিশাল ভায়া নন্দীরবাজার নৌরুটে একটি কোম্পানির লঞ্চ চলাচলের জন্য নতুন করে ১১টি লঞ্চঘাটের সময়সূচি অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এনিয়ে বর্তমানে ওইসব লঞ্চঘাটগুলোতে চরম উত্তেজনাসহ জানমালের ক্ষতির আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

সূত্রমতে, বিআইডব্লিউটিএ’র কতিপয় কর্মকর্তার যোগসাজসে এ অনিয়মের কারণে একই বিভাগের পূর্বের ইজারা দেয়া ১৮টি লঞ্চ ঘাটের ইজারাদারদের চরম আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়ে পথে বসার উপক্রম হয়েছে। পাশাপাশি দীর্ঘদিন থেকে পাঁচটি রুটে চলাচল করা বিভিন্ন কোম্পানির ১৮টি লঞ্চের মালিকরাও চরম আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। জরুরি ভিত্তিতে প্রতারনার মাধ্যমে ছদ্মনাম ব্যবহার করে অনুমতি দেয়া ওইসব লঞ্চঘাটের সময়সূচি বাতিল করা না হলে আগামি অর্থবছরে বিআইডব্লিউটিএ’র পূর্বের লঞ্চঘাটগুলো স্থানীয়রা ইজারা না নিলে বিপুল পরিমান রাজস্ব হারাবে সরকার। তাই পূর্বের লঞ্চঘাটগুলোর পাশ্ববর্তী এলাকায় ছদ্মনামের নতুন লঞ্চঘাটের সময়সূটি বাতিলের জন্য ক্ষতিগ্রস্থ ইজারাদাররা নৌ-মন্ত্রী ও সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বরাবরে আবেদন করেছেন।

এ ছাড়া ঘাট ইজারাদারদের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমেও একই দাবি করা হয়েছে। মন্ত্রী বরাবর প্রেরিত আবেদন ও সংবাদ সম্মেলন সূত্রে জানা গেছে, বিআইডব্লিউটিএ’র কাছ থেকে ঢাকা-বরিশাল ভায়া নন্দীরবাজার, ঢাকা-টরকী, ঢাকা-সূর্যমনি, ঢাকা-মাদারীপুর, ঢাকা-মুলাদী নৌরুটে দীর্ঘদিন থেকে বিভিন্ন কোম্পানির ১৮টি লঞ্চের সময়সূচি অনুমোদন নিয়ে লঞ্চ মালিকরা যাত্রীসেবা দিয়ে আসছে। এরইমধ্যে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লি¬উটিএ) কতিপয় কর্মকর্তার যোগসাজসে বরিশাল-৩ (মুলাদী-বাবুগঞ্জ) আসনের জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপুর মালিকানাধীন মেসার্স ফারহান নেভিগেশন ও মেসার্স আগরপুর নেভিগেশন কোম্পানিকে সম্পূর্ণ অনিয়মের মাধ্যমে সময়সূচি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে ঢাকা-বরিশাল ভায়া নন্দীরবাজার নৌরুটের মধ্যে পূর্বের ১১টি লঞ্চঘাটের পাশ্ববর্তী এলাকাগুলোতে বিআইডব্লিউটিএ’র কতিপয় কর্মকর্তার যোগসাজসে ব্যাপক অনিয়মের মাধ্যমে ছদ্মনাম ব্যবহার করে সৃষ্টি করা হয়েছে ঢাকা থেকে নবাবেরহাট, সিমসন ঘাট, কালামের ঘাট, ফিরোজের ঘাট, খুশির হাট, খলিল মোল্লার ঘাট, সিকদার বাড়ি, সাহেবেরচর, নলগোড়া, কুতুবপুর ও চরলক্ষ্মীপুর সিকদারবাড়ি নামের লঞ্চঘাট।

প্রতারনার মাধ্যমে গত ৮ আগস্ট এসব লঞ্চঘাটের অনুমোদন নিয়েই সাংসদ গোলাম কিবরিয়া টিপুর মালিকানাধীন কোম্পানির লঞ্চগুলো চলাচল করছে। ফলে ঢাকা-বরিশাল ভায়া নন্দীরবাজার নৌপথের এবং আশেপাশের বিআইডব্লি¬উটিএ কর্তৃক দীর্ঘদিনের অনুমোদিত এবং পুরনো ঘাটগুলোর ইজারাদারসহ এসব রুটে দীর্ঘদিন থেকে যাত্রীসেবা দেয়া লঞ্চ কোম্পানিগুলোর মালিকদের সর্বাধিক আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে শুরু করেছে। একইসাথে রাজস্ব আয় হারাতে বসেছে সরকার। এনিয়ে বর্তমানে ওইসব ঘাটেগুলোতে চরম উত্তেজনাসহ জানমালের ক্ষতির সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। এ রুটের মিয়ারচর লঞ্চঘাটের ইজারাদার (ঘাট মালিক) সরদার মনিরুজ্জামান মনির অভিযোগ করে বলেন, ঢাকা থেকে বরিশাল ভায়া নন্দীরবাজার নৌপথে মেসার্স ডলার শিপিং লাইন্স ও মেসার্স ই-আলী শিপিং লাইন্স কোম্পানির সাথে বিআইডব্লি-উটিএ’র আদালতে মামলা চলমান রয়েছে।

এ সুযোগে সম্পূর্ণ প্রতারণার মাধ্যমে বিআইডব্লি¬উটিএ কর্তৃক অনুমোদিত ঘাটের প্রকৃত নাম বাদ দিয়ে ছদ্মনাম ব্যবহার করে সংশ্লিষ্ট বিভাগের কতিপয় কর্মকর্তাকে ভুল বুঝিয়ে এমপি টিপু তার মালিকানাধীন কোম্পানির লঞ্চের সময়সূচি অনুমোদন করিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, নৌপথে নতুন কোনো লঞ্চ কোম্পানিকে সময়সূচি অনুমোদন দিতে হলে বিআইডব্লি¬উটিএ’র নির্ধারিত কিছু নিয়ম অনুসরণ করে এবং লঞ্চ মালিক সমিতির মতামত নিয়ে দিতে হয়। কিন্তু এখানে তা করা হয়নি। এমনকি জাতীয় পার্টির সাংসদ গোলাম কিবরিয়া টিপু প্রভাব খাটিয়ে দক্ষিণাঞ্চলের আওয়ামী লীগের একমাত্র কর্ণধর বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে মন্ত্রী আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ সহ অন্যান্য সংসদ সদস্য এবং নির্বাচিত অসংখ্য জনপ্রতিনিধিদের পূর্বের রুট সচল রাখার সুপারিশকে উপেক্ষা করে প্রতারনার আশ্রয় নিয়ে ছদ্মনামে নতুন লঞ্চঘাটের সময়সূচি অনুমোদন করেই লঞ্চ পরিচালনা শুরু করছেন।

ফলে দীর্ঘদিন থেকে পাঁচটি রুটে চলাচল করা বিভিন্ন কোম্পানির ১৮টি লঞ্চ মালিকরা চরম আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। পাশাপাশি বিআইডব্লিউটিএ’র কাছ থেকে ইজারা নেয়া এ রুটের মিয়ারচর লঞ্চঘাট, হোসনাবাদ সাহেবেরচর লঞ্চঘাট, চরজাহাপুর লঞ্চঘাট, মুলাদী বন্দর লঞ্চঘাট, মনসাগঞ্চ লঞ্চঘাট, মুলাদী রাস্তারমাথা লঞ্চঘাট, মীর কুতুবশাহ লঞ্চঘাট, চরকালেখান ঢালীবাড়ি লঞ্চঘাট, পূর্ব বানিমর্দন লঞ্চঘাট, পশ্চিম বানিমর্দন লঞ্চঘাট, ভূঁইয়া বাড়ি লঞ্চঘাট, নাতিরহাট লঞ্চঘাট, নাজিরপুর লঞ্চঘাট, মোল্লারহাট লঞ্চঘাট, সফিপুর লঞ্চঘাট, পাশ্ববর্তী হোসনাবাদ লঞ্চঘাট, গৌরনদী বন্দর লঞ্চঘাট, পিঙ্গলাকাঠী লঞ্চঘাটের ইজারাদাররা চরম আর্থিক লোকসানের মুখে পরে পথে বসার উপক্রম হয়েছে। আগামি অর্থবছরে বিআইডব্লিউটিএ’র কাছ থেকে স্থানীয়রা উল্লিখিত লঞ্চঘাটগুলো ইজারা না নিলে বিপুল পরিমান রাজস্ব হারাবে সরকার।

তাই জরুরি ভিত্তিতে প্রতারনার মাধ্যমে ছদ্মনামে সৃষ্ট উল্লিখিত নৌ-পথের মধ্যে মেসার্স ফারহান নেভিগেশন ও মেসার্স আগরপুর নেভিগেশন কোম্পানীকে সম্পূর্ণ অনিয়মের মাধ্যমে দেয়া সময়সূচি বাতিলের জন্য ক্ষতিগ্রস্থ ১৮টি লঞ্চঘাটের ইজারাদাররা নৌ-মন্ত্রী, সচিব, বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান, পরিচালক নৌ-নিট্রো এবং বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-চলাচল (যাত্রী পরিবহন) সংস্থার সভাপতি বরাবরে আবেদন করেছেন। এ ব্যাপারে সংসদ সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু সাংবাদিকদের জানান, বিআইডব্লি¬উটিএ’র সব নিয়ম মেনে লঞ্চঘাটগুলো পরিচালনা করা হচ্ছে।

২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ৬০৭ জন নতুন ডেঙ্গু রোগী
                                  

 সেপ্টেম্বরের প্রথম সাতদিনে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন চার হাজার ৬৫৬ জন। আর গত শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে গতকাল শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৬০৭ জন নতুন রোগী। এই হার আগের দিনের চেয়ে ২৪ শতাংশ কম।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম এই তথ্য জানিয়েছে। কন্ট্রোল রুম আরও জানায়, নতুন আক্রান্ত হওয়া রোগীর মধ্যে ঢাকার ভেতরে রয়েছেন ২৩৩ জন, আর ঢাকার বাইরে রয়েছেন ৩৭৪ জন। অপরদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসা নিয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৪৯৭ জন। এর মধ্যে ঢাকার ভেতরে রয়েছেন ২১৮ জন, আর ঢাকার বাইরে ২৭৯ জন। সারাদেশে বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি থাকা মোট ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা তিন হাজার ৪৪৭ জন। এর মধ্যে শুধু রাজধানী ঢাকাতে রয়েছেন এক হাজার ৭১৯ জন, আর ঢাকা শহরের বাইরে সারাদেশে আছেন এক হাজার ৭২৮ জন। চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৯৫ শতাংশ রোগী। চলতি বছরের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত দেশে মোট ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৭৫ হাজার ৭৫৩ জন, চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফেরা রোগীর সংখ্যা ৭২ হাজার ১১৪ জন।

এদিকে, রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) জানিয়েছে, বিভিন্ন হাসপাতাল থেকে পাঠানো ১৯২টি মৃত্যুর মধ্যে ৯৬টি মৃত্যুর তথ্য পর্যালোচনা করে তারা ৫৭টি মৃত্যু ডেঙ্গুতে হয়েছে বলে নিশ্চিত হয়েছেন।

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৫৩
                                  

 রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে মাদক বিক্রি ও সেবনের দায়ে ৫৩ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের বিভিন্ন থানা ও গোয়েন্দা বিভাগ। পুলিশ জানায়, গ্রেফতারের সময় তাদের হেফাজত হতে ২ হাজার ১২ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৩৯১ গ্রাম ১৫৯ পুরিয়া হেরোইন, ১৫ কেজি ১৭৫ গ্রাম গাঁজা, ৩০০টি নেশাজাতীয় ইনজেকশন ও ৭১৯ বোতল বিয়ার ক্যান উদ্ধার করা হয়।

গত বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে গতকাল শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৪৪টি মামলা করা হয়েছে।

আজ ঢাকায় আসছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী
                                  

 অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্র ও নারী বিষয়ক মন্ত্রী মেরিস পেইন আজ মঙ্গলবার ঢাকায় আসছেন। ২১ বছর পর অস্ট্রেলিয়ার কোনো পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এটাই প্রথম বাংলাদেশ সফর। গতকাল সোমবার ঢাকার অস্ট্রেলিয়া হাইকমিশন থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্র ও নারী বিষয়ক মন্ত্রী বাংলাদেশ সফরকালে ইন্ডিয়ান ওশান রিম অ্যাসোসিয়েশনের (আইওআরএ) সমুদ্র অর্থনীতি বিষয়ক তৃতীয় মন্ত্রী পর্যায়ের সম্মেলনে যোগ দেবেন। এ ছাড়া তিনি রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করবেন। ৪-৫ সেপ্টেম্বর ঢাকায় আইওআরএ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

রাজধানীতে প্রাইভেটকার ভর্তি গাঁজাসহ আটক ৪
                                  

ভারতীয় মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে যোগসাজশে সীমান্ত পেরিয়ে ঢাকায় গাঁজার চালান সরবরাহ করছে ব্রহ্মণবাড়িয়া ও কুমিল্লা জেলার একটি মাদক ব্যবসায়ী চক্র। গাঁজা বিক্রির টাকা লেনদেন করতো বিকাশসহ মোবাইল ব্যাংকিংয়ে। রাজধানীর আব্দুল্লাপুর এলাকা থেকে বিপুল পরিমাণ গাঁজাসহ চার মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতারের পর এ তথ্য জানিয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। গত শনিবার রাত ৮টার দিকে উত্তরা পূর্ব থানাধীন আব্দুল্লাপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি-উত্তর বিভাগ) বিমানবন্দর জোনাল টিম।

গ্রেফতাররা হলেন- প্রাইভেটকার চালক জাহিদ হোসেন (৩৫), রাব্বি বেপারী (২৫), জহিরুল ইসলাম (২৪) ও সুর্বনা কানিজ (২২)। গ্রেফতারের সময় তাদের হেফাজত থেকে ১০০ কেজি গাঁজা ও গাঁজা পরিবহনে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকার জব্দ করা হয়। ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের এডিসি ওবায়দুর রহমান জানান, গ্রেফতাররা সীমান্তবর্তী জেলা বি-বাড়িয়া ও কুমিল্লা থেকে গাঁজা ক্রয় করে ঢাকা ও ঢাকার পার্শ্ববর্তী জেলা গাজীপুর, ময়মনসিংহসহ অন্য জেলায় পাইকারি মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করে আসছিল। গোয়েন্দা পুলিশের বরাতে তিনি বলেন, গ্রেফতাররা বি-বাড়িয়া ও কুমিল্লা জেলায় বসবাসকারী গাঁজা ব্যবসায়ীরা ভারতীয় মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সীমান্তে অথবা মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে ত্রিপুরা রাজ্যের বিভিন্ন স্থান থেকে গাঁজা সংগ্রহ করে। এরপর তা সীমান্তবর্তী গোপনীয় স্থানে লুকিয়ে মজুত রাখে।

পরে সুবিধা মতো সময়ে দেশে এনে বিভিন্ন জেলায় পাইকারি বিক্রি করে আসছিল। এ ক্ষেত্রে তারা মোবাইলের বিকাশ অথবা অন্য কোনো মাধ্যমে টাকা লেনদেন করতো। গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে উত্তরা পূর্ব থানায় মামলা-পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

অভিযান চালিয়ে ১৩৪ বাড়ি-স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা পেয়েছে ডিএনসিসি
                                  

এডিস মশা নির্মূলে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) চলমান চিরুনি অভিযান ও ভ্রাম্যমাণ আদালত অব্যাহত রয়েছে। গতকাল রোববার পরিচ্ছন্নতা ও মশক নিধনকর্মীরা চিরুনি অভিযানের অষ্টমদিনে ডিএনসিসির ৩৬ ওয়ার্ডে ১০ হাজার ১৪৫ বাড়ি ও স্থাপনা পরিদর্শন করে মোট ১৩৪ বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা খুঁজে পায়। লার্ভা পাওয়া এসব বাড়ি ও স্থাপনায় ‘এ বাড়ি/স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা পাওয়া যায়’ লেখা স্টিকার লাগানো হয়। এ ছাড়া ৫ হাজার ৭১৬ বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশার বংশবিস্তার উপযোগী স্থান/জমে থাকা পানি পাওয়া যায়। এডিস মশার বংশ বিস্তারের উপযোগী এসব স্থান ধ্বংস করা হয়।

প্রতিটি ওয়ার্ডের সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলররা চিরুনি অভিযান সক্রিয়ভাবে তত্ত্বাবধান করছেন। গত ২৫ আগস্ট থেকে আটদিনে ৩৬ ওয়ার্ডে সর্বমোট ৮৩ হাজার ৯৬০ বাড়ি ও স্থাপনা পরিদর্শন করে মোট এক হাজার ৬৭৪ বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা খুঁজে পাওয়া যায়। এ ছাড়া ৪৫ হাজার ৩১৫ বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশার বংশ বিস্তার উপযোগী স্থান/জমে থাকা পানি পাওয়া যায়। সেসব স্থানগুলো ধ্বংস করে লার্ভিসাইড প্রয়োগ করা হয়। এডিস মশা নির্মূলে ডিএনসিসির ভ্রাম্যমাণ আদালত অব্যাহত ছিল। গতকাল রোববার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সালেহা বিনতে সিরাজের নেতৃত্বে মিরপুরে ১০, ১২ ও ১৩নং ওয়ার্ডে মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হয়।

১৩নং ওয়ার্ডে টোলারবাগ এলাকায় একটি ভবনে প্রচুর লার্ভা পাওয়া যাওয়ায় আবদুল আওয়াল নামে এক ব্যক্তিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। আরও বেশ কয়েকটি নির্মাণাধীন ও অন্য ভবনের নীচে জমে থাকা পানি পাওয়ায় তাদেরকে সতর্ক করা হয়েছে। খিলক্ষেত এলাকার ১৭নং ওয়ার্ডে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জুলকার নায়ন। এ সময় লাইসেন্সবিহীন অবৈধ অটোরিক্সা ও ইজিবাইক গ্যারেজ পরিচালনার জন্য মজিবুর রহমান মোল্লা নামে একজন গ্যারেজ মালিককে সিটি করপোরেশন আইন-২০০৯ অনুযায়ী ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এডিস মশা নির্মূলে ডিএনসিসির চিরুনি অভিযান ও ভ্রাম্যমাণ আদালত অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

রাজধানীতে বাসা থেকে ইয়াবা উদ্ধার, বাবা-ছেলেসহ গ্রেপ্তার ৩
                                  

 রাজধানীর শ্যামলীর একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে ১৫ হাজার ইয়াবাসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শেরেবাংলা নগর থানার এসআই তোফাজ্জল হোসেন জানান, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তারা ওই বাসায় অভিযান চালান। গ্রেপ্তার তিনজন হলেন- একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএর ছাত্র ইব্রাহীম সাগর (২২), তার বাবা আয়নাল হোসেন (৪৭) এবং মো. রাসেল (২৫)। এসআই তোফাজ্জল বলেন, রাসেল যশোর থেকে ইয়াবার চালান এনে আয়নালের বাসায় পৌঁছে দিয়েছিল।

সাগরের সহায়তায় পরে তা রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে পৌঁছে দেওয়ার কথা ছিল। সাগর ও তার বাবা শ্যামলীর ওই ভাড়া বাসা থেকেই ইয়াবার কারবার চালিয়ে আসছিলেন বলে পুলিশের দাবি। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই বাসায় অভিযান চালিয়ে ১৫ হাজার ৩৭৫টি ইয়াবা উদ্ধার করা হয় বলে এসআই তোফাজ্জল জানান। তিনি বলেন, গ্রেপ্তার তিনজনের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।


৫৬ কেজি গাঁজাসহ মাদক বিক্রেতা আটক: রাজধানীর তেজগাঁও থানা এলাকায় একটি প্রাইভেটকারে তল্লাশী চালিয়ে ৫৬ কেজি গাঁজাসহ জাকির শেখ (২৬) নামে এক মাদক বিক্রেতাকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মিডিয়া এ- পাবলিক রিলেশনস বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. মাসুদুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৮টার দিকে ডিএমপি’র গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগের বিমান বন্দর জোনাল টিমের একটি দল রাজধানীর তেজগাঁও থানাধীন কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ ৭/৬/এ বাবুল টাওয়ারের গিভেন্সি ইন্টারন্যাশনাল হোটেলের সামনে গোপনে অভিযান চালায়।

এ সময় ডিবি পুলিশ একটি প্রাইভেটকারে তল্লাশী চালিয়ে তার ভেতর থেকে ৫৬ কেজি গাঁজা উদ্ধার করে। এ সময় গাঁজাবহনকারী প্রাইভেটকারটিও পুলিশ জব্দ করেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃত ওই মাদক বিক্রেতা পুলিশকে জানিয়েছে, সে প্রাইভেটকার যোগে গাঁজা সংগ্রহ করে রাজধানীর তেজগাঁও ও সাভারসহ বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করতো। এ ব্যাপারে তেজগাঁও থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

৮৬ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান শাহজালালে নিষিদ্ধ
                                  

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কর্মরত বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারী ও কিছু প্রতিষ্ঠানকে মানবপাচারকারী চক্রের সহযোগী হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। এ চক্রে ৮৬ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে রয়েছে সিভিল এভিয়েশনের ২৮, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ৯, ইমিগ্রেশন পুলিশের (এভসেক) ৯ কর্মকর্তা-কর্মচারী। আরও রয়েছেন বেসরকারি বিভিন্ন এয়ারলাইন্সের ১১ সদস্য। এ ছাড়াও এই চক্রে রয়েছে ৯ ট্রাভেলস এজেন্সিসহ বহিরাগত ৯ দালাল। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এক বিশেষ প্রতিবেদনে এ তালিকাভুক্তির কথা বলা হয়।

শাহজালাল বিমানবন্দরে সক্রিয় এ মানব পাচারকারী ও তাদের এজেন্টদের কার্যক্রম প্রসঙ্গে গত ১৮ জুন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ে মানব পাচারে অভিযুক্তদের নামসংবলিত একটি বিশেষ প্রতিবেদন পাঠায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়। এই প্রতিবেদনের আলোকে গত ১১ জুলাই মন্ত্রণালয় অভিযুক্ত ৮৬ জনের অনুকূলে বিমানবন্দরে প্রবেশের নিরাপত্তা পাস ইস্যু থাকলে তা বাতিল করতে বলে। এ ছাড়া তাদের বিমানবন্দরে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করতে বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষকে (বেবিচক) নির্দেশ দেয়। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও মন্ত্রণালয়ের সেই নিষেধাজ্ঞা এখনো বাস্তবায়ন করেনি বেবিচক কর্তৃপক্ষ।

শাহজালাল বিমানবন্দর দিয়ে মানবপাচারে এ সিন্ডিকেটে রয়েছে পুরানা পল্টন, মতিঝিল ও সিলেটের ৯ ট্রাভেল এজেন্সি। সেগুলো হলো মাহবুব এন্টারপ্রাইজ এজেন্সি (দুই ব্রাঞ্চÑ দালাল আহমেদুর রহমান), বিএমএস ট্রাভেলস (দালাল বেলাল খান), স্কাই ভিউ ট্যুর অ্যান্ড ট্রাভেলস, ইয়াহিয়া ওভারসিজ, জিএসএ অব ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্স (দালাল সোহাগ) এজেন্সিজ, আহমেদুর রহমান বিএমএস ট্রাভেলস, ইয়াহিয়া ওভারসিজ (মালিক এনামুল হক) ও ট্রাস্ট ট্রাভেলস (মালিক হাসান)।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রতিবেদন বলছে, শাহজালাল বিমানবন্দরের নিরাপত্তা বিভাগের ২৫ কর্মকর্তা-কর্মচারী মানবপাচারকারী সিন্ডিকেটে জড়িত। মূলত পাচারকারীদের প্রধান সহায়ক হিসেবে কাজ করেন সিভিল এভিয়েশনে কর্মরত এ কর্মকর্তা-কর্মচারী। অভিযুক্তরা হলেন অফিস সহকারী হাসান পারভেজ, এএসজি সাইফুল ইসলাম, ইউনুস মিয়ার ছেলে এএসজি কবীর, জাহেদুল কবিরের ছেলে এএসজি কবির, নিরাপত্তাপ্রহরী আসাদুজ্জামান খোকন, শাহজালাল সরকার, মনিরুজ্জামান খান, জিল্লুর, বাবুল চন্দ্র দাস, গাজী তোফায়েল, তানভীর হোসেন মিয়া, সোহেল রানা (বর্তমানে চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে কর্মরত), কাজী মাসুদ, আব্দুল মতিন, ইদ্রিস মোল্লা, শাখাওয়াত হোসেন তুহিন (বর্তমানে ইয়াবাপাচার মামলায় পলাতক), আইনুদ্দীন, ফরিদউদ্দিন, রফিক ও নিরাপত্তাকর্মী মিজানুর রহমান খান (ফায়ার অপারেটর)। এ ছাড়াও স্ক্যানিং অপারেটর মনিরুজ্জামান খান, দীপক, ফজলু, শাহজাহান ও শাহাদাত এ চক্রে জড়িত।

মানবপাচারের এই চক্রে জড়িয়ে পড়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ালাইন্সের ৯ কর্মকর্তা-কর্মচারী। তারা হলেন ট্রাফিক সুপারভাইজার সুমন চন্দ্র দাস, ট্রাফিক হেলপার আমির ও মো. আকরাম হোসেন, ট্রাফিক অফিসার মামুন, কাউন্টার সুপারভাইজার শাকিল ও জাহাঙ্গীর হোসেন, গ্রাউন্ড সার্ভিস অফিসার শওকত, মাহবুব ও আনিস।

মানবপাচারের শক্তিশালী এই সিন্ডিকেটে জড়িয়ে পড়েছেন বেসরকারি এয়ারলাইন্সের ৮ জন। তারা হলেন সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের শাহ মখদুম উদ্দিন আহমেদ অনন, মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সের এসএম কামাল হোসেন, এমিরেটস এয়ারলাইন্সের মামুন ও নুরুল হুদা, শ্রীলংকান এয়ারলাইন্সের ডেপুটি ম্যানেজার এহসান ও সিনিয়র এক্সিকিউটিভ সুমন, কাতার এয়ারলাইন্সের সিকিউরিটি অফিসার তানিয়া, টার্কিশ এয়ারলাইন্সের সিকিউরিটি অফিসার অভি ও মবিন।

শাহজালাল বিমানবন্দর ব্যবহার করে মানবপাচারের এই সিন্ডিকেটে জড়িত ইমিগ্রেশন পুলিশ ও এভসেকের ৯ কর্মকর্তা-কর্মচারীও। তারা হলেন ইমিগ্রেশন পুলিশের এসআই বাচ্চু ও এসএ কামাল এবং এএসআই জুনাব খান, এভিয়েশন সিকিউরিটি ফোর্সের সদস্য সার্জেন্ট এসএম জসিম, গেটম্যান কনস্টেবল শহীদুল, আনসার সিপাহি মো. রাসেল মিয়া, মাসুদ পারভেজ ও মাহতাব ছাড়াও সাধারণ আনসার সদস্য পাপিয়া সুলতানা।

শাহজালাল বিমানবন্দর দিয়ে মানবপাচারকারী চক্রে মাঠপর্যায়ে কাজ করেন ২০ জন। তারা হলেন ঢাকার গাজী মিয়া, জিহান, আমিনুল, ইব্রাহিম খলিল, আলম ও ওয়াহিদ হোসেন কাজল; মাদারীপুরের ডুবলু ফকির, কালাম মাতবর, জামাল ও মো. আছাদ; শরীয়তপুরের আলমগীর হাওলাদার; সিলেটের শাহিন আহমেদ ও আলমগীর শাহপরান; সুনামগঞ্জের আনোয়ার, বদরুল, গাজী ও হারুন; ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্বপন, কামাল ও হোসেন। এই তালিকায় অভিযুক্তদের মধ্যে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। চাকরি ছেড়ে একজন বিদেশে পালিয়েছে বলে বিমানবন্দর সূত্র জানায়।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সংঘবদ্ধ মানবপাচারকারী এ চক্রটি অনেকটা অপ্রতিরোধ্য। আইন প্রয়োগে অস্বচ্ছতা ও অদক্ষতা ছাড়াও দরিদ্রতার সুযোগ নেওয়া হয়। সম্প্রতি সাগরপথে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার নজরদারি বাড়ায় আন্তঃদেশীয় মানবপাচারকারী সিন্ডিকেট আকাশপথকে এখন নিরাপদ রুট হিসেবে বেছে নিয়েছে। পাসপোর্টে জাল ভিসা লাগিয়ে বিমানবন্দরে সংশ্লিষ্ট বিমানের বোর্ডিং ও ইমিগ্রেশন পুলিশের একশ্রেণির সদস্যদের সঙ্গে যোগসাজশে মানবপাচার করা হচ্ছে।

সিভিল এভিয়েশনের সদস্য (প্রশাসন) অতিরিক্ত সচিব হাফিজুর রহমান আমাদের সময়কে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে পাঠানো মানবপাচারে জড়িত শাহজালাল বিমানবন্দরে কর্মরত বেশ কয়েকজন ও কয়েকটি ট্রাভেল এজেন্সির নামসংবলিত একটি প্রতিবেদন হাতে পেয়েছি। তাদের বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

অভিন্ন মন্তব্য করে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জনসংযোগ বিভাগের ডিজিএম তাহেরা খন্দকার জানান, মানবপাচারের সঙ্গে জড়িত কাউকেই ছাড় দেবে না বিমান কর্তৃপক্ষ। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

বিমানবন্দর সূত্র জানায়, মানবপাচারকারী ভিকটিমের কোডনেম দিয়েছে ‘টানা’। বাংলাদেশের পাচারকারী সিন্ডিকেট মূলত তুরস্ক, স্পেন এবং ইতালি পাচারের টার্গেট করে কাজ করে থাকে। পাসপোর্টে জাল ভিসা লাগিয়ে বিমানবন্দরে সংশ্লিষ্ট বিমানের বোর্ডিং ও ইমিগ্রেশন ম্যানেজ করে এ পাচার হয়। নির্বিঘেœ পাচারের জন্য জনপ্রতি পাচারকারীদের বিমানবন্দর ম্যানেজ করতে গুনতে হয় ৮০ থেকে ৯০ হাজার টাকা।

জাল ভিসা নিয়ে বাংলাদেশের সীমানা পার হওয়ার পর পাচারের শিকার মানুষ কাক্সিক্ষত বিমানবন্দরে অবতরণ করলে সেখানে তাদের গ্রহণ করে বিমানবন্দর পার করে সেই দেশে ঢুকিয়ে দেওয়ার জন্য রয়েছে আলাদা সক্রিয় গ্রুপ। তুরস্ক পাচারের ক্ষেত্রে ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যের যেসব বিমান তুরস্কের ইস্তানবুলে ট্রানজিট করে সেসব বিমানে জাল ভিসার মাধ্যমে পাচারকারী ভিকটিমদের বিমানে ওঠায়। ট্রানজিটের পর সেখানে অবস্থানরত মানবপাচারকারী চক্র বিমানবন্দর ম্যানেজ করে তুরস্কে প্রবেশ করায়। অন্যদিকে জাল ভিসা দিয়ে বিমানে মরক্কো অথবা আলজেরিয়া নেওয়ার পরে জিব্রালটা প্রণালি দিয়ে স্পেনে প্রবেশ করায়। এ পদ্ধতিতে সমুদ্রে অনেক সময় দীর্ঘদিন থাকতে হয়। সে সময় খাবারের অভাবে অনেকে মারাও যায়।

ইতালি পাচারের জন্য পাচারকারীরা জাল ভিসার মাধ্যমে প্রথমে সুদানে নেয়। সেখান থেকে মরুভূমি, পাহাড়-পর্বত পাড়ি দিয়ে লিবিয়ার বনগাজি নামক স্থানে নেয়। সেখান থেকে জাহাজে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইতালিতে পাচার করে। এই যাত্রা অনেক ভয়ঙ্কর এবং অনেকে মারা যায় পথেই। আবার অনেকে এক দেশ থেকে আরেক দেশের সীমান্ত পার হওয়ার সময়ও সীমান্তরক্ষীদের গুলিতে মারা যায়। ইতালির ক্ষেত্রে লিবিয়ার বনগাজীতে নিয়ে ভিকটিমদের জিম্মি করে টাকা আদায় করা হয়। যে পথেই মানবপাচার হোক না কেন পাচারকারীদের ট্রানজিট পয়েন্টে নির্ধারণের চেয়ে বেশি টাকা আদায় করার পরই পরবর্তী গন্তব্যের দিকে যাত্রা শুরু হয়। এর মধ্যে কোনো কারণে যদি কারও টাকা দিতে দেরি হয়, তাকে আটক রাখা হয় যতদিন টাকা না পরিশোধ হয়। বেশি দেরি হলে মারধর করা হয়। মানবপাচারে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, তুরস্ক ৬ লাখ, লিবিয়া সাড়ে ৪ লাখ, ইতালি ৭ লাখ এবং স্পেনের জন্য ১২ লাখ টাকা আদায় করে তবেই ভিকটিমদের ছাড়া হয়।

 

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর হার দশমিক ২ শতাংশের কম
                                  

 বাংলাদেশে ডেঙ্গু আক্রন্ত হয়ে মৃত্যুর হার দশমিক ২ শতাংশেরও কম। মৃত্যু হারের দিক দিয়ে চিকিৎসাসেবা প্রদানকারী চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের মৃত্যু হার মোট মৃত্যুর প্রায় ৫ শতাংশ। যা সাধারণ মানুষের তুলনায় ২০ থেকে ২৫ গুণ বেশি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ‘ডেঙ্গু : বাংলাদেশের বর্তমান প্রেক্ষিত’ শীর্ষক এক সেমিনারে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে এডিস মশাবাহিত ডেঙ্গু ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হার ১ শতাংশের কম হতে হবে। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু সংখ্যা শতকরা দশমিক ৫ শতাংশ। সেমিনারে জানানো হয়, ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন ৬২ হাজারেরও বেশি রোগী, এরমধ্যে মারা গেছেন ৪৭ জন। তবে চিকিৎসক, নার্স, ল্যাব টেকিনিশিয়ানদের নিরলস প্রচেষ্টা ও সংশ্লিষ্ট সকলের সুন্দর ব্যবস্থাপনার কারণে শতকরা মৃত্যুহার দশমিক ২ শতাংশের নিচে রাখা সম্ভব হয়েছে এবং ডেঙ্গুর সার্বিক পরিস্থিতি মোকাবেলা করাও সম্ভব হয়েছে। সেমিনারের প্রধান অতিথি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়-য়া বলেন, প্রতিরোধেই অধিক গুরুত্ব দিতে হবে। মশা নিধনে ঢাকা সিটি করপোরেশন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে মশা নিধনের জোরদারীকরণ কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে। তিনি বলেন, এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেঙ্গু সেলে এ পর্যন্ত ১ হাজার ২১ জন চিকিৎসা নিয়েছেন। এরমধ্যে ৩ জন মারা গেছেন। অন্যরা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। বহির্বিভাগে চিকিৎসা নিয়েছেন ৫ হাজার ৫৫৫ জন।

যারা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। সাধারণ জ¦রের রোগীদের মধ্যে ডেঙ্গু আক্রান্তের হার এখন ১০ শতাংশের মতো। সেমিনারে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. সাহানা আখতার রহমান, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলমসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, চিকিৎসক ও রেসিডেন্ট ছাত্রছাত্রীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সেমিনারে প্যানেলিস্ট হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. নজরুল ইসলাম, সাবেক উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডা. চৌধুরী আলী কাওসার, এডিটর ইন চীফ, ন্যাশনাল গাইডলাইন ফর ক্লিনিক্যাল ম্যানেজমেন্ট অফ ডেঙ্গু, অধ্যাপক ডা. কাজী তরিকুল ইসলাম।

সভাপতিত্ব করেন মেডিসিন অনুষদের ডীন অধ্যাপক ডা. মো. জিলন মিঞা সরকারের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিভিন্ন বিষয়ে বক্তব্য রাখেন জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. কবিরুল বাশার, বিএসএমএমই’র ভাইরোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. আফজালুন নেছা, ইন্টারনাল মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. সোহেল মাহমুদ আরাফাত, অধ্যাপক ডা. আবুল কামাল আজাদ, শিশু বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. কামরুল লায়লা।

চিরুনি অভিযানে অসহযোগিতা করলে ব্যবস্থা: মেয়র আতিকুল
                                  

এডিস মশা নির্মূলে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) চলমান ‘চিরুনি অভিযানে’ অসহযোগিতা করলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, এডিস মশা নির্মূলে ডিএনসিসি এলাকার ৩৬টি ওয়ার্ডে চলমান ‘চিরুনি অভিযানে’ যদি কোনো বাড়ি বা প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তা প্রহরী অথবা মালিক অসহযোগিতা করলে তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি বলেন, ‘চিরুনি অভিযান’ চলাকালে ডিএনসিসির পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের অনেক বাড়ি ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না, অনেকে সময়ক্ষেপণ করেন। এর ফলে অনেক ক্ষেত্রে অভিযান পরিচালনায় ব্যাঘাত ঘটছে। গতকাল রোববার গুলশান ২ নম্বর ডিএনসিসি মার্কেট প্রাঙ্গণে ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’ আয়োজিত ‘ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা কার্যক্রমের উদ্বোধন’ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন। মেয়র বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধে ইতোমধ্যে সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ এগিয়ে এসেছেন, তবে আরো এগিয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, ডিএনসিসির সকল বাড়ি, প্রতিষ্ঠান, খোলা জায়গা, পরিত্যক্ত ভবন ইত্যাদি ১০ দিনব্যাপী চলমান চিরুনি অভিযানের আওতায় আসবে, কিছুই বাদ যাবে না। তবে পরবর্তীতে এটি চালিয়ে যাওয়াই মূল চ্যালেঞ্জ এবং এজন্য বছরের ৩৬৫ দিনই এডিস মশা নিধনে কাজ করতে হবে বলে তিনি মনে করেন।

তিনি আরো বলেন, আমরা শিগগিরই ইন্টিগ্রেটেড ভেক্টর ম্যানেজমেন্ট (আইভিএম) এর পরিকল্পনা প্রকাশ করবো। মশক নিধনের যন্ত্রপাতি আধুনিকীকরণ, মশক নিধনকর্মীদের প্রশিক্ষণ প্রদান, কীটনাশক প্রয়োগের পরে মশা, অন্যান্য কীটপতঙ্গ এবং সর্বোপরি পরিবেশের উপর প্রভাব ইত্যাদি গবেষণা এবং ভবিষ্যতের জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ এ পরিকল্পনার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত থাকবে। চিরুনি অভিযানের লক্ষ্যে প্রতিটি ওয়ার্ডকে ১০টি ব্লকে এবং প্রতিট ব্লককে ১০টি সাব-ব্লকে ভাগ করা হয়। প্রতিদিন প্রতিটি ওয়ার্ডের ১টি করে ব্লক থেকে এডিস মশার লার্ভা ধ্বংস এবং পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আফসার উদ্দিন খান এবং ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’ এর সভাপতি পীযুষ বন্দোপাধ্যায় উপস্থিত ছিলেন।

কেরানীগঞ্জে যুবকের ঝুলন্ত লাশ লাশ উদ্ধার
                                  

 ঢাকার কেরানীগঞ্জে গাছ থেকে অজ্ঞাতপরিচয় (২৮) এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার দুপুরের দিকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন আমিনপাড়া সাতপাখি এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার এসআই মো. সাদিকুজ্জামান জানান, সাতপাখি এলাকায় একটি গাছের সঙ্গে ওই যুবকের লাশ ঝুলতে দেখে এলাকাবাসী থানায় খবর দেয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়না-তদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় দক্ষিণ থানায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

চকবাজারে যুবকের গলিত মরদেহ উদ্ধার
                                  

নগরের চকবাজার থানার ডিসি রোডে একটি বাড়ির পরিত্যক্ত পানির ট্যাংক থেকে শাখাওয়াত হোসেন ফাহিম (২১) নামে এক যুবকের গলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার সকালে ডিসি রোডের আবু কলোনীর পাশে আবুল কাশেমের বাড়ির দ্বিতীয় তলা থেকে ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত শাখাওয়াত হোসেন ফাহিম ডিসি রোডের আনোয়ার হোসেনের ছেলে। তার মরদেহের বিভিন্ন অংশে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন ছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ।


চকবাজার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রিয়াজ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ডিসি রোডে একটি বাড়ির পরিত্যক্ত পানির ট্যাংক থেকে শাখাওয়াত হোসেন ফাহিমের গলিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।


চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার (চকবাজার জোন) মুহাম্মদ রাইসুল ইসলাম বলেন, শাখাওয়াত হোসেন ফাহিম একটি সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন। তিনি ডিসি রোডে দাদির সঙ্গে থাকতেন। তার শরীরের বিভিন্ন অংশে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন ছিল। পুলিশ খুনের ঘটনাটি তদন্ত করছে।


   Page 1 of 98
     রাজধানী
গাজীপুরে ফ্রিজ তৈরি কারখানায় অগ্নিকাণ্ড
.............................................................................................
ঢাকায় দৈনিক চাহিদার চেয়ে ১০ কোটি লিটার পানি উদ্বৃত্ত থাকছে
.............................................................................................
ঢাকায় জলাবদ্ধতা আর থাকবে না: ডিএনসিসি মেয়র
.............................................................................................
অ্যাম্বুলেন্সে ইয়াবা পরিবহন, রাজধানীতে আটক ৩
.............................................................................................
ঢাকা-বরিশাল নৌপথে ছদ্মনামে ১১ লঞ্চঘাটের অনুমোদন, ক্ষতির মুখে ইজারাদার
.............................................................................................
২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ৬০৭ জন নতুন ডেঙ্গু রোগী
.............................................................................................
রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৫৩
.............................................................................................
আজ ঢাকায় আসছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
রাজধানীতে প্রাইভেটকার ভর্তি গাঁজাসহ আটক ৪
.............................................................................................
অভিযান চালিয়ে ১৩৪ বাড়ি-স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা পেয়েছে ডিএনসিসি
.............................................................................................
রাজধানীতে বাসা থেকে ইয়াবা উদ্ধার, বাবা-ছেলেসহ গ্রেপ্তার ৩
.............................................................................................
৮৬ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান শাহজালালে নিষিদ্ধ
.............................................................................................
ডেঙ্গুতে মৃত্যুর হার দশমিক ২ শতাংশের কম
.............................................................................................
চিরুনি অভিযানে অসহযোগিতা করলে ব্যবস্থা: মেয়র আতিকুল
.............................................................................................
কেরানীগঞ্জে যুবকের ঝুলন্ত লাশ লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
চকবাজারে যুবকের গলিত মরদেহ উদ্ধার
.............................................................................................
রূপনগরের চলন্তিকা ঝিলপাড় বস্তিটি ক্ষমতাসীন কিছু নেতাকর্মীর কাছে ছিল ‘টাকার খনি’
.............................................................................................
এডিস মশার লার্ভা: দুই সিটিতে ৭ লাখ ৪৪ হাজার টাকা জরিমানা
.............................................................................................
রাজধানীতে জেএমবির ৪ সদস্য আটক
.............................................................................................
রাজধানীতে মাদক বিক্রি ও সেবনের দায়ে গ্রেফতার ১৫
.............................................................................................
মিরপুর বস্তিতে ভয়াবহ আগ্নিকান্ড, আড়াই হাজার ঘর পুড়ে ছাই
.............................................................................................
রাজধানীর পশুর হাটে জাল নোট শনাক্তে ব্যাংক
.............................................................................................
পৌরকরদাতাদের মাঝে বিনামূল্যে অ্যারোসল বিতরণ মেয়র খোকনের
.............................................................................................
রাজধানীর পশুর হাটগুলোতে ভিড় থাকলেও বেচাকেনা তুলনামূলক কম
.............................................................................................
বাড়ি ফিরছে মানুষ, ফাঁকা ঢাকা
.............................................................................................
ঈদগাহে জায়নামাজ-ছাতা ছাড়া আর কিছু আনা যাবে না: ডিএমপি
.............................................................................................
জাতীয় মসজিদে ও জাতীয় ঈদগাহে ঈদুল আযহার নামাযের সময় নির্ধারন
.............................................................................................
হাসপাতলে ভর্তি ডাক্তার-নার্সরাও
.............................................................................................
১২ সিটি করপোরেশনে পশু কোরবানির জন্য ২৯৪১টি স্থান নির্ধারণ
.............................................................................................
আগামী মাসের শুরুতেই ডেঙ্গুমুক্ত হবে রাজধানী: মেয়র খোকন
.............................................................................................
সাভারে পিকআপের ধাক্কায় পথচারী নিহত
.............................................................................................
রাজধানীতে সিলিন্ডারের আগুনে পিতা-পুত্রসহ দগ্ধ ৩
.............................................................................................
দুই সিটিতে ২৪ পশুর হাট
.............................................................................................
৩২ স্কুলে অ্যারোসল দিলেন মেয়র খোকন, হাসপাতালে মশারি দিলেন আতিকুল
.............................................................................................
রাজধানীতে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৫ জনের মধ্যে ৪ জন রিমান্ডে
.............................................................................................
নারায়ণগঞ্জে গ্যাস লাইনে বিস্ফোরণে নিহত ১, আহত ৪
.............................................................................................
পোশাক শ্রমিক হত্যা, রামপুরায় সড়ক অবরোধ
.............................................................................................
গাজীপুরে বোমা ফাটিয়ে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি, আটক ৪
.............................................................................................
নির্মাণাধীন ভবনের পানিতে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেলে আইনি ব্যবস্থা: খোকন
.............................................................................................
 নির্ধারিত সীমানার বাইরে পশুর হাট বসতে পারবে না: ডিএমপি কমিশনার
.............................................................................................
আশুলিয়ায় কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় পথচারী নিহত
.............................................................................................
ঢাকায় প্রিয়া সাহার বাড়ির সামনে বিক্ষোভ
.............................................................................................
কাঁঠালবাগানে এফ হক টাওয়ারের আগুন
.............................................................................................
পুরান ঢাকায় ভবনধস
.............................................................................................
রাজধানীর পৃথক স্থানে ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত ২
.............................................................................................
রাজধানীতে অভিযান চালিয়ে ১১ কিশোর আটক
.............................................................................................
দুই বছরের মধ্যে ঢাকা রিকশামুক্ত করা হবে: ডিএনসিসি মেয়র
.............................................................................................
‘জুলাইয়ের শেষে’ পুরান ঢাকায় চক্রাকার বাস
.............................................................................................
শাহজালালে প্রায় সাড়ে ৬ কোটি টাকা মূল্যের ১২ কেজি সোনা উদ্ধার
.............................................................................................
সাভারে ২ হাজার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
উপদেষ্টা: আজাদ কবির
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ হারুনুর রশীদ
সম্পাদক মন্ডলীর সহ-সভাপতি: মামুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
যুগ্ম সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বার্তা সম্পাদক: মুজিবুর রহমান ডালিম
স্পেশাল করাসপনডেন্ট : মো: শরিফুল ইসলাম রানা
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]