ঢাকা, মঙ্গলবার , ৭ আশ্বিন ১৪২৭ , ২২ সেপ্টেম্বর , ২০২০ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   রাজধানী -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
রাজধানী ঢাকার প্রতিটি থানা নির্বাচন অফিসে নির্বাচন কমিশনের সাঁড়াশি অভিযান

মঙ্গলবার থেকে রাজধানী ঢাকার প্রতিটি থানা নির্বাচন অফিসে জাতীয় পরিচয়পত্র সংক্রান্ত সেবা প্রদান কার্যক্রম পর্যবেক্ষণে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করবে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) এনআইডি বিভাগ। পর্যায়ক্রমে এই শুদ্ধি অভিযান সারাদেশব্যাপী পরিচালনা করা হবে বলে এনআইডি বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে।

অন্যদিকে, জাল এনআইডি তদন্তে ইসির জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগের এর পক্ষ থেকে পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

জানা গেছে, জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগ এবং আইডিয়া প্রকল্পের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে মহাপরিচালক ও আইডিইএ প্রকল্পের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাইদুল ইসলামের সভাপতিত্বে জরুরি বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।



সংশ্লিষ্ট বিভাগ জানায়, গুলশান ও সবুজবাগ থানা নির্বাচন অফিসের ডাটা এন্ট্রি অপারেটরের জাল এনআইডি তৈরির ও জাল এনআইডির মাধ্যমে ব্যাংক থেকে লোন নেয়ার ঘটনা তদন্তে ইসির এনআইডি নিবন্ধন অনুবিভাগের এনআইডি উইং এর অপারেশন শাখা, আইটি বিভাগ এবং প্রোজেক্টের প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কমিটিকে আগামী ৪ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি মিথ্যা তথ্য দিয়ে এনআইডি বানানো সন্দেহভাজন এমন ১৭টি এনআইডি সাময়িকভাবে বন্ধ করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন সাপেক্ষে পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে।

এদিকে, মাঠ পর্যায়ে জাতীয় পরিচয়পত্র সেবার মান বাড়াতে আরো বেশকিছু পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। যা অচিরেই এনআইডি নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে দেশবাসীকে অবহিত করবেন বলেও অনুবিভাগ থেকে জানানো হয়েছে।

রাজধানী ঢাকার প্রতিটি থানা নির্বাচন অফিসে নির্বাচন কমিশনের সাঁড়াশি অভিযান
                                  

মঙ্গলবার থেকে রাজধানী ঢাকার প্রতিটি থানা নির্বাচন অফিসে জাতীয় পরিচয়পত্র সংক্রান্ত সেবা প্রদান কার্যক্রম পর্যবেক্ষণে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করবে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) এনআইডি বিভাগ। পর্যায়ক্রমে এই শুদ্ধি অভিযান সারাদেশব্যাপী পরিচালনা করা হবে বলে এনআইডি বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে।

অন্যদিকে, জাল এনআইডি তদন্তে ইসির জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগের এর পক্ষ থেকে পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

জানা গেছে, জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগ এবং আইডিয়া প্রকল্পের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে মহাপরিচালক ও আইডিইএ প্রকল্পের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাইদুল ইসলামের সভাপতিত্বে জরুরি বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।



সংশ্লিষ্ট বিভাগ জানায়, গুলশান ও সবুজবাগ থানা নির্বাচন অফিসের ডাটা এন্ট্রি অপারেটরের জাল এনআইডি তৈরির ও জাল এনআইডির মাধ্যমে ব্যাংক থেকে লোন নেয়ার ঘটনা তদন্তে ইসির এনআইডি নিবন্ধন অনুবিভাগের এনআইডি উইং এর অপারেশন শাখা, আইটি বিভাগ এবং প্রোজেক্টের প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কমিটিকে আগামী ৪ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি মিথ্যা তথ্য দিয়ে এনআইডি বানানো সন্দেহভাজন এমন ১৭টি এনআইডি সাময়িকভাবে বন্ধ করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন সাপেক্ষে পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে।

এদিকে, মাঠ পর্যায়ে জাতীয় পরিচয়পত্র সেবার মান বাড়াতে আরো বেশকিছু পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। যা অচিরেই এনআইডি নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে দেশবাসীকে অবহিত করবেন বলেও অনুবিভাগ থেকে জানানো হয়েছে।

রাজধানীতে জাতীয় পরিচয় পত্র তৈরি চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার
                                  

রাজধানীর মিরপুর মডেল থানা এলাকা থেকে জাল, দ্বৈত ও ডুপ্লিকেট জাতীয় পরিচয় পত্র তৈরি চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা জাল জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে বিভিন্ন ব্যাংক থেকে লোন উত্তোলনে সহায়তা করতো বলে ডিএমপি’র এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আজ এ কথা জানানো হয়।

সংঘবদ্ধ অপরাধ ও গাড়ি চুরি প্রতিরোধে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা লালবাগ বিভাগের টিম শনিবার দিবাগত রাত পোনে ৮ টার দিকে রাজধানীর মিরপুরের চিড়িয়াখানা রোডের ডি-ব্লক এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মো. সুমন পারভেজ (৪০), মো. মজিদ (৪২), সিদ্দার্থ শংকর সূত্রধর (৩২), মো. আনোয়ারুল ইসলাম (২৬) ও মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন (৪১)। তাদের হেফাজত থেকে জাল ও ডুপ্লিকেট ১২টি জাতীয় পরিচয় পত্র উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, ব্যাংকের লোন নিয়ে কেউ ঋণ খেলাপি হলে তাদের সিআইবি খারাপ হয়, ফলে পুনরায় তারা ব্যাংকে লোনের জন্য আবেদন করতে পারেন না। তখন গ্রেফতারকৃত সুমন ও মজিদ লোন পাস করে দিবে বলে প্রথমে জাল জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরির জন্য প্রত্যেকের নিকট হতে ৮০ হাজার থেকে ১ লাখ টাকা নিতেন। পরবর্তী সময়ে লোন পাস হলে লোনের সমূদয় টাকার শতকরা ১০ ভাগ দিতে হবে বলে চুক্তি করতেন। এ জাল পরিচয় পত্র তৈরি করে দিতেন তাদের অপর সহযোগি গ্রেফতারকৃত সিদ্দার্থ শংকর সূত্রধর ও মো. আনোয়ারুল ইসলাম। তারা প্রত্যেকটি জাল জাতীয় পরিচয় পত্র তৈরি বাবদ ৩৫ হাজার থেকে ৪০ হাজার টাকা করে নিতেন।

সিদ্দার্থ শংকর সূত্রধর ও আনোয়ারুল ইসলাম ই-জোন কোম্পানীর মাধ্যমে আউট সোর্সিংয়ে নিয়োগকৃত নির্বাচন কমিশনের অধীনে খিলগাঁও ও গুলশান অফিসে ডাটা এন্ট্রি অপারেটর হিসেবে কাজ করার কারণে তারা নির্বাচন কমিশন অফিসের সফটওয়্যার ব্যবহার করে সহজেই জাল জাতীয় পরিচয় পত্র তৈরি করতে পারতেন।

তারা এ পন্থা অবলম্বন করে এমন অনেককে বিভিন্ন ব্যাংক থেকে লোন উত্তোলন করে দিয়েছেন বলে গোয়েন্দা সূত্রে জানা যায়। তাদের বিরুদ্ধে মিরপুর মডেল থানায় মামলা করা হয়েছে।বাসস

রাজধানীর গুলশান-১ এর গুলশান শপিং সেন্টারে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে
                                  

রাজধানীর গুলশান-১ এর গুলশান শপিং সেন্টারে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। ৩ ঘণ্টার চেষ্টায় শুক্রবার সকাল ৬টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিস। বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ৩টা ২০ মিনিটে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সদরদফতর কন্ট্রোল রুমের ডিউটি অফিসার মাহমুদুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, রাত ৩টা ২০ মিনিটে গুলশান শপিং সেন্টারের ছয়তলায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৭টি ইউনিট ঘটনাস্থলে আসে। পরে সকাল ৬টার দিকে নিয়ন্ত্রণে আসে আগুন।

নারায়ণগঞ্জের বিস্ফোরণে ৫০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ চায় নিহতদের পরিবার
                                  

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বায়তুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহতদের পরিবারের জন্য ৫০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ ও পরিবারের অন্য সদস্যদের কর্মসংস্থানের দাবি জানিয়েছেন স্বজনরা। মঙ্গলবার মসজিদ সংলগ্ন একটি মাঠে এক সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করে তারা এ দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর পক্ষ থেকে বিভিন্ন দাবি তুলে ধরেন বিস্ফোরণে নিহত মসজিদের ইমাম মাওলানা আব্দুল মালেক নেছারীর দুই ছেলে নাইমুল ইসলাম ও ফাহিমুল ইসলাম। তারা প্রত্যেক নিহতের পরিবারকে ৫০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ এবং পরিবারের জীবিত সদস্যদের যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরির ব্যবস্থা করে দেয়ারও দাবি জানান।

বিস্ফোরণে নিহতরা সবাই পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি ছিলেন জানিয়ে ফাহিমুল ইসলাম বলেন, তাদের হারিয়ে পরিবারগুলো এখন অসহায় ও নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। তারা যেন মর্যাদা নিয়ে সমাজে টিকে থাকতে পারে এবং মানুষের কাছে হাত পাততে না হয়, সে জন্য আর্থিক ক্ষতিপূরণ ও যোগ্যতা অনুযায়ী প্রতিটি পরিবারের সদস্যদের চাকরির ব্যবস্থা করে দিতে হবে।

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে তিনি বলেন, বার্ন ইউনিটের আইসিইউতে রোগীদের সম্পূর্ণ বিনামূল্যে রাখার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন তিনি। এ জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি সবার পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।বিস্ফোরণের পর মসজিদের ভেতরের অবস্থা

এ ছাড়া সব ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত রাখায় জেলা প্রশাসন, সদর উপজেলা প্রশাসন, স্থানীয় সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান, সরকারি দলসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী, স্বেচ্ছাসেবীসহ পেশাজীবী মানুষের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর সদস্যরা।

এদিকে, প্রত্যেক পরিবারের সদস্যকে ৫০ হাজার টাকা এবং আহত প্রত্যেককে চিকিৎসার জন্য ৩০ হাজার টাকা করে অনুদান দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন স্থানীয় মডেল ডি গ্রুপের মালিক মাসুদুজ্জামান।

গত শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার পশ্চিম তল্লা বায়তুস সালাত জামে মসজিদের ভেতরে হঠাৎ করেই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। তখন এশার নামাজের জামাত মাত্র শেষ হয়েছে। এতে নামাজ পড়তে আসা অন্তত ৪০ জন মুসল্লি দগ্ধ হন। পরে গুরুতর আহত ৩৭ জনকে রাজধানীর শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। এর মধ্যে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ২৮ জন। গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছেন আরো ৯ জন।

অবৈধ গ্যাস সংযোগ ও অপরাজনীতির প্রভাবে বড় দূর্ঘটনার শঙ্কা
                                  

অবৈধ গ্যাস সংযোগ থেকে অগ্নিকাণ্ড, বিস্ফোরণ, প্রাণহানির মতো ঘটনা ঘটছে। আরও বড় ধরনের দুর্ঘটনার শঙ্কা থাকলেও গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলোর পক্ষে সব লাইন পুরোপুরি অপসারণ কঠিনই। কারণ অবৈধ গ্যাস সংযোগের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছে রাজনৈতিক নেতা, স্থানীয় প্রভাবশালী সুবিধাভোগী শ্রেণি এবং গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলোর স্থানীয় অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী। ফলে বছরের পর বছর কেবল অবৈধ গ্যাস সংযোগ নিয়ে সংশ্লিষ্টদের মুখে নানা হুঙ্কার শোনা যাচ্ছে। তার পরও কমছে না অবৈধ গ্যাস সংযোগ, বরং তা বেড়েই চলেছে। এর ফলে বাড়ছে নানা দুর্ঘটনার ঝুঁকি।

বিগত সংসদ নির্বাচনের সময় রাজধানীর আশপাশে কয়েক সংসদ সদস্য প্রার্থী অবৈধ গ্যাস সংযোগকে নির্বাচনী হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করেন। প্রকাশ্যে জনসভায় ঘোষণা দিয়েছেনÑ ভোট দিলে এলাকায় সবাইকে গ্যাস সংযোগের সুযোগ করে দেবেন। ওই সময় আইনানুগ গ্যাস সংযোগ বন্ধ ছিল। এখনো আবাসিকে গ্যাস সংযোগের অনুমতি নেই।


এদিকে অবৈধ গ্যাস সংযোগ নিয়ে কয়েক বছরে একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা সরকারের কাছে প্রতিবেদন দিয়েছে। সেসব প্রতিবেদনে তারা উল্লেখ করেছে অবৈধ গ্যাস সংযোগের সঙ্গে ক্ষমতাসীন দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী এবং তিতাসের অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীর জড়িত থাকার কথা। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ও চায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ অপসারণ। জ্বালানি বিভাগের এক অতিরিক্ত সচিবকে প্রধান করে কয়েক বছর আগে কমিটিও করা হয়; কিন্তু অবৈধ গ্যাস সংযোগ অপসারণ


হয়নি। বেশ কয়েকবার মন্ত্রণালয় থেকে গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলোকে আলটিমেটাম দেওয়া হয়েছে অবৈধ গ্যাস সংযোগ অপসারণে; কিন্তু আলটিমেটাম আর চিঠি চালাচালির মধ্যেই সীমাবদ্ধ থেকেছে।


বছরের পর পর কেন অবৈধ গ্যাস সংযোগ অপসারণ করা যাচ্ছে নাÑ জানতে চাইলে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ আমাদের সময়কে বলেন, অবৈধ গ্যাস সংযোগ অপসারণে আমরা তৎপর। অনেক অবৈধ গ্যাস সংযোগ বন্ধ হয়েছে। তবে কোথাও কোথাও স্থানীয় সংসদ সদস্যদের আপত্তি আছে। তাদের লোকজন বাধা দেয়। এবার যারা বাধা দেবে তাদের সঙ্গে কথা বলব। অবৈধ গ্যাস সংযোগ উচ্ছেদ করা হবে।

এদিকে নারায়ণগঞ্জের মসজিদে গ্যাস লিকেজ থেকে বিস্ফোরণে হতাহতের ঘটনা সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে সাড়া ফেলেছে। খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদে বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন। তিনি ঘটনা দ্রুত তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। সেই পরিপ্রেক্ষিতে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয় আজ জরুরি এক সভা ডেকেছে। আজকের বৈঠকটি হবে মূলত অবৈধ গ্যাস সংযোগ অপারসণ সংক্রান্ত।

জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী সবচেয়ে বেশি অবৈধ গ্যাস সংযোগ তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানিতে (তিতাস)। এসব অবৈধ গ্যাস সংযোগকে পুঁজি করে তিতাসের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা লাভবান হচ্ছেন। বৈধ হওয়ার সুযোগ না থাকায় অবৈধ ব্যবহারকারীদের নানা ধরনের হুমকি-ধমকি দিয়ে মাসে মাসে বিল আদায় করে নিজেদের পকেট ভারী করছেন কিছু অসৎ কর্মকর্তা-কর্মচারী।

এদিকে অবৈধ গ্যাস সংযোগগুলো বৈধতা দিতে সংসদ সদস্যরা মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছেন। জ্বালানি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ-সোনারগাঁও এলাকার সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা বিদ্যুৎ ও জ্বালানি বিভাগে চিঠি দিয়েছেন যেসব অবৈধ গ্যাস সংযোগ ব্যবহারকারী আছেন, তাদের নিয়মের আওতায় এনে বৈধতা দিতে। শুধু লিয়াকত হোসেন খোকা নয়, এমন অনেক এলাকার সংসদ সদস্যই মন্ত্রণালয়কে জানিয়েছেন অবৈধ গ্রাহকদের বৈধ করে নিতে। তবে এ বিষয়ে তিতাস গ্যাস কোম্পানির একাধিক বিশেষজ্ঞ কর্মকর্তার অভিযোগ কাগজ-কলমে হয়তো অবৈধ গ্যাস সংযোগ ব্যবহারকারীদের বৈধতা দেওয়া যাবে। তবে বৈধতা দেওয়ার ক্ষেত্রে কারিগরি জটিলতা রয়েছে। তাদের অভিমত, গত ৮/১০ বছরে যারা অবৈধ গ্যাস সংযোগ নিয়েছে তাদের অধিকাংশ নিম্নমানের পাইপ এবং নিম্নমানের উপকরণ ব্যবহার করে এসব সংযোগ নিয়েছে। মূল পাইপলাইন থেকে গ্যাসের প্রেশার বাড়লেই এসব ব্যবহারকারীর বাড়িঘরে আগুন লেগে যাবে। অথবা নিম্নমানের উপকরণ দিয়ে পাইপলাইন টানার কারণে খুব সহজেই এসব উপকরণ ক্ষয়ে ছিদ্র হয়ে যাবে। ফলে গ্যাস লিকেজ তৈরি হবে এবং দুর্ঘটনা ঘটবে। তাদের অভিমত, বৈধতা দেওয়া হলেও প্রতিটি সংযোগ ধরে তিতাস বা যে কোনো বিতরণ কোম্পানির অনুমোদিত পাইপ বা উপকরণ ব্যবহার করে আবার নতুন করে সংযোগ দিতে হবে।

বিষয়টি নিয়ে তিতাসের পাইপলাইন শাখার মহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মো. আব্দুল ওহাবের সঙ্গে কথা বললে তিনি আমাদের সময়কে বলেন, অদূর ভবিষ্যতে আরও বড় দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছি। তিনি বলেন, সত্যিকার অর্থে নারায়ণগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় এমনভাবে গ্যাস নেটওয়ার্ক বা পাইপলাইন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে যে, অগ্নিকা- বা বিস্ফোরণ আরও ঘটতে পারে। সব জায়গায় অবৈধ গ্যাস পাইপলাইনের সঙ্গে স্থানীয় প্রভাবশালী বা একটা সুবিধাভোগী শ্রেণি তৈরি হয়েছে। ফলে তিতাস কর্তৃপক্ষ আন্তরিকতার সঙ্গে চাইলেও নানা প্রভাবে সব অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে পারছে না।

প্রসঙ্গত, প্রকৌশলী মো. আব্দুল ওহাব নারায়ণগঞ্জের মসজিদে দুর্ঘটনা তদন্তে তিতাসের গঠিত কমিটির প্রধান। নারায়ণগঞ্জের দুর্ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে তদন্ত করব। তিনি বলেন, আমরা জানতে চেষ্টা করছি মসজিদের নিচে গ্যাসের পাইপলাইন কীভাবে গেল। সেটা কি আগের লাইন ছিল, নাকি মসজিদটি পাইপলাইনের ওপর নির্মাণ করা হয়েছে। সেই গ্যাস লাইন বৈধ না অবৈধ। তিনি বলেন, আমাদের পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন তৈরি করতে কয়েকদিন লাগবে।

অবৈধ গ্যাস সংযোগ নিয়ে তিতাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী আলী মো. আল মামুন আমাদের সময়কে বলেন, তিতাস অবৈধ গ্যাস সংযোগের বিষয়ে সব সময়ই অভিযান পরিচালনা করে আসছে। তবে দুঃখের বিষয়, একদিকে সংযোগ অপসারণ করলে আরেকদিক দিয়ে সংযোগ দিয়ে দিচ্ছে দুর্নীতিবাজ লোকজন।

আজ থেকে বাস চলবে আগের ভাড়ায়
                                  

মঙ্গলবার থেকে কার্যকর হচ্ছে বাসে আগের ভাড়া। প্রতিটি বাসে আসন অনুযায়ী যাত্রী বহন করতে পারবে। দাঁড়িয়ে যাত্রী বহন করা যাবে না। নতুন এসব সিদ্ধান্ত মনিটরিংয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করবে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাই বড় চ্যালেঞ্জ মনে করছেন যাত্রী ও পরিবহন সংশ্লিষ্টরা।

করোনার সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে ৬০ শতাংশ বাড়তি ভাড়া যোগ করে দুই সিটে একজন যাত্রী বহনের অনুমতি দেয় সরকার। সেই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১ জুন থেকে বাড়তি ৬০ শতাংশ ভাড়া আদায় করে আসছিল গণপরিবহনগুলো। 

তবে, ঈদুল আজহা থেকে বেশ কিছু বাসমালিক ও শ্রমিকদের বিরুদ্ধে আসন পূর্ণ করে যাত্রী বহন ও বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ ওঠে। এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মালিক সমিতিও আগের ভাড়ায় যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে। এ অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে বাড়তি ভাড়া প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।

বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ``আশার`` অফিস থেকে স্বামী-স্ত্রীর লাশ উদ্ধার
                                  

বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আশার অফিস থেকে স্বামী-স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১০টার সংস্থার রাজধানীর তেঁজগাওয়ের নাখালপাড়া অফিস থেকে লাশ দুটি উদ্ধার করে পুলিশ।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেছেন পুলিশের সিআইডি ক্রাইম সিনের সদস্যরা।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. ওয়ালিদ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ৮৫, পশ্চিম নাখালপাড়ায় আশার অফিস থেকে হাসমত আলী ও ফারজানা নামের এক দম্পতির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তারা ওই অফিসেই থাকতেন। তাদের বাড়ি নরসিংদী জেলায়।

ওয়ালিদ হোসেন বলেন, নিহত দম্পতির মৃত্যুর কারণ এখনও জানা যায়নি। তদন্তে ক্রাইম সিনের সদস্যরা ঘটনাস্থলেই গেছেন।

ঢাকার ধামরাইয়ে যাত্রীবাহী বাসচাপায় প্রাণ গেল দুই এইচএসসি পরীক্ষার্থীর
                                  

ঢাকার ধামরাইয়ে যাত্রীবাহী বাসচাপায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। আজ রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঢাকা আরিচা মহাসড়কের ধামরাইয়ের শ্রীরামপুর এলাকায় এ সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত দু’জন হলেন- ধামরাইয়ের উত্তর হাতকোড়া এলাকার সাগর আলীর ছেলে সজিব (২১) ও আলতাব হোসেনের ছেলে রাশেদুল ইসলাম (২০)। দুজনেই এবার এইচএসসি পরীক্ষার্থী ছিলেন।

পুলিশ জানায়, সকালে ওই দুই যুবক একটি মোটরসাইকেল করে ধামরাইয়ের দিকে যাচ্ছিলেন। এসময় তাদের মোটরসাইকেলটি ধামরাইয়ের শ্রীরামপুর এলাকায় পৌছালে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা সাকুরা পরিবহনের একটি বাস তাদেরকে চাপা দেয়। এসময় ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেলে থাকা ওই দুই শিক্ষার্থী নিহত হন। স্থানীয়রা এ সময় ধাওয়া দিয়ে যাত্রীবাহী বাসটি জব্দ করলেও এর চালক পালিয়ে যান।

খবর পেয়ে মানিকগঞ্জ গোলরা হাইওয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত দুইজনের লাশ উদ্ধার করে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠায়।

স্থানীয়দের দাবি, সাকুরা পরিবহনের চালকরা ওই রাস্তা দিয়ে বেপরোয়া চালানোর কারণে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটাচ্ছে।

মানিকগঞ্জ গোলড়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।’

ঢাকার দুই সিটির প্রায় ৯ শতাংশ মানুষের মধ্যে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত
                                  

ঢাকার দুই সিটির প্রায় ৯ শতাংশ মানুষের মধ্যে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছে। ঢাকায় দেড় কোটি লোকের বসবাস ধরলে করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা হবে ১৩ লাখ ৫০ হাজার। বস্তিবাসীর মধ্যে করোনার সংক্রমণের হার ৬ শতাংশ। সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) এবং আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণাকেন্দ্র বাংলাদেশের (আইসিডিডিআরবি) এক যৌথ জরিপে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন এলাকার সোয়া তিন হাজার পরিবারের ১২ হাজার মানুষের ওপর এই জরিপ চালানো হয়। স্থানীয় পর্যায়ে কোভিড-১৯ কতটা বিস্তার লাভ করেছে, তা জানতে এই জরিপ চালানো হয়। সোমবার জরিপের সারসংক্ষেপ প্রকাশ করে আইইইডিসিআর। এই জরিপ কার্যক্রমে সহযোগিতা করেছে ইউএসএআইডি এবং বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন। আইইডিসিআর পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী

সেব্রিনা ফ্লোরা জানান, রাজধানীতে গত ১৮ এপ্রিল থেকে ৫ জুলাই পর্যন্ত এই জরিপ কার্যক্রম পরিচালিত হয়। জরিপকালে পরিবারগুলোকে পরীক্ষার মাধ্যমে লক্ষণ বা উপসর্গযুক্ত এবং লক্ষণহীন বা উপসর্গহীন এই দুই ভাগে ভাগ করা হয়। জরিপের দিন বা আগের সাত দিনের মধ্যে কোনো পরিবারের কোনো সদস্যের মধ্যে যদি কোভিড ১৯-এর চারটি উপসর্গের একটি চিহ্নিত হয়েছে, সেই পরিবারকে লক্ষণযুক্ত পরিবার হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। জরিপের দিন বা এর আগের সাত দিনের মধ্যে যদি কোনো পরিবারের কোনো সদস্যের মধ্যে কোভিড ১৯-এর কোনো লক্ষণ না পাওয়া গেলে সেই পরিবারকে লক্ষণহীন বা উপসর্গহীন বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। লক্ষণযুক্ত ও লক্ষণহীন উভয় পরিবারের সদস্যদের পরীক্ষা করা হয়েছে। 

আইইডিসিআর পরিচালক জানান, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের আওতাধীন তিন হাজার ২৭৭ পরিবারের ওপর এ জরিপ কার্যক্রম চলে। জরিপকালে ২১১ জন লক্ষণযুক্ত ব্যক্তি চিহ্নিত এবং ১৯৯ জনের পিসিআর টেস্ট করা হয়। লক্ষণযুক্ত ব্যক্তির পরিবারের মধ্যে ৪৩৫ জন লক্ষণহীন ব্যক্তি চিহ্নিত এবং ২০১ জনের পরীক্ষা করা হয়। লক্ষণহীন পরিবারের মধ্যে থেকে ৮২৭ জন ব্যক্তি চিহ্নিত করা হয়। তাদের মধ্যে থেকে পরীক্ষা করা হয় ৫৩৮ জনের। এ ছাড়া একই সময় ছয়টি বস্তির ৭২০টি পরিবারের জরিপ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

জরিপে দেখা গেছে, ঢাকার ৯ শতাংশ মানুষের মধ্যে করোনার সংক্রমণ হয়েছে। বস্তিতে করোনার সংক্রমণ হার পাওয়া গেছে ৬ শতাংশ।

জরিপে দেখা গেছে, করোনা শনাক্ত হওয়া ব্যক্তিদের ৯৩ শতাংশের জ্বর, ৩৬ শতাংশের মধ্যে কাশি এবং ১৭ শতাংশের গলাব্যথা ছিল। মাত্র ৫ শতাংশের মধ্যে পরীক্ষার দিন শ্বাসকষ্টের লক্ষণ দেখা যায়নি। করোনা শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ১৫ শতাংশ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। এর মধ্যে মাত্র একজনের মৃত্যু হয়েছে।

জরিপে অংশ নেওয়া ৪০ বছরের বেশি বয়সীদের মধ্যে ১৩ শতাংশ পজিটিভ, ১৫ থেকে ১৯ বয়সী মধ্যে ১২ শতাংশ এবং ১০ বছরের কম বয়সী শিশুদের ৮ শতাংশের মধ্যে করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন এলাকায় প্রায় দেড় কোটি মানুষের বসবাস। অতএব ৯ শতাংশ হিসাবে ধরলে প্রায় ১৩ লাখ ৫০ হাজার ব্যক্তির মধ্যে করোনা সংক্রিমত। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী এ পর্যন্ত দেশে যে ২ লাখ ৬৩ হাজার মানুষের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছে, তাদের মধ্যে ৬৭ হাজার ১৩৫ জন ঢাকার বাসিন্দা।

তবে পরীক্ষা নিয়ে দুর্ভোগসহ নানা কারণে আক্রান্ত অনেকেই এ হিসাবের বাইরে রয়ে গেছেন। আবার যাদের মধ্যে লক্ষণ-উপসর্গ সেভাবে দেখা যায়নি, তারা পরীক্ষার আওতায় আসেননি।

আইইডিসিআর পরিচালক এক কর্মকর্তা জানান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর নিয়মিত যে পরীক্ষা করছে, তাতে ২২ শতাংশের মতো কোভিড-১৯ শনাক্ত হচ্ছে। তার সঙ্গে তুলনা করলে জরিপে পাওয়া সংক্রমণের হার কম মনে হতে পারে। কিন্তু জরিপের এই ফল গুরুত্বপূর্ণ।

শুধুমাত্র ঢাকা জেলাতেই ৭০ হাজারের বেশি করোনা আক্রান্ত মানুষ
                                  

বাংলাদেশের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের তথ্য অনুযায়ী, শুধুমাত্র ঢাকা জেলাতেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৭০ হাজারের বেশি মানুষ।

তার মধ্যে ঢাকা মহানগরীতে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৬ হাজার মানুষ।

এরপরে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছেন চট্টগ্রামের বাসিন্দারা। এই জেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ হাজার মানুষ।

আক্রান্তের তালিকায় এরপরে রয়েছে নারায়ণগঞ্জ ( ৬,০৩৩ জন), কুমিল্লা (৫,৮২৩ জন) ফরিদপুর (৫,২৮৮ জন)।

বাংলাদেশে প্রায় প্রতি চারজনের পরীক্ষায় একজন শনাক্ত
রবিবার পর্যন্ত বাংলাদেশে নতুন আক্রান্ত ২,৪৮৭ জন। এই সময়ের মধ্যে কোভিড-১৯ রোগে আরো ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৩,৩৯৯ জনে।

আর মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২ লাখ ৫৭ হাজার ৬০০ জন।

১০,৭৫৯টি নমুনা পরীক্ষা করে এই রোগীদের শনাক্ত হয়। এ পর্যন্ত মোট পরীক্ষা হয়েছে ১২ লাখ ৬০ হাজার ৩১৯ টি।

নমুনা পরীক্ষার বিচারে নতুন শনাক্তের হার ২৩.১২ শতাংশ। আর এ পর্যন্ত করা মোট পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ২০.৪৪ শতাংশ।

২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১,৭৬৬ জন। কোভিড-১৯ রোগ থেকে এখন পর্যন্ত মোট ১ লাখ ৪৮ হাজার ৩৭০ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন।
সূত্র : বিবিসি

ঢাকা দক্ষিণে ৬১১৯ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা
                                  

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য ৬ হাজার ১১৯ কোটি ৫৯ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে মশা মারতে ৩০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার নগর ভবনে ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এ বাজেট ঘোষণা করেন।

বাজেট ঘোষণাকালে মেয়র বলেন, বাজেটের বেশির ভাগ আয়ের পরিকল্পনা করা হয়েছে সরকারি ও বৈদেশিক উৎস থেকে।

তিনি বলেন, নতুন অর্থবছরে অন্তত ১৭টি উন্নয়নমূলক খাতে নতুন করে টাকা খরচ করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

মেয়র জানান, বাজেটে মশাবাহিত রোগ প্রতিরোধে সমন্বিত মশকনিধন কার্যক্রমে প্রায় ৩০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হচ্ছে। জলাবদ্ধতা নিরসনে ৩০০ কোটি টাকা, কামরাঙ্গীরচরে নতুন শহর আধুনিকায়ন করার কাজে ২০০ কোটি, খাল-জলাশয়, পার্ক-উদ্যান উন্নয়ন করে সুন্দর ও নান্দনিক ঢাকা বিনির্মাণে ৩০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

এছাড়া তিনি জানান, বুড়িগঙ্গার তীরে জমি অধিগ্রহণ করে রাস্তা ও নান্দনিক পার্ক নির্মাণে ২৫০ কোটি, বিনোদন সেবা প্রদানের লক্ষ্যে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কেন্দ্রীয় শিশু পার্কের আধুনিকায়নের কাজে ৩০০ কোটি টাকা, বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য অত্যাধুনিক যান ও যন্ত্রপাতি কিনতে ২৯০ কোটি টাকা ব্যয় করার পরিকল্পনা রাখা হয়েছে।

করোনায় পপুলার মেডিক্যালের অধ্যক্ষের মৃত্যু
                                  

করোনা সংক্রমণে মৃত্যুবরণ করেছেন রাজধানীর পপুলার মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. টি আই এম আবদুল্লাহ আল ফারুক (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

আজ মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) সকালে নিজের কর্মস্থল পপুলার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

চিকিৎসকদের সংগঠন ফাউন্ডেশন ফর ডক্টরস সেফটি, রাইটস অ্যান্ড রেসপনসিবিটির (এফডিএসআর) মহাসচিব ডা. শেখ আব্দুল্লাহ আল মামুন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অধ্যাপক ডা. টি আই এম আবদুল্লাহ আল ফারুক ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের সার্জারি বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ও বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ান সার্জনস-এর জ্যেষ্ঠ কাউন্সিলর ছিলেন।

এফডিএসআরের তথ্যমতে, ডা. আবদুল্লাহ আল ফারুকের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে করোনা সংক্রমণে দেশে এ পর্যন্ত ৮৫ জন চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। 

ডিএনসিসির যে ২৫৬ স্থানে করা যাবে কোরবানি
                                  

আসন্ন ঈদুল আজাহায় রাজধানীতে পশু কোরবানির জন্য ২৫৬টি স্থান নির্ধারণ করেছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)। নগরবাসীকে এসব নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)

আজ শনিবার ডিএনসিসির কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে নগরবাসীর প্রতি এ আহ্বান জানান মেয়র। ঈদে কোরবানির পশুর বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে এ সভার আয়োজন করা হয়।

সভায় ডিএনসিসি মেয়র বলেন, প্রতি বছরের মতো এবারও ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ করা হবে। এ জন্য ডিএনসিসিতে ৪৩০টি ভারী ও হালকা যানবাহন প্রস্তুত রাখা হয়েছে। পাশাপাশি পরিবেশ দূষণমুক্ত ও সুরক্ষিত রাখতে ৫ লিটার ধারণ ক্ষতাসম্পন্ন প্রায় ৯৬০ ক্যান তরল জীবাণুনাশক ছিটানো হবে। ব্লিচিং পাউডার ছিটানো হবে প্রায় ৫১ টন।

এছাড়া পরিবেশ সম্মতভাবে বর্জ্য সংরক্ষণের জন্য ইতোমধ্যে বিশেষ ধরনের ৬ লাখ ব্যাগ বিতরণ করা শুরু হয়েছে বলে জানান মেয়র আতিকুল ইসলাম।

এবার ডিএনসিসিতে পশু কোরবানির জন্য ২৫৬টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি জানান, পশু কোরবানি ও মাংস কাটার জন্য ২৫০ জন ইমাম ও ২৫০ জন মাংস প্রস্তুতকারীকে প্রশিক্ষণ দিয়ে প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

ডিএনসিসির বাসিন্দাদের নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানি দেওয়ার আহ্বান জানান মেয়র।

পশুর হাটের বিষয়ে তিনি বলেন, এ বছর করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে কোরবানির ঈদ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তাই পশুর হাটগুলোতে ক্রেতা-বিক্রেতাদের স্বাস্থ্যবিধি বাস্তবায়নের জন্য মনিটরিং জোরদার করা হবে। এ জন্য ইতোমধ্যে ১০ জন ওয়ার্ড কাউন্সিলরের সমন্বয়ে একটি মনিটরিং কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

বিপাকে রাজধানীর বাড়িওয়ালারা
                                  

কোভিড-১৯ মাত্র চার মাসে পাল্টে দিয়েছে অনেক কিছুই। রাজধানী ঢাকার অভিজাত এলাকার কথা হয়তো কিছুটা ভিন্ন, তার বাইরে পুরো ঢাকাতেই সঙ্কটের বোবা কান্না। ভাড়াটিয়াদের অসহায়ত্বের পর এবার যত সময় যাচ্ছে সঙ্কট ঘনীভূত হচ্ছে বাড়িওয়ালাদের জন্যও। বাড়ি ভাড়া তুলে আয়েশি জীবন পার করার ক্ষেত্রে শুধু ছন্দপতনই নয়, অনেক বাড়িওয়ালা জমি বিক্রি করে ব্যাংকের কিস্তি পরিশোধ করতে বাধ্য হচ্ছেন।

করোনা সংক্রমণের শুরুতেই এই শহরের অধিকাংশ মধ্যবিত্ত-নিম্নবিত্ত মানুষ উপার্জন হারিয়েছেন। স্বাভাবিকভাবেই এর প্রভাব পড়েছে বাড়িওয়ালাদের ওপর। অনেক ভাড়াটিয়া বাসা ছেড়ে দিয়েছেন। যারা ছাড়েননি তাদেরকে বেরও করে দিতে পারছেন না বাড়িওয়ালারা। কারণ বের করে দিলে কোনোভাবেই জুটবে না নতুন ভাড়াটিয়া। কারো কারো ক্ষেত্রে দেখা গেছে, দুই মাস টু-লেট ঝুলিয়ে একটি সাড়াও পাননি।

এই শহরের অধিকাংশ বাড়ি দাঁড়িয়ে আছে ব্যাংক ঋণের ওপর। মাসের শুরুতে বাসা ভাড়া তুলে ব্যাংকের কিস্তি পরিশোধ করার পর যা থাকে, সেটা দিয়ে জীবন যাপন করেন অনেক বাড়িওয়ালা। তারা এখন গভীর সঙ্কটে। মাস ফুরোলেই মোটা অংকের কিস্তি দিতে হচ্ছে নিজের পকেট থেকে। ওদিকে নিকট ভবিষ্যতে ভাড়াটিয়া পেয়ে যাওয়ারও কোনো লক্ষণ নেই, পেলেও বাসা ভাড়া পাবেন, তেমন নিশ্চয়তা নেই।

ভাড়াটিয়া পরিষদের সভাপতি বাহরানে সুলতান বাহার বলেন, এমন সঙ্কট অনুমিতই ছিল। আমরা আগেই বলেছিলাম, প্রথম পর্বে সঙ্কটে পড়বে ভাড়াটিয়ারা এবং অবধারিতভাবে দ্বিতীয় পর্বে একই সঙ্কটে পড়বে বাড়িওয়ালারা। কারণ ভাড়াটিয়াদের অর্থের ওপর তাদের অনেকের জীবনের চাকা ঘোরে। সরকার যদি বাসা ভাড়া অন্তত অর্ধেক কমিয়ে দিতো এবং বাড়ির বিদ্যুত, গ্যাস বিল মওকুফ করে দিতো, তাহলে এতবড় সঙ্কট তৈরি হতো না।

রাজধানীর সাহাবউদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা জালিয়াতি
                                  

করোনাকালে একের পর এক উঠে আসছে চিকিৎসা জালিয়াতি। রিজেন্ট হাসপাতাল ও জেকেজির পর এবার রাজধানীর সাহাবউদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পালা। র‌্যাবের পক্ষ থেকে গতকাল হাসপাতালটিতে অভিযান চালানো হয়, বেরিয়ে আসে পিলে চমকানো তথ্য। এতদিন শোনা গেছে করোনার ভুয়া নেগেটিভ রিপোর্টের কথা। এবার জানা গেল, রিপোর্ট নেগেটিভ আসলেও পজিটিভ করে দেওয়া হতো মোটা অংকের টাকা আদায়ের জন্য।

গতকাল দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত অভিযান চলে রাজধানীর গুলশানে অবস্থিত সাহাবউদ্দিন মেডিকেল কলেজে। নানা অসঙ্গতির পাশাপাশি করোনার নেগেটিভ রিপোর্ট পজিটিভ বানিয়ে দেওয়ার প্রমাণও পায় র‌্যাব। ভুয়া পজিটিভ রিপোর্ট বানিয়ে তারা রোগীকে ভয় দেখাতেন এবং দ্রুত হাসপাতালের ভর্তি হতে বলতেন। কয়েকদিন পর নমুনা নিয়ে একটা নেগেটিভ রিপোর্ট বানিয়ে হাসপাতাল থেকে রিলিজ দিতেন রোগীকে। ভর্তি থাকা ওই সময়টার জন্য রোগীর কাছে হাতিয়ে নিতেন লাখ লাখ টাকা।

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারোয়ার আলম ছিলেন অভিযানের নেতৃত্বে। তিনি বলেন, হাসপাতালটির ব্যাপারে আমরা নানা অভিযোগ পেয়েছি। অভিযানে সেগুলোর প্রমাণও মিলেছে। মেয়াদোত্তীর্ণ লাইসেন্স দিয়েই চলছিল হাসপাতাল। এছাড়া করোনা পরীক্ষার অনুমোদন না থাকার পরও তারা পরীক্ষা চালিয়ে গেছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এই হাসপাতালকে নমুনা পরীক্ষার অনুমতি দিলেও পরে তা বাতিল করা হয়েছিল।

সারোয়ার আলম আরো বলেন, অনুমোদনহীন হয়েও কোভিড-১৯ ও এন্টিবডি টেস্টের মাধ্যমে মানুষের কাছ থেকে অতিরিক্ত ফি নিতো কর্তৃপক্ষ। এছাড়া নকল পজিটিভ রিপোর্ট বানিয়ে সুস্থ মানুষকেও হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে লাখ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছে এই হাসপাতালের লোকজন।

বৃষ্টিতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা
                                  

বৃষ্টিতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েন কর্মস্থলগামী সাধারণ মানুষ। রোববার রাত থেকে বৃষ্টি শুরু হলেও সোমবার সকালে তা আরো বৃদ্ধি পায়।

সোমবার সকালে ঢাকার অনেক রাস্তায় পানি জমে থাকতে দেখা যায়। বিভিন্ন সড়কে জমা পানিতে যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি হয়। এতে কোথাও কোথাও তীব্র যানজট দেখা দেয়।ধানমণ্ডি ২৭ ও সংসদ ভবনের সামনের এলাকায় পানি জমে আসাদগেটে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। এতে ভোগান্তিতে পড়েন অফিসগামী বহু মানুষ।

এদিকে, আবহাওয়া অধিদফতর আজ সোমবার সকাল ৭টা থেকে পরবর্তী ছয় ঘণ্টার জন্য ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলেছে, আকাশ আংশিক মেঘলা থেকে মেঘলা থাকতে পারে। এ সময় হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ১০ থেকে ১৫ কিলোমিটার বেগে বাতাস প্রবাহিত হতে পারে। এ ছাড়া দিনের তাপমাত্রা এক থেকে দুই ডিগ্রি সেলসিয়াস হ্রাস পেতে পারে।

এ ছাড়া আজ দুপুর ১টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, কুমিল্লা, নোয়াখালী, চট্টগ্রাম ও সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।


   Page 1 of 112
     রাজধানী
রাজধানী ঢাকার প্রতিটি থানা নির্বাচন অফিসে নির্বাচন কমিশনের সাঁড়াশি অভিযান
.............................................................................................
রাজধানীতে জাতীয় পরিচয় পত্র তৈরি চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার
.............................................................................................
রাজধানীর গুলশান-১ এর গুলশান শপিং সেন্টারে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে
.............................................................................................
নারায়ণগঞ্জের বিস্ফোরণে ৫০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ চায় নিহতদের পরিবার
.............................................................................................
অবৈধ গ্যাস সংযোগ ও অপরাজনীতির প্রভাবে বড় দূর্ঘটনার শঙ্কা
.............................................................................................
আজ থেকে বাস চলবে আগের ভাড়ায়
.............................................................................................
বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ``আশার`` অফিস থেকে স্বামী-স্ত্রীর লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
ঢাকার ধামরাইয়ে যাত্রীবাহী বাসচাপায় প্রাণ গেল দুই এইচএসসি পরীক্ষার্থীর
.............................................................................................
ঢাকার দুই সিটির প্রায় ৯ শতাংশ মানুষের মধ্যে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত
.............................................................................................
শুধুমাত্র ঢাকা জেলাতেই ৭০ হাজারের বেশি করোনা আক্রান্ত মানুষ
.............................................................................................
ঢাকা দক্ষিণে ৬১১৯ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা
.............................................................................................
করোনায় পপুলার মেডিক্যালের অধ্যক্ষের মৃত্যু
.............................................................................................
ডিএনসিসির যে ২৫৬ স্থানে করা যাবে কোরবানি
.............................................................................................
বিপাকে রাজধানীর বাড়িওয়ালারা
.............................................................................................
রাজধানীর সাহাবউদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা জালিয়াতি
.............................................................................................
বৃষ্টিতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা
.............................................................................................
লকডাউন আরও কঠোর করার আহ্বান তাপসের
.............................................................................................
রাজধানীর যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না রোববার
.............................................................................................
করোনা পরীক্ষায় ওয়ারীর ৫০ শতাংশই পজেটিভ
.............................................................................................
রিজেন্ট হাসপাতালের মালিকসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা
.............................................................................................
মঙ্গলবার ঢাকার যেসব এলাকায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে
.............................................................................................
ভাড়াটিয়া এখন ‘সোনার হরিণ’
.............................................................................................
ঢাকা ছাড়ছে মানুষ
.............................................................................................
লকডাউনে ওয়ারী, স্থাপন করা হবে নমুনা সংগ্রহ বুধ
.............................................................................................
১৩৮ শিক্ষার্থীর সার্টিফিকেট, ল্যাপটপ, ট্রাঙ্ক ডাস্টবিনে
.............................................................................................
ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় কোরবানির পশুর হাট বসবে না: ডিএনসিসি
.............................................................................................
দোকানপাট-শপিংমল খোলার সময়সীমা বাড়লো
.............................................................................................
ডুবন্ত লঞ্চ থেকে ১৩ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার
.............................................................................................
ঢাকা ছাড়ছেন নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্তরা
.............................................................................................
বাংলাদেশ ব্যাংকে আগুন
.............................................................................................
কেরানীগঞ্জের ৭টি ইউপিকে রেডজোন ঘোষণা, সেনা টহল জোরদার
.............................................................................................
আজ মধ্যরাত থেকে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা লকডাউন
.............................................................................................
করোনায় মারা গেলেন বিশিষ্ট মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. মুজিবুর রহমান
.............................................................................................
রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে অগ্নিকাণ্ড
.............................................................................................
সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের পরিচালক করোনায় আক্রান্ত
.............................................................................................
আইসিইউর জন্য হাহাকার, অতঃপর এম্বুলেন্সে মৃত্যু!
.............................................................................................
করোনায় বিআরবি হাসপাতালের বিভাগীয় প্রধানের মৃত্যু
.............................................................................................
আইসিইউ খালি তবু ফেরত যাচ্ছে করোনা রোগী
.............................................................................................
‘রেড জোন’ এলাকায় থাকবে সাধারণ ছুটি
.............................................................................................
ঢাকা মেডিক্যালের করোনা ইউনিটে দুই দিনে আরো ৩৫ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
করোনায় বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসকের মৃত্যু
.............................................................................................
মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনী পূর্ব রাজাবাজারে লগডাউন বাস্তবায়ন
.............................................................................................
ঢাকা মেডিক্যালের করোনা ইউনিটে আরো ১৫ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
করোনায় আরও এক চিকিৎসকের মৃত্যু
.............................................................................................
করোনায় স্কয়ারের চিকিৎসক মির্জা নাজিম উদ্দিনের মৃত্যু
.............................................................................................
পুরান ঢাকায় কেমিক্যাল গোডাউনে আগুন, দগ্ধ ২
.............................................................................................
করোনা ভাইরাসে প্রায় সাড়ে ৭ লাখের বেশি আক্রান্ত ঢাকাতেই
.............................................................................................
বাংলামোটরে বাস চাপায় ২ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত
.............................................................................................
খিলগাঁওয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে আটকে রেখে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণের অভিযোগ
.............................................................................................
ন্যাশনাল ব্যাংকের চুরি যাওয়া ৬০ লাখ টাকা উদ্ধার
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা ডট কম
সম্পাদক মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী
সম্পাদক কর্তৃক ৩৭/২, ফায়েনাজ অ্যাপার্টমেন্ট (১৫ম তলা), কালভার্ট রোড, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত ।
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ মো: হারুনুর রশীদ
ইউরোপ মহাদেশ বিষয়ক সম্পাদক- প্রফেসর জাকি মোস্তফা (টুটুল)
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
যুগ্ম সম্পাদক: জুবায়ের আহমেদ
নির্বাহী সম্পাদক: শরিফুল ইসলাম রানা
বার্তা সম্পাদক : মোঃ আকরাম খাঁন
সহঃ সম্পাদক: হোসাইন আহমদ চৌধুরী
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: ৩৭/২, ফায়েনাজ অ্যাপার্টমেন্ট (১৫ম তলা), কালভার্ট রোড, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।
ফোন : ০২-৯৫৬২৮৯৯ মোবাইল: ০১৬৭০-২৮৯২৮০
ই-মেইল : swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed BY : Dynamic Solution IT   Dynamic Scale BD