| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   রাজনীতি -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ডাকসু ভিপি নুরের ওপর ছাত্রলীগের হামলা

বগুড়ায় ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে ছাত্রলীগের হামলার শিকার হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহসভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর। হামলায় আহত নুরকে অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নিয়ে আসা হচ্ছে।

আজ রোববার বিকেলে বগুড়া শহরের সাতমাথা মোড়ের কাছে উডবার্ন সরকারি গ্রন্থাগার মিলনায়তনে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, কোটা সংস্কার আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের বগুড়া জেলা শাখার ইফতার মাহফিলে যোগ দিতে গিয়েছিলেন ভিপি নুর। এ সময় সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কমিটির বেশ কয়েকজন নেতা তার সঙ্গে ছিলেন। বিকেল পৌনে ৫টার দিকে অনুষ্ঠানস্থলে যাওয়ার পথে সাতমাথা মোড়ের কাছে ছাত্রলীগের ২০ থেকে ২৫ জন নেতাকর্মী তাদের ওপর হামলা চালান।

এ বিষয়ে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খাঁন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘নুর, ফারুক, রাসুল, আদিব আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে নুরের অবস্থা গুরুতর। তাকে ব্যাপক মারধর করা হয়েছে। চিকিৎসার জন্য নুরকে প্রথমে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। তবে ফের হামলার শঙ্কায় অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ঢাকায় আনা হচ্ছে।’

হামলার কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে রাশেদ খাঁন বলেন, ‘ছাত্রলীগের যখন ইচ্ছা হচ্ছে আমাদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। এছাড়া সুনির্দিষ্ট আর তো কারণ দেখি না।’

তবে বগুড়া জেলা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নাইমুর রাজ্জাক তিতাসের দাবি, নুরের ওপর তারা হামলা চালাননি। তবে ধাক্কাধাক্কি হয়েছে।

এর আগে গতকাল শনিবারও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নুরুল হক নুরের ইফতার অনুষ্ঠান পণ্ড করার অভিযোগ উঠেছিল ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে।

ডাকসু ভিপি নুরের ওপর ছাত্রলীগের হামলা
                                  

বগুড়ায় ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে ছাত্রলীগের হামলার শিকার হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহসভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর। হামলায় আহত নুরকে অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নিয়ে আসা হচ্ছে।

আজ রোববার বিকেলে বগুড়া শহরের সাতমাথা মোড়ের কাছে উডবার্ন সরকারি গ্রন্থাগার মিলনায়তনে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, কোটা সংস্কার আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের বগুড়া জেলা শাখার ইফতার মাহফিলে যোগ দিতে গিয়েছিলেন ভিপি নুর। এ সময় সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কমিটির বেশ কয়েকজন নেতা তার সঙ্গে ছিলেন। বিকেল পৌনে ৫টার দিকে অনুষ্ঠানস্থলে যাওয়ার পথে সাতমাথা মোড়ের কাছে ছাত্রলীগের ২০ থেকে ২৫ জন নেতাকর্মী তাদের ওপর হামলা চালান।

এ বিষয়ে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খাঁন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘নুর, ফারুক, রাসুল, আদিব আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে নুরের অবস্থা গুরুতর। তাকে ব্যাপক মারধর করা হয়েছে। চিকিৎসার জন্য নুরকে প্রথমে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। তবে ফের হামলার শঙ্কায় অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ঢাকায় আনা হচ্ছে।’

হামলার কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে রাশেদ খাঁন বলেন, ‘ছাত্রলীগের যখন ইচ্ছা হচ্ছে আমাদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। এছাড়া সুনির্দিষ্ট আর তো কারণ দেখি না।’

তবে বগুড়া জেলা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নাইমুর রাজ্জাক তিতাসের দাবি, নুরের ওপর তারা হামলা চালাননি। তবে ধাক্কাধাক্কি হয়েছে।

এর আগে গতকাল শনিবারও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নুরুল হক নুরের ইফতার অনুষ্ঠান পণ্ড করার অভিযোগ উঠেছিল ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে।

বগুড়া-৬ আসনে বিএনপির প্রার্থী খালেদা জিয়াসহ ৫ জন
                                  

আগামী ২৪ জুন অনুষ্ঠিতব্য বগুড়া-৬ (সদর) আসনের উপ-নির্বাচনে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ ৫ জনকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে প্রাথমিক মনোনয়ন দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

অপর প্রার্থীরা হলেন, বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক সাবেক এমপি জিএম সিরাজ, সাবেক জেলা সভাপতি ও বগুড়া পৌর সভার মেয়র অ্যাডভোকেট একেএম মাহবুবর রহমান, সাবেক সভাপতি রেজাউল করিম বাদশা ও সাবেক সাধারন সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চাঁন ।

তারা ২৩ মের মধ্যে রিটার্নিং কর্মকর্তার নিকট মনোনয়ন পত্র দাখিল করবেন। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সময় যেকোন একজন বাদে অন্যদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করা হবে। মঙ্গলবার জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দের সাথে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের বৈঠক শেষে এমন সিদ্ধান্ত জানানো হয় বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।


বগুড়া জেলা বিএনপির নব গঠিত আহবায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দ মঙ্গলবার শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মাজারে পুস্পমাল্য অর্পন করে তার রুহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ, যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট একেএম সাইফুল ইসলাম ও ফজলুল বারী তালুকদার বেলাল।

আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বগুড়া পৌর সভার মেয়র বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা একেএম মাহবুবর রহমান ও মোঃ হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, মোঃ জয়নাল আবেদীন চাঁন, কাজী রফিকুল ইসলাম, মোঃ মাহবুবুর রহমান হারেজ, আলী আজগর তালুকদার হেনা, রেজাউল করিম বাদশা, একেএম আহসানুল তৈয়ব জাকির, শাহজাদী লায়লা আরজুমান, এম আর ইসলাম স্বাধীন, মোঃ হামিদুল হক চৌধুরী হিরু, মোঃ তৌহিদুল আলম মামুন, মোঃ সহিদ উন নবী সালাম, শেখ তাহা উদ্দিন নাহিন, মোঃ এনামুল কাদের এনাম, মোঃ ওমর ফারুক খান, কেএম খায়রুল বাশার, মোঃ সাইদুজ্জামান শাকিল, মোঃ মনিরুজ্জামান মনির, শামিমা আকতার পলিন, মোঃ মোর্শেদ মিলটন।

এর আগে আ’লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা কমিটির যুগ্ম সম্পাদক টি জামান নিকেতা , জাতীয় পার্টির প্রার্থী জেলা সাধারন সম্পাদক নূরুল ইসলাম ওমর । এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র উত্তোলন করেছেন সাবেক এমপি সাইফুর রহমান রাজ ভান্ডারী, শ্রমিক নেতা সৈয়দ কবির আহমেদ মিঠুসহ ৪ জন।

ঢাবিতে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতদের অবস্থান কর্মসূচি চলছে
                                  

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। আজ সকাল থেকে তারা টিএসসির রাজু ভাষ্কার্যের সামনে অবস্থান নেন। নেতারা বলছেন, পদের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাস না পেলে তারা অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাবেন।

এর আগে গতকাল ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ইস্যুতে বৈঠকে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে পদবঞ্চিতদের ওপর হামলার অভিযোগ উঠে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। শনিবার মধ্যরাতে এ ঘটনা ঘটে। এতে আগের কমিটির উপসম্পাদক শেখ আব্দুল্লাহর কলার বোন ভেঙে গেছে। লাঞ্ছিত হয়েছেন, ছাত্রলীগের রোকেয়া হল সভাপতি লিপি আকতারসহ ৬ জন। তবে ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর দাবি, কথা কাটাকাটি ছাড়া অন্য কোনো ঘটনা ঘটেনি।। 

জাতীয় পার্টি প্রতিষ্ঠার পর থেকে উত্তরবঙ্গবাসীর সুখে দুখে পাশে আছে - জি এম কাদের
                                  

জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেছেন, দল এগিয়ে গেলে উত্তরবঙ্গ এগিয়ে যাবে। এ অঞ্চলের মানুষের সমস্যার সমাধান হবে। আর অবহেলার শিকার হতে হবে না। এজন্য দলের সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে জনগণের প্রত্যাশা পূরণে সজাগ থাকতে হবে। মনে রাখতে হবে মানুষ জাতীয় পার্টির দিকে তাকিয়ে আছে।তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি প্রতিষ্ঠার পর থেকে উত্তরবঙ্গবাসীর সুখে দুখে পাশে আছে। প্রতিষ্ঠার পর ক্ষমতায় থাকার সাড়ে নয় বছরে দেশে অর্থনৈতিক উন্নয়ন, আইনের শাসন ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করেছিল। উত্তরের যত উন্নয়ন হয়েছে তা জাপার প্রতিষ্ঠাতা হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের প্রচেষ্টায় হয়েছে। আগামীতেও জাতীয় পার্টি এগিয়ে গেলে উত্তরের উন্নয়ন হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।জি এম কাদের আরও বলেন, উত্তরবঙ্গের মানুষ আজ বঞ্চিত, অবহেলিত।

প্রভাবশালী কোনো নেতা না থাকায় উত্তরবঙ্গের এইশোচনীয় অবস্থা।তিনি আরও বলেন, উত্তরবঙ্গের মানুষ আজ বঞ্চিত, অবহেলিত। কারণ তাদের রাজনৈতিক মঞ্চ আ শক্তিশালী নয়। প্রভাবশালী কোন নেতা না থাকায় উত্তরবঙ্গের এই শোচনীয় অবস্থা বলে তিনি মন্তব্য করেন।বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ ও রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি বলেন, রংপুরের উন্নয়নে জাতীয় পার্টি সদা প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আপনারা সবাই দোয়া করবেন আমাদের প্রিয় নেতা এরশাদের জন্য। রোগমুক্তির মাধ্যমে তিনি যেন আবার আমাদের মাঝে ফিরে আসতে পারেন।

মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি ও রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমানের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ স¤পাদক এস এম ইয়াছির ও জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ স¤পাদক ফখর উজ জামান জাহাঙ্গীরের সঞ্চালনায় ওজাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য,জেলা যুগ্ন সাধারণ স¤পাদক হাজী আব্দুর রাজ্জাক, সদর উপজেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব মাসুদার রহমান মিলন, মহানগর যুগ্ম সাধারণ স¤পাদক লোকমান হোসেন, রংপুর জাতীয় পার্টির সহ-সভাপতি ও সাবেক ভিপি আলাউদ্দিন মিয়া প্রমূখ।

খালেদা জিয়াকে নিয়ে ‘ডার্টি গেম’ বন্ধ করুন: রিজভী
                                  

 বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সরকার বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা বন্ধ করেনি। তারা তাঁর জামিনে বাধা দিচ্ছে, চিকিৎসায় বাধা দিচ্ছে। সরকারের প্রতি এসব বন্ধের আহ্বান জানান তিনি। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সরকারের প্রতি এ আহ্বান জানান বিএনপির এই নেতা। রুহুল কবির রিজভী বলেন, খালেদা জিয়াকে ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডের পরিত্যক্ত কারাগার থেকে কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তরের প্রজ্ঞাপন জারি করেছে আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয়। এসব করে সরকার তাঁর প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে চাচ্ছে। আমরা সরকারকে হুঁশিয়ার করে বলতে চাই, আগুন নিয়ে আর খেলবেন না।

এই হিংসার আগুনে একদিন হয়তো আপনাদের নিজেদেরই সর্বনাশ হবে। বাংলাদেশের মানুষের প্রিয় নেত্রী, ‘গণতন্ত্রের মা’ খালেদা জিয়ার জীবন নিয়ে যে ছিনিমিনি খেলছেন, এবার সেই ‘ডার্টি গেম’ বন্ধ করুন। জামিনে হস্তক্ষেপ বন্ধ করুন। আদালতের ওপর প্রভাব বিস্তার বন্ধ করুন, বলেন বিএনপি নেতা। রিজভী বলেন, গণতন্ত্রের জন্য অকুতোভয় আপসহীন, সংগ্রামী, বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী, খালেদা জিয়ার জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা বন্ধ করেনি বর্তমান জনধিক্কৃত মধ্যরাতের সরকার। তাঁর সুচিকিৎসা ও জামিনে বাধা প্রদানের পেছনে গভীর ভয়ংকর নীলনকশা এখন দিনের আলোর মতো স্পষ্ট। পুরো আইনি প্রক্রিয়া প্রতিহিংসাপরায়ণতা আর জিঘাংসায় ভরপুর। দেশনেত্রীর জীবনকে হুমকির মুখে ফেলে রেখে প্রতিহিংসা চরিতার্থ করা হচ্ছে। আদালতকে কুক্ষিগত করে রেখে খালেদা জিয়ার জামিনে পদে পদে বাধা দেওয়া হচ্ছে অভিযোগ তুলে রিজভী সরকারের উদ্দেশে আরো বলেন, খালেদা জিয়ার জামিনে হস্তক্ষেপ বন্ধ করুন। আদালতের ওপর প্রভাব বিস্তার বন্ধ করুন।

রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বীদের মতপ্রকাশের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করবেন না। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে নিশ্চিহ্ন করার জন্য আদালতের স্বাধীনতাকে কারাগারে বন্দি করবেন না। অবিলম্বে দেশনেত্রীকে মুক্তি দিতে হবে। আপনাদের বর্বর মতলব জনগণের কাছে ফাঁস হয়ে গেছে। জনগণ আর আপনাদের রেহাই দেবেন না। বিএনপির মুখপাত্র বলেন, সরকার যদি বারবার দেশনেত্রীর জামিনে বাধা দেয়, তবে রাজপথেই হবে ফয়সালা। অন্যায়কারী-জুলুমবাজরা কখনো বিজয়ী হতে পারে নাই। এই মধ্যরাতের সরকারও পারবে না। এখন বাংলাদেশের জনগণ একদিকে আর বর্তমান শাসকগোষ্ঠী আরেকদিকে। দিনের শেষে জনগণের বিজয় অবশ্যম্ভাবী। এ ছাড়া সংবাদ সম্মেলনে দেশের বর্তমান কৃষি ব্যবস্থার প্রসঙ্গে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব আরো বলেন, দেশের কৃষকরা ফসলের ন্যায্যমূল্য পাচ্ছেন না। এ দেশের প্রাণ কৃষকদের এখন নাভিশ্বাস উঠছে। ধান চাষ করে লোকসান দিয়ে তাদের পথে বসার অবস্থা হয়েছে। কৃষকের ঘরে ঘরে এখন হাহাকার। এই মিডনাইট ইলেকশনের সরকারের হঠকারী সিদ্ধান্ত, বিদ্যুৎ-জ¦ালানি ও সারের মূল্যবৃদ্ধিসহ কৃষকদের প্রতি উদাসীনতার কারণে উৎপাদন খরচ উঠছে না কৃষকের। কৃষকরা প্রতি মণ ইরি-বোরো ধানে ২০০ টাকা করে লোকসান দিচ্ছে।

বর্গাচাষিরা সর্বস্বান্ত হয়ে যাচ্ছে। তারা বিঘাপ্রতি জমিতে লোকসান দিচ্ছে পাঁচ হাজার করে টাকা। লোকসানের পর ব্যাংক ঋণ, এনজিওর কিস্তি, মহাজন ও সার-কীটনাশক সব মিলিয়ে ব্যবসায়ীদের দেনা শোধ করা দায় হয়ে পড়েছে। নানা ঋণে জর্জরিত কৃষক ক্ষোভে, দুঃখে, কষ্টে ধানের দাম না পেয়ে পাকা ধানক্ষেতে আগুন দিচ্ছে, বিক্ষোভ করছে। সড়কে ধান ছিটিয়ে প্রতিবাদ করছে। বাংলাদেশের ইতিহাসে ধানক্ষেতে আগুন দেওয়ার ঘটনা নজিরবিহীন। এই ভোটারহীন ভুয়া সরকারের বিরুদ্ধে কৃষকদের এমন অভিনব প্রতিবাদ দেখে দেশের মানুষ আজ বেদনাহত, বলেন রুহুল কবির রিজভী। বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভূঁইয়া, যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, সহদপ্তর সম্পাদক মো. মুনির হোসেন প্রমুখ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

 

কমিটি পুনর্গঠন চেয়ে ৪৮ ঘন্টার সময় বেঁধে দিলেন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা
                                  

 ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি পুনর্গঠনের দাবিতে ৪৮ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়েছেন পদবঞ্চিতরা। তা না করা হলে একযোগে পদত্যাগের হুমকি দিয়েছেন তারা। মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলন করে এই হুমকি দেওয়া হয়। সেখানে ছাত্রলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের প্রায় দুই শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বিগত কমিটির প্রচার সম্পাদক সাইফ উদ্দিন বাবু বলেন, বিগত দিনগুলোতে যারা সক্রিয়ভাবে ছাত্রলীগের সঙ্গে জড়িত ছিল তাদের একটি বৃহৎ অংশকে বাদ কিংবা সঠিক মূল্যায়ন না করে ছাত্রলীগে নিস্ক্রিয়, সাবেক চাকরিজীবী, বিবাহিত, অছাত্র, গঠনতন্ত্রের অধিক বয়স্ক, বিভিন্ন মামলার আসামি, মাদকসেবী, মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন অপকর্মের দায়ে আজীবন বহিষ্কৃতসহ নানা অভিযোগে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের পদায়ন করা হয়েছে।

এমন ব্যক্তিদের পদায়ন ছাত্রলীগের একজন নিবেদিত প্রাণকর্মী হিসেবে আমাদের ব্যথিত করেছে। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে এই কমিটি ভেঙে দিয়ে আরও খোঁজ-খবর নিয়ে নতুন কমিটি গঠনের দাবি জানান তিনি। দাবি মানা না হলে অনশন, বিক্ষোভ ও একযোগে পদত্যাগ করা হবে বলে হুমকি দেন নবগঠিত কমিটির উপ সাংস্কৃতিক সম্পাদক নিপু ইসলাম তন্বী। ছাত্রলীগের শামসুন্নাহার হল শাখার সভাপতি তন্বী ডাকসুরও সদস্য। সম্মেলনের এক বছর পর গত সোমবার ছাত্রলীগের ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়। এর কয়েক ঘণ্টা পর সন্ধ্যায় মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলনে আসেন অর্ধশত নেতাকর্মী; যাদের কেউ পদ পাননি, কেউবা কাক্সিক্ষত পদ না পেয়ে ক্ষুব্ধ। সংবাদ সম্মেলন শুরুর পরপরই সেখানে হামলা চালিয়ে তা প- করে দেয় আগে থেকেই সেখানে অবস্থান নেওয়া পদ পাওয়া শতাধিক নেতা। এই ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ছাত্রলীগ। তদন্ত কমিটির সদস্যরা হলেন- গত সোমবার ঘোষিত পূর্ণাঙ্গ কমিটির সহ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়, আইন বিষয়ক সম্পাদক ফুয়াদ হোসেন সাহাদাত এবং তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক পল্লব কুমার বর্মন। তাদেরকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। এই তদন্ত কমিটি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রোকেয়া হল ছাত্রলীগের সভাপতি ও নবগঠিত কমিটির উপ সাংস্কৃতিক সম্পাদক বিএম লিপি আক্তার। তিনি সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সোমবার সংবাদ সম্মেলনের সময় যারা হামলা করেছে তাদেরকে দিয়েই তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। আমরা এই কমিটি মানি না। ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এবং সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর নিদের্শেই এই হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ করেন তিনি। নতুন কমিটি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে ফেইসবুক পোস্টে ছাত্রলীগ সভাপতি কঠোর সমালোচনা করেছেন সংগঠনটির নেত্রী জেরিন দিয়া।

ছাত্রলীগের বিগত কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জেরিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত গণিত বিভাগ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। কমিটি নিয়ে সমস্যার সমাধানে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ চেয়েছেন তিনি। জেরিন বলেন, আমরা এই কমিটি চাই না। আমরা আপার (প্রধানমন্ত্রী) সঙ্গে দেখা করতে চাই। ওনারা যেভাবে বলতেছে এই কমিটি আপা দিয়েছেন, আসলেই আপা কতটা জানেন সে বিষয়ে জানতে চাই। কাউকে হেয় বা ডুবানো আমাদের উদ্দেশ্য না। সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে নবগঠিত কমিটির উপগ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক ফরিদা পারভিন, উপ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক তিলোত্তমা শিকদার, উপ-পাঠাগার সম্পাদক জিয়াসমিন শান্তা, উপ-ছাত্রবৃত্তি সম্পাদক শ্রাবনী শায়লা, উপ-আপ্যায়ন সম্পাদক খাজা খয়ের সুজন, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য তানভীর সৈকত, আইন অনুষদ ছাত্রলীগের সভাপতি শরিফুল শুভ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সহজ কাজ না হলেও আমাদেরকে পথ বের করতে হবে: ফখরুল
                                  

ভবিষ্যতে দলের নেতৃত্ব নেওয়ার জন্য খালেদা জিয়ার জীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে বিএনপির তরুণ-যুবাদের কঠোর সংগ্রামের প্রস্তুতি নিতে বলেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শুক্রবার ঢাকায় এক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধনে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমাদের লড়াই করতে হবে, সংগ্রাম করতে হবে। হতাশ হলে চলবে না। আমাদেরকে প্রতিটি সুযোগ নিতে হবে, আমাদেরকে পথ বের করতে হবে। মনে রাখতে হবে- এটা সহজ কাজ নয়। বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে বিভিন্নভাবে ‘বিভ্রান্তি সৃষ্টি’ করা হচ্ছে অভিযোগ করে ফখরুল বলেন, আমি বলতে চাই, আপনারা বিভ্রান্ত হবেন না।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডন থেকে দল পরিচালনা করছেন। আর তার নির্দেশে আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে সঠিক রাজনীতির দিকে যাব। তরুণদের প্রস্তুত হওয়ার আহ্বান জানান বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমি সুস্থ নই। আমার মাঝে মাঝে মনে হয়, আমাদের সময় তো শেষ হয়ে আসছে। এখন যারা সামনে আসবেন, তাদের শুধু রাজনীতি নয়, এই বাংলাদেশকে বাঁচাতে কাজ করতে হবে। এখানে যারা আছি, আমরা দীর্ঘকাল ধরে কাজ করছি। তাই আমাদের বয়স হয়েছে এবং আমরা বৃদ্ধ হয়েছি। আর এখন আপনাদের সময়। আপনারা এগুলো সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন। বাংলাদেশকে পরিকল্পিতভাবে একটি ‘অকার্যকর রাষ্ট্রে’ পরিণত করার চেষ্টা চলছে অভিযোগ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, বাংলাদেশের অস্তিত্ব আজ বিপন্ন হয়ে পড়েছে।

বাংলাদেশে স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব থাকবে কি থাকবে না, বাংলাদেশ নিজস্ব মর্যাদায় দাঁড়িয়ে থাকতে পারবে কি পারবে না এবং বাংলাদেশ নিজের পায়ের ওপরে দাঁড়িয়ে থাকতে পারবে কি পারবে না- আজকে সেই প্রশ্ন এসে দাঁড়িয়েছে। নবীন কর্মীদের দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জীবন থেকে শিক্ষা নেওয়ার পরামর্শ দেন ফখরুল। বেগম জিয়া যখন রাজনীতিতে আসেন, তখন বাংলাদেশ একটা স্বৈরাচার শাসকের কবলে পড়েছিল। শুধু স্বৈরাচার শাসনই ছিল না, অত্যন্ত সুচারুভাবে বাংলাদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বএবং দেশের গণতন্ত্র ধ্বংস করবার নতুন একটা প্রক্রিয়া ও প্রচেষ্টা ছিল। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানকে হত্যার পরে স্বৈরাচার এরশাদের রাজনীতিতে আগমন, এটা একই সূত্রে গাঁথা ছিল। সুতরাং এটাকে বিচ্ছিন্নভাবে দেখার উপায় নেই। তখনও বিএনপিকে ধ্বংস করার জন্য ‘জাতীয় ও আন্তর্জাতিক চক্রান্ত’ ছিল মন্তব্য করে ফখরুল বলেন, সেই চক্রান্ত ব্যর্থ করে দিয়ে সেই দলটিকে বেগম খালেদা জিয়া রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্বে নিয়ে এসেছিলেন। এটা তার জীবনে ও বাংলাদেশের ইতিহাসে একটা বড় অধ্যায়।

এদেশে বেগম জিয়াকে বিভিন্নভাবে দেখানোর চেষ্টা করা হয়। তবে আমরা মতে, এশিয়ায় তার মত গণতন্ত্রকামী ত্যাগী নেত্রী খুব কম খুঁজে পাওয়া যাবে। ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের জন্য যে ত্যাগ স্বীকার করেছেন, তা আর কোনো রাজনীতিবিদ করেননি। তিনি সত্যিকারার্থে বাংলাদেশকে একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চান। সংসদীয় গণতন্ত্র চালু করার মাধ্যমে খালেদা জিয়া সেই কাজ শুরু করেছিলেন। দেশের বিচার ব্যবস্থা ধ্বংস হয়ে গেছে উল্লেখ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, দেশের নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করা হয়েছে। বর্তমান সরকার দেশকে একটি অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করেছে। এ সময় বিএনপির মহাসচিব আরো বলেন, দেশনেত্রী খালেদা জিয়া সাবেক সেনাপ্রধান ও রাষ্ট্রপতির স্ত্রী। তিনি রাজনীতি করে জেল খেটে এত কষ্ট না করে সারা জীবন আরাম-আয়েশের জীবনযাপন করতে পারতেন।

কিন্তু তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষা করতে রাজনীতিতে এসেছেন। খালেদা জিয়া দেশকে সমৃদ্ধ করার লক্ষ্যে নারীশিক্ষাসহ প্রতিটি সেক্টরে কাজ করেছেন। দলীয় প্রধান হিসেবে খালেদা জিয়ার তিন যুগপূর্তি উপলক্ষে ন্যাশনালিস্ট রিসার্চ সেন্টারের উদ্যোগে জাতীয় প্রেস ক্লাবের আবদুস সালাম হলে এই আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন হয়। খালেদা জিয়ার বিভিন্ন সময়ের শতাধিক আলোকচিত্র সেখানে স্থান পায়। অনুষ্ঠানে ‘ত্যাগ’ নামে একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন অধ্যাপক এমাজউদ্দিন আহমদ। সংগঠনের পরিচালক বাবুল তালুকদারের সভাপতিত্বে ও ছাত্র দলের আবদুস সাত্তার পাটোয়ারির পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এমাজউদ্দিন আহমেদ, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন।

বিএনপি’র একটি নারী আসনের জন্য তফসিল ঘোষণা
                                  


 শেষ মুহূর্তে বিএনপির নির্বাচিত পাঁচজন সংসদে যোগ দেওয়ায় তাদের ভাগের একটি নারী আসনের জন্য তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। তফসিল অনুযায়ী ২০ মের মধ্যে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিতে হবে। গতকাল বুধবার নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এ তফসিল ঘোষণা করেন। একাদশ সংসদ নির্বাচনের ৫০টি সংরক্ষিত নারী আসনের মধ্যে ৪৯টি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছে।

এরমধ্যে আওয়ামী লীগের ৪৩ জন, জাতীয় পার্টির চারজন, ওয়ার্কার্স পার্টির একজন এবং স্বতন্ত্র একজন রয়েছেন। এতদিন নির্বাচিতরা শপথ না নেওয়ায় বিএনপির জন্য নির্ধারিত একটি নারী আসন স্থগিত ছিল। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা ২০ মে, বাছাই ২১ মে, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৮ মে ও ভোট ১৬ জুন। সাধারণত দলগুলো একক প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ায় প্রার্থিতা প্রত্যাহারের দিনই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয় নারী প্রার্থীদের। ইসি সচিব জানিয়েছেন, বিএনপি পাঁচটি আসনের জন্য জাতীয় সংসদে একটি সংরক্ষিত মহিলা আসন পাবে। এজন্য আগামি সাত দিনের মধ্যে দলটিকে নাম জানাতে হবে।

প্রার্থীর নাম রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে জমা দিতে হবে। রিটার্নিং কর্মকর্তা যদি দেখেন, সব কাগজ ঠিক আছে, তবে গেজেট প্রকাশ করা হবে। একাদশ সংসদ নির্বাচনে বিএনপি ছয়টি আসন পেলেও নির্বাচিতদের মধ্যে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শপথ নেননি। তার আসন শূন্য ঘোষণা করে ভোটের তফসিল দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

এক ব্যক্তির শাসন থেকে জাতিকে মুক্ত করতে হবে: ড. কামাল
                                  

জাতিকে এক ব্যক্তির শাসন থেকে মুক্ত করতে হবে জানিয়ে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, স্বৈরতান্ত্রিক ব্যবস্থায় বাক-ব্যক্তি স্বাধনীনতা ও আইনের শাসন থাকে না। দুর্নীতি-দলীয়করণ-লুটপাট অগ্রগতিকে বাধাগ্রস্ত করে, অর্থনীতিসহ সকল রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানকে গ্রাস করে, সমাজ-সভ্যতাকে ধ্বংস করে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে গণফোরামের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের পুনর্গঠিত স্থায়ী পরিষদের সভায় এসব কথা বলেন তিনি। ড. কামাল বলেন, সুস্থ রাজনীতি বাদ দিয়ে দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা অসম্ভব। জনগণই দেশের মালিক, তাই জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করেই সুস্থ রাজনীতি প্রতিষ্ঠা করতে হবে।


তিনি বলেন, গণফোরাম নেতা-কর্মীদের জনগণের সমস্যাসহ নানাবিধ সমস্যা চিহ্নিত করে তৃণমূল সংগঠন গড়ে তুলে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে স্বৈরতন্ত্রবিরোধী জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলতে হবে। সভায় আরো বক্তব্য রাখেন দলের নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া, নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ, অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, সভাপতি পরিষদের সদস্য মোকাব্বির খান এমপি, শফিক উল্লাহ, আবদুল বাতেন খান, অ্যাডভোকেট হিরণ কুমার দাস মিঠু, সাংগঠনিক সম্পাদক লতিফুল বারী হামিম, দলীয় নেতা অ্যাডভোকেট আনসার খান, খান সিদ্দিকুর রহমান, আবদুর রহমান জাহাঙ্গীর, রবিউল ইসলাম তরফদার রবিন, হারুনুর রশীদ তালুকদার প্রমুখ।

 

গণতন্ত্রের বিজয় ও খালেদা জিয়ার মুক্তি সমার্থক: মান্না
                                  

 সরকারের সঙ্গে সমঝোতা করে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা যাবে না বলে বিএনপি নেতাদের বলেছেন মাহমুদুর রহমান মান্না। গতকাল রোববার এক মানববন্ধনে বিএনপি নেত্রীকে মুক্ত করার জন্য আন্দোলনে নামতে দলটির নেতাদের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক দল নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মান্না বলেন, এদেশে গণতন্ত্রের বিজয় ও বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির মানে একই, সমার্থক। বেগম জিয়া মুক্তি পেলে গণতন্ত্র মুক্ত পাবে, গণতন্ত্র মুক্তি পেলে বেগম জিয়া মুক্তি পাবে। তাই লড়াই একই।

এই লড়াই ছাড়া কেউ যদি মনে করেন- কোনো রকম বুদ্ধি করে, কোনো রকম কৌশল করে, কোনো সরকারকে একটু আলাপাতা-লালা পাতা দিয়ে বুঝিয়ে শুনিয়ে তারপরে আমাদের দাবি আদায় করব-এটা হবে না। বিএনপির সাম্প্রতিক কর্মকা-ে এরইমধ্যে একটা ‘বড় বিতর্ক’ উঠেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, যখন চারজন সংসদ সদস্য শপথ নিলেন তখন অনেকের মনে হয়েছে, নিশ্চয়ই এবার বেগম জিয়া মুক্তি পাবেন। অথচ শপথ নেওয়ার পরদিন আপনারা দেখেছেন মামলা আদালতে উঠেছে, সেই মামলা দুই মাস পিছিয়ে গেছে। আমি বলতে চাই, এসব করে কোনোভাবেই মুক্তির পথ খুলবে না, এসব করে আপসের পথ খুঁজলে যদি মনে করেন কোনো রকম সমঝোতা করা যাবে, সেই পথে বেগম জিয়ার মুক্তি হবে না, গণতন্ত্রের বিজয় হবে না, নতুন করে নির্বাচন আদায় করতে পারবেন না। খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে কর্মসূচি দিতে বিএনপি নেতাদের প্রতি আহ্বান রেখে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, আজকের এই সমাবেশ থেকে আমি দাবি করব, এদেশে যারা গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করতে চান তাদের সবার কাছে আর বিশেষ করে বৃহত্তম দল হিসেবে বিএনপির কাছে তার সহযোগী দলের কাছে আবেদন করছি, বেগম জিয়ার মুক্তির দাবিতে আপনারা (বিএনপি) রাজপথে নামেন, কেউ বিপক্ষে যাবে না।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে কী কর্মসূচি দেব সেটা তো খেয়াল করবেন, বিএনপি থেকে কী কর্মসূচি দেবে সেটা তো খেয়াল করুন। কোনো ভুল বোঝার অবকাশ নেই। ঐক্যেজোটের পক্ষে, বিএনপির পক্ষে সবাই বেগম জিয়ার মুক্তি চান। বেগম জিয়ার মুক্তির স্বপক্ষে ও নতুন করে নির্বাচনের দাবিতে যে কর্মসূচি দেবেন সেই কর্মসূচি পালনের জন্য আপনারা কী রাস্তায় নামবেন? আমি ব্যক্তিগতভাবে বলি, রাস্তায় আপনাদের সঙ্গে থাকব। আামি বিশ্বাস করি, ঐক্যফ্রন্টের সবাই আপনাদের সঙ্গে থাকবে যদি সেটা আন্দোলনের কর্মসূচি হয়। লোক দেখানো কর্মসূচিতে চলবে না। জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে দুপুরে ‘চেতনা বাংলাদেশ’ নামের একটি সংগঠনের উদ্যোগে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এই মানববন্ধন হয়। সংগঠনের সভাপতি শামীমা রহিমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন সিরাজীর পরিচালনায় মানববন্ধনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য অধ্যাপক সুকোমল বড়ুয়া, মহিলা দলের সভানেত্রী আফরোজা আব্বাস, মুক্তিযোদ্ধা দলের উপদেষ্টা ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল, কেন্দ্রীয় নেতা ফরিদ উদ্দিন, জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

 

খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য রাজপথের আন্দোলনই একমাত্র পথ: খন্দকার মাহবুব
                                  

 খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য রাজপথের আন্দোলনই একমাত্র পথ উল্লেখ করে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছেন, রাজপথে নামতে পারলে সরকারের পায়ের নিচ থেকে মাটি সরে যাবে। তারা খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে বাধ্য হবে। বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দিয়ে রাজপথে নামার ঘোষণা দেওয়া হলে জনগণই রাজপথ উত্তপ্ত করে তুলবে। সম্প্রতি লন্ডনে খালেদা জিয়ার মুক্তি প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এক বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে জিয়া আদর্শ একাডেমি আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় তিনি এসব মন্তব্য করেন।

গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও নিঃশর্ত মুক্তি দাবি এবং যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেলসহ সব রাজবন্দির মুক্তির দাবি’ শীর্ষক এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শপথ ভঙ্গ করেছেন। সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া একটি ফোনালাপের উদ্ধৃতি দিয়ে খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রীকে বৈধ বা অবৈধ যাই বলি না কেন, সংবিধান অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রীকে শপথ নেওয়ার সময় বলতে হয়, আমি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অনুরাগ-বিরাগের ঊর্ধ্বে থাকিব। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী লন্ডনে যে বেফাঁস কথা বললেন, তাকে যদি অপমানজনকভাবে ব্যবহার করা হয়, তাহলে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা যাবে না। এখানে তিনি শপথ ভঙ্গ করেছেন বলে আমি মনে করি।

খালেদা জিয়ার মুক্তি প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, লন্ডনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী ক্ষুব্ধ হয়েছেন। কারণ, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান নাকি তার লন্ডন সফরে বাধা সৃষ্টি করেছেন। তাই তিনি হোটেল পাচ্ছেন না। এজন্য প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তারেক রহমান যদি বেশি বাড়াবাড়ি করে তাহলে তার মা খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা যাবে না। এতে আমরা দেখতে পেলাম, আগেও আমরা যা বলেছি, খালেদা জিয়াকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় আটক করে রাখা হয়েছে। নেতাকর্মীদের উদ্দেশ করে খন্দকার মাহবুব বলেন, খালেদা জিয়াকে জেল থেকে বের করতে হলে, তারেক রহমানকে মিথ্যা মামলা থেকে বাঁচাতে হলে এবং নেতাকর্মীদেরকে জেল থেকে বের করতে হলে রাজপথ উত্তপ্ত করতে হবে। আমাদের নেতাকর্মীরা যদি একবার রাজপথে নামে তাহলে লাখ লাখ জনতা রাজপথে নামবে। তাই দিন ও তারিখ ঠিক না করে একবার রাজপথে নামুন।

হাজার হাজার নেতাকর্মীর মুক্তির দাবিতে সমাবেশ করুন। দেখবেন, এই সরকারের পায়ের নিচের মাটি থাকবে না। খন্দকার মাহবুব বলেন, খালেদা জিয়া আপসহীন নেত্রী। তিনি যদি অন্যায়ের সঙ্গে আপোশ করতেন তাহলে শুধু জেল থেকে মুক্তিই পেতেন না, অনেক আগে তিনি দেশের প্রধানমন্ত্রীও হতে পারতেন। জিয়া আদর্শ একাডেমির সভাপতি আজম খানের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপির সহ-তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক কাদের গনি চৌধুরী, স্বেচ্ছাসেবক দল ঢাকা মহানগরীর সভাপতি আবদুর রহমান বাবুল, মৎস্যজীবী দলের সদস্য আবদুর রহীম, কৃষক দল নেতা শাহজাহান স¤্রাট, ছাত্রদল নেতা মামুন হোসেন ভূইয়া প্রমুখ।

ইভিএমে ময়মনসিংহ সিটিতে আজ ভোট
                                  

আজ রবিবার ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনসহ দেশের চারটি উপজেলা পরিষদ ও একটি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) নির্বাচন। এর মধ্যে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনে এটিই প্রথম নির্বাচন। এ নির্বাচনে ১২৭টি কেন্দ্রে ৮৩০ কক্ষের সব কয়টিতে বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশনে ভোটার শনাক্তের ব্যবস্থাসহ ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন বা ইভিএমে ভোটগ্রহণ হবে। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ইকরামুল হক টিপু মেয়র পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার ভোটগ্রহণ হবে ৩৩টি সাধারণ ওয়ার্ড ও নারীদের জন্য সংরক্ষিত ১১টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সংখ্যা সাধারণ ওয়ার্ডগুলোতে ২৪২ জন এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ডগুলোতে ৭০ জন। এ নির্বাচনে মোট দুই হাজার ২৬টি ইভিএম ব্যবহার করা হচ্ছে। এর আগে ২০১২ সালের ৫ জানুয়ারি কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সব কেন্দ্রেই ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হয়। তবে ওই সময় ইভিএমে ভোটার শনাক্তের ব্যবস্থা ছিল না।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয় জানায়, এ নির্বাচনে পর্যাপ্তসংখ্যক পুলিশ, এপিবিএন, আনসার ও বিজিবির সদস্যসহ ভোটগ্রহণে কারিগরি সহায়তার জন্য সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য মোতায়েন থাকছেন।ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মোট ভোটার দুই লাখ ৯৬ হাজার ৯৩৪ জন। এর মধ্যে নারী এক লাখ ৫০ হাজার ৪৭৯ এবং পুরুষ এক লাখ ৪৬ হাজার ৪৫৫। মোট দুই হাজার ৬১৭ জন ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা এ নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করছেন।

ময়মনসিংহ থেকে আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক জানান, এ নির্বাচনে সন্তোষজনক হারে ভোটার উপস্থিতির বিষয়টিই হচ্ছে প্রধান চ্যালেঞ্জ। বিএনপি এ নির্বাচন বর্জন করেছে। এ ছাড়া মেয়র পদেও ভোট হচ্ছে না। তা ছাড়া ঘূর্ণিঝড় ফেণীর কারণে আবহাওয়া দুর্যোগপূর্ণ।

নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদও গতকাল শনিবার বলেছেন, মেয়র পদে নির্বাচন না হওয়ায় ভোটারদের উৎসাহ কম থাকতে পারে। তবে ইভিএম ব্যবহারের জন্য শান্তিপূর্ণ ভোট হবে।

রিটার্নিং অফিসার মো. আলীমুজ্জামান গতকাল বিকেলে বলেন, ‘এখন বৃষ্টি কমে গেছে। আশা করছি রবিবার আবহাওয়া নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না।’

প্রসঙ্গত, ময়মনসিংহ সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী ছাড়াও স্বতন্ত্র হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন শহীদুল ইসলাম স্বপন মণ্ডল, আবু মো. মূসা সরকার ও ডা. বিশ্বজিৎ ভাদুড়ী। বাছাইয়ে স্বতন্ত্র তিন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়। মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষের দিন সরে দাঁড়ান জাতীয় পার্টির প্রার্থী। এ কারণে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইকরামুল হক টিটু বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

এ সিটি নির্বাচন ছাড়াও আজ ময়মনসিংহের ত্রিশাল, নীলফামারীর জলঢাকা (শুধু চেয়ারম্যান পদে), কুমিল্লার বরুড়া, লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলা পরিষদের নির্বাচন হতে যাচ্ছে। আজ কক্সবাজারের কুতুবদিয়া ও সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার নির্বাচনও হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ঘূর্ণিঝড় ফণীর কারণে কুতুবদিয়া ও আদালতের স্থগিতাদেশের কারণে উল্লাপাড়া উপজেলার নির্বাচন হচ্ছে না। এ ছাড়া সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার সিংচাপইর ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন হচ্ছে আজ। নির্বাচনী এলাকাগুলোতে আজ সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

কালের কণ্ঠ’র স্থানীয় প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্য অনুসারে লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে তিন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হচ্ছেন রফিকুল আলম (আ. লীগ), ফারুক ইমরুল কায়েস (আ. লীগ বিদ্রোহী) ও নিগার সুলতানা (জাপা)। এ ছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান ও সংরক্ষিত আসনের নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ছয়জন করে প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। গত ১০ মার্চ এ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সে সময় অনিয়মের অভিযোগে নির্বাচন স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন।

নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলায় নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদের গত ১০ মার্চের স্থগিত হওয়া নির্বাচনটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ পদে দুজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। একজন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনছার আলী মিন্টু (নৌকা প্রতীক) এবং অন্যজন স্বতন্ত্র প্রার্থী কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য সাবেক জলঢাকা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহেদ বাহাদুর (চিংড়ি মাছ প্রতীক)। গত মার্চে রিটার্নিং অফিসার আব্দুল ওয়াহেদ বাহাদুরের মনোনয়নপত্র অবৈধ ঘোষণা করেন। এ নিয়ে আইনি লড়াইয়ের কারণে ওই নির্বাচন স্থগিত করা হয়।

মির্জা ফখরুলের বগুড়া-৬ শূন্য ঘোষণা
                                  

একাদশ সংসদের একটি আসন শূণ্য ঘোষণা করেছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। জাতীয় সংসদের আসন ৪১, বগুড়া-৬ আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। ওই আসনের একাদশ সংসদে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ধানের শীষে প্রার্থী হিসেবে বিজয় লাভ করেন।

স্পিকার বলেন, সংবিধানের ৭৬ অনুচ্ছেদের (১) (ক) বিধি অনুযায়ী সংসদের প্রথম বৈঠকের তারিখ থেকে ৯০ দিনের মধ্যে সংবিধানের তৃতীয় তফসিলে নির্ধারিত বিধান অনুযায়ী কোন সদস্য শপথ গ্রহণ করতে অসমর্থ হন, বিধায় তার আসনটি শূন্য হয়।

স্পিকার বলেন, উল্লেখ্য নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শপথ গ্রহণে অসমর্থ হওয়ায় সংসদের কার্যপ্রণালী বিধির ১৭৮ (৩) বিধি অনুযায়ী শূন্য হওয়া সম্পর্কে সংসদকে অবহিত করার বিধান রয়েছে। এ অবস্থায় শপথ গ্রহণে অসমর্থ হওয়ায় নির্বাচনী এলাকা ৪১, বগুড়া-৬ থেকে নির্বাচিত সদস্য মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিষয়টি জাতীয় সংসদের কার্যপ্রণালী বিধির ১৭৮ (৩) উপবিধি অনুযায়ী এই সংসদে অবহিত করা হলো।

এখন নির্বাচন কমিশন পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।

বহিষ্কৃত জামায়াত নেতা মঞ্জুর নেতৃত্বে নতুন রাজনৈতিক প্লাটফর্ম
                                  

জামায়াতের বহিষ্কৃত নেতা ও ছাত্রশিবিরের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মজিবুর রহমান মঞ্জুর নেতৃত্বে নতুন একটি রাজনৈতিক প্লাটফর্মের যাত্রা শুরু করেছে। আজ শনিবার রাজধানীর একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে ‘জন আকাঙ্খার বাংলাদেশ’ নামে এই প্লাটফর্মের ঘোষণা দেয়া হয়।

মজিবুর রহমান মঞ্জু বলেন, নতুন রাজনৈতিক দল কোনো ধর্ম বা নির্দিষ্ট আদর্শ ভিত্তিক রাজনৈতিক দল হবে না। বরং এটা হবে জনগণের আশা আকাঙ্খা পূরণে নতুন একটি প্লাটফর্ম। দলের আদর্শ ও বিস্তারিত কর্মসূচি পরে ঘোষণা করা হবে বলেও উল্লেখ করেন সাবেক এই জামায়াত নেতা। তবে আপাতত নিজেই এই প্লাটফর্মের সমন্বয়ের দায়িত্বে রয়েছেন বলেও জানান মজিবুর রহমান মঞ্জু।

যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালে জামায়াত নেতাদের আইনজীবী হিসেবে দায়িত্ব পালন করা অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলামসহ বেশ কয়েকজন জামায়াতপন্থি পেশাজীবী সংবাদ সম্মেলনের মূল মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।

মূলমঞ্চে না থাকলেও রাষ্ট্রবিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. দিলারা চৌধুরীসহ বেশ কয়েকজন বিশিষ্ট নাগরিক উপস্থিত থেকে তাদের বক্তব্য শুনেন।

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আইনজীবীদের অনশন শুরু
                                  

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন কারাবন্দী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে রাজধানীর নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে প্রতীকী অনশন শুরু করেছেন বিএনপি সমর্থক আইনজীবীরা।

গণতন্ত্র ও খালেদা জিয়ার মুক্তি আইনজীবী আন্দোলনের ব্যানারে আজ বেলা পৌনে ১১টা থেকে শুরু হয়ে ১২টা পর্যন্ত ঘণ্টা ব্যাপী এ প্রতীকী অনশন কর্মসূচি চলবে।

এতে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি প্রবীণ আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, সাবেক সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন আহমদ, অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার, সংগঠনটির মহাসচিব এ বি এম রফিকুল হক তালুকদার রাজা, সুপ্রিম কোর্ট শাখার মহাসচিব আইয়ুব আলী আশ্রফী, যুগ্ম-মহাসচিব আনিছুর রহমান খান, মাহবুবুর রহমান দুলালসহ শতাধিক আইনজীবী অংশ নিয়েছেন।

বিএনপিকে বাটি চালান দিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী
                                  

ভুল রাজনীতির কারণে কিছুদিনের মধ্যে বিএনপিকে বাটি চালান দিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। গতকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে অনুষ্ঠিত একটি আলোচনাসভায় তিনি একথা বলেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, বিএনপির জন্ম গণতান্ত্রিক উপায়ে হয়নি। সামরিকতন্ত্রের কোলে তাদের জন্ম।

যেভাবে বিএনপির জন্ম হয়েছে, ঠিক একই উপায়ে বিএনপি হারিয়ে যাবে। কিছুদিনেই বাটি চালান দিয়েও বিএনপিকে খুঁজে পাওয়া যাবে না। ভুল রাজনীতির খেসারত তাদের (বিএনপি) দিতেই হবে। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আরও বলেন, বিএনপির একজন সংসদ সদস্য শপথগ্রহণ করেছেন। তাকে আমি ধন্যবাদ জানাই। জনগণ তাদের ভোট দিয়েছে সংসদে গিয়ে কথা বলার জন্য। বিএনপির উচিত সংসদে এসে কথা বলা। তিনি বলেন, জাতির পিতার রক্তের ও আদর্শের উত্তরসূরি, তার যোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি, এগিয়ে নিয়ে যাবো। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ কায়েম হবেই।

মুজিননগর সরকার দিবস উপলক্ষে ‘চলমান সুস্থ ধারার রাজনীতি ও শুদ্ধি অভিযান এবং করণীয়’ শীর্ষক আলোচনাসভার আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে আলোচনায় অংশ নেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুল হক সবুজ, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিনসহ অনেকে। আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি জহির উদ্দিন মবু। পরিচালনা করেন যৌথভাবে তাহেরা খাতুন ও আশফাকুর রহমান।


   Page 1 of 237
     রাজনীতি
ডাকসু ভিপি নুরের ওপর ছাত্রলীগের হামলা
.............................................................................................
বগুড়া-৬ আসনে বিএনপির প্রার্থী খালেদা জিয়াসহ ৫ জন
.............................................................................................
ঢাবিতে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতদের অবস্থান কর্মসূচি চলছে
.............................................................................................
জাতীয় পার্টি প্রতিষ্ঠার পর থেকে উত্তরবঙ্গবাসীর সুখে দুখে পাশে আছে - জি এম কাদের
.............................................................................................
খালেদা জিয়াকে নিয়ে ‘ডার্টি গেম’ বন্ধ করুন: রিজভী
.............................................................................................
কমিটি পুনর্গঠন চেয়ে ৪৮ ঘন্টার সময় বেঁধে দিলেন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা
.............................................................................................
সহজ কাজ না হলেও আমাদেরকে পথ বের করতে হবে: ফখরুল
.............................................................................................
বিএনপি’র একটি নারী আসনের জন্য তফসিল ঘোষণা
.............................................................................................
এক ব্যক্তির শাসন থেকে জাতিকে মুক্ত করতে হবে: ড. কামাল
.............................................................................................
গণতন্ত্রের বিজয় ও খালেদা জিয়ার মুক্তি সমার্থক: মান্না
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য রাজপথের আন্দোলনই একমাত্র পথ: খন্দকার মাহবুব
.............................................................................................
ইভিএমে ময়মনসিংহ সিটিতে আজ ভোট
.............................................................................................
মির্জা ফখরুলের বগুড়া-৬ শূন্য ঘোষণা
.............................................................................................
বহিষ্কৃত জামায়াত নেতা মঞ্জুর নেতৃত্বে নতুন রাজনৈতিক প্লাটফর্ম
.............................................................................................
বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আইনজীবীদের অনশন শুরু
.............................................................................................
বিএনপিকে বাটি চালান দিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী
.............................................................................................
ঐক্যবদ্ধ আওয়ামীলীগকে কেউ পরাজিত করতে পারবে না- সাংবাদিক শফিকুর রহমান (এমপি)
.............................................................................................
যারা আপসহীন তারা মুক্তির দরকষাকষি করে না: রিজভী
.............................................................................................
খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে গণতন্ত্রকে মুক্ত করা যাবে না: মোশাররফ
.............................................................................................
‘বন্দুক-পিস্তলের জোরে আজকে তারা ক্ষমতায়’
.............................................................................................
ময়মনসিংহ সিটি নির্বাচন: মেয়র পদে প্রার্থিতা ফিরে পেতে ৩ জনের আপিল খারিজ
.............................................................................................
প্যারোলে মুক্তির বিষয়টি খালেদা জিয়ার একান্ত ব্যাপার: ফখরুল
.............................................................................................
ছাত্রদলে নতুন নেতৃত্ব
.............................................................................................
সরকারের ন্যুনতম উদারতা খালেদাকে জামিনে মুক্ত করে দিতে পারে: নজরুল
.............................................................................................
জামিনে মুক্তি পাবেন খালেদা জিয়া, প্যারোলের কথা দুরভিসন্ধিমূলক: রিজভী
.............................................................................................
দেশে এখন গণতন্ত্র নেই: দুদু
.............................................................................................
সময় সন্নিকটে, জনগণ আর হাত গুটিয়ে বসে থাকবে না: ফখরুল
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে কর্মসূচি দেবে ২০ দল
.............................................................................................
খালেদার মুক্তি ও চিকিৎসা নিয়ে নিষ্ঠুর তামাশা হচ্ছে: রিজভী
.............................................................................................
`খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি চায় বিএনপি`
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে গণঅনশনে বিএনপি
.............................................................................................
বাংলাদেশের রাজনীতিকে কবর দেওয়া হয়েছে: ফখরুল
.............................................................................................
সিদ্ধান্ত পরিবর্তন, এরশাদের অবর্তমানে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন জি এম কাদের
.............................................................................................
আ.লীগ বন্দুকের নলের জোরে টিকে আছে: ফখরুল
.............................................................................................
সংবিধানে বাঙালি ছাড়া অন্যকোন জাতিগোষ্ঠীর স্বীকৃতি নেই: জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল
.............................................................................................
দেশে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা চালু হয়েছে: ফখরুল
.............................................................................................
টিকেট কাটার ভোগান্তি কমাতে চলতি মাসেই অ্যাপ চালু করা হবে: রেলমন্ত্রী
.............................................................................................
পুরোপুরি প্রস্তুতি নিয়েই আন্দোলন: মঈন খান
.............................................................................................
জেলের তালা ভেঙ্গেই বেগম জিয়াকে মুক্ত করবো : ড. মঈন খান
.............................................................................................
‘রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে ঈদের আগাম টিকিট’
.............................................................................................
দেশে একদলীয় শাসন চলছে: ফখরুল
.............................................................................................
কারওয়ান বাজারে হার্ডওয়্যার মার্কেটে আগুন
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার মুক্তি-সুচিকিৎসার দাবিতে রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ
.............................................................................................
মিয়ানমারের সঙ্গে দ্বন্দ্ব নয়, আলোচনার মাধ্যমে সমাধান: প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
গণতন্ত্রকে ধ্বংস করে দেশে হরণতন্ত্র চালু হয়েছে: রিজভী
.............................................................................................
টিভি-সংবাদপত্রে আওয়ামী লীগের চেয়ে বিএনপির প্রচারই বেশি: তথ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক কাজী আসাদ আর নেই
.............................................................................................
জাতীয় পার্টিতে কোনো বিভক্তি নেই
.............................................................................................
মোকাব্বির বেইমান-প্রতারক: ফখরুল
.............................................................................................
মোকাব্বিরকে অভিনন্দন, বাকিরাও শপথ নেবেন : সুলতান মনসুর
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
উপদেষ্টা: আজাদ কবির
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ হারুনুর রশীদ
সম্পাদক মন্ডলীর সহ-সভাপতি: মামুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
যুগ্ম সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বার্তা সম্পাদক: মুজিবুর রহমান ডালিম
স্পেশাল করাসপনডেন্ট : মো: শরিফুল ইসলাম রানা
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]