| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   তথ্যপ্রযুক্তি -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ডিজেআই ড্রোন শনাক্ত করবে প্লেন, হেলিকপ্টার

 প্লেন বা হেলিকপ্টারের সঙ্গে সংঘর্ষ এড়াতে নতুন ড্রোনে সেন্সর বাড়াচ্ছে ডিজেআই। প্লেন বা হেলিকপ্টারকে আগে থেকেই শনাক্ত করতে পারব এই ড্রোন।
বুধবার ড্রোন নির্মাতা চীনা প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বলা হয়, ২০২০ সাল থেকে ২৫০ গ্রামের বেশি ভরের সব ড্রোনে এই ফিচার থাকবে--খবর প্রযুক্তি সাইট ভার্জের।
নতুন ড্রোনের সেন্সর প্লেন এবং হেলিকপ্টারের পাঠানো ‘অটোমেটিক ডিপেনডেন্ট সার্ভেইলেন্স-ব্রডকাস্ট (এডিএস-বি)’ সিগনাল ধরতে পারবে। ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে নির্দিষ্ট কিছু এয়ারস্পেসের সব এয়ারক্রাফটে এডিএস-বি সিগনাল থাকা বাধ্যতামূলক করেছে মার্কিন সরকার।


ডিজেআই-এর নতুন ড্রোনে রাখা হবে এডিএস-বি ডিটেক্টর। প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এই প্রযুক্তিকে বলা হচ্ছে ‘এয়ারসেন্স’। প্লেন বা হেলিকপ্টার কাছাকাছি এলে ড্রোন পাইলটকে সতর্ক করবে এটি।


ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন-এর পক্ষ থেকে ড্রোনে এডিএস-বি বাধ্যতামূলক করা হয়নি। কিন্তু ইতোমধ্যেই ম্যাট্রিস ২০০ এবং ম্যাভিক ২ এন্টারপ্রাইজের মতো আরও পেশাদার ড্রোনগুলোতে ইতোমধ্যেই এই প্রযুক্তি যোগ করেছে ডিজেআই।


বাধা এড়ানো, অবস্থান ঠিক রাখা, উচ্চতা সীমিত রাখা এবং স্বয়ংক্রিয়ভাবে উড্ডয়নের স্থানে ফিরে আসতে ইতোমধ্যেই অনেক সেন্সর রয়েছে প্রতিষ্ঠানের ড্রোনে। তারপরও অনভিজ্ঞ বা উন্মাদ পাইলটের কারণে বেশ কয়েকবারে প্লেন এবং হেলিকপ্টারের কাছাকাছি চলে এসেছে ড্রোন, এমনকি সংঘর্ষও হয়েছে।

ডিজেআই ড্রোন শনাক্ত করবে প্লেন, হেলিকপ্টার
                                  

 প্লেন বা হেলিকপ্টারের সঙ্গে সংঘর্ষ এড়াতে নতুন ড্রোনে সেন্সর বাড়াচ্ছে ডিজেআই। প্লেন বা হেলিকপ্টারকে আগে থেকেই শনাক্ত করতে পারব এই ড্রোন।
বুধবার ড্রোন নির্মাতা চীনা প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বলা হয়, ২০২০ সাল থেকে ২৫০ গ্রামের বেশি ভরের সব ড্রোনে এই ফিচার থাকবে--খবর প্রযুক্তি সাইট ভার্জের।
নতুন ড্রোনের সেন্সর প্লেন এবং হেলিকপ্টারের পাঠানো ‘অটোমেটিক ডিপেনডেন্ট সার্ভেইলেন্স-ব্রডকাস্ট (এডিএস-বি)’ সিগনাল ধরতে পারবে। ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে নির্দিষ্ট কিছু এয়ারস্পেসের সব এয়ারক্রাফটে এডিএস-বি সিগনাল থাকা বাধ্যতামূলক করেছে মার্কিন সরকার।


ডিজেআই-এর নতুন ড্রোনে রাখা হবে এডিএস-বি ডিটেক্টর। প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এই প্রযুক্তিকে বলা হচ্ছে ‘এয়ারসেন্স’। প্লেন বা হেলিকপ্টার কাছাকাছি এলে ড্রোন পাইলটকে সতর্ক করবে এটি।


ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন-এর পক্ষ থেকে ড্রোনে এডিএস-বি বাধ্যতামূলক করা হয়নি। কিন্তু ইতোমধ্যেই ম্যাট্রিস ২০০ এবং ম্যাভিক ২ এন্টারপ্রাইজের মতো আরও পেশাদার ড্রোনগুলোতে ইতোমধ্যেই এই প্রযুক্তি যোগ করেছে ডিজেআই।


বাধা এড়ানো, অবস্থান ঠিক রাখা, উচ্চতা সীমিত রাখা এবং স্বয়ংক্রিয়ভাবে উড্ডয়নের স্থানে ফিরে আসতে ইতোমধ্যেই অনেক সেন্সর রয়েছে প্রতিষ্ঠানের ড্রোনে। তারপরও অনভিজ্ঞ বা উন্মাদ পাইলটের কারণে বেশ কয়েকবারে প্লেন এবং হেলিকপ্টারের কাছাকাছি চলে এসেছে ড্রোন, এমনকি সংঘর্ষও হয়েছে।

নতুন স্টারহপার রকেটের পরীক্ষায় স্পেসএক্স
                                  

 আসন্ন এক পরীক্ষামূলক উড্ডয়নে স্টারহপার রকেট উৎক্ষেপণ করবে স্পেসএক্স। এটি আকাশে ১৬,৪০০ ফুট ওপরে উঠবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে সাম্প্রতিক এক আবেদনে।
যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের বোকা চিকায় স্পেসএক্স-এর উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে এই পরীক্ষা চালানো হবে, ফেডারেল কমিউনিকেশনস কমিশন বা এফসিসিতে দাখিল করা ওই আবেদন থেকে এমন আভাস পাওয়া গিয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে প্রযুক্তি সাইট ভার্জ।


চাঁদ ও মঙ্গলে যাত্রী পরিবহনে স্টারশিপ নামের বিশাল এক যাত্রীবাহী রকেটের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। স্টারহপার এই স্টারশিপেরই একটি মৌলিক সংস্করণ।
স্টারশিপের মতো একই রকম কাঠামো হলেও স্টারহপার মূল সংস্করণ থেকে ছোট।


`হপ টেস্ট` বলতে পৃথিবী থেকে অল্প উচ্চতায় চালানো পরীক্ষাকে বোঝায়। এর সঙ্গে মিল রেখেই স্টারহপার নামটি রেখেছে মহাকাশযান নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি।
স্পেসএক্স প্রধান ইলন মাস্ক বলেন, তিনটি ইঞ্জিন যোগ করে স্টারহপারের পরীক্ষা চালানো হবে। কিন্তু ছবিতে দেখা গেছে এখন পর্যন্ত রকেটটির সঙ্গে কোনো ইঞ্জিন লাগানো হয়নি।
পরীক্ষার জন্য এর আশপাশের এলাকার রাস্তা ২৮ মে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। ফলে সামনের সপ্তাহেই রকেটটি পরীক্ষা করা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তিনশ’ কোটি প্রোফাইল সরিয়েছে ফেইসবুক
                                  

 প্রতিষ্ঠানের সর্বশেষ ‘এনফোর্সমেন্ট রিপোর্ট’ প্রকাশ করেছে ফেইসবুক। ২০১৮ সালের অক্টোবর হতে ২০১৯ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত কী পরিমাণ পোস্ট এবং অ্যাকাউন্টের ওপর পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে তার বিস্তারিত প্রকাশ করা হয়েছে এই প্রতিবেদনে।


বিবিসি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, এই ছয় মাসের মধ্যে তিনশ’ কোটির বেশি ভুয়া অ্যাকাউন্ট সরিয়েছে ফেইসবুক, যা আগের যে কোনো সময়ের চেয়ে বেশি।
ভুয়া অ্যাকাউন্টের পাশাপাশি এই সময়ের মধ্যে রেকর্ড ৭০ লাখ “ঘৃণামূলক বক্তব্যের” পোস্ট সরিয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক মাধ্যমটি।
কী পরিমাণ মুছে ফেলা পোস্টের জন্য আপিল করা হয়েছে এবং যাচাইয়ের পর তা অনলাইনে ফেরত আনা হয়েছে তাও প্রথমবারের মতো জানিয়েছে ফেইসবুক।
বৃহস্পতিবার ফেইসবুকে ভেঙ্গে ফেলা নিয়ে সাম্প্রতিক আলোচনার বিপক্ষে কথা বলেছেন প্রতিষ্ঠান প্রধান মার্ক জাকারবার্গ।
জাকারবার্গ বলেন, “আমি মনে করিনা প্রতিষ্ঠান ভেঙ্গে ফেলার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করা যাবে।”


“প্রতিষ্ঠানের সাফল্য আমাদেরকে এই উদ্যোগগুলোকে বিশাল পরিসরে তহবিল জোগাতে আমাদেরকে অনুমোদন দেয়। আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থায় যে পরিমাণ বাজেট খরচ করা হয়, আমি বিশ্বাস করি তা এ বছর টুইটারের আয়ের চেয়েও বেশি।”
স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থার মাধ্যমে অসংখ্য অ্যাকাউন্ট তৈরি করায় ভুয়া অ্যাকাউন্ট সরানোর সংখ্যাও বেড়েছে বলে জানিয়েছে ফেইসবুক। এই অ্যাকাউন্টগুলোর মধ্যে বেশিরভাগই ক্ষতিকর উদ্দেশ্যে ব্যবহারের আগেই কয়েক মিনিটের মধ্যে মুছে ফেলা হয়েছে।


মাদক এবং বন্দুকের মতো মালামাল বিক্রির জন্য কী পরিমাণ পোস্ট সরানো হয়েছে তাও জানাবে ফেইসবুক। ছয় মাসে বন্দুক বিক্রির দশ লাখের বেশি পোস্ট সরিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।
শিশু নির্যাতনের ছবি, সহিংসতা এবং সন্ত্রাসী কর্মকা-ের পোস্ট কী পরিমাণ গ্রাহক দেখেন তারও একটি ধারণা দিয়েছে ফেইসবুক। প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বলা হয়, প্রতি ১০ হাজার কনটেন্টের মধ্যে ১৪ জন নগ্নতা দেখতে পারেন, ২৫ জন সহিংতা এবং তিন জনের কম শিশু নির্যাতনের ছবি দেখেন।
সার্বিকভাবে ফেইসবুকের সক্রিয় ব্যবহারকারীর মধ্যে পাঁচ শতাংশ অ্যাকাউন্ট ভুয়া।


এই প্রথমবারের মতো, ঘৃণামূলক পোস্টের জন্য সরিয়ে দেওয়া পোস্টগুলো নিয়ে ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে মার্চে ১০ লাখেরও বেশি আবেদন পড়েছে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।
এই সময়ের মধ্যে নীতিমালা লঙ্ঘন করেনি এমন প্রায় দেড় লাখ পোস্ট ফিরিয়ে আনা হয়েছে।
"আমাদের প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করছে এমন মানুষদের জন্য আরও জবাবদিহিতা ও দায়িত্বশীলতা তৈরিতে যে জায়গাগুলো নিয়ে আমরা আরও উন্মুক্ত হতে পারি" প্রতিবেদনে সেই জায়গাগুলোতেই আলোকপাত করা হয়েছে বলে ভাষ্য ফেইসবুকের।

ফেসবুক ইউটিউবে সরকারি নিয়ন্ত্রণ সেপ্টেম্বর থেকে
                                  

ফেসবুক, ইউটিউব বা গুগলের মতো ওয়েবসাইট থেকে দেশের সার্বভৌমত্ব ও সামাজিক মূলবোধ পরিপন্থী নির্দিষ্ট কোনো কনটেন্ট অপসারণে আর বিদেশি কর্তৃপক্ষের কাছে ধরনা দিতে হবে না। বাংলাদেশ এ বিষয়ে  নিজস্ব  সক্ষমতা অর্জন করতে যাচ্ছে। আশা করা হচ্ছে, আগামী সেপ্টেম্বর মাস নাগাদ এই সক্ষমতা অর্জন এবং তা প্রয়োগ করা সম্ভব হবে। এ ব্যবস্থায় ফেসবুক বা ইউটিউবের   কোনো আপত্তিকর মন্তব্য, পোস্ট বা ভিডিও দেশের বাইরে দেখা গেলেও বাংলাদেশে আর কেউ দেখতে পাবে না।

১৫৯ কোটি টাকা ব্যয়ে ‘সাইবার থ্রেট ডিটেকশন অ্যান্ড রেসপন্স’ নামে একটি প্রকল্পে এই সক্ষমতা অর্জনের কাজ চলছে। প্রকল্পটি থেকে ইতিমধ্যে ২২ হাজার পর্ন এবং আড়াই হাজারের মতো গ্যাবলিং সাইট বন্ধ করা হয়েছে। এ ছাড়া সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণে শনাক্ত হওয়া পর্ন ও গ্যাবলিং সাইটগুলো বন্ধ করার প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে রাজধানীর তেজগাঁও শিল্প এলাকায় অবস্থিত টেলিযোগাযোগ অধিদপ্তর। সেখানেই স্থাপন করা হয়েছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এই পর্যবেক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র। এর সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে দেশের ২৯টি ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ে (আইআইজি) এবং তিনটি ন্যাশনাল ইন্টারনেট এক্সচেঞ্জকে (নিক্স)।  প্রকল্পটি বাস্তবায়নের পর এটি পরিচালনার দায়িত্ব পালন করবে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি। ন্যাশনাল টেলিকম মনিটরিং সেন্টার বা এনটিএমসিও এটি ব্যবহার করতে পারবে।

জানা যায়, আগে কোনো সাইট বন্ধ করতে আইআইজি অপারেটরদের কাছে সেই সাইটের অ্যাড্রেস পাঠিয়ে তাদের মাধ্যমে বন্ধ করা হতো। কিন্তু এখন কোন কোন সাইট বন্ধ করা হচ্ছে তা আইআইজি অপারেটরদের জানার বাইরে থাকছে। কোনো সাইট বন্ধ করে দিলে বিকল্প উপায়ে তা দেখার সুযোগ নিয়ন্ত্রণেরও ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘ওয়েবসাইট বন্ধ ও তা বিকল্প পথে চালুর চেষ্টা নিয়ে ‘টম অ্যান্ড জেরি’ গেম চলছে এবং চলবে। তবে এ ক্ষেত্রে বিকল্প পথ তৈরি করতে এক দিন সময় লাগলে তা বন্ধ করতে সময় লাগবে ১০ মিনিট।’

আলোচিত এ প্রকল্প বিষয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘গত ১৭ মাসে আমি লক্ষ করেছি, ফেসবুক, গুগল আমাদের সঙ্গে কথা বলতেই রাজি হতো না। পরে আমরা হার্ড লাইনে যাওয়ার পর এখন তারা কথা শুনতে চায়, আলোচনায় বসে। সব শেষ ওয়াদা করেছে, তারা বাংলাদেশের আইনকেও গুরুত্ব দেবে। তবে আমরা যেটা সংকট দেখছি সেটা হচ্ছে, যেহেতু ওরা আমেরিকান কম্পানি, ওরা যে শব্দটি নিয়ে আমাদের বেশি ভোগায় সেটা হচ্ছে কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ড। ওদের কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ড আর আমাদের কমিউনিটি স্টান্ডার্ড এক না। এ কারণে ডোনাল্ড ট্রাম্পের চৌদ্দগুষ্ঠি উদ্ধার করে গালাগাল করলে ওদের কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ডে সেটা হয় ফিডম অব স্পিচ। কিন্তু এই ফিডম অব স্পিচের নামে আমাদের এখানে বেশি যেটা হয় সেটা হচ্ছে সাম্প্রদায়িকতা, জঙ্গিবাদের পক্ষে প্রচার ও সন্ত্রাস তৈরি করার ব্যবস্থা করা। ফলে আমরা কোনো বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে রিকোয়েস্ট পাঠালে তাদের কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ডের সঙ্গে যায়, এমন ক্ষেত্রেই শুধু সাড়া মেলে। সব মিলিয়ে আমাদের মনে হয়েছে, ওদের ওপর নির্ভর করে আমাদের দেশে নিরাপদ ইন্টারনেট বহাল রাখা কঠিন। সে জন্য আমরা এই প্রকল্পটি গ্রহণ করি। এটি বাস্তবায়নের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে—অন্তত আমরা আমাদের নিজ এলাকায় যেন নিরাপদ থাকতে পারি। প্রকল্পটি এ পর্যন্ত যেটুকু বাস্তবায়ন হয়েছে তাতে আমরা আংশিক সফলতা পেয়েছি। ওয়েবসাইটগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারছি। আর কমেন্ট, স্ট্যাটাস ও ভিডিও লেভেলে সুনির্দিষ্টভাবে অ্যাড্রেস করার কাজ চলছে।’

মন্ত্রী আরো বলেন, ‘আমাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে এ বিষয়ে আমাদের সক্ষমতা তৈরি করা। সেটা হবে। তবে প্রযুক্তিগত বিষয়ে একটা পর্যায়ে আমরা সক্ষমতা অর্জন করার পরও নতুন প্রযুক্তি এসে যেতে পারে। তখন সেই প্রযুক্তি নিয়ন্ত্রণেরও সক্ষমতা তৈরি করতে হবে।’

আগামী সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে প্রকল্পটি পুরোপুরি বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে বলে নিশ্চিত করেছেন প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা।

জাপানি মহাকাশযান কৃত্রিম গর্ত বানাতে গ্রহাণুতে ‘বোমা মেরেছে’
                                  

 সৌরজগতের আদি একটি গ্রহাণুর পৃষ্ঠে কৃত্রিম গর্ত বানাতে সেখানে জাপানি মহাকাশযান হায়াবুসি-২ একটি বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
স্মল ক্যারি-অন ইম্পেক্টর (এসসিআই) নামের ১৪ কেজির ওই বিস্ফোরক রিয়ুগু গ্রহাণুতে ১০ মিটার প্রশস্ত একটি কৃত্রিম গর্ত তৈরি করবে বলে অনুমান করা হচ্ছে।
বিস্ফোরণের কয়েক সপ্তাহ পর হায়াবুসা-২ গ্রহাণুটি থেকে গবেষণার জন্য নমুনা সংগ্রহ করবে।


এসব নমুনা থেকে সৌরম-লের প্রাথমিক অবস্থায় পৃথিবী কীভাবে সৃষ্টি হয়েছে সে সম্বন্ধে ধারণা পাওয়া যাবে বলে অনুমান বিজ্ঞানীদের।
মহাশূন্যে জাপানের এ পরীক্ষাটি সফল হয়েছে কিনা তা চলতি মাসের শেষ দিকে জানা যাবে, বলছে কিয়োডো নিউজ।
বিস্ফোরণের আগে রিয়ুগুর পৃষ্ঠ থেকে ৫০০ মিটার উপরে শুক্রবার হায়াবুসা-২ থেকে সফলভাবে এসসিআইকে আলাদা করা সম্ভব হয় বলে জানিয়েছে বিবিসি।
বিস্ফোরণ সংঘটনের আগেই জাপানি মহাকাশযানটি রিয়ুগুর অপর পৃষ্ঠে চলে যাবে। বিস্ফোরণের পর গ্রহাণুটি থেকে ছিটকে আসা পাথর ও অন্যান্য পদার্থ যেন হায়াবুসির ক্ষতি না করতে পারে সেজন্যই তাকে লুকিয়ে রাখার এ পরিকল্পনা করা হয়েছে।


বিস্ফোরণের এ মুহুর্তগুলো ক্যামেরাবন্দি করতে গ্রহাণুটির এক কিলোমিটার দূরে একটি ছোট ডিসিএএম-৩ ক্যামেরাও বসিয়েছে জাপানের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা (জাক্সা)।
ছবিগুলো পৃথিবীতে পাঠাতে কত সময় লাগবে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।


বিজ্ঞানীরা বলছেন, পরিকল্পনামাফিক সবকিছু চললে বিস্ফোরণের কয়েক সপ্তাহ পর হায়াবুসা-২ ফের রিয়ুগু থেকে নমুনা সংগ্রহ করতে নামবে।
এসব নমুনা সৌরজগতের প্রথম দিকে কী করে গ্রহগুলো সৃষ্টি হয়েছিল সে সম্বন্ধে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিতে পারবে বলেও আশা করা হচ্ছে।

এবার ফোনে আসছে ৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা
                                  

 স্মার্টফোনের জন্য বাজারর যে কোনো সেন্সরের চেয়ে বেশি রেজুলিউশানের ক্যামেরা সেন্সর বানিয়েছে স্যামসাং।
ইলেকট্রনিক পণ্য নির্মাতা দক্ষিণ কোরীয় প্রতিষ্ঠানটির আগের ০.৮ মাইক্রোমিটার আকারের ৪৮ মেগাপিক্সেল সেন্সরের যন্ত্রাংশই ব্যবহার করা হয়েছে নতুন ৬৪ মেগাপিক্সেল সেন্সরে। ফলে বাহ্যিক দিক থেকে আকারে বড় এই সেন্সরটি আরও বেশি আলো ধরতে পারবে-- খবর প্রযুক্তি সাইট ভার্জের।


নতুন ৬৪ মেগাপিক্সেল সেন্সরটির নাম বলা হয়েছে আইএসওসেল ব্রাইট জিডাব্লিউ১। ১৬ মেগাপিক্সেলের ছবি বানাতে চারটি পিক্সেল একসঙ্গে করে একটি পিক্সেল বানাবে নতুন সেন্সর। স্যামসংয়ের বর্তমান ৪৮ মেগাপিক্সেল সেন্সর দিয়েও একই উপায়ে ১২ মেগাপিক্সেল ছবি তোলা হয়।


স্মার্টফোনে ৪৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এখন অনেকটাই সাধারণ ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। স্যামসাং, অপো, ভিভো, শিয়াওমি এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের ডিভাইসে ইতোমধ্যেই ৪৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা দেখা গেছে।
চলতি বছরের শেষ দিকে ৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সরের উৎপাদন শুরুর পরিকল্পনা রয়েছে স্যামসাংয়ের। ফলে বছরের শেষ দিকের ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইসগুলোতে দেখা যেতে পারে এই সেন্সর।

 

গুগলের ডিরেক্টর হলেন প্রথম বাংলাদেশি জাহিদ সবুর
                                  

 প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে টেক জায়ান্ট গুগলের ডিরেক্টর হয়েছেন জাহিদ সবুর। ২ মে গুগলের ডিরেক্টর এবং ১ নম্বর কোড জেনারেটর (প্রিন্সিপাল ইঞ্জিনিয়ার) হিসেবে পদোন্নতি পান তিনি। নিজের ফেসবুক ওয়ালে একটি পোষ্টের মাধ্যমে এই পদোন্নতির কথা জানিয়েছেন এই ইঞ্জিনিয়ার। ফেসবুক পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘মধ্য ত্রিশে এসে আমি আজ যে পর্যায়ে এসে পৌঁছেছি তা আমি কখনও স্বপ্নেও ভাবিনি।

কিন্তু আমি আমার বর্তমান অবস্থানের চাইতেও এই পর্যায়ে আসতে আমাকে যে কঠিন পথ পার করে আসতে হয়েছে সেটা নিয়ে বেশি গর্বিত’। নিজের এতোদূর আসার পেছনে অনুপ্রেরকদের ধন্যবাদ জানিয়ে জাহিদ তার ফেসবুক পোস্টে আরও লিখেছেন,‘আপনাদের হৃদয়ের গভীর থেকে ধন্যবাদ। আপনাদের দোয়া ছাড়া আমি এতোদূর আসতে পারতাম না’। জাহিদ সবুর স্নাতক সম্পন্ন করেছেন আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ (এআইইউবি) থেকে।

এআইইউবি থেকে তিনি রেকর্ড সিজিপিএ ৪.০ নিয়ে স্নাতক সম্পন্ন করেন। জাহিদের ক্যারিয়ার শুরু ২০০৭ সালে ভারতের ব্যাঙ্গালুরুতে গুগলের ব্যাকেন্ড সিস্টেম ডেভেলপমেন্টের একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে যোগদান করার মাধ্যমে। এর ৬ মাস পর তিনি ক্যালিফোর্নিয়ায় গুগলের সদর দপ্তরে যোগদান করেন। বর্তমানে তিনি গুগলের জুরিখ দপ্তরের প্রিন্সিপাল ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত আছেন। উল্লেখ্য, সারা বিশ্বে গুগলের কয়েক লক্ষ কর্মীর মধ্যে মাত্র আড়াইশ` জন প্রিন্সিপাল ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত আছেন। জাহিদ সবুর সেইসব প্রতিভাবানদের একজন।

সহজে ইমিগ্রেশন পার হতে বিমান ও স্থলবন্দরে ই-গেট বসানোর উদ্যোগ
                                  

দেশের ৩টি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও ২টি স্থলবন্দরে স্থাপন করা হচ্ছে স্বয়ংক্রিয় সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি বা ই-গেট। ওই বন্দরগুলোতে ৫০টি ই-গেট স্থাপন হবে। ফলে ইলেকট্রনিক পাসপোর্টধারী যাত্রীরা মাত্র ১৫ সেকেন্ডে বিমানবন্দর বা স্থলবন্দরের ইমিগ্রেশন পার হওয়ার সুযোগ পাবে। আর আগামী ১ জুলাই থেকেই দেশের নাগরিকদের ই-পাসপোর্ট দেয়ার জন্য তোড়জোড় শুরু হয়েছে। পৃথিবীর অন্যান্য দেশের ডাটা বেইসেও এদেশের নাগরিকদের ই-পাসপোর্টের ডাটা থাকবে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, দেশের নাগকিদের বিগত ২০১৭ সালেই ই-পাসপোর্ট দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হলেও বিভিন্ন কারণে তা সম্ভব হয়ে ওঠেনি। তবে কয়েক দফা পেছানোর পর আগামী ১ জুলাই থেকে নাগরিকদের ই-পাসপোর্ট দেয়ার জন্য কাজ চলছে। আর ওই প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে ৪ হাজার ৫৬৯ কোটি টাকা। অনেক আগেই জার্মানির সরকারি একটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে এ সংক্রান্ত চুক্তি হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিবের সভাপতিত্বে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, বেনাপোল ও বাংলাবান্দা স্থলবন্দরে ৫০টি ই-গেট স্থাপনের সিদ্ধান্ত হয়। আর ওই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জার্মানির প্রতিষ্ঠান থেকে ই-গেট আনা হচ্ছে। শিগগিরই সেগুলো দেশে পৌঁছবে। তবে ৫০টি ই-গেটের মধ্যে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সবচেয়ে বেশি বসানো হবে। ভিআইপি, ভিভিআইপি যাত্রী ছাড়াও শুধুমাত্র ২৪টি গেট সাধারণ যাত্রীদের ব্যবহারের জন্যই বসানো হতে পারে।

সূত্র জানায়, ই-পাসপোর্ট ই-গেটের একটি নির্দিষ্ট স্থানে রাখার সঙ্গে সঙ্গে গেট খুলে যাবে। নির্দিষ্ট নিয়মে গেটের নিচে দাঁড়ানোর পর ক্যামেরা ছবি তুলে নেবে। তারপর সব ঠিকঠাক থাকলে ১২-১৫ সেকেন্ডের মধ্যেই যাত্রী ইমিগ্রেশন পেরিয়ে যেতে পারবে। তবে কেউ যদি ভুল করে তাহলে লাল বাতি জ্বলে উঠবে। তখন সেখানে দায়িত্বরত কর্মকর্তারা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে সঠিকভাবে ই-পাসপোর্ট ব্যবহারে সহযোগিতা করবে।বর্তমানে মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট বা এমআরপি নিয়ে ইমিগ্রেশন পার হতে গেলে ১০-১৫ মিনিট বা কখনো আরো বেশি সময়ও লেগে যায়। ওই কারণে যাত্রীদেও লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। কিন্তু ই-পাসপোর্ট থাকলে কয়েক সেকেন্ডে পার হওয়া সম্ভব হবে বলে এমন বিড়ম্বনায় পড়তে হবে না।

সূত্র আরো জানায়, ই-পাসপোর্টের বিষয়টি নতুন হওয়ায় শুরুতে প্রতিদিন দুই থেকে আড়াই হাজার ই-পাসপোর্ট প্রিন্ট করার চিন্তা নিয়ে কার্যক্রম চলছে। ধীরে ধীরে ওই সংখ্যা বাড়ানো হবে। বর্তমানে প্রতিদিন ১৫ থেকে ২০ হাজার পাসপোর্টের চাহিদা রয়েছে। ওই ক্ষেত্রে পর্যায়ক্রমে ই-পাসপোর্ট দেয়া হবে। বর্তমানে বই আকারে যে পাসপোর্ট আছে, ই-পাসপোর্টেও একই ধরনের বই থাকবে। তবে বর্তমানে পাসপোর্টের বইয়ের শুরুতে ব্যক্তির তথ্যসংবলিত যে দুটি পাতা আছে, ই-পাসপোর্টে তা থাকবে না। সেখানে থাকবে পলিমারের তৈরি একটি কার্ড। এই কার্ডের মধ্যে থাকবে একটি চিপ। সেই চিপে পাসপোর্টের বাহকের তথ্য সংরক্ষিত থাকবে। ই-গেটে চিপটি ব্যবহার করে দ্রুত ইমিগ্রেশন পার হওয়া যাবে।

এ প্রসঙ্গে প্রকল্প পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাইদুর রহমান খান জানান, ইতিমধ্যে ই-গেট জার্মানি থেকে দেশে আসার পথে রয়েছে। আসার পরপরই পরীক্ষামূলকভাবে ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্থাপন করা হবে।

 

mn‡R Bwg‡MÖkb cvi n‡Z wegvb I ¯’je›`‡i B-‡MU emv‡bvi D‡`¨vM

GdGbGm G·K¬zwmf: †`‡ki 3wU AvšÍR©vwZK wegvbe›`i I 2wU ¯’je›`‡i ¯’vcb Kiv n‡”Q ¯^qswµq mxgvšÍ wbqš¿Y e¨e¯’vcbv c×wZ ev B-‡MU| IB e›`i¸‡jv‡Z 50wU B-‡MU ¯’vcb n‡e| d‡j B‡jKUªwbK cvm‡cvU©avix hvÎxiv gvÎ 15 †m‡K‡Û wegvbe›`i ev ¯’je›`‡ii Bwg‡MÖkb cvi nIqvi my‡hvM cv‡e| Avi AvMvgx 1 RyjvB †_‡KB †`‡ki bvMwiK‡`i B-cvm‡cvU© †`qvi Rb¨ †Zvo‡Rvo ïiæ n‡q‡Q| c…w_exi Ab¨vb¨ †`‡ki WvUv †eB‡mI G‡`‡ki bvMwiK‡`i B-cvm‡cv‡U©i WvUv _vK‡e| ¯^ivó« gš¿Yvjq mswkøó m~‡Î Gme Z_¨ Rvbv hvq|

mswkøó m~Î g‡Z, †`‡ki bvMwK‡`i weMZ 2017 mv‡jB B-cvm‡cvU© †`qvi D‡`¨vM †bqv n‡jI wewfbœ Kvi‡Y Zv m¤¢e n‡q I‡Vwb| Z‡e K‡qK `dv †cQv‡bvi ci AvMvgx 1 RyjvB †_‡K bvMwiK‡`i B-cvm‡cvU© †`qvi Rb¨ KvR Pj‡Q| Avi IB cÖK‡í e¨q aiv n‡q‡Q 4 nvRvi 569 †KvwU UvKv| A‡bK Av‡MB Rvg©vwbi miKvwi GKwU cÖwZôv‡bi m‡½ G msµvšÍ Pyw³ n‡q‡Q| ZviB avivevwnKZvq m¤úªwZ ¯^ivóª gš¿Yvj‡qi myi¶v †mev wefv‡Mi mwP‡ei mfvcwZ‡Z¡ GK mfv AbywôZ nq| IB mfvq XvKv, PÆMÖvg I wm‡jU AvšÍR©vwZK wegvbe›`i, †ebv‡cvj I evsjvev›`v ¯’je›`‡i 50wU B-‡MU ¯’vc‡bi wm×všÍ nq| Avi IB wm×všÍ Abyhvqx Rvg©vwbi cÖwZôvb †_‡K B-‡MU Avbv n‡”Q| wkMwMiB †m¸‡jv †`‡k †cŠuQ‡e| Z‡e 50wU B-‡M‡Ui g‡a¨ nhiZ kvnRvjvj AvšÍR©vwZK wegvbe›`‡i me‡P‡q †ewk emv‡bv n‡e| wfAvBwc, wfwfAvBwc hvÎx QvovI ïaygvÎ 24wU †MU mvaviY hvÎx‡`i e¨env‡ii Rb¨B emv‡bv n‡Z cv‡i|

m~Î Rvbvq, B-cvm‡cvU© B-‡M‡Ui GKwU wbw`©ó ¯’v‡b ivLvi m‡½ m‡½ †MU Ly‡j hv‡e| wbw`©ó wbq‡g †M‡Ui wb‡P `vuov‡bvi ci K¨v‡giv Qwe Zy‡j †b‡e| Zvici me wVKVvK _vK‡j 12-15 †m‡K‡Ûi g‡a¨B hvÎx Bwg‡MÖkb †cwi‡q †h‡Z cvi‡e| Z‡e †KD hw` fyj K‡i Zvn‡j jvj evwZ R¡‡j DV‡e| ZLb †mLv‡b `vwqZ¡iZ Kg©KZ©viv mswkøó e¨w³‡K mwVKfv‡e B-cvm‡cvU© e¨env‡i mn‡hvwMZv Ki‡e|eZ©gv‡b †gwkb wi‡Wej cvm‡cvU© ev GgAviwc wb‡q Bwg‡MÖkb cvi n‡Z †M‡j 10-15 wgwbU ev KL‡bv Av‡iv †ewk mgqI †j‡M hvq| IB Kvi‡Y hvÎx‡`I jvB‡b `vuwo‡q _vK‡Z nq| wKš‘ B-cvm‡cvU© _vK‡j K‡qK †m‡K‡Û cvi nIqv m¤¢e n‡e e‡j Ggb weo¤^bvq co‡Z n‡e bv|

m~Î Av‡iv Rvbvq, B-cvm‡cv‡U©i welqwU bZyb nIqvq ïiæ‡Z cÖwZw`b `yB †_‡K AvovB nvRvi B-cvm‡cvU© wcÖ›U Kivi wPšÍv wb‡q Kvh©µg Pj‡Q| ax‡i ax‡i IB msL¨v evov‡bv n‡e| eZ©gv‡b cÖwZw`b 15 †_‡K 20 nvRvi cvm‡cv‡U©i Pvwn`v i‡q‡Q| IB †¶‡Î ch©vqµ‡g B-cvm‡cvU© †`qv n‡e| eZ©gv‡b eB AvKv‡i †h cvm‡cvU© Av‡Q, B-cvm‡cv‡U©I GKB ai‡bi eB _vK‡e| Z‡e eZ©gv‡b cvm‡cv‡U©i eB‡qi ïiæ‡Z e¨w³i Z_¨msewjZ †h `ywU cvZv Av‡Q, B-cvm‡cv‡U© Zv _vK‡e bv| †mLv‡b _vK‡e cwjgv‡ii ‰Zwi GKwU KvW©| GB Kv‡W©i g‡a¨ _vK‡e GKwU wPc| †mB wP‡c cvm‡cv‡U©i evn‡Ki Z_¨ msiw¶Z _vK‡e| B-‡M‡U wPcwU e¨envi K‡i `ªæZ Bwg‡MÖkb cvi nIqv hv‡e|

G cÖm‡½ cÖKí cwiPvjK weª‡MwWqvi †Rbv‡ij mvB`yi ingvb Lvb Rvbvb, BwZg‡a¨ B-‡MU Rvg©vwb †_‡K †`‡k Avmvi c‡_ i‡q‡Q| Avmvi ciciB cix¶vg~jKfv‡e XvKvq nhiZ kvnRvjvj AvšÍR©vwZK wegvbe›`‡i ¯’vcb Kiv n‡e|

 

স্বয়ংক্রিয়ভাবে গুগল লোকেশন ডেটা মুছতে দেবে
                                  

 স্বয়ংক্রিয়ভাবে লোকেশন হিস্ট্রি এবং ‘ওয়েব অ্যান্ড অ্যাপ অ্যাক্টিভিটি’ মুছে ফেলার ফিচার চালু করতে যাচ্ছে গুগল।
গুগল অ্যাকাউন্টে ফিচারটি যোগ করা হলে নির্দিষ্ট সময় পরপর স্বয়ংক্রিয়ভাবে গ্রাহকের লোকেশন হিস্ট্রি, ওয়েব এবং অ্যাপ অ্যাক্টিভিটি মুছে ফেলা হবে। গ্রাহক নিজের পছন্দ মতো ডেটা মোছার জন্য সময় তিন মাস বা ১৮ মাস ঠিক করে দিতে পারবেন। একবার সময় ঠিক করে দিলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নির্দিষ্ট সময় পর পর ডেটা মুছে ফেলা হবে খবর প্রযুক্তি সাইট ভার্জের।
গ্রাহকের অবস্থান ট্র্যাকিং নিয়ে আগের বছর সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে গুগলকে। গ্রাহক যদি তার লোকেশন হিস্ট্রি সেটিং বন্ধও করে রাখেন, তারপরও তার অবস্থান ট্র্যাক করে সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানটি।


গ্রাহক যদি অবস্থান ট্র্যাকিং পুরোপুরি বন্ধ করতে চান তাহলে “ওয়েব অ্যান্ড অ্যাপ অ্যাক্টিভিটি” সেটিংসও পরিবর্তন করতে হবে।
এবার এটি বন্ধ করতে বুধবার নতুন ফিচার যোগ করার ঘোষণা দিয়েছে গুগল, যা উভয় ডেটাই মুছে ফেলবে। ফলে গুগলের পক্ষ থেকে গ্রাহকের সব অবস্থানের ডেটাই মুছে ফেলা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।


“সামনের কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই” বিশ্বজুড়ে এই ফিচারটি চালু করা হবে বলে জানিয়েছে গুগল। বর্তমানে এই ডেটাগুলো ম্যানুয়ালি মুছে ফেলতে পারেন গ্রাহক। আগের মতো ম্যানুয়াল অপশনটিও রাখা হবে এতে।

উবারের বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়ায় ক্লাস অ্যাকশন মামলা
                                  

 উবারের বিরদ্ধে একটি ক্লাস অ্যাকশন মামলা করেছে অস্ট্রেলিয়ার একটি আইনি প্রতিষ্ঠান। দেশটির হাজারো ট্যাক্সি চালকের পক্ষে এই মামলা করেছে প্রতিষ্ঠানটি।
দেশটিতে অবৈধভাবে ব্যবসা চালানো এবং ট্যাক্সি চালকদের আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ করার অভিযোগ আনা হয়েছে ওই মামলায়।


অস্ট্রেলিয়ার ছয় হাজার চালক এবং ট্যাক্সি লাইসেন্সধারীর পক্ষে ভিক্টোরিয়া সুপ্রিম কোর্টে এই মামলাটি করেছে মরিস ব্ল্যাকবার্ন নামের আইনি প্রতিষ্ঠান-- খবর রয়টার্সের।
এক বিবৃতিতে মরিস ব্ল্যাকবার্ন-এর ক্লাস অ্যাকশন মামলার প্রধান অ্যান্ড্রু ওয়াটসন বলেন, “অস্ট্রেলিয়ায় অবৈধ ব্যবসা চালানোর অভিযোগ এবং কঠোর পরিশ্রমী ও আইন মেনে চলা নাগরিকদের জীবনে এর জঘন্য প্রভাবের ক্ষেত্রে এটি একটি দৃষ্টান্তমূলক মামলা হবে।”
এদিকে উবারের এক মুখপাত্র বলেন, তারা ক্লাস অ্যাকশন মামলাটির ব্যাপারে কিছু জানেন না।
এক এমেইল বিবৃতিতে ওই মুখপাত্র বলেন, “আমরা ক্লাস অ্যাকশন নিয়ে কোনো নোটিফিকেশন পাইনি। আমরা যে শহরগুলোতে কার্যক্রম চালাচ্ছি সেখানকার যাত্রী এবং চালকদেরকে দারুন সব সেবা দেওয়ার দিকেই আমরা নজর দিচ্ছি।”


এই মামলা মীমাংসা অংশ হিসেবে উবারের কাছ থেকে কয়েক কোটি ডলার ক্ষতিপূরণ চাওয়া হতে পারে বলে জানিয়েছেন ব্ল্যাকবার্নের এক মুখপাত্র।
স্থানীয় ট্যাক্সি ব্যবসায়ী আর কর্তৃপক্ষের বাধার মুখে পড়েও অস্ট্রেলিয়ায় মানুষের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে উবার৷
আইনজীবীদের অভিযোগ, অস্ট্রেলিয়ায় নিজেদের কার্যক্রম পরিচালনা যে একাধিক কারণে অবৈধ তা নিয়ে উবার অবগত।
এখনও লোকসানে থাকা এই রাইড-শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান যুক্তরাষ্ট্রে শেয়ারবাজারে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে। আইপিও`র মাধ্যমে ৯১৫০ কোটি ডলার উঠাতে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

রমজানে ‘৩৩৩’ নম্বরে ফোন করে পাওয়া যাবে ইসলামিক সেবা
                                  

পবিত্র রমজান মাসে যে কোনো মোবাইল অপারেটর থেকে ‘৩৩৩’ নম্বরে ফোন করে পাওয়া যাবে ইসলামিক সেবা। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গতকাল বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, ওই নম্বরে কল করে নামাজ, রোযা, যাকাত ও ফিতরা সম্পর্কে বিভিন্ন মাসআলা-মাসায়েল এবং সাহরি ও ইফতারের সময়সূচিও জানা যাবে। ৩৩৩ এর মাধ্যমে ২০১৮ সালে পবিত্র রমজান মাস থেকে চালু করা হয় ইসলামিক সেবার তথ্য প্রদান কার্যক্রম।

জনগণের দোরগোড়ায় সেবা প্রদানের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীন এটুআই’র আওতায় এই কলসেন্টার চালু করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় গত বছরের ১২ এপ্রিল এই কলসেন্টার উদ্বোধন করেন।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন সফটওয়্যারের যাত্রা শুরু
                                  

 সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতে এমন অনেক কাজ রয়েছে যা টেবিল থেকে টেবিলে অনুমোদনের জন্য প্রচুর সময় ব্যয় হয়। অতিরিক্ত সময় নেওয়ার কারণে অনেক সময় নানারকম জটিলতার সৃষ্টি হয়। এসব জটিলতা একদিকে যেমন সংশ্লিষ্ট সবার বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তেমনি এর আর্থিক ক্ষতিও আছে। বিশেষভাবে সরকারি অফিসে সার্ভিস নিতে আসা জনসাধারণের অনেক ভোগান্তি হয়ে থাকে। তাই এগুলো থেকে রক্ষা পেতে বেসরকারি ব্যাংক, বীমা, টেলিযোগাযোগ কোম্পানিগুলোর জন্য কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন সফটওয়্যার ব্যবহার হয়। গতকাল রাজধানীর একটি হোটেলে এ সফটওয়্যারের উদ্বোধন করা হয়েছে।


রোবোটুমেশন নামে এ সফটওয়্যার ব্যবহার করলে ডিজিটাল বাংলাদেশ স্লোগানের বাস্তবায়নে সহায়তা করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন কোম্পানির ঊর্ধ্বতনরা। ইনফোসাফেক্স লিমিটেড বাংলাদেশে এ সফটওয়্যারের পরীক্ষামূলক কার্যক্রম ইতোমধ্যে শুরু করেছে বলেও জানানো হয়। অনুষ্ঠানে রোবোটুমেশনের পরিচালক ও সিইও মো. ইমরুল হাসান, পরিচালক এম এইচ খুসরু, হেড অব বিজনেস অপারেশন মো. শওকত হোসেইন চৌধুরী, হেড অব অটোমেশন এ- সিকিউরিটি, ফায়সাল মোহাম্মাদ, রোবোটুমেশনের বাণিজ্যিক মুখপাত্র শামীমা ইসলাম তুষ্টি উপস্থিত ছিলেন।


অনুষ্ঠানে জানানো হয়, রোবোটুমেশন একধরনের সফটওয়্যার প্রোগ্রাম। যার আছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা। এ সফটওয়্যারকে একবার ভালভাবে শেখানো হয়ে গেলে কাজগুলো নির্ভুলভাবে এবং খুব দ্রুত সম্পাদন করতে পারে। এটা অনেক নিরাপদ সফটওয়্যার বলেও জানানো হয়।

ট্রেনের টিকিট কাটার মোবাইল অ্যাপ চালু
                                  

 বাংলাদেশ রেলওয়ের টিকিট ক্রয় সহজীকরণসহ যাত্রীসেবা নিশ্চিতের লক্ষ্যে ওয়ান স্টপ মোবাইল অ্যাপ ‘রেলসেবা’র উদ্বোধন করা হয়েছে। রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে গতকাল রোববার বিকেলে এ অ্যাপ উদ্বোধন করা হয়। রেলপথ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মুজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, বাংলাদেশ রেলওয়ে মহাপরিচালক কাজী রফিকুল আলমসহ রেলওয়ে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।


আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, মোবাইল অ্যাপটি তৈরির ক্ষেত্রে নিরাপত্তা ইস্যু অন্তর্ভুক্ত করে মোবাইল অ্যাপটি ডিজাইন করা হয়েছে। প্রযুক্তির এ ব্যবহারে ট্রেনের সেবাকে আরও সহজ করবে। একই সঙ্গে রেলওয়ে সাধারণ যাত্রীদের মন্তব্য ও সেবার গ্রহণযোগ্যতা জানা যাবে। এসব কার্যক্রমের জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ে মোবাইল অ্যাপ তৈরি করেছে। নামকরণ করা হয়েছে ‘রেলসেবা’ তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে বাংলাদেশের রেলওয়ে আধুনিকায়ন, সেবার মান বৃদ্ধি, টিকিট কালোবাজারি রোধের লক্ষ্যে রেলসেবার মাধ্যমে অ্যাপটি প্রস্তুত করা হয়েছে।
অ্যাপের মাধ্যমে যেসব সেবা পাওয়া যাবে
সব আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট ক্রয় করা যাবে, নির্দিষ্ট গন্তব্যের ভাড়া জানা যাবে, টিকিট প্রাপ্যতা সম্পর্কে জানা যাবে, ট্রেন রুট, সময়সূচি, ট্রেনভিত্তিক বিরতি স্টেশনসমূহের নাম ও সময়সূচি, জার্নি হিস্ট্রি, কোচ ভিউ, সিট চয়েজ করা যাবে। এ ছাড়াও গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনের নম্বর, খাবারের মেন্যু ও মূল্য তালিকাও জানা যাবে। পরবর্তীতে এ অ্যাপটি থেকে যেকোনো যাত্রী সহজেই তার নিজের অথবা পরিবারের জন্য খাবার কিনতে পারবেন। রেলসেবা অ্যাপটি বর্তমানে সব ধরনের অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের মাধ্যমে ব্যবহার করা যাবে।

অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনভিত্তিক অ্যাপটি উদ্বোধনের পর থেকেই ব্যবহার করা যাবে। তবে আইওএসভিত্তিক মোবাইল ফোনে অ্যাপটি উদ্বোধনের ৭২ ঘণ্টা পর ব্যবহার করা যাবে। ইতোমধ্যে জাতীয় কল সেন্টারের (৩৩৩) সঙ্গে বাংলাদেশ রেলওয়ের তথ্যসমূহ ইন্টিগ্রেইড করা হয়েছে। ফলে জাতীয় কল সেন্টার ৩৩৩ থেকে বাংলাদেশ রেলওয়ে সম্পর্কিত যেকোনো তথ্য পাওয়া যাবে।
ভ্রমণকালীন সব রকম যাত্রীসেবা এক অ্যাপেই পাওয়া যাবে এবং যাত্রীরা সুযোগ গ্রহণ করতে পারবেন। ভ্রমণ শেষে ভ্রমণের অভিজ্ঞতার ওপর যাত্রী সাধারণ তাদের মতামত অ্যাপের মাধ্যমে প্রদান করতে পারবেন।

apk link: https://play.google.com/store/apps/details?id=com.decodelab.amaderrel&hl=bn

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে যুক্ত হচ্ছে এটিএম বুথ ও টিভি চ্যানেল
                                  

 দেশী টেলিভিশন চ্যানেলকে স্যাটেলাইট ইন্টারনেটের আওতায় আনার পাশাপাশি নিরাপদ ব্যাংকিং সেবা পৌঁছে দিতে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ (বিএস-১) অটোমেটেডে টেলার মেশিনের (এটিএম) সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে। একইসাথে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের এক বছর পূর্তি বা প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর প্রাক্কালে প্রত্যন্ত অঞ্চলে ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেডের (বিসিএসসিএল) চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ বলেন, আগামি ১২ মে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের-১ এর বর্ষপূর্তি। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর প্রাক্কালে ব্যাংকের এটিএম বুথ আর অনলাইনে আর্থিক লেনদেন স্যাটেলাইট ইন্টারনেটের সঙ্গে যুক্ত করা হচ্ছে। পাশাপাশি দেশী টেলিভিশন চ্যানেলকে এর সঙ্গে যুক্ত হবে এবং ইন্টারনেট সেবা বঞ্চিত প্রত্যন্ত অঞ্চলে পৌঁছে দেয়া হবে স্যাটেলাইট সেবা। অধিকাংশ এটিএম বুথ ইন্টারনেট সেবার আওতায় আনার পরিকল্পনা তুলে ধরে তিনি বলেন, প্রাথমিক পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে ডাচবাংলা ব্যাংকের এটিএম বুথে স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সেবার পরীক্ষামূলক ব্যবহার করা হবে। স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সেবা ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের তুলনায় অনেক বেশি নিরাপদ। স্যাটেলাইট ইন্টারনেট ব্যবস্থা থেকে কোন তথ্য ফাঁস হওয়ার সুযোগ নেই বলে তিনি দাবি করেন। তিনি জানান, হাতিয়া দ্বীপ এবং ইন্টারনেট বঞ্চিত দেশের অন্যান্য অঞ্চলে থ্রিজি এবং ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। যার সূচনাও এদিনে হবে।

প্রসঙ্গত, দেশে বর্তমানে প্রায় ৪০টি টেলিভিশন চ্যানেল এবং বাণিজ্যিক ব্যাংকের ৭ হাজার এটিএম বুথ রয়েছে। বিএস-১ ব্যবহার প্রসঙ্গে ডাচবাংলা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল কাশেম মোহাম্মদ শিরীন বলেন, দূর্গম এবং ইন্টারনেট সংযোগ বিহীন এলাকার গ্রাহকদেরকে আমরা স্যাটেলাইট থেকে পাওয়া ‘ডেডিকেটেড’ ব্যান্ডউইথ দিয়ে ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দিতে চাই।’ ডাচবাংলা ব্যাংকের ৪৮০০ এটিএম বুথ আছে উল্লেখ করে তিনি বলেন,এই স্যাটেলাইট ব্যান্ডউইথ ব্যবহার করে আমরা আরো অনেক মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারব বলে আশা করি। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের বহুমুখী ব্যবহারের উপর কয়েকটি প্রদর্শনী করা হবে। এর মধ্যে রয়েছে অনলাইন ব্যাংকিং, অনলাইনে আর্থিক লেনদেন, সব টিভি চ্যানেলকে স্যাটেলাইটের আওতায় আনা ইত্যাদি। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

স্যাটেলাইট ব্যান্ডউইথ ব্যবহার করে বিসিএসসিএলের ব্যবসা সম্প্রসারণের পরিকল্পনার কথা উল্লেখ করে শাহজাহান মাহমুদ জানান, কেবল দেশের ভেতরে নয়, দেশের বাইরেও বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালনার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। এরইমধ্যে ফিলিপাইন ও নেপাল এই স্যাটেলাইট থেকে ব্যান্ডউইথ কেনার ব্যাপারে আগ্রহ দেখিয়েছে। আলাপ-আলোচনা চলছে। শিগগিরিই বিষয়টি চূড়ান্ত হবে। এখন পর্যন্ত ১৯টি টিভি চ্যানেল এ ব্যাপারে চূড়ান্ত প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে জানিয়ে তিনি বলেন, বাকী টিভি চ্যানেলগুলো আগামি ১২ মে থেকে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সম্প্রচার কার্যক্রম শুরু করবে। তিনি বলেন, টিভি চ্যানেলগুলো আগে যে দামে কিনত এখন সেই দামই দেবে। প্রতি মেগাহার্ডজ দুই হাজার ডলার করেই পরিশোধ করবে তারা। প্রতিটি টিভি চ্যানেলের ৪ থেকে ৬ মেগাহার্ডজ লাগে। এ ছাড়া বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে দেশের দুর্গম অঞ্চলে ইন্টারনেট সংযোগ ব্যবস্থা চালু সহজ হবে। ইতোমধ্যে সে উদ্যোগও নেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ১১ মে রাত ২টা ১৪ মিনিটে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ যুক্তরাষ্ট্রের কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে উৎক্ষেপন করে মহাকাশ প্রযুক্তি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান স্পেস এক্স।

এই রোবট ঘন্টায় ২০০ আইফোন খুলতে পারে
                                  

 পরিবেশ সহায়ক পণ্য বানাতে কয়েক বছর ধরেই কাজ করে আসছে অ্যাপল। পণ্য রিসাইক্লিংয়েও আরও জোর দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। সে লক্ষ্যে এবার নতুন আরেকটি আইফোন রিসাইক্লিং রোবট উন্মোচন করা হয়েছে প্রতিষ্ঠানটিতে।
ডেইজি নামের নতুন রোবটটি আইফোন রিসাইকল করতে কর্মীদের সহায়তা করবে। ঘন্টায় ২০০ আইফোন খুলে পুনব্যবহারযোগ্য যন্ত্রাংশগুলো আলাদা করতে পারে রোবটটি-- খবর প্রযুক্তি সাইট ভার্জের।


প্রতিষ্ঠানের আগের আইফোন রিসাইক্লিং রোবট লিয়ামের উন্নত সংস্করণ হলো ডেইজি। ২০১৬ সালে লিয়াম রোবটের ব্যবহার শুরু করে অ্যাপল।
নয়টি মডেলের আইফোন আলাদা করতে পারে ডেইজি। আইফোন খোলার পাশাপাশি যন্ত্রাংশ আলাদা করতে এবং এর থেকে আইসি খুলতে পারে এটি।
ডেইজির সঙ্গে ‘গিভব্যাক’ নামে একটি সাময়িক প্রকল্পও চালু করেছে অ্যাপল। এই প্রকল্পের মাধ্যমে স্টোরে বা অ্যাপলের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ডিভাইস রিসাইকলের জন্য দিতে পারবেন গ্রাহক। ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত পাওয়া প্রতি ডিভাইসের জন্য কনজারভেশনাল ইন্টারন্যাশনাল-কে অনুদানও দেবে অ্যাপল।
সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়, তাদের সব স্থাপনা এখন শতভাগ নবায়নযোগ্য শক্তিতে চলছে। বিশুদ্ধ শক্তি ক্রয় এবং নবায়নযোগ্য শক্তিতে বিনিয়োগের মাধ্যমে এই লক্ষ্য অর্জন করেছে অ্যাপল।


এক বিবৃতিতে অ্যাপল প্রধান টিম কুক বলেন, "আমাদের পণ্যে থাকা উপাদান দিয়েই যতটুকু করা সম্ভব ততটুকু মাধ্যমে সীমাবদ্ধতাগুলো কাটানোর চেষ্টা করছি, আমরা এগুলো এমনভাবেই পুনর্ব্যবহার করছি, সরবরাহকারীদের সঙ্গে আমাদের কাজ হচ্ছে নবায়নযোগ্য শক্তির নতুন সৃজনশীল ও এগিয়ে নেওয়ার মতো উৎস তৈরি করা কারণ আমরা জানি এর উপরই নির্ভর করছে ভবিষ্যৎ।"

মাইক্রোসফট ফাইল সমর্থন আসছে গুগল ডকস-এ
                                  

 গুগল ডকস-এ মাইক্রোসফট অফিস ফাইলের সমর্থন আনছে গুগল। ড্রাইভে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড, এক্সেল এবং পাওয়ারপয়েন্ট ফাইল দেখা গেলেও এগুলোতে সম্পাদনা, মন্তব্য এবং সহযোগিতা করতে আগে গুগলের ফরম্যাটে রূপান্তর করে নিতে হতো।


এবার ডকস-এ মাইক্রোসফট অফিস ফাইল সম্পাদনা সহজ করতে ‘নেটিভ’ সমর্থন চালু করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে গুগল। ফলে ওয়ার্ড, এক্সেল এবং পাওয়ারপয়েন্টের ডকএক্স, এক্সএলএস এবং পিপিটি ফরম্যাটের ফাইল গুগল ডকস, শিটস এবং স্লাইডস দিয়ে সম্পাদনা করা যাবে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে প্রযুক্তি সাইট ভার্জ।
বুধবার গুগলের পক্ষ থেকে বলা হয়, আপাতত অ্যাপগুলোর বাণিজ্যিক সংস্করণ জি সুটে আনা হবে মাইক্রোসফট অফিস ফাইল সমর্থন। তবে, চলতি মাসেই যতো দ্রুত সম্ভব সাধারণ গ্রাহকের জন্যও এই সমর্থন চালু করা হবে।


জি সুট গ্রাহকরা এপ্রিল বা মে মাসে মাইক্রোসফট অফিস ফাইল সমর্থন পাবেন বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।
এর আগে মঙ্গলবার সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট মার্কিন প্রতিষ্ঠানটি জানায়, মাইক্রোসফটের ড্রপবক্স বিজনেস ক্লাউড ড্রাইভেও গুগল ডকস, শিটস এবং স্লাইডস সমর্থন আনা হবে।

 


   Page 1 of 59
     তথ্যপ্রযুক্তি
ডিজেআই ড্রোন শনাক্ত করবে প্লেন, হেলিকপ্টার
.............................................................................................
নতুন স্টারহপার রকেটের পরীক্ষায় স্পেসএক্স
.............................................................................................
তিনশ’ কোটি প্রোফাইল সরিয়েছে ফেইসবুক
.............................................................................................
ফেসবুক ইউটিউবে সরকারি নিয়ন্ত্রণ সেপ্টেম্বর থেকে
.............................................................................................
জাপানি মহাকাশযান কৃত্রিম গর্ত বানাতে গ্রহাণুতে ‘বোমা মেরেছে’
.............................................................................................
এবার ফোনে আসছে ৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা
.............................................................................................
গুগলের ডিরেক্টর হলেন প্রথম বাংলাদেশি জাহিদ সবুর
.............................................................................................
সহজে ইমিগ্রেশন পার হতে বিমান ও স্থলবন্দরে ই-গেট বসানোর উদ্যোগ
.............................................................................................
স্বয়ংক্রিয়ভাবে গুগল লোকেশন ডেটা মুছতে দেবে
.............................................................................................
উবারের বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়ায় ক্লাস অ্যাকশন মামলা
.............................................................................................
রমজানে ‘৩৩৩’ নম্বরে ফোন করে পাওয়া যাবে ইসলামিক সেবা
.............................................................................................
কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন সফটওয়্যারের যাত্রা শুরু
.............................................................................................
ট্রেনের টিকিট কাটার মোবাইল অ্যাপ চালু
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে যুক্ত হচ্ছে এটিএম বুথ ও টিভি চ্যানেল
.............................................................................................
এই রোবট ঘন্টায় ২০০ আইফোন খুলতে পারে
.............................................................................................
মাইক্রোসফট ফাইল সমর্থন আসছে গুগল ডকস-এ
.............................................................................................
গ্যালাক্সি ফোল্ডের ‘প্রি-অর্ডার’ শুরু!
.............................................................................................
শীঘ্রই কৃষ্ণ গহ্বরের ছবি দেখবে বিশ্ববাসী: নাসা
.............................................................................................
নাসা মহাকাশে রোবট ‘মৌমাছি’ পাঠাচ্ছে
.............................................................................................
আসছে আইফোন এসই ২
.............................................................................................
২৫৬ গিগাবাইট র‌্যাম নিয়ে আইম্যাক প্রো
.............................................................................................
আবারো গুগলকে জরিমানা
.............................................................................................
ফেসবুকে দেওয়া মেসেজ যেভাবে ডিলিট করবেন
.............................................................................................
আমরা মাদারবোর্ড বানানোর যুগে পৌঁছে গেছি: মোস্তফা জব্বার
.............................................................................................
সিম কার্ডের মতো হ্যান্ডসেটও নিবন্ধন করতে হবে
.............................................................................................
চার ক্যামেরার স্মার্টফোনেই তারবিহীন চার্জার!
.............................................................................................
ফেসবুক নজরদারি করবেন দুই হাজার তথ্যপ্রযুক্তিবিদ প্রকাশ: ৯ ঘণ্টা আগে
.............................................................................................
টুইট সরানো হলে টুইটার তা বলে দেবে
.............................................................................................
মার্কিনীরা অ্যাপল সার্ভার থেকে নিজ ডেটা নামাতে পারবেন
.............................................................................................
এ মাসেই আসছে নতুন ম্যাক, আইপ্যাড?
.............................................................................................
ইউটিউবারদের জন্য অ্যাডবির সম্পাদনা অ্যাপ
.............................................................................................
ডিজিটাল আইনের বিরোধী নই, তবে ৯ ধারা সংশোধন করতে হবে
.............................................................................................
মাইক্রোসফট অ্যাপল টিভি থেকে মাইনক্রাফট সরালো
.............................................................................................
স্যামসাং পেছনে চার ক্যামেরার স্মার্টফোন আনলো
.............................................................................................
ফেইসবুক নিউজ ফিডে ৩ডি ছবি আনলো
.............................................................................................
এবার গুগলের ভিজুয়াল ট্রান্সলেটে যোগ হলো বাংলা
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে প্রথম মামলা
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮ কার্যকর বিলে স্বাক্ষর করেছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।
.............................................................................................
৫শ’ থেকে ৫ হাজার টাকায় অপরাধীদের সিম সরবরাহ
.............................................................................................
বাংলাদেশে ইন্টারনেট ব্যবহার করে ১৩ শতাংশ মানুষ
.............................................................................................
নম্বর অপরিবর্তিত রেখে অপারেটর বদল সেবা শুরু
.............................................................................................
‘নিম্ন শ্রেণির’ হোয়াটসঅ্যাপ সহ-প্রতিষ্ঠাতা!
.............................................................................................
মাইক্রোসফট ‘স্কাইপ-৭-ক্লাসিক’ সমর্থন বন্ধ করছে
.............................................................................................
এলজির পাঁচ ক্যামেরার স্মার্টফোন
.............................................................................................
নিরাপত্তা সঙ্কটে ফেসবুক; হ্যাকারদের কবলে ৫ কোটি অ্যাকাউন্ট!
.............................................................................................
নতুন সংস্করণের তিনটি আইফোন উন্মুক্ত করেছে অ্যাপল
.............................................................................................
পেজ চালাতে ফেসবুকের নতুন নিয়ম
.............................................................................................
গাড়ি চলবে বাতাসেই!
.............................................................................................
বাজারে অ্যাডাটার এয়ার কুলিং মেমরি
.............................................................................................
এবার ফেইসবুকের আয়ে কেলেঙ্কারির ধাক্কা
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
স্বাধীন বাংলা মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী কর্তৃক সম্পাদিত ও ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত
প্রধান উপদেষ্টা: ফিরোজ আহমেদ (সাবেক সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়)
উপদেষ্টা: আজাদ কবির
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: ডাঃ হারুনুর রশীদ
সম্পাদক মন্ডলীর সহ-সভাপতি: মামুনুর রশীদ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: খায়রুজ্জামান
যুগ্ম সম্পাদক: জুবায়ের আহমদ
বার্তা সম্পাদক: মুজিবুর রহমান ডালিম
স্পেশাল করাসপনডেন্ট : মো: শরিফুল ইসলাম রানা
যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি: জুবের আহমদ
যোগাযোগ করুন: swadhinbangla24@gmail.com
    2015 @ All Right Reserved By swadhinbangla.com

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]